Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2021/02/Easy-way-to-earn-money-from-Facebook.html

ফেসবুক থেকে আয় করার উপায় | ফেসবুক থেকে আয় ২০২১ | কিভাবে ফেসবুক থেকে আয় করা যায়

আপনি কি ফেসবুক থেকে আয় করতে চান। কিভাবে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করবেন। ফেসবুক থেকে আয় করার সহজ উপায়। ফেসবুক থেকে আয় ২০২১। এমন কি-ওয়ার্ড লিখে গুগলে প্রতিদিন অহরহ অনেকবার সার্চ হয়ে থাকে। কিন্তু ফেসবুক থেকে আয় করার জন্য আপনি কোন আইডিয়া খুঁজে পাচ্ছেন না। আপনি যদি ফেসবুক থেকে অল্প সময়ে প্রচুর টাকা আয় করতে চান তাহলে আপনাকে আমাদের আজকের এই পোস্টটি সম্পূর্ণভাবে পড়তে হবে। 

ফেসবুক থেকে আয় করার উপায়  ফেসবুক থেকে আয় ২০২১  কিভাবে ফেসবুক থেকে আয় করা যায়
পেজ সূচিপত্রঃ

বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও বহুল ব্যবহারীত যোগাযোগ মাধ্যম হচ্ছে ফেসবুক। এই সোশ্যাল মিডিয়া বয়স্ক, তরুন-তরুণীরা দিনের পর দিন ফেসবুকে পোস্ট, ছবি শেয়ার, ভিডিও ইত্যাদি কাজ করে তাদের মূল্যবান সময় ব্যায় করছে। বর্তমান সময়ে ফেসবুক শুধু একটি সোশ্যাল মিডিয়া নয় বরং এই সোশ্যাল মিডিয়াকে এক ধরনের মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানি বলা চলে। ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার অনেক সহজ উপায় রয়েছে। আমরা আজ সেই সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করবো। 

ফেসবুকে টাকা আয় করার উপায় | ফেসবুক থেকে টাকা টাকা আয় উপায়

ফেসবুক থেকে খুব সহজে টাকা আয় করার নানা রকম উপায় রয়েছে। আপনি চাইলেই আপনার হাতের আন্ড্রয়েড স্মার্টফোন দিয়ে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করতে পারবেন। আপনার সুবিধার্থে আমরা আজকের এই আর্টিকেলে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার জন্য পদ্ধতি গুলো ধাপে ধাপে বিস্তারিত তুলে ধরবো। ফেসবুক থেকে কিভাবে টাকা আয় করবেন এই বিষয়ে যদি আপনার সঠিক সম্পূর্ণ ধারনা না থাকে তাহলে দয়া করে সম্পূর্ণ পোস্ট পড়বেন। আমরা আপনাকে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খোলা এবং ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার জন্য আপনাকে যা যা করতে হবে সম্পূর্ণ এই পোস্টে তুলে ধরবো। ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার জন্য আমরা ১৫ টি গুরুপ্তপূর্ণ টিপস তুলে ধরবো। 

১. ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে আয় 

আপনার যদি একটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে থাকে অর্থাৎ আপনার যদি একটি নরমাল ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থাকে সেই অ্যাকাউন্ট থেকে আপনি কখনও ফেসবুক থেকে টাকা আয় করতে পারবেন না। এর কারন ফেসবুক এখন পর্যন্ত নরমাল ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা আয় করার জন্য কোন সুবিধা রাখে নি। এখন কথা হলো তাহলে কি ফেসবুক টাকা আয় করার কোন উপায় রাখে নি। অবশ্যই তারা এমনটি করে নি। 

সাধারনত একটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে ৫০০০ হাজার এর বেশি ফেসবুক ফ্রেন্ড যুক্ত করা যায় না। আর তারা এই কারনে সাধারন ইউজার অ্যাকাউন্ট থেকে আয় করার কোন সুবিধা রাখেনি। তবে আপনার যদি কোন নিজস্ব ওয়েবসাইট বা ব্লগ থাকে সেসব এর পোস্ট ফেসবুকে শেয়ার করে আপনার ওয়েবসাইট এর ভিজিটর বাড়িয়ে নিয়ে এবং ব্লগের ভিজিটর বাড়িয়ে নিয়ে সেখান থেকে ভালোমানের টাকা আয় করতে পারবেন। 

