Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2022/03/what-is-network-marketing.html

নেটওয়ার্ক মার্কেটিং - নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কি

নেটওয়ার্ক মার্কেটিং – নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কি — আজকে এই আর্টিকেলে আমরা আলোচনা করবো নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কি। এই নেটওয়ার্ক মার্কেটিং বিজনেস কিভাবে কাজ করে, সেই ব্যাপারেও আমরা এখানে বিস্তারিত বিষয় তুলে ধরবো। আসলে নেটওয়ার্ক মার্কেটিং হচ্ছে ব্যবসার এমন একটি সিস্টেম যেটা যেকোনো ব্যবসার বিকাশের জন্য অন্যতম মাধ্যম। নেটওয়ার্ক মার্কেটিং বা সিস্টেমের মাধ্যমে একজন ব্যক্তি অন্যজনকে সাহায্য করে ব্যবসাকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যায়।

নেটওয়ার্ক মার্কেটিং

পেজ সূচীপত্রঃ

ট্রাডিশনাল বিজনেস এবং franchise business এর থেকেও অধিক বেশি গুণে নেটওয়ার্ক মার্কেটিং এর মাধ্যমে এই ধরনের ব্যবসাকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারেন। নেটওয়ার্ক মার্কেটিং আপনি ঘরে বসে করতে পারবেন। যার ফলে আমি নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কে ঘরোয়া ব্যবসাও বলে থাকি। নেটওয়ার্ক মার্কেটিং এর বড় সুবিধে হচ্ছে এখানে ফুল টাইম জবের মতো সকাল ৯ টা থেকে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত অফিসে যাওয়ার দরকার হয়না। 

আপনি নেটওয়ার্ক মার্কেটিং এর উপরে যে কাজটি করবেন উক্ত কাজটি অফিসে গিয়ে করবেন করবেন কিনা বাসায় বসে থেকে করবেন সেটা সম্পূর্ণ আপনিই নির্ধারন করবেন। বর্তমান সময়ে এই ধরণের নেটওয়ার্ক মার্কেটিং এর কাজ বেশিরভাগ ক্ষেত্রে পার্ট টাইম চাকরি হিসেবে করে থাকে। নেটওয়ার্ক মার্কেটিং এর মাধ্যমে যদি আপনি সঠিকভাবে কাজ করতে পারেন তাহলে এই নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করে প্রচুর পরিমাণে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। 

বর্তমান সময়ে ডিজিটাল ভাবে ব্যবসা করার জন্য সর্বপ্রথম নেটওয়ার্ক মার্কেটিং বিষয়টি মাথায় আসে। যার ফলে নেটওয়ার্ক মার্কেটিং একটি প্রচলিত শব্দ হয়ে দাঁড়িয়েছে। নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কে মাল্টিলেভেল মার্কেটিং অর্থাৎ (MLM) পিরামিড সেলিং রেফারেল মার্কেটিং বলা হয়। এই নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করার মূল উদ্দেশ্য থাকে, ব্যবসাকে কিংবা ব্যবসার পণ্যগুলোকে অল্প সময়ে অনেক দ্রুততার সাথে প্রচলন করা বা পণ্য সেল করা। 

আজকের এই আর্টিকেলে আপনারা পাবেনঃ নেটওয়ার্ক মার্কেটিং, নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কি, নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কাকে বলে, নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কিভাবে কাজ করে, নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কেন করা হয়, নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কেন করব, নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করলে কি কি লাভ হবে, নেটওয়ার্ক মার্কেটিং বিজনেস কতটা লাভজনক, নেটওয়ার্ক মার্কেটিং এর সুবিধা, কিভাবে নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করবেন, ভালো নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কোম্পানি বাছাই করার জন্য কিছু টিপস।

প্রিয় পাঠক তাহলে চলুন নিচে থেকে আমরা নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কি, নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কেন করব, এবং নেটওয়ার্ক মার্কেটিং বিজনেস কতটা লাভজনক সেই সকল বিষয়ে জেনে নেই। নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কি বিষয়টি ভালোভাবে বোঝানোর জন্য নিচের আলোচনা ভালোভাবে লক্ষ্য করুনঃ

আরো পড়ুনঃ ফ্রিল্যান্সিং কি - ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো

নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কি

ব্যবসার ক্ষেত্রে নেটওয়ার্ক মার্কেটিং বিষয়টি বর্তমানে অনেক প্রচলিত একটি শব্দ হয়ে দাঁড়িয়েছে। নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কে, মাল্টি লেভেল মার্কেটিং (MLM) বা রেফারেল মার্কেটিংও বলা যেতে পারে। নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করার ফলে, অনেক অল্প সময়ের মধ্যে ব্যবসায়ীরা নিজের বিজনেস এবং প্রোডাক্টকে দ্রুততার সাথে প্রচার এবং বিক্রি করতে পারেন। তবে হ্যাঁ, সোজা ভাবে বলতে “নেটওয়ার্ক মার্কেটিং বলতে কি বোঝায়? 

