Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2021/06/best-social-media-site.html

সেরা সোশ্যাল মিডিয়া সাইট ২০২১

সেরা সোশ্যাল মিডিয়া সাইট — সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইটগুলো এবং অ্যাপ্লিকেশনগুলোকে বলতে বোঝায় যেগুলো আপনাকে দ্রুততার সঙ্গে ও দক্ষতার সঙ্গে এবং বাস্তব সময়ে কনটেন্ট শেয়ারের অনুমতি প্রদানের জন্যে ডিজাইন করা হয়েছে। অনেকেই স্মার্টফোনের অ্যাপ্লিকেশনগুলোর সাহায্য সামাজিক মিডিয়া এক্সেস করার সময়, কম্পিউটারের সঙ্গে এই যোগাযোগ সরঞ্জামটি চালু করা হয়েছিল আর সোশ্যাল মিডিয়া এমন কোনোও ইন্টারনেট যোগাযোগ সরঞ্জামকে উল্লেখ করতে পারে যা ইউজারদেরকে ব্যাপকভাবে কনটেন্ট শেয়ার করার এবং জনসাধারণের সঙ্গে জড়িত থাকতে দেয়।

সেরা সোশ্যাল মিডিয়া সাইট ২০২১

সোশ্যাল মিডিয়া কাকে বলে?

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হচ্ছে একটি ডিজিটাল সরঞ্জাম যা ইউজারদের দ্রুত জনগনের সঙ্গে কনটেন্ট তৈরি ও শেয়ার করার অনুমতি দেয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিস্তৃত ওয়েবসাইটগুলো ও অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে। টুইটার এর মত কিছু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম লিঙ্কগুলো এবং সংক্ষিপ্ত পাঠ্য বার্তাগুলি শেয়ার করে নেওয়ার ক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞ। ইনস্টাগ্রাম ও টিকটকের মতো অন্যরা ফটো এবং ভিডিওগুলো শেয়ার করে নেওয়ার জন্য এটি আদর্শ করছেন। ইন্টারনেট অ্যাক্সেস সহ যেকেউ সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্টে সাইন আপ করতে পারবেন। তারা তাদের পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো কনটেন্ট শেয়ার করার জন্য এই একাউন্ট ব্যবহার করতে পারে এবং তারা যে কনটেন্টটি শেয়ার করে তাদের সেই পৃষ্ঠা বা প্রোফাইলে যে কারো কাছে পৌঁছায়।

আরও পড়ুনঃ হ্যাকিং থেকে বাঁচার উপায় | হ্যাকিং থেকে বাঁচার