Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2022/01/how-to-earn-money-online-in-bangladesh.html

অনলাইনে ইনকাম বাংলাদেশী সাইট

অনলাইনে ইনকাম বাংলাদেশী সাইট - বাংলাদেশের সেরা অনলাইন ইনকাম সাইট — ক্রমবর্ধমান ধারার সাথে একত্রিত হয়ে কাজের ধরণ ও কাজের গতির যে প্রযুক্তিগত পরিবর্তন সাধিত হয়েছে তার বহিঃপ্রকাশ হিসেবে ধরা যায় অনলাইন ইনকাম সাইটে আয় করার মাধ্যমে। বর্তমান সময়ে অনেকগুলো ভালো বাংলা ওয়েবসাইট রয়েছে যারা অনলাইনে কাজ করার সুযোগ তৈরি করে দিয়েছে, এই কাজ করানোর মাধ্যমে ভালো অর্থ দিয়ে থাকেন। 

অনলাইনে ইনকাম বাংলাদেশী সাইট

গতানুগতিক ধারার জীবনযাত্রার পাশাপাশি মানুষ আজকাল অনলাইন সাইটগুলোতেও বেশি বেশি ঝুঁকছে, শুধু মেধা ও শ্রম লাগিয়েই অনেকে আয় করছে। অনলাইনের মাধ্যমে চাহিদা অনুসারে নিজের প্রয়োজন ঘুচিয়ে নিচ্ছে, তাই বর্তমান সময়ে অনলাইনে কাজের চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং এতে ভালো টাকা পাওয়া যাচ্ছে। 

বর্তমান সময়ে বিভিন্ন ধরনের অনেক স্বনামধন্য বাংলা সাইট রয়েছে, যারা আপনার কাজের গুণগত মানের উপর ভিত্তি করে আপনাকে ভালো পেমেন্ট দিতে আগ্রহী। ইংরেজি সাইটগুলোর পাশাপাশি বাংলা সাইটগুলোর চাহিদা আরো বেশি। 

কারণ দক্ষতা সম্পন্ন হওয়া সত্ত্বেও ইংরেজি ভালো না জানার কারণে অনেকেই ইংরেজি সাইটগুলোতে কাজ করতে পারছে না, অপরদিকে বাংলা সাইটগুলো চালু হওয়ার কারণে তারা তাদের দক্ষতাকে পরিপূর্ণ রূপে কাজে লাগানোর চেষ্টা করে বেকারত্ব দূর করার চেষ্টা করছে। 

এতে যেমন বেকারত্বের সংখ্যা দিনদিন কমবে ঠিক তেমনি বহির্বিশ্বে আমাদের দেশের ওয়েবসাইট ভিত্তিক কাজের চাহিদা বাড়বে। তাছাড়া বাইরের দেশে ওয়েবসাইট ভিত্তিক কাজের জন্য পেমেন্ট নিয়ে ঝামেলা সৃষ্টি হয়। তাছাড়া বাংলা ওয়েবসাইট গুলো দেশীয় পেমেন্ট ব্যবস্থা করার কারণে এই ঝামেলা পোহাতে হয়না। সমান ভাষাভাষী বা বাংলা ভাষায় ভাব প্রকাশ হওয়ার কারণে কাজ সম্পর্কে বলার ও কাজ বুঝার ধরনের সমস্যা হয়না।

অনলাইনে ইনকাম বাংলাদেশী সাইট - বাংলাদেশের সেরা অনলাইন ইনকাম সাইটঃ বাংলাদেশের যেসব ইনকাম সাইট রয়েছে তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে- ১। বিল্যান্সার ২। কাজ কি ডটকম ৩। স্বাধীন কাজ ডটকম ৪। জে আই টি ডটকম ৫। গ্র্যাথোর ৬। ইনফো এক্সপার্ট আইটি ডটকম

