Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2022/03/nauzubillah-meaning-in-bengali.html

নাউযুবিল্লাহ অর্থ কি

নাউযুবিল্লাহ অর্থ কি - নাউযুবিল্লাহ শব্দের অর্থ কি — নাউযুবিল্লাহ অর্থ কি ও নাউজুবিল্লাহ বলার ফজিলত সম্পর্কে আমরা সবাই কমবেশি জানি। আবার অনেকেই আছেন যারা নাউজুবিল্লাহ শব্দের অর্থ কি তা সম্পর্কে জানেন না। যেসকল ব্যক্তি নাউজুবিল্লাহ শব্দের অর্থ কি জানেন না তাঁদের জন্যেই মূলত আমাদের আজকের এই লেখা। আজকের এই লেখায় আলোচনা করা হয়েছে নাউজুবিল্লাহ শব্দের অর্থ কি এবং নাউজুবিল্লাহ মিন জালিক অর্থ কি।

নাউযুবিল্লাহ অর্থ কি

পেজ সূচীপত্রঃ

এছাড়াও নাউযুবিল্লাহ ব্যবহার এবং নাউযুবিল্লাহ কখন বলতে হয় সেটা সম্পর্কে আবার হয়তোবা অনেকেই পুরোপুরি ভাবে জানেন না। আমরা আজকের এই আর্টিকেল থেকে নাউযুবিল্লাহ অর্থ কি তা সম্পর্কে বিস্তারিত জানবো। 

আজকের এই লেখা থেকে আপনারা যা পাবেনঃ নাউযুবিল্লাহ অর্থ, নাউযুবিল্লাহ অর্থ কি, নাউযুবিল্লাহ এর অর্থ কি, নাউযুবিল্লাহ শব্দের অর্থ কি, নাউযুবিল্লাহ মিন যালিক, নাউযুবিল্লাহ মিন যালিক অর্থ, নাউযুবিল্লাহ মিন জালেক, নাউযুবিল্লাহ এর ফজিলত ইত্যাদি সম্পর্কে বিস্তারিত। প্রিয় পাঠক আশা করি সম্পূর্ণ পোস্টটি মনোযোগ সহাকারে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়বেন।

নাউযুবিল্লাহ সম্পর্কিত সকল বিষয় পরিপূর্ণভাবে কুরআন ও হাদিসের আলোকে আপনাদেরকে জানিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করবো ইংশাল্লাহ। আমরা মুসলমানরা কয়েকটি আরবি শব্দ সবসময়ের জন্য বলে থাকি। তারমধ্যে থেকে একটি শব্দ হলো নাউযুবিল্লাহ। প্রিয় পাঠক চলুন তাহলে আর দেরি না করে বিস্তারিত জেনে নেই নাউযুবিল্লাহ অর্থ কি বা নাউযুবিল্লাহ এর অর্থ কি।

আরো পড়ুনঃ ইনশাআল্লাহ অর্থ কি

নাউযুবিল্লাহ অর্থ কি

নাউযুবিল্লাহ একটি আরবি শব্দ। নাউযুবিল্লাহ শব্দের অর্থ হলো “আমরা আল্লাহ তায়ালার নিকট আশ্রয় চাচ্ছি” বা “আল্লাহর কাছে পানাহ চাচ্ছি” কিংবা “আমরা মহান আল্লাহর কাছে থেকে আশ্রয় চাই”। যেকোনো মন্দ এবং গুনাহের কাজ দেখলে তাহা থেকে নিজেকে আত্মরক্ষার্থে নাউযুবিল্লাহ বলা হয়। অথচ আমদের চারপাশে অনেক লোক আছেন যারা হরহামেশায় এমন কিছু গুনাহের কাজে লিপ্ত হয়ে পড়েছেন। তার জন্যে সেইসমস্ত ব্যক্তিদের মনে বিন্দুমাত্র ভয় কাজ করেনা।

নাউযুবিল্লাহ কখন বলতে হয়

মন্দ কিংবা খারাপ কোনো কিছু শুনলে অথবা দেখলে তাহা থেকে মহান আল্লাহ তায়ালার নিকট আশ্রয় প্রার্থনা করার সময় নাউজুবিল্লাহ বলা হয়। অর্থাৎ গুনাহের বা যেকোনো খারাপ কাজের সংবাদ শুনে সে গুনাহ করা থেকে নিজেকে বাঁচার জন্য আল্লাহ তায়ালার নিকট আশ্রয় চাইতে বলতে হয়ঃ নাউযুবিল্লাহ অর্থাৎ হে আল্লাহ আমাদেরকে রক্ষা করুন বা হেফাযত করুন। 

নাউজুবিল্লাহ মিন যালিক - নাউজুবিল্লাহ মিন যালিক অর্থ

নাউজুবিল্লাহি মিন যালিক অর্থ হচ্ছেঃ ‘এই (মন্দ ও খারাপ এবং অন্যায়) কাজ থেকে আল্লাহর কাছে আশ্রয় চাচ্ছি।’ শাব্দিক অর্থে নাউজুবিল্লাহি মিন যালিক অর্থাৎ আমি আশ্রয় চাই, পানাহ চাই, বিরত থাকতে চাই। আল্লাহর তায়ালার কাছে খারাপ, মন্দ, অন্যায় ও অপরাধ থেকে।অর্থাৎ নাউযুবিল্লাহ অর্থ আমি এই মন্দ ও খারাপ, অন্যায় এবং অপরাধমূলক কাজ থেকে আল্লাহর কাছে পানাহ চাই/আশ্রয় চাই।’

আরো পড়ুনঃ সুবহানাল্লাহ অর্থ কি

নাউজুবিল্লাহ মিন যালিক কখন পড়তে হয়?

খারাপ এবং ইসলাম বিরোধী কোনো ধরনের কথা শুনলে কিংবা মন্দ বা খারাপ কাজ হতে দেখলে অথবা ভুলবশত নিজেই করলে বা করতে শুরু করলে আল্লাহ তায়ালার কাছে পানাহ/বিরত, মুক্তি বা আশ্রয় চাওয়ার জন্যে এই ‘নাউজুবিল্লাহ মিন জালিক’ দোয়া পড়তে হয়।

নাউজুবিল্লাহি মিন যালিক পড়ার কারণ এবং নাউজুবিল্লাহি মিন যালিক অর্থ সম্পর্কে মানুষ যখন জানবে তখন মন থেকে কোনো মন্দ, খারাপ, অন্যায় কাজ থেকে বিরত থাকার জন্যে আল্লাহ তায়ালার কাছে প্রার্থনা করবে। এই দোয়াটি মানুষ হৃদয় দিয়ে উপলব্ধি করবে। যে উপলব্ধি মানুষকে অন্যায় এবং মন্দ, খারাপ কাজ থেকে বিরত রাখবে।

সুতরাং মুমিন মুসলমানের উচিত, মন্দ, খারাপ, অন্যায় কাজ সংঘটিত হতে দেখলে কিংবা নিজেরা এতে জড়িত হয়ে গেলে স্মরণ হওয়ার সাথে সাথে ‘নাউজুবিল্লাহি মিন জালিক পড়ে মহান আল্লাহ তায়ালার কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করা জরুরি। আর তাতে আল্লাহ তায়ালার কাছে আশ্রয় চাওয়ার কিংবা পাপ থেকে মুক্তি পাওয়ার সুযোগ তৈরি হবে। 

তখনই মহান আল্লাহ পাক বান্দাকে কাঙ্ক্ষিত বিষয় থেকে হেফাজত করবেন। আল্লাহ তায়ালা মুসলিম উম্মাহকে উল্লেখিত (نَعُوْذُ بِاللهِ مِنْ ذَالِكْ) নাউজুবিল্লাহি মিন যালিক দোয়াটি সংশ্লিষ্ট মন্দ, খারাপ, অন্যায়, অপরাধমূলক কাজের ক্ষেত্রে পড়ার এবং গর্হিত কাজ থেকে বিরত থাকার তাওফিক দান করুন। আমিন।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?