Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2022/01/lomba-howar-upay-bangla.html

লম্বা হওয়ার উপায় ও ব্যায়াম

লম্বা হওয়ার উপায় ও ব্যায়াম — স্বাভাবিক উচ্চতার অভাব, পুরুষ হোক বা মহিলা তাদের মধ্যে আত্মবিশ্বাসের অভাব ঘটায়। একজন ব্যক্তির উচ্চতা জেনেটিক ফ্যাক্টরের উপর অনেকাংশে নির্ভর করে। শরীরে একটি হরমোন আছে যা হিউম্যান গ্রোথ হরমোন নামে পরিচিত যা একজন ব্যক্তির উচ্চতা নিয়ন্ত্রণ করে। HGH পিটুইটারি গ্রন্থি দ্বারা উৎপাদিত হয় এবং দীর্ঘ হাড় এবং তরুণাস্থি উন্নয়নের জন্য অপরিহার্য। 

লম্বা হওয়ার উপায় ও ব্যায়াম

অন্যান্য অনেক কারণ যেমন গর্ভাবস্থায় ধূমপান, গর্ভাবস্থায় অনুপযুক্ত যত্ন, কম জন্ম ওজন এবং শৈশবকালে দুর্বল স্বাস্থ্য ইত্যাদি উচ্চতা নির্ধারণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এটিও বিশ্বাস করা হয় যে একটি নির্দিষ্ট বয়স পর্যন্ত উচ্চতা বাড়তে পারে। কিন্তু কিছু লোক 18 বছর পরেও কয়েক ইঞ্চি বাড়তে পারে, যদি তারা একটি সুষম এবং পুষ্টিকর খাদ্য, ব্যায়াম এবং যোগব্যায়াম নিয়মিত অনুসরণ করে এবং তাদের জীবনধারায় সঠিক অভ্যাস গ্রহণ করে। আসুন এই আর্টিকেলটির মাধ্যমে লম্বা হওয়ার উপায় ও ব্যায়াম সম্পর্কে আলোকপাত করা যাক।

১. ভালো ঘুম

আপনি যখন আরামদায়ক ভঙ্গিতে থাকেন, তখন শরীর বৃদ্ধি পায় এবং টিস্যু পুনরুত্পাদন করে। প্রকৃতপক্ষে, আপনি যখন শান্ত এবং গভীর ঘুমে থাকেন, তখন উচ্চতা বৃদ্ধির জন্য দায়ী হিউম্যান গ্রোথ হরমোন (HGH) শরীরে প্রাকৃতিকভাবে উৎপন্ন হয়। ভালো ঘুমের সময় মন বিশ্রাম পায় এবং বেশি হরমোন নিঃসৃত হয়। অন্যদিকে, ক্লান্ত মন কম বৃদ্ধির হরমোন নিঃসরণ করে। একটি নিয়ম হিসাবে, যখন একজন ব্যক্তি বাড়তে থাকে, সেই পর্যায়ে তার সর্বোচ্চ উচ্চতায় প্রতি রাতে ন্যূনতম 8 থেকে 11 ঘন্টা ঘুমানো উচিত।

আরো পড়ুনঃ থাইরয়েড কমানোর উপায়

২. প্রচুর পানি পান করুন

পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করার চেষ্টা করুন। পানি আপনার শরীর থেকে ক্ষতিকারক টক্সিন দূর করে এবং হজমশক্তি উন্নত করে। এর সাথে, এটি আপনার বিপাকীয় হাড়কে উন্নত করে, যা আপনার উচ্চতার উপর সরাসরি প্রভাব ফেলে। সামগ্রিক স্বাস্থ্যের জন্য, প্রতিদিন অন্তত ৮ গ্লাস পান করুন।

৩. অশ্বগন্ধা

অশ্বগন্ধায় বিভিন্ন খনিজ উপাদান রয়েছে যা হাড় এবং তাদের ঘনত্বকে প্রশস্ত করে। এতে আপনার উচ্চতা বাড়ে। যেকোনো ভেষজ দোকান থেকে অশ্বগন্ধা কিনতে পারেন সহজেই। এক গ্লাস গরম গরুর দুধে দুই টেবিল চামচ অশ্বগন্ধা পাউডার মেশান। আপনার স্বাদ অনুযায়ী চিনি বা গুড় যোগ করুন এবং ভালোভাবে মেশান। প্রতিদিন ঘুমানোর আগে এই মিশ্রণটি পান করুন। এই প্রতিকারটি চেষ্টা করার জন্য, আপনাকে ফাস্ট ফুড থেকে সম্পূর্ণরূপে বিরত থাকতে হবে।