আরো পড়ুনঃ বাংলা আর্টিকেল লিখে আয় করার সাইট

১। বিল্যান্সার - Belancer.Com

২০১৫ সালেস স্টার্ট আপের মাধ্যমে যাত্রা শুরু করে বিল্যান্সার। ই-কমার্স, ইঞ্জিনিয়ারিং, আর্কিটেকচার, ডিজাইন, প্রিন্টিং এন্ড মাল্টিমিডিয়া, রাইটিং এন্ড ট্রান্সলেট, এসইও এন্ড ডাটা এন্ট্রি, সেলস এন্ড মার্কেটিং, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, সফটওয়্যার ডেভলপমেন্ট সহ আরো অনেক ধরনের কাজের ধরন থেকে নির্বাচন করে বিল্যান্সার থেকে আয় করা যায়। এটি মূলত দেশী মার্কেটপ্লেস। 

এ ওয়েবসাইটের উদ্যোক্তা হচ্ছেন মোহাম্মদ শফিউল আলম এবং তথ্য প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক এতে আগ্রহ প্রকাশ করেন। বিল্যান্সার হচ্ছে বাংলাদেশি ফ্রীলান্সিং ওয়েবসাইট। তাই এই দেশীয় ওয়েবসাইটটিতে যেসব ফ্রিল্যান্সাররা কাজ করে থাকে সবাই বাংলাদেশী। এতে করে কমিউনিকেশনের সমস্যা হয়না যা দেশের বাইরের ওয়েবসাইটগুলোতে কাজ করার ক্ষেত্রে ঘটে। দেশি ওয়েবসাইট হওয়ার সুবাদে পেমেন্টের জন্য ঝামেলা পোহাতে হয় না। 

আমাদের দেশে যেহেতু পেপাল বৈধতা পায়নি তাই বিদেশি মার্কেটপ্লেস থেকে টাকা নেওয়ার সময় সমস্যার সৃষ্টি হয়। বিল্যান্সার এর মাধ্যমে আয় করা পেমেন্ট বিকাশে পাওয়ার সুবিধা রয়েছে, তাছাড়া ব্যাংক ট্রান্সফারের মাধ্যমে পেমেন্ট নেওয়া যায়। এখানে কাজ করতে হলে অবশ্যই আপনাকে কাজ ভিত্তিক যেকোনো বিষয়ে দক্ষতা অর্জন করতে হবে। 

বিল্যান্সার ওয়েবসাইটে সাইন আপ করে তারপর সেখান থেকে ফিক্সড প্রাইসের ওপর আপনাকে কাজ করতে হবে। বর্তমানে এখানে ১৩,৪৪৫ টি কাজ দেয়া আছে যার প্রজেক্ট ভ্যালু হচ্ছে ৩,৭৮,২৪,৬২৭ টাকা। আরো কাজের বৃদ্ধি ও বাড়তি পারিশ্রমিকের সুযোগ ফ্রিল্যান্সারদের করে দেওয়ার জন্য বিল্যান্সার টিম দেশের বাইরে থেকেও প্রজেক্ট নিয়ে আসার সর্বাত্মক চেষ্টা করে চলেছে।

আরো পড়ুনঃ ইউটিউব থেকে আয় করার ৫টি উপায়

২। কাজ কি ডটকম

২০১৮ সালে প্রতিষ্ঠিত এবং ২০১৯ সালে আনুষ্ঠানিক ভাবে কাজ শুরু করে কাজ কি ডটকম। একে বাংলাদেশের দ্বিতীয় ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস বলা যেতে পারে এবং ফ্রিল্যান্সিং এর জগতের বাংলা ভাষার সাইট হিসেবেও এটি সুপরিচিত। এই সাইটটি সম্পুর্ন বাংলা ভাষায় করা। এই সাইটে কাজ করতে হলে দক্ষতা বেশি জরুরি ও আবশ্যক বিষয় শিক্ষাগত যোগ্যতা থেকে। 

আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা দক্ষ কিন্তু ইংরেজিতে দুর্বল হওয়ার কারণে তারা আন্তর্জাতিক মার্কেটপ্লেসে কাজ করার আগ্রহ হারিয়ে ফেলছে। যা হতাশা জনক ব্যাপার। তবে তাদের জন্য এটি অনেক বড় একটি প্লাটফর্ম বাংলা ভাষা ভাষীদের সাথে নিজের দক্ষতাকে কাজে লাগানোর ও নিজেকে প্রতিষ্ঠিত হিসেবে গড়ে তোলার জন্য। 