নেটওয়ার্ক মার্কেটিং হচ্ছে এমন একটি ব্যবসার মডেল, যেটা নির্ভর করে কিছু স্বাধীন ব্যক্তির মাধ্যমে। নেটওয়ার্ক মার্কেটিং এর কাজ ঘরে বসে থেকে করা যায়। আর যারা নেটওয়ার্ক মার্কেটিং এর কাজ করেন তারা স্বাধীনভাবে করে থাকেন। এই ধরণের মার্কেটিং এর পদ্ধতিতে সংযুক্ত থাকা কোম্পানি গুলো বেতন ছাড়াই একটি বৃহৎ শ্রমিকদল নিযুক্ত করে থাকে। 

আর এই নিয়োগ করা শ্রমিকদল গুলোর মাধ্যমে কোম্পানির প্রোডাক্ট এবং সার্ভিসগুলো মার্কেটে প্রচার এবং বিক্রি করে থাকে। অনেকেই তাদের কোম্পানিগুলোর প্রোডাক্ট নেটওয়ার্ক মার্কেটিং এর মাধ্যমে সংযুক্ত করে, ওই কোম্পানিগুলোতে শ্রমিক নিয়োগ করার মাধ্যমে কোম্পানির প্রোডাক্ট কিংবা সার্ভিস মার্কেটিং করে বিক্রি করে থাকে। 

নিয়োগ দেওয়া প্রত্যেক ব্যক্তি বা শ্রমিক যারা তাদের কোম্পানির প্রোডাক্টগুলি বিক্রি করবেন এবং অন্য কোনো ব্যক্তিদের বিজনেস মডেলে যোগ করাবেন, তাদেরকে কোম্পানির থেকে শ্রমিকদের প্রাপ্য কমিশন দেয়া হবে। আর এটাই হলো নেটওয়ার্ক মার্কেটিং বা নেটওয়ার্ক মার্কেটিং ব্যবসার লাভ এবং কাজের পদ্ধতি। আশা করি নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কি এবং নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কাজের ধরণ আপনারা বুঝতে পারছেন।

আরো পড়ুনঃ অনলাইনে ইনকাম করার উপায়

নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কিভাবে কাজ করে?

নেটওয়ার্ক মার্কেটিং এমন একটি পদ্ধতি, যে পদ্ধতিতে কোনো প্রোডাক্ট মার্কেট ব্যতীত যেকোনো ব্যক্তির কাছে বিক্রি করা যায়। নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কাজ করার সময় অথবা প্রোডাক্ট বিক্রি করার সময় একজন ব্যক্তি অন্য আরেকজন ব্যক্তির সঙ্গে সংযুক্ত হয়ে থাকে। যদি কখনো কেউ ভাবে যে একাই নেটওয়ার্ক মার্কেটিং এর কাজ করবে তাহলে সেই ব্যক্তি কখনো সফলতা লাভ করতে পারবেনা।

তাই নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করার জন্য আপনাকে একটি টিম গঠন করতে হবে এবং সঠিকভাবে কাজ করতে পারলে প্রোডাক্ট বিক্রির ফলে সহজেই সফলতা অর্জন করতে পারবেন। এই কাজটি একটি পিরামিডের মতো কাজ করে, সেজন্য নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কে অনেকেই আবার পিরামিড মার্কেটিং বলে থাকে।

নেটওয়ার্ক মার্কেটিং এর মাধ্যমে কোনো কোম্পানির প্রোডাক্ট বিভিন্ন ব্যক্তি বিক্রি করে থাকে। ধরুন, আপনি কোনো প্রোডাক্ট বিক্রি করলেন তখন আপনি সেই প্রোডাক্ট থেকে কমিশন আপনি সহ আপনার উপরে থাকা সবাই কমিশন পাবে। যদি আপনি এই ব্যবসাতে কোনো ব্যক্তিকে যুক্ত করতে পারেন, সেই ব্যক্তি প্রোডাক্ট বিক্রি করার কারণে আপনিও সেখান থেকে কিছু কমিশন পেয়ে যাবেন। 