৪. সুষম খাদ্য

দেখা গেছে লম্বা না হওয়ার একটি বড় কারণ সঠিক পুষ্টির অভাব। সঠিক পুষ্টি পেতে, একটি সুষম খাদ্য অনুসরণ করুন। দস্তা, ম্যাঙ্গানিজ, ভিটামিন সি, প্রোটিন, পটাসিয়াম, ক্যালসিয়াম এবং ফসফরাসের মতো প্রয়োজনীয় পুষ্টি লম্বা হওয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। আপনার প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় তাজা শাক-সবজি এবং রঙিন শাকসবজি, ফল, বাদাম, বীজ, গোটা শস্য এবং কম চর্বিযুক্ত দুগ্ধজাত খাবার যথাযথ অনুপাতে অন্তর্ভুক্ত করা উচিত।

আরো পড়ুনঃ গর্ভবতী মায়ের খাবার তালিকা

৫. সঠিকভাবে বসুন

আপনার উচ্চতা বৃদ্ধির জন্য সঠিক ভঙ্গি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। একটি ভালো ভঙ্গি হল যেখানে মাথা এবং ঘাড় বাঁক না করে একটি সরল রেখায় থাকে। এই ধরনের ভঙ্গি আপনার মেরুদণ্ড সোজা রাখতে, আপনার পেশী শিথিল করতে এবং আপনার উচ্চতা বাড়াতে সাহায্য করে। অন্যদিকে, একটি খারাপ ভঙ্গি আপনার মেরুদণ্ড মোচড় দিতে পারে এবং আপনার স্বাভাবিক উচ্চতা বিকাশ করতে পারে না।

৬. যোগব্যায়াম

প্রাকৃতিকভাবে উচ্চতা বাড়াতে আপনি কিছু যোগাসনের সাহায্যও নিতে পারেন। অনেক যোগাসন করলে আপনার শরীরের হরমোন বাড়তে পারে। যোগব্যায়াম চাপ কমাতেও সাহায্য করে যা পিছনের পেশীতে টান সৃষ্টি করে। এর ফলে আপনার উচ্চতা ভালোভাবে বৃদ্ধি পায়।

৭. স্ট্রেচিং করুন

কয়েক মিনিটের জন্য দিনে কয়েকবার আপনার পায়ের আঙ্গুলের উপর দাঁড়িয়ে আপনার শরীরকে উপরের দিকে প্রসারিত করার অভ্যাস করুন। নিয়মিত অন্যান্য স্ট্রেচিং ব্যায়ামও করা যেতে পারে। এটি করার কারণে দেহের প্রসারন হয়। নিয়মিত এই ব্যায়াম করার কারণে আপনি আপনার উচ্চতা এক বা দুই ইঞ্চি বাড়াতে পারেন। এর সাথে, এটি আপনার ভঙ্গি উন্নত করতেও সাহায্য করবে।

আরো পড়ুনঃ কোন খাবারে কত ক্যালরি

৮. সূর্যালোক সহায়ক

সূর্যের আলো ভিটামিন ডি-এর সর্বোত্তম প্রাকৃতিক উৎস, একটি গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টি যা সর্বাধিক উচ্চতা সহ সামগ্রিক বৃদ্ধির জন্য প্রয়োজনীয়। আপনার শরীর যখন পর্যাপ্ত ভিটামিন ডি পায় না, তখন আপনার হাড় দুর্বল হওয়ার পাশাপাশি উচ্চতা হ্রাস পেতে পারে। প্রতিদিন 20 থেকে 30 মিনিট রোদে থাকুন। সকালে বা সন্ধ্যায় রোদে বের হলে ক্ষতিকারক অতিবেগুনি রশ্মির কম এক্সপোজারের সাথে আপনার শরীরকে ভিটামিন ডি দেয়।

৯. ব্যায়াম এবং খেলাধুলা

ব্যায়াম এবং খেলাধুলা আপনার উচ্চতা বাড়ায়। ভালো উচ্চতা পেতে হলে নিয়মিত ব্যায়াম করতে হবে এবং খেলাধুলায় অংশ নিতে হবে। দড়ি লাফানো আপনার উচ্চতা বাড়ানোর জন্য একটি ভালো ব্যায়াম যেখানে আপনাকে প্রচুর জাম্পিং করতে হবে। অন্তত 30 মিনিটের জন্য একটি খোলা জায়গায় প্রতিদিন দড়ি লাফুন। এছাড়াও, টেনিস এবং বাস্কেটবলের মতো খেলাগুলি খেলুন যাতে আপনাকে প্রচুর লাফ দিতে হয়।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?