Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2022/04/bangladesh-online-loan.html

বাংলাদেশে অনলাইনে লোন পাওয়ার উপায়

বাংলাদেশে অনলাইনে লোন পাওয়ার উপায় - বাংলাদেশে অনলাইনে লোন পাওয়ার উপায় ২০২২ — বিপদের মুহুর্তে লোন নেওয়াটা আমাদের সকলের জন্য জরুরি হয়ে পরে। অফলাইনে লোন নেয়াটা অনেক ঝামেলার ও সময়ের ব্যাপার। আজকে কাগজপত্র জমা দিলে লোন পেতে পেতে অনেক দিন সময় লেগে যায়। আপনি কি জানেন? বাংলাদেশে অনলাইনে লোন পাওয়ার উপায় সম্পর্কে?

বাংলাদেশে অনলাইনে লোন পাওয়ার উপায়

এখন থেকে আপনি চাইলে অনলাইনের মাধ্যমে নির্দিষ্ট পরিমান টাকার লোন গ্রহন করতে পারবেন। উন্নত দেশ গুলোতে অনলাইনে লোন প্রদান পরিষেবা অনেক আগে শুরু হলেও বাংলাদেশে সরকারি ও বেসরকারি কয়েকটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে আবেদন এর মাধ্যমে অনলাইন লোন সেবা গ্রহন করতে পারবেন।

বাংলাদেশে অনলাইনে লোন পাওয়ার উপায়

বাংলাদেশে অনলাইনে লোন পাওয়ার উপায়ের মধ্যে বেশ কয়েকটি উপায় উল্লেখযোগ্য। তার মধ্যে থেকে ৩ টি অনলাইন লোন নেয়ার প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করবো। কিভাবে অনলাইনে লোনের জন্য আবেদন করবেন। কোথায় আবেদন করবেন অনলাইন লোনের জন্য ইত্যাদি সকল কিছু বিস্তারিত ধারণা পেয়ে যাবেন। বাংলাদেশে অনলাইনে লোন পাওয়ার উপায় সম্পর্কে জানতে লেখাটি শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়ে নিনঃ 

বাংলাদেশ সরকারি অনলাইনে লোন পাওয়ার উপায় 

বাংলাদেশের সরকার প্রতিবছর প্রচুর পরিমাণ টাকা লোন প্রদান করে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে। ব্যাবসায়ী, চাকরিজীবী, প্রতিষ্ঠান, ভাতা ইত্যাদি অসংখ্য ধরণের লোন পাওয়ার অগ্রাধিকার দেয়। আপনি যদি বাংলাদেশ সরকার থেকে অনলাইনে লোন নিতে চান সেক্ষেত্রে আপনাকে সবার প্রথমে আবেদন করতে হবে।

অনলাইনে লোনের আবেদন করার জন্য চলে যান এই ওয়েবসাইটে। বাংলাদেশে অনলাইনে লোনের আবেদন করার জন্য সাইটে যাওয়ার পর "অনলাইনে আবেদন করুন" এমন একটি অপশন দেখতে পাবেন সেখানে ক্লিক করে দিন।

ক্লিক করার পরের পর্যায় আপনাকে লোনের সেবা চিহ্নিত করতে হবে। আপনি কোন ধরণের লোন নিতে ইচ্ছুক সেটা বাছাই করতে হবে। আপনি যদি ব্যাবসার জন্য লোন নিতে চান। যেসব তথ্য গুলো তারা দিতে বলবে আপনাকে অবশ্যই সকল তথ্য সঠিক ভাবে পূরন করতে হবে। সকল তথ্য পূরন করার পর আপনার অনলাইন লোন আবেদন করতে পারবেন বাংলাদেশে বসেই।