এছাড়া আপনি চাইলে অনন্যজন এর ওয়েবসাইট এর পোস্ট ফেসবুকে শেয়ার করে এমনকি আমাদের ওয়েবসাইট এর পোস্ট মাসিক ৩০ টা করে ফেসবুকে শেয়ার করে আপনি প্রতি মাসে ১০০০ টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন। তবে আপনি ফেসবুক থেকে আয় করার জন্য আপনার একটি ফেসবুক পেজ থাকা প্রয়োজন। 

২.ফেসবুক পেজ থেকে টাকা আয় করার উপায়

ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার জন্য প্লাটফ্রম হচ্ছে ফেসবুক পেজ। ফেসবুক এর সব ফিচার্স এর মধ্যে সবচেয়ে ভালো বা অন্যতম ফিচার্স হচ্ছে ফেসবুক পেজ। সাধারন ফেসবুক অ্যাকাউন্টে বন্ধু বাড়ানোর জন্য যে রকম রিকুয়েস্ট পাঠাতে হয় অন্যের দেয়া রিকুয়েস্ট রিসিভ করতে হয়, কিন্ত ফেসবুক পেজে মোটেও এমন কাজ করতে হয় না। আপনার যদি একটি ফেসবুক ফ্যান পেজ থাকে তাহলে আপনার এই ফেসবুক ফ্যান পেজে যে কেউ লাইক করতে পারে। 

আপনার ফেসবুক পেজে যদি প্রচুর পরিমান তবে মিনিমাম ১০০০০ হাজার ফলোয়ার থাকলে সেটিকে আপনি কাজে লাগিয়ে প্রচুর টাকা আয় করতে পারবেন। ফেসবুক পেজ থেকে টাকা ইনকাম। তো এখন কথা হলো আপনি যদি ফেসবুক পেজ থেকে টাকা আয় করতে চান তাহলে এর জন্য আপনাকে জেনে নিতে হবে কিভাবে সঠিক নিয়মে ফেসবুক পেজ খোলা যায়। চলুন জেনে নেই। 

৩. কিভাবে ফেসবুক পেজ খুলবেন

প্রথমেই বলে রাখি আপনার যদি একটি ফেসবুক ফ্যান পেজ থাকে বা ফেসবুক লাইক পেজ থাকে এবং তাতে অনেক বেশি পরিমান লাইক বা ফলোয়ার থাকে তাহলে আপনার আর নতুন করে ফেসবুক পেজ খোলার প্রয়োজন নেই। আর যদি ফেসবুক ফ্যান পেজ না থাকে তাহলে আপনাকে ফেসবুক থেকে ইনকাম করার জন্য আপনার নামে অথবা আপনার কোম্পানি এবং ব্লগ বা ওয়েবসাইট এর নামে একটি ফেসবুক পেজ খুলতে হবে। 

আরও পড়ুনঃ ল্যাপটপ স্লো হওয়ার কারন ও ল্যাপটপ ফাস্ট করার উপায়

আপনি যদি সঠিক ভাবে সঠিক নিয়মে ফেসবুক পেজ বানিয়ে নিতে না পারেন তাহলে আপনার চিন্তার কোন কারন নেই। কেননা আমরা আমাদের এই আর্টিকেলে দেখিয়ে দিবো আপনি কিভাবে একটি প্রফেশনাল ফেসবুক পেজ তৈরি করবেন। 

আর হ্যাঁ ফেসবুক পেজ বানিয়ে নিলেই যে সেখান থেকে বসে বসে টাকা আয় করতে পারবেন। এমনটি কিন্ত চিন্তা করা যাবে না। ফেসবুক পেজ থেকে টাকা আয় করার জন্য আপনাকে ডেইলি কিছু সময় ফেসবুকে ব্যয় করতে হবে। কেননা পরিশ্রম ছাড়া কেউ কখনও এমনিতেই টাকা দিতে চায় না। ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার জন্য আপনার প্রধান কাজ হবে ফেসবুক পেজ এর ফলোয়ার বা পেজ এর লাইক বাড়িয়ে নিতে হবে। 

আপনি ফেসবুক এর মাধ্যমে বিভিন্ন কাজের মাধ্যমে ফেসবুক এর লাইক বাড়িয়ে নিতে পারবেন। এটি করার পর আপনার ফেসবুক থেকে আয় করার পথ অনেকটা সহজ থেজে সহজতর হয়ে উঠবে। ফেসবুক পেজ এর মধ্যে যখন বেশি পরিমান লাইক বা ফলোয়ার থাকবে তখন আপনি আয় করার জন্য ফেসবুক থেকে নতুন নতুন উপায় খোঁজ করতে থাকবেন আর টাকা আয় করার উৎস আপনাকে হাতছানি দিয়ে ডাকতে থাকবে। 