ফ্রিল্যান্সার অ্যাকাউন্ট করার পর নিজের আয়ত্ত অনুযায়ী পোস্ট বিড করার মাধ্যমে এই সাইটে কাজ করতে হয়। এখানে কাজের টাকা পরিশোধ করা হয় বিকাশ, মাস্টারকার্ড ও ভিসা কার্ডের মাধ্যমে। ডাটা এন্ট্রি, কনটেন্ট রাইটিং, অ্যাপ ডেভলপমেন্ট, ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট, মার্কেটিং, গ্রাফিক্স ডিজাইন, কাস্টমার কেয়ার, ওয়েব ডেভলপমেন্ট, মোবাইল ডেভলপমেন্ট, ভিডিও তৈরি, এডিটিং ও অ্যানিমেশন এর কাজ পাওয়া যায় এখানে। এই ওয়েবসাইটটিতে গিগ এর সুযোগ রয়েছে, তাই ভালো রেটিং যুক্ত থাকলে কাজের ভালোও বেশী অফার পাওয়া যায়।

৩। স্বাধীন কাজ ডটকম - ShadhinKaj.Com

বাংলাদেশি ফ্রিল্যান্সারদের জন্য গঠিত মার্কেটপ্লেস স্বাধীন কাজ ডটকম। Touch IT solutions এর পক্ষ থেকে স্বাধীন কাজ ডটকম উদ্বোধন করা হয়। স্বাধীন কাজ হচ্ছে ফ্রিল্যান্সারদের জন্য খোলা প্লাটফর্ম। বিষয় ভিত্তিক কাজের জন্য এই সাইটটি অনেক সুবিধা জনক। যে ধরনের কাজের জন্য পোস্ট করা হবে সেই কাজের ওপর যারা দক্ষ তাদের কাছে নোটিফিকেশন চলে যায় কাজটির পূর্ণ ফলাফল পাওয়ার জন্য। 

তাদের অটোমেটিক সিস্টেম নোটিফিকেশনের মাধ্যমে এই সুবিধাটি পাওয়া যায়। সেই কাজের ওপর দক্ষ ফ্রিল্যান্সাররা কাজের জন্য আবেদন করে থাকে। পোস্ট দাতা নিজের ইচ্ছা ও পছন্দ মোতাবেক আবেদনকারী ফ্রিল্যান্সারদের মধ্য থেকে যে কাউকে দিয়ে কাজটি করিয়ে নিতে পারবে। একটি কাজ সম্পন্ন হওয়ার সেই কাজ এর পেমেন্টের ৮০ পার্সেন্ট ফ্রিল্যান্সার পাবে আর ২০ পার্সেন্ট পাবে স্বাধীন কাজ মার্কেটপ্লেস সাইটটি।

আরো পড়ুনঃ সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং কি | সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং এর গুরুত্ব

৪। জে আই টি - JIT

জে আই টি আর্নিং প্রোগ্রাম সাইটটিতে আয় করার সুযোগ রয়েছে। বিশেষ করে এই সাইটটিতে আয় করার মূল বিষয় হচ্ছে আর্টিকেল লেখা। তাদের দেয়া টপিকগুলো থেকে নিজের ইচ্ছা অনুযায়ী বিষয়বস্তু নিয়ে ঘরে বসে লিখে আয় করা সম্ভব। তবে তাদের নীতিমালা আগে ভালোভাবে দেখে নিতে হবে।

আপনার বাসায় থাকা ডেক্সটপ, ল্যাপটপ বা স্মার্টফোন দিয়ে অভিজ্ঞতা দক্ষতা ও নিপুণতার সাথে আর্টিকেল লিখে জমা দিতে পারলেই পাবেন আয় করার সুযোগ। এফিলিয়েট মার্কেটিং, অনলাইন ব্যবসা, ই-কমার্স, কম্পিউটার ও মোবাইল, সফটওয়্যার, এন্ড্রোয়েড এপ, গেমস,ওয়ার্ডপ্রেস, ব্লগার, এসইও, ডিজিটাল মার্কেটিং, অনলাইন ইনকাম, ব্লগিং এন্ড ওয়েবসাইট, ইউটিউব, বিট কয়েন, ক্রিপ্রোকারেন্সি।