এই জন্য নেটওয়ার্ক মার্কেটিং ব্যবসাতে অনেক বেশি লাভ হয়। অনেক বেশি লাভ করার জন্যে আপনাকে অবশ্যই প্রচুর লোকজনকে কোম্পানিতে যুক্ত করতে হবে। কোম্পানিতে যতবেশি লোক থাকবে ততবেশি প্রোডাক্ট বিক্রি হবে এবং অনেক বেশি কমিশন পেয়ে যাবেন। নেটওয়ার্ক মার্কেটিং এর অন্যতম একটি সুবিধে হচ্ছে আপনার কোম্পানির সঙ্গে সংযুক্ত একজন গ্রাহক পরবর্তীতে আপনার বিজনেস পার্টনার হিসেবেও দাঁড়াতে পারে। 

যদি আপনি যেকোনো একটি প্রোডাক্ট খুব দ্রুততার সাথে প্রচার অর্থাৎ মার্কেটিং করতে পারেন তাহলে আপনি নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করে খুব সহজেই লাভজনক হতে পারবেন। প্রিয় পাঠক আশা করি আপনি নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কি, নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কিভাবে কাজ করে সেটা সহজেই বুঝতে পারছেন। 

আরো পড়ুনঃ মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম

নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কেন করা হয়?

যদি আপনি একজন ব্যবসায়ী হোন কিংবা ব্যবসা করতে চান তবে আপনি নেটওয়ার্ক মার্কেটিং সম্পর্কে সঠিকভাবে ধারণা লাভ করে, সঠিক প্রক্রিয়ায় নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করার মাধ্যমে আপনার বিজনেসকে সামনের দিকে আরো বেশি সহজে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবেন। আর যদি আপনি ভাবেন, নিজে ব্যবসা করবেন না কিন্তু নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করে টাকা ইনকাম করবেন তবে আপনি নেটওয়ার্ক মার্কেটিং এর কাজ শুরু করতে পারেন।

নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করলে কি কি লাভ হয়?

নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করার মাধ্যমে আপনি অনেক বেশি পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে পারবেন। চাইলে আপনি ফুল টাইম এবং পার্টটাইম হিসেবে মার্কেটিং করতে পারেন। অনেকেই জানতে চান, নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করে মাসিক কত টাকা ইনকাম করা যায়? নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করে আপনি কত টাকা ইনকাম করতে পারবেন তার কোনো সীমাবদ্ধতা নাই। দেখা গেছে বর্তমান সময়ে নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করে অনেকেই হাজার হাজার থেকে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করছে। 

আরো পড়ুনঃ অনলাইনে ইনকাম বাংলাদেশী সাইট

নেটওয়ার্ক মার্কেটিং এর সুবিধা

নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করার মাধ্যমে আপনারা টাকা ইনকাম করতে পারবেন এবং ব্যবসা পরিচালনার জন্য ঘরে বসে থেকে কাজ করতে পারবেন। নেটওয়ার্ক মার্কেটিং এ পার্টটাইম ও ফুল টাইম কাজ করা যায়। আপনার নিচে কোনো ব্যাক্তি হতে কেউ কোনো প্রোডাক্ট ক্রয় করলে সেই প্রোডাক্টের উপর কমিশন পেয়ে যাবেন। নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করার জন্য আপনি টিম গঠন করতে পারবেন। 

প্রোডাক্ট বিক্রি ও মার্কেটিং করার উপরে অভিজ্ঞতা বৃদ্ধি পাবে। চাকরি করার পাশাপাশি আপনি নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করতে পারবেন। নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করার জন্যে আপনার কোনো সার্টিফিকেটের প্রয়োজন হয়না, যেকেউ চাইলেই নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করতে পারবে। নেটওয়ার্ক মার্কেটিং ব্যবসা করার মাধ্যমে আপনি নিজেই নিজের মালিক হয়ে ব্যবসা শুরু করে দিতে পারবেন।

যদি আপনি পরের অধীনে কাজ করেন, নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করে ভালো ধারণা লাভ করে ব্যবসায়ী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারবেন। যদি আপনি প্রোডাক্ট বিক্রি করতে পারেন বা পারবেন ভেবে থাকেন এবং লোকজনকে এই ব্যবসার প্রতি সংযুক্ত করতে পারবেন, তবে আপনি নেটওয়ার্ক মার্কেটিং শুরু করে দিতে পারেন। 

আরো পড়ুনঃ বাংলা আর্টিকেল লিখে আয় করার সাইট

নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কিভাবে করবেন?