আরো পড়ুনঃ মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করার উপায়

বিকাশ এর মাধ্যমে বাংলাদেশে অনলাইন লোন

কিছুদিন পূর্বেই বিকাশ সিটি ব্যাংকের সাথে এক যোগে কাজ শুরু করেছে। বিকাশ ব্যবহারকারীদের আরো ভালো সেবা প্রদান এর উদ্দেশ্যে বিকাশ একটি নতুন ফিচার যোগ করেছে। আপনি চাইলে বিকাশ থেকেই এখন থেকে অনলাইনে লোন নিতে পারবেন। 

লোন পরিমান কত হবে সে বিষয়টি নির্ভর করে আপনি রেগুলার বিকাশ ব্যাবহার করেন কিনা তার উপর। আপনি যতবেশী লেনদেন করতে পারবেন ততবেশী লোন পাওয়ার সুব্যবস্থা পাবেম। ৯% সুদ হারে এই লোন প্রযোজ্য হবে। সর্বনিম্ন ৫০০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকা বাংলাদেশে অনলাইনে লোন নিতে পারবেন।

বিকাশ এর মাধ্যমে অনলাইনে লোন কিভাবে নিবেন

বিকাশ আপাতত সকলের জন্য এই লোন সুবিধা দিচ্ছে না। এই লোনের আওতাভুক্ত শুধু তারাই যারা প্রতিনিয়ত বিকাশ এর মাধ্যমে বিভিন্ন প্রকার লেনদেন করেন। বিকাশ তাদেরকে সিলেক্ট করে তাদেরকে নির্দিষ্ট পরিমান টাকা আর্থিক লোন দিয়ে থাকে। 

তবে আশা করা যায় খুব শীঘ্রই সকলের জন্য লোন সেবা উন্মুক্ত হবে। বিকাশ থেকে লোন নেওয়া খুব সহজ। যেকেউ বিকাশ থেকে অনলাইন লোন সেবা গ্রহন করতে পারবেন। লোন নেয়ার পর পরবর্তী ৩ মাসে যে পরিমান টাকা লোন নিবেন আপনি তার অংশ হিসেবে সুদসহ আপনার বিকাশ থেকে সয়ংক্রিয় ভাবে টাকা কেটে নেয়া হবে। 

মনে করুন, আপনি ৩ হাজার টাকা লোন নিলেন। ৩ মাসে আপনাকে পরিশোধ করতে হলে মাসিক কিস্তি হয় ১ হাজার টাকা। ৯% সুদসহ হিসাব করলে ৩ হাজার টাকায় ৩ মাসের কিস্তিতে মাসিক কিস্তি হয় ১০১৬.৯৬ টাকা। আপনি যত টাকাই লোন নিবেন সেটা আপনাকে সুদ সহ প্রত্যেক মাসের কিস্তি প্রদান করতে হবে। বাংলাদেশে বিকাশ থেকে অনলাইনে লোন নিতে নিচের নিয়ম গুলো অনুযায়ী কাজ করুন -

১। প্রথমে বিকাশ এর অফিসিয়াল অ্যাপে ঢুকুন ২। আপনার বিকাশ একাউন্ট লগ ইন অবস্থায় না থাকলে লগ-ইন করে নিন ৩। বিকাশ এ ঢুকার পরে অনেক গুলো অপশন পাবেন ৪। More / আরো অপশনে ক্লিক করুন ৫। সেখান থেকে "লোন" অপশনটিকে বাছাই করুন। 

৬। এখানে আপনি টাকার পরিমান দেখতে পাবেন। আপনি যত টাকা লোন পেতে পারেন ঠিক ততটাই দেখানো হবে। এর বেশী টাকা লোন নিতে পারবেন না তবে চাইলে আপনি কমিয়ে নিতে পারবেন ৭। এর পরে লোন এর পরিমান দিয়ে দিন ও সাথে কিস্তির মেয়াদ দিয়ে দিন ৮। এর পরে লোন এর সকল নিয়মাবলি পেয়ে যাবেন। মাসিক কত টাকা করে আপনার কিস্তি প্রদান করতে হবে ইত্যাদি ভালো করে দেখে নিন 