অনলাইন ট্রেডিং, টেকনোলজি, নেটওয়ার্ক, ইন্টারনেট অফার, সিম কার্ড অফার, সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং, ইমেইল মার্কেটিং, সাইবার নিরাপত্তা, ডাটা রিকভারী, ব্যাংকিং, মাস্টার কার্ড, ভিসা কার্ড, ডেবিট ক্রেডিট ও একাউন্স, ম্যাসেজিং, চ্যাটিং, কল কনফারেন্স, অনলাইন পড়াশুনা, বিদেশে উচ্চ শিক্ষা, অনলাইন ক্লাস, সাইন্স, সাকসেস স্টোরি, ইন্সুরেন্স, আইন, মর্গেজ, নোটারী, ভিডিও কল ইত্যাদি বিষয়গুলোর উপর লিখে আয় করতে পারবেন। 

আর্টিকেল লিখে ১০ থেকে ১০০ টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন। আপনার পোস্ট করা আর্টিকেলে ভিউ যতবেশি থাকবে আপনার আরও বাড়তে থাকবে এছাড়া রেফার করে আয় করতে পারবেন। রেফার্ডকৃত আইডি থেকে যদি নতুন রেজিস্ট্রেশন যুক্ত হয় তাহলে যে রেজিস্ট্রেশন করেছে সে যদি এই সাইটে আয় করে থাকে তাহলে তার আয়ের ওপর ভিত্তি করে ২০ পারসেন্ট কমিশন আপনাকে দেয়া হবে। 

তবে এতে আয়কৃত ব্যক্তির কোন টাকা কাটা হবে না সে পুরো টাকা টাই পাবে। আপনি বাড়তি বোনাস হিসেবে ২০ পার্সেন্ট পাবেন। যেহেতু এটি একটি বাংলাদেশী সাইট তাই মোবাইল রিচার্জের মাধ্যমে ২০ টাকা, রকেটের মাধ্যমে ১০০ টাকা, বিকাশের মাধ্যমে ১০০ টাকা, শিওর ক্যাশের মাধ্যমে ১০০ টাকা ও নগদের মাধ্যমে ১০০ টাকা ক্যাশ আউট করতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ টাকা ইনকাম করার অ্যাপ | টাকা ইনকাম করার অ্যাপ ২০২২

৫। গ্র্যাথোর - Grathor.Com

অনলাইনে আয় করার আরও একটি আর্টিকেল ভিত্তিক সাইট হচ্ছে গ্র্যাথোর। এসইও, এন্ড্রয়েড টিপস, উইন্ডোজ, ওয়ার্ডপ্রেস, ফ্রিল্যান্সিং, বিজ্ঞাপন, অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং, চাকরি, শিক্ষা, ক্রিকেট ইত্যাদি বিষয়ের উপর কম করে হলেও ৩৫০ শব্দের আর্টিকেল লিখতে হবে‌। এছাড়া আর্টিকেল লেখা ছাড়া বিভিন্ন টাস্ক কমপ্লিট করে গ্র্যাথোর আরো আয় করার সুযোগ দিচ্ছে। রেফার করার মাধ্যমে ও আয় করার সুযোগ রয়েছে। মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে গ্র্যাথোর পেমেন্ট দিয়ে থাকে। আর তাছাড়া ভিউ বেশি হলে আরো বেশি হবে কমপক্ষে ১০০০ টাকা আয় হলে আয়কৃত টাকা তোলা যাবে।