প্রতিটি দেশেই কিছু কোম্পানি রয়েছে যারা নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করার মাধ্যমে তাদের প্রোডাক্ট বিক্রি করে থাকে। সর্বপ্রথম আপনাকে কিছু কোম্পানি খুঁজে বাহির করতে হবে। যে কোম্পানিগুলো নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করার মাধ্যমে তাদের প্রোডাক্টগুলোকে বিক্রি করে থাকে। সেরা কোম্পানিগুলোকে খুঁজে বাহির করার জন্যে গুগলে অথবা অন্যান্য সার্চ ইঞ্জিনে সার্চ করে জেনে নিতে পারেন। 

নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করার জন্যে আপনাকে সর্বপ্রথম সোশ্যাল মার্কেটিং করতে হবে। নতুন অবস্থাতে সোশ্যাল মার্কেটিং করার মাধ্যমে প্রোডাক্ট বিক্রি করতে এবং লোকজনকে সংযুক্ত করতে আপনাকে একটু বেশী কষ্ট করতে হবে। আপনি এই লাইনে একটু পুরনো হবেন তখন নেটওয়ার্ক মার্কেটিং সঠিক ভাবে করতে পারবেন। যখন সঠিকভাবে কাজ করতে পারবেন তখন আপনার নিচে অনেকেই কাজ করবে এবং তখন নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করতে আপনার জন্য অনেক সহজ হয়ে যাবে।

নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করার জন্য ভালো নেটওয়ার্ক মার্কেটিং সংযুক্ত হওয়ার পরে কোম্পানি থেকে প্রোডাক্ট বাছাই করে এবং উক্ত প্রোডাক্টকে মার্কেটিং করতে হবে। এমনভাবে মার্কেটিং করতে হবে যাতে করে খুবই দ্রুত মানুষ প্রোডাক্টের ব্যাপারে জানতে পারে। প্রোডাক্ট মার্কেটিং করার জন্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় এবং একটি ভালোমানের ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে এবং সেখানে মার্কেটিং করতে পারেন।

চাইলে আপনি ইউটিউবে একটি চ্যানেল ক্রিয়েট করে সেখানে প্রডাক্টের উপর ভিডিও তৈরি করে মার্কেটিং করতে পারেন। নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করার জন্যে সর্বপ্রথমে খুঁজে বাহির করতে হবে ভালোমানের নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কোম্পানি। কেননা কিছু কিছু নেটওয়ার্ক কোম্পানি রয়েছে যারা আপনাকে দিয়ে কাজ করিয়ে নিয়ে টাকা ইনকাম করবে, কিন্তু আপনাকে আপনার প্রাপ্ত কমিশন প্রদান করবে না। অর্থাৎ, আপনার সঙ্গে ফ্রট করবে। সেজন্য আপনাকে নেটওয়ার্ক মার্কেটিং করার জন্যে ভালোমানের একটি নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কোম্পানি খুঁজে বাহির করতে হবে। 

ভালো নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কোম্পানি বাছাই করার জন্য কিছু টিপস

ভালোমানের নেটওয়ার্ক কোম্পানি নির্বাচন করার পূর্বে আপনাকে কোম্পানির ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে বিস্তারিত সকল কিছু জানতে হবে। অথবা যথাসম্ভব কোম্পানির হেড অফিস গিয়ে যাচাই করতে হবে। প্রোডাক্ট বাছাই করার সময়ে খেয়াল করতে হবে প্রোডাক্টটি মানুষ পছন্দ করবে কি-না। প্রোডাক্ট বা সার্ভিস ইউনিক কি-না সেগুলো যাচাই বাছাই করতে হবে। 

নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কোম্পানির সাথে সংযুক্ত হওয়ার পূর্বে আপনাকে যাচাই করতে হবে উক্ত কোম্পানিটি কতদিন ধরে মার্কেটে বিদ্যামান। কোম্পানির লাইসেন্স রয়েছে কিনা আর অর্জিত কমিশন পাওয়ার কতটা সম্ভব সেটা যাচাই বাছাই করা। আপনি কোম্পানির প্রোডাক্ট কিংবা সার্ভিসের প্রতি কতটা জানেন কিংবা প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করলে লাভজনক হবেন সেটা যাচাই বাছাই করে নেটওয়ার্ক মার্কেটিং কোম্পানিতে কাজ করতে পারবেন।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?