৯। লোন কনফার্ম করার জন্য আপনার বিকাশ এর ৫ সংখ্যার পিন নাম্বারটি দিয়ে সম্মত করে দিন। আপনার কাজ শেষ এখন আপনার একাউন্টে আপনি টাকা পেয়ে যাবেন। সম্পুর্ন সিটি ব্যংকের মাধ্যমে এই লোন সেবাটি প্রদান করা হয়। তাই সকল গ্রাহক প্রথমে এই সেবার আওতাভুক্ত নাও হতে পারেন। আপনি যদি লোন পাওয়ার জন্য সিলেক্ট না হোন লোন অপশনে ক্লিক করলে আপনাকে জানিয়ে দিবে।

আরো পড়ুনঃ ভিডিও দেখে টাকা ইনকাম পেমেন্ট বিকাশে

বাংলাদেশে অনলাইন লোন নিন ABBL ব্যাংক এর মাধ্যমে 

বাংলাদেশের প্রথম কোনো বেসরকারী ব্যাংক হিসেবে আত্বপ্রকাশ করে ABBL ব্যাংক। গ্রাহকদের লোনের মাধ্যমে সেবা প্রদান করা তাদের অন্যতম উদ্দ্যেশ্য। আপনি চাইলে ABBL ব্যাংকের মাধ্যমে লোন পরিষেবা গ্রহণ করতে পারবেন।

ব্যাক্তিগত কাজে ও সাংসারিক কাজের উপত ক্ষুদ্র লোন প্রদান করে ABBL ব্যাংক। যা আপনি অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন করে সেবা গ্রহন করতে পারবেন। এখানে আপনি সর্বোচ্চ ২০ লাখ টাকা পর্যন্ত লোন নিতে পারবেন।

তবে লোনের পরিমান অবশ্যই নির্ভর করে আপনার পেশা ও মাসিক আয়ের উপর ভিত্তি করে। লোন পাওয়ার জন্য আবেদন করতে আপনাকে ৫০০ টাকা খরচ করতে হবে। আপনার নেওয়া যাবতীয় লোন শোধ করার জন্য সর্বোচ্চ ৬০ মাস সময়কাল পাবেন। 

ক্রেডিট কার্ড ব্যাতিত বাংলাদেশ সরকার কতৃক নির্ধারণ কৃত সর্বোচ্চ ৯% হারে সুদ দিতে হবে আপনাকে। তবে কিছু ক্ষেত্রে আপনি ৭%-৮% হারে লোন পেতে পারেন সেটা নির্ভর করে লোনের ধরনের উপর। ABBL ব্যাংকে অনলাইনে লোনের আবেদন করার জন্য সর্বপ্রথম আপনি এই ওয়েবসাইটে ভিজিট করুনঃ ব্যাক্তিগত লোন অপশনে যাওয়ার পর নিচের মত একটি ফর্ম পাবেন, 

বাংলাদেশে অনলাইনে লোন পাওয়ার উপায়

এখানে আপনার নাম, ফোন নম্বর, ই-মেইল আইডি, বয়স, বাৎসরিক আয় ও ক্যাপচা পূরন করে সাবমিট করে দিন। ব্যাংক কর্তৃপক্ষ আপনার আবেদন পাওয়ার পর আপনার সাথে লোনের যাবতীয় বিষয় গুলো নিয়ে যোগাযোগ করবে। আপনি তাদের সাথে সকল বিষয়ে বিস্তারিত ভাবে জেনে শুনে লোন সেবা গ্রহন করতে পারবেন।

শেষ কথা

বাংলাদেশে অনলাইনে লোন সেবা গ্রহনের জন্য উপরের ৩ উপায় বেশ কার্যকরী। আপনি যেকোনো উপায় অবলম্বন করে অনলাইনে লোন গ্রহন করতে পারবেন। বাংলাদেশে অনলাইনে লোন পাওয়ার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত আর্টিকেলটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

0 Comments