৬। ইনফো এক্সপার্ট আইটি - Info Expert IT

আর্টিকেল লিখে আয় পেমেন্ট বিকাশে নিতে চাইলে তারজন্য সেরা ওয়েবসাইট হচ্ছে Info Expert IT. আপনারা এই ওয়েবসাইটের সাথে কাজ করতে পারেন। আপনারা যারা প্রতিভাবান লেখক তারা বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে নিজেদের লেখা প্রকাশ করেন কিন্তু তার জন্য কোন পারিশ্রমিক পান না, তারা এই জনপ্রিয় ওয়েবসাইটে লেখার মাধ্যমে আপনারা উপযুক্ত পারিশ্রমিক পেতে পারেন। 

আপনি যদি আর্টিকেল লেখার নিয়ম না জেনে থাকেন তবে তাদের সাইট থেকে তা শিখে নিতে পারবেন। এর সাথে সাথে ব্লগ পোস্ট করার নিয়ম ও ব্লগ পোস্টে SEO ফ্রেন্ডলি পোস্ট করার নিয়ম ও পেয়ে যাবেন তাদের ওয়েবসাইটটিতে। এই ওয়েবসাইটে আর্টিকেল লেখার পূর্বে আপনাকে প্রথমে তাদের অনলাইন আবেদন ফরম পূরণ করতে হবে। 

এই সাইটটিতে আর্টিকেল লেখার জন্য আপনাকে SEO ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লিখতে হবে এবং সর্বনিম্ন ৬০০ শব্দের আর্টিকেল লিখতে হবে। শতভাগ নতুন আর্টিকেল তারা দাবি করছে। প্রতি মাসে আপনাকে ৪০ থেকে ৫০ টি আর্টিকেল লিখে জমা দিতে হবে অর্থাৎ সপ্তাহে ১২ থেকে ১৪ টি লেখা জমা দিতে হবে। প্রথমে ট্রায়াল' বেসিসে তারা দুইটি আর্টিকেল সাবমিট করতে বলবে। তারা আপনাকে প্রতিনিয়ত নতুন কনটেন্ট দিবে লেখার জন্য। সর্বনিম্ন ৪০ থেকে ৫০ টি আর্টিকেল জমা না দেয়ার আগে তারা কোনো রকম পারিশ্রমিক দিতে বাধ্য নয়।

৬০০ থেকে ১০০০ ওয়ার্ড লিখলে পাবেন ৬০ থেকে ৮০ টাকা, ১২০০ থেকে ২০০০ ওয়ার্ড লিখলে পাবেন ৮০ থেকে ১০০ টাকা এবং ১৫০০ থেকে ২৫০০ ওয়ার্ড লিখলে পাবেন ১১০ থেকে ১৩০ টাকা পর্যন্ত। তাদের সর্বনিম্ন উইথড্র লিমিট ৫০০ টাকা এবং সর্বোচ্চ উইথড্র লিমিট হচ্ছে ৮০০০ টাকা। আপনার লেখায় যেকোনো সমস্যায় তারা সর্বাত্নক সাহায্য করবে। Info Expert IT ওয়েবসাইটটি লেখকদের লেখা পোস্ট বিভিন্ন অনলাইন প্লাটফর্মে বিক্রি করে তা থেকে লেখকদের পারিশ্রমিক প্রদান করে থাকে।

আমাদের দেশীয় মার্কেটপ্লেস গুলোতে কাজের মাধ্যমে বেকারত্ব দূর করার সুযোগ রয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন দেশ ও নিজস্ব মার্কেটপ্লেস তৈরির মাধ্যমে নিজের দেশের নাগরিকদের আয় করার সুযোগ করে দিচ্ছে। পেমেন্ট সুবিধা, ভাষার সুবিধা থাকার কারণে অনেকে স্বচ্ছন্দে কাজ করতে পারছে। বাহিরের দেশের মার্কেটপ্লেস গুলোর সাথে কাজ করার পাশাপাশি আমাদের দেশীয় মার্কেটপ্লেস গুলোতে বেশি বেশি কাজ করে দেশীয় মার্কেট প্লেসকে উন্নত করতে হবে। এতে দেশে বাড়তি আয় ও হবে এবং দেশের সুনাম ও খ্যাতি বাড়বে।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?