সুতরাং, ফেসবুক পেজ থেকে আয় করার জন্য আপনার প্রধান কাজ হচ্ছে ফেসবুক ফ্যান পেজ এর লাইক বা ফলোয়ার বৃদ্ধি করা। আর হ্যাঁ আপনি অবশ্যই এই বিষয়ে ধারনা রাখবেন যে ফেসবুক পেজে এমনিতেই লাইক বাড়ানো যায় না। ফেসবুকে পেজে লাইক বাড়ানোর জন্য আপনাকে এমন কাজ করতে হবে যাতে অন্যজন আপনার কাজকে পছন্দ করে। যার ফলে তারা ইচ্ছাকৃত ভাবেই নিজে নিজে পেজে লাইক দিয়ে থাকবে। ফেসবুক পেজ এর লাইক বাড়ানো প্রথম এর দিকে অনেক কঠিন মনে হলেও পরবর্তীতে দিনের পর কাজ করতে করতে তা আসতে আসতে বাড়তে থাকবে বা ইম্প্রুভ হতে থাকবে। 

ফেসবুক ফ্যান যে কোন ধরনের হতে পারে যেমন; নিউজ, ট্র্যাভেল, ফুড রিভিউ, ব্লগ ইত্যাদি নানা রকম এর হতে পারে ফেসবুক পেজ। তবে হ্যাঁ আপনাকে এটি অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে এমন একটি ফেসবুক পেজ তৈরি করতে হবে যাতে কোন মানুষ বা কোন জনগোষ্ঠীর গায়ে আঘাত না করে এবং কোন বিশৃঙ্খলা তৈরি না করে। আর যদি এমন হয় তাহলে ফেসবুক আয় থেকে আয় করার স্বপ্ন আপনার হিতে বিপরীত না হয়। 
 
পেজ ফ্যান পেজ থেকে আয় করার জন্য আপনার দরকার সুন্দর ও সৃজনশীল কন্টেন্ট। আপনার ফেসবুক পেজ এর গ্রহনযোগ্যতা নির্ভর করবে আপনার ফেসবুক ফ্যান পেজ এর কন্টেন্ট এর উপর। কনেন্ট যত পরিমান ভালো আপনার আয় এর পরিমান তত পরিমান বৃদ্ধি পেতে থাকবে। সুন্দর ও সৃজনশীল মানের কন্টেন্ট ফেসবুক ইউজারদের মধ্যে ছাড়া জাগানোর জন্য অনেক বেশি কার্যকর। ফেসবুক আয় করতে হলে আপনাকে কন্টেন্ট থেকে শুরু করে আমাদের দেখানো পরবর্তী কয়েকটি পদক্ষেপ অনুসরণ করতে হবে। চলুন পদক্ষেপ গুলি দেখে নেই; 

১. কন্টেন্ট হলো একটি ওয়েবসাইট এর জীবন। ঠিক তেমনি একটি ফেসবুক এর জীবন হচ্ছে কন্টেন্ট। আপনার ফেসবুক পেজ কে জনপ্রিয় করে তোলার জন্য নিয়মিত ভাবে নতুন নতুন কনেন্ট আপলোড করুন। ফেসবুক পেজে নতুন নতুন পোস্ট নিয়মিত আপলোড করার ফলে আপনার ফেসবুক পেজটি সকলের চোখে পড়বে এবং ফলোয়ার, লাইক, কমেন্ট এবং শেয়ার এর পরিমান বেশি বেশি হারে বাড়তে থাকেব। যার ফলে আপনার ফেসবুক পেজটি খুব সহজে জনপ্রিয়তা অর্জন করবে এবং সেখান থেকে অনেক বেশি পরিমান আয় করতে পারবেন। 

২. ফেসবুক থেকে আয় করার জন্য আপনাকে অবশ্যই এই বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে। তা হচ্ছে কোন রকম কন্টেন্ট আপলোড করার সময় টা যেন অনন্য কোন ফেসবুক পেজ এর সাথে মিলে না যায়। আর যদি তা সেই ভিডিও এর সঙ্গে পুরোপুরি একরকম হয়ে যায় তাহলে আপনার ফেসবুক পেজটি কপিরাইট এর কারনে ব্যান্ড হয়ে জেতে পারে। কোন রকম কন্টেন্ট যদি এক হয়ে যায় তাহলে ফেসবুক এই পোস্টটি তাতক্ষণিক টা ডিলিট করে দিয়ে থাকে। 

আরও পড়ুনঃ গার্লফ্রেন্ডের জন্মদিনের জন্য ভালো উপহার

৩. আপনি যে নামে ফেসবুক পেজ তৈরি করবেন সেই নামে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে নিন। কেননা এটি আপনার ওয়েবসাইট এর জন্য অনেক সুবিধা দিয়ে থাকবে এটি বেশ ভালো কাজের। এখন আপনি যদি ভেবে নেন যে ওয়েবসাইট তৈরি করবেন তাহলে আপনি WordPress, BlogSpot ইত্যাদি দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করে নিতে পারবেন। BlogSpot হচ্ছে এক ধরনের ফ্রি ডোমেইন। আপনি চাইলে সামান্য কিছু টাকা খরচ করে এই ফ্রি ডোমেইন থেকে বেরিয়ে এসে খুব অল্প টাকা খরচ করে আপনি নিজেই একটি ওয়েবসাইট বানিয়ে নিতে পারবেন। 

৪.ফেসবুক পেজ এর লাইক কিভাবে বাড়াবেন 

ফেসবুক পেজ থেকে আয় করতে হলে আপনাকে অবশ্যই পেজ এর লাইক বাড়িয়ে নিতে হবে। পেজ পেজে লাইক বা ফলোয়ার কিভাবে বাড়াবেন তা নিয়ে আমরা কয়েকটি টিপস আপনার কাছে কয়েকটি উপায় এবং টিপস শেয়ার করলাম। এই কাজ গুলি আপনি ধাপে ধাপে অনুসরন করলে আপনার ফেসবুক পেজ এর লাইক এর অভাব হবে না। 

১. নির্ধারিত টপিক নির্বাচন করা

টপিক নির্বাচন বলতে আমরা বোঝাচ্ছি আপনি কোন বিষয় নিয়ে কাজ করতে ইচ্ছুক। টপিক নির্বাচন এর ক্ষেত্রে আমি আপনাকে সাজেস্ট করবো যে আপনি যে আপনার ভালো ধারনা ও অভিজ্ঞতা রয়েছে তা নিয়ে একটি ফেসবুক পেজে কাজ শুরু করে দিন। টপিক হতে পারে লেখালিখি, ভিডিও ক্রিয়েটর, ব্লগ ইত্যাদি নানা রকমের কাজ। 

আপনি লক্ষ্যে করে দেখবেন যারা ফেসবুকে লেখালিখি করে তাদের পেজে অনেক ফলোয়ার থাকে। আর এই কারনে তারা ফেসবুকে অনেক জনপ্রিয়তা অর্জন করে নিয়েছে। আপনিও চাইলে এই কাজটি করতে পারেন। ফেসবুকে লেখালিখি করার ফলে আপনার ফেসবুক ফ্যান পেজে লাইক, কমেন্ট, ফলোয়ার বাড়িয়ে নিতে পারেন। এছাড়া আপনি টেকনোলজি, লাইফস্টাইল, টেক, কবিতা, গল্প, ইত্যাদি বিষয় নিয়ে লেখালিখি করতে পারেন। 

আরও পড়ুনঃ মোবাইল দিয়ে অনলাইনে আয় করার সহজ উপায়

এছাড়া আপনি একজন ভিডিও ক্রিয়েটর হয়ে থাকেন তাহলে নানা রকম ভিডিও তৈরি করে টা ফেসবুকে আপলোড করে ফলোয়ার বাড়িয়ে নিতে পারেন। এছাড়া আপনি যদি একজন গৃহিণী হয়ে তাহলে তাহলে বিভিন্ন ধরনের রেসিপি ,ফ্যাশন ইত্যাদির ভিডিও তৈরি করে টা পেজে আপলোড করে ফলোয়ার বাড়িয়ে নিতে পারেন। 

২. পেজে নিয়মিত আর্টিকেল পাবলিশ করুন

ফেসবুকে পেজে নিয়মিত আর্টিকেল পাবলিশ করার মাধ্যমে অনেক ফলোয়ার বাড়িয়ে নেয়া যায়। আর যদি আপনি শুধু শখের বসে ফেসবুকে ১ দিন ২ পোস্ট করেন বা যদি নিয়ম মাফিক পোস্ট শেয়ার না করেন তাহলে কখনও আপনার ফেসবুক পেজে ফলোয়ার বাড়িয়ে নিতে পারবেন না। যারা নিয়মিত পাঠক তারা নিয়মিত আর্টিকেল দেখবে এবং যারা নিয়মিত আপনার আর্টিকেল পাঠ করবে। আর আপনি যদি নিয়মিত পোস্ট পাবলিশ না করে তাহলে তারা আপনার পেজ ফলো করবে না। এই জন্য আপনার ফেসবুক ফ্যান পেজ লাইক, ফলোয়ার বাড়ানোর জন্য আপনাকে নিয়মিত পোস্ট পাবলিশ করতে হবে। 

৩. বিভিন্ন পেজে যুক্ত হয়ে ফলোয়ার বাড়িয়ে নিন

বিভিন্ন গ্রুপ এর সহায়তা নিয়ে আপনার ফেসবুক পেজ এর ফলোয়ার বাড়িয়ে নিতে পারেন। আপনার পেজ এর কিছু কন্টেন্ট বিভিন্ন গ্রুপে শেয়ার করুন এবং আপনার পেজে লাইক করার জন্য রিকুয়েস্ট করুন। আর এখান থেকে আপনার কন্টেন্ট যদি ভিউয়ার দের বা পাঠক দের ভালো লাগে তাহলে তারা অবশ্যই আপনার ফেসবুক পেজে লাইক করবে। 

আরও পড়ুনঃ ব্লগারে ভিজিটর বাড়ানোর উপায় 

৫.ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার সহজ উপায়

ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার জন্য নানা রকম পদ্ধতি রয়েছে। যেমন; বিভিন্ন রকম প্রোডাক্ট বিক্রি করে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করা যায়। ফেসবুক অ্যাডভারটাইজিং থেকে টাকা আয় করা যায়। ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বিক্রি করে টাকা আয়। ফেসবুক অ্যাপস এর মাধ্যমে টাকা আয়। ফেসবুকে আর্টিকেল লেখে আয়। ফেসবুকে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে টাকা আয়। ফেসবুকে বিভিন্ন রকম অনলাইন কনটেস্টে জয়েন করে টাকা আয়। Facebook App এর মাধ্যমে টাকা আয়। ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করে আয়। এসব নানা রকম কাজ করে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করা যায়। চলুন তার বিস্তারিত জেনে নেই।

৬.কিভাবে ফেসবুক পেজ থেকে টাকা আয় করবেন 

আপনার ফেসবুক পেজে যখন অনেক লাইক, ফলোয়ার থাকবে তখন বিভিন্ন উপায়ে টাকা আয় করতে পারবেন। একটি ওয়েবসাইট এবং বিভিন্ন ব্যবসা ও প্রতিষ্ঠান এর জন্য ফেসবুক পেজ খুবই গুরুপ্তপূর্ণ বিষয়। ফেসবুক পেজ তৈরি করার ফলে আপনি তা ব্যবহার করে আপনার ওয়েবসাইট, প্রতিষ্ঠান ও ব্যবসায়িক কাজের জন্য প্রচার প্রচারণা করতে পারেন। এছাড়া আপনার ফেসবুক পেজে যখন বেশি পরিমান লাইক, ফলোয়ার থাকবে তখন আপনি একটি প্রোডাক্ট বা আপনার ব্যবসায়িক নানা রকম প্রোডাক্ট পোস্ট করে সেখান থেকে প্রোডাক্টটি ক্রেতার নিকট বিক্রি করে টাকা আয় করতে পারবেন। 

আরও পড়ুনঃ How to MAKE MONEY with FACEBOOK
৭.ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করে টাকা আয় 

শুধু ইউটিউব থেকে যে ভিডিও আপলোড করা যায় তা কিন্ত না। বর্তমানে ফেসবুকে ভিডিও শেয়ার করে টাকা আয় করা যায়। ফেসবুকে পেজে ভিডিও আপলোড করার পর ভিডিও এর মধ্যে অ্যাডসেন্স বা বিজ্ঞাপন দেখানোর মাধ্যমে টাকা আয় করা যায়। ফেসবুকে ভিডিও তে বিজ্ঞাপন দেখানোর পদ্ধতিকে বলা হয় "Facebook Video Monetization" বা In Stream Ads। "Facebook Video Monetization" এর নিদিষ্ট কিছু নিয়মকানুন রয়েছে। সে সব যদি আপনি সঠিক ভাবে করতে পারেন তাহলে আপনার পেজে আপলোড করা সকল ভিডিও এর মধ্যে বিজ্ঞাপন দেখা যাবে। আর এই পদ্ধতিতে ফেসবুক ফ্যান পেজে ভিডিও আপলোড করে টাকা আয় করা যায়। 

৮. ফেসবুক অনলাইন মার্কেটিং

বর্তমান সময়ে অনলাইন মার্কেটিং হলো টাকা আয় এর জনপ্রিয় উপায় বা মাধ্যম। ইদানিং দেখা যায় ফেসবুক কে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে হাজার রকম এর নানান মার্কেটপ্লেস। আপনি চাইলে ফেসবুক থেকে আপনার নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস ক্রয় করতে পারবেন। ফেসবুকে আপনি চাল-ডাল, কাপড়, জুয়েলারি, গাড়ি, বই ইত্যাদি সকল ধরনের প্রোডাক্ট এর শপ দেখতে পারবেন। 

ফেসবুকে বিভিন্ন ধরনের পেজ এসকল নানা রকম প্রোডাক্ট এর ছবি, দাম, বিবরনী দেয়া থাকে। এসব প্রোডাক্ট গ্রাহকরা তাদের পছন্দ মতো বেঁছে নিয়ে মেসেজ করে এসব এর অর্ডার করে থাকে। আর এসব প্রোডাক্ট নেয়ার সময় কিছু কিছু ব্যবসা প্রতিষ্ঠান তারা বিকাশ, রকেট, ডাচ-বাংলা, সিউরক্যাশ ইত্যাদির মাধ্যমে পেমেন্ট অপশন যুক্ত করে দিয়ে রাখে। এছাড়া কিছু কিছু প্রতিষ্ঠান আছে যারা তাদের প্রোডাক্ট ক্রেতাদের কাছে পোঁছে দেয়ার পরে টাকা গ্রহন করে থাকে। 

আরও পড়ুনঃ মোবাইল স্লো হলে কি করবেন? ফাস্ট করার ১০ টি উপায় জেনে নিন 

আর আপনি চাইলে এইভাবে ফেসবুক পেজ এর মাধ্যমে এই অনলাইন মার্কেটিং করতে পারেন। এমনকি এখান থেকে অনেক বেশি পরিমান টাকা আয় করতে পারেন। 

৯.ফেসবুকে ক্রয় বিক্রয় করে টাকা আয়

বাসায় একটি পুরাতন ক্যামেরা পড়ে আছে? নতুন ক্যামেরা কিনতে ইচ্ছুক? বাসায় অব্যাবহারিত একটি মোটরসাইকেল রয়েছে এবং বাসায় একটি অব্যাবহারিত মোবাইল ফোন পড়ে রয়েছে তা সময়ের অভাবে চালানো সম্ভব হচ্ছে না। এই রকম নানা রকম প্রোডাক্ট আমরা চাইলেই নিমিষেই ফেসবুক এর মাধ্যমে ক্রয়-বিক্রয় করে দিতে পারি। আপনি লক্ষ্যে করে দেখবেন ফেসবুকে পণ্য কেনাবেচার অনেক পেজ এবং গ্রুপ রয়েছে। 

এসব নানান রকম গ্রুপে আপনার অব্যাবহারিত প্রোডাক্টটি নিমিষেই বিক্রি করে দিতে পারেন। আর সেখান থেকে টাকা আয় করতে পারেন। আর হ্যাঁ আপনি অনলাইন থেকে পণ্য ক্রয়-বিক্রয় করার সময় অবশ্যই আপনাকে সতর্ক থাকতে হবে। প্রোডাক্ট কিনার আগে আপনাকে সেই প্রোডাক্ট এর তথ্য ভালোভাবে জেনে নিতে হবে এবং সেই সাথে পেমেন্ট এর জন্য নিশ্চিত বা সুরক্ষিত থাকতে হবে। 

১০. ফেসবুক অ্যাকাউন্ট সেল করা টাকা আয়
আপনি কি জানেন ফেসবুকে অ্যাকাউন্ট সেল করে টাকা আয় করা যায়? কি অবাক হচ্ছে। হ্যাঁ এটাই সত্যি ফেসবুকে অ্যাকাউন্ট, পেজ, গ্রুপ ইত্যাদি সেল করার মাধ্যমে টাকা আয় করা যায়। একটা সময় দেখা গেছে যে এই ফেসবুক অ্যাকাউন্ট,পেজ, গ্রুপ ইত্যাদি এক সঙ্গে অনেক গুলা অ্যাকাউন্ট খুলে রাখা হতো। কিন্তু দেখা গেছে অনেক এই একটি অ্যাকাউন্ট চালানোর সময় হিমছিম খাচ্ছিলো তাই একসাথে সকল অ্যাকাউন্ট চালানো সম্ভব হতো না। 
আর একটা আপনার জন্য প্লাসপয়েন্ট হলো বর্তমানে পুরাতন ফেসবুক অ্যাকাউন্ট, পুরাতন ফেসবুক পেজ, পুরাতন ফেসবুক গ্রুপ এর অনেক মূল্য। এসব পুরাতন ফেসবুক অ্যাকাউন্ট, পেজ , গ্রুপ এর বর্তমানে অনেক বেশি চাহিদা। আর এসব অ্যাকাউন্ট আপনি বিক্রি অনেক অনেক টাকা আয় করতে পারবেন ফেসবুক থেকে। 

১১. ফ্রিল্যান্সিং করে টাকা আয় 
অনলাইনে টাকা আয় করার জন্য যারা নানা পদ্ধতি অবলম্বন করেছি তাদের কাছে ফ্রিল্যান্সিং শব্দটা বেশ পরিচিত। ফেসবুক এর মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং করে টাকা আয় করা যায়। আপনি যদি ফ্রিল্যান্সিং করে টাকা আয় করতে চান তাহলে আপনার সামনে একটি বাধা তৈরি হবে তা হচ্ছে কাজ না পাওয়া। তাই অনেক ফ্রিল্যান্সাররা নানা রকম চিন্তাভাবনায় থাকে। আর তারা চাইলে এই ফেসবুক এর মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন। 

অনেক সময় দেখা যায় অনেক ফ্রিল্যান্সার আছে তারা তাদের নিজের যোগ্যতা অনুযায়ী কাজ পাচ্ছেন না। আপনি খেয়াল করলে দেখবেন ফেসবুকে ফ্রিল্যান্সিং বিষয় নিয়ে অনেক গ্রুপ রয়েছে। আর সেসব গ্রুপে লক্ষ্যে লক্ষ্যে মেম্বার। এই সব মেম্বার গন তাদের কাজের জন্য বিভিন্ন রকম গিগ বা পোস্ট শেয়ার করে থাকে। এর ফলে সেসব ফ্রিল্যান্সাররা এসব ফেসবুক গ্রুপ থেকে তাদের পছন্দ মতো ক্লায়েন্ট খুঁজে পায়। আর এইভাবে ফ্রিল্যান্সিং করে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করতে পারে। ফেসবুকে গ্রাফিক্স ডিজাইন, ডিজিটাল মার্কেটিং, ওয়েব ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট, এসইও SEO ইত্যাদি নামে অনেক ধরনের গ্রুপ আছে। 

১২. ফেসবুকে পোস্ট শেয়ার করে টাকা আয় 
আপনি যদি চান মাসিক ১০০০ টাকা আয় করবেন ফেসবুক থেকে। তাহলে আমাদের এই ওয়েবসাইট এর প্রতিদিন ১ টি করে মাসিক ৩০টি পোস্ট ফেসবুকে শেয়ার করে ১০০০ টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন। এটি করার জন্য কিছু শর্ত রয়েছে। তা হচ্ছে আপনার ফেসবুকে সর্বনিম্ন ২০০০ হাজার ফ্রেন্ড থাকতে হবে। একটি পোস্ট ফেসবুকে বারবার শেয়ার করা যাবে না। পোস্ট শেয়ার করার পর আপনাকে বিকাশে, রকেটে পেমেন্ট দেয়া হবে। ৩০ টি পোস্ট ফেসবুকে শেয়ার করার পর ০১৬১১২৮০২৫৮ এই নাম্বারে মেসেজ করে জানিয়ে দিতে হবে ৩০ পোস্ট শেয়ার DONE। 
পোস্ট শেয়ার করে টাকা আয় করার জন্য আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট অরজিনাল হতে হবে ফেক অ্যাকাউন্ট গ্রহনযোগ্য না। ফেসবুক প্রফাইল লক থাকলে হবে না ফেসবুক প্রফাইল সবসময় পাবলিক করা থাকবে। ফেসবুক পেজে পোস্ট শেয়ার করার জন্য আপনার ফেসবুকে পেজে সর্বনিম্ন ১০০০০ এর বেশি ফলোয়ার থাকতে হবে। 

১৩.অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে ফেসবুকে আয়
অন্যের নানান ধরনের প্রোডাক্ট বিক্রি করে সেখান থেকে কমিশন নেয়াকে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং বলে। বর্তমান সময়ে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। অনলাইনে প্রোডাক্ট ক্রয় বিক্রয় বলতে শুধু ডিজিটাল প্রোডাক্টকেই বোঝাই না বরং সকল ধরনের প্রোডাক্ট বুঝিয়ে থাকে। যেমন; Daraz, EVALY ,AMAZON ইত্যাদি আরও নানা রকম মার্কেট থেকে প্রতিদিন মানুষ অনেক প্রোডাক্ট কিনে থাকে। আপনি যদি চান তাহলে খুব সিম্পল ভাবে এই ধরনের মার্কেটপ্লেসে একটি অ্যাকাউন্ট খুলে নিয়ে খুব সুন্দরভাবে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে অনেক টাকা আয় করতে পারবেন। 

আপনার এই সকল প্রোডাক্ট এর লিঙ্ক ফেসবুকে শেয়ার করে ফেসবুক থেকে কাস্টোমার আপনার প্রোডাক্টটি নিতে পারে। সেই প্রোডাক্ট থেকে আপনি শতকরা হিসেবে টাকা পেয়ে যাবেন। আপনি যত বেশি প্রোডাক্ট সেল করবেন তত কমিশন পেয়ে যাবেন। আপনার যদি ফেসবুকে অনেক বেশি লাইক, ফলোয়ার থাকে তাহলে এই কাজটি আপনার জন্য সহজ হয়ে যাবে। 

ফেসবুক ব্যবহার করা উপকার নাকি ক্ষতির কারন 
আপনি যদি চান ফেসবুক কে ভালো কাজে লাগাবেন তা আপনি পারবেন এবং আপনি যদি চান ফেসবুক কে ভালো কাজে লাগাবেন না শুধু সময় ব্যয় করবেন তা আপনি পারবেন। আমাদের ব্যাবহার করা সকল ধরনের জিনিস এর ভালো মন্দ দুই রকম দুটোই দিক রয়েছে। বর্তমানে আমরা সবাই ফেসবুকে বেশি আসক্ত হয়ে আছি। লোক মুখে শুনতে পারি যে, ফেসবুকে আসক্ত এর কারনে ছেলেমেয়েদের পড়ালেখার সমস্যা, নানা রকম কুকর্মে লিপ্ত, ফেসবুক ব্যাবহার করার ফলে ছেলে মেয়ে হচ্ছে নষ্ট আসলে এই কথা গুলি মিথ্যা নয়। প্রতিনিয়ত এমন ঘটনা দেখা যাচ্ছে। 
অনেক এই আছেন যারা তাদের মূল্যবান সময় বাদ দিয়ে এই ফেসবুক এর প্রতি দিনের পর দিন ঘন্টার পর ঘন্টা সময় অতিবাহিত করছে। যার কারনে কম বয়সি ছেলে মেয়ে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। 

আবার ফেসবুক এর মধ্যে ভালো কাজও রয়েছে। অপরাধী ধরা, ফেসবুক এর মাধ্যমে অসুস্থ রোগীর জন্য রক্ত সংগ্রহ করা, বিভিন্ন ব্যাক্তি এর অসহায় ও বিপদ কে ফেসবুকে পোস্ট করা টাকা তুলে অসহায় ব্যক্তির পাশে দাড়ানো এসব কাজ ফেসবুক এর মাধ্যমে করা যায়। 

বর্তমানে ডিজিটাল মার্কেটিং বা অনলাইন মার্কেটিং এর চাহিদা অনেক বেশি জনপ্রিয়তা অর্জন করছে। যা লিখে শেষ করা যাবে না। আপনি একটু চেষ্টা করলে উপরের দেখানো বিষয় গুলি কাজে লাগিয়ে ফেসবুক থেকে অনেক টাকা আয় করতে পারবেন। এছাড়া আপনার মেধা ও বুদ্ধি কাজে লাগিয়ে এই বিষয় গুলি বাদে আরও নানা রকম উপায়ে ফেসবুক সহ অনেক ভাবে টাকা আয় করতে পারবেন। 

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

2 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

  1. আপনাদের পোস্ট শেয়ার করবো কীভাবে? একটু বললে ভালো হতো

    ReplyDelete
    Replies
    1. আপনাদের সাথে শেয়ার করুন, এর নিচে শেয়ার বাটন ফেসবুক, টুইটার ইত্যাদিতে ক্লিক করলেই পোস্টটি শেয়ার হয়ে যাবে। ধন্যবাদ

      Delete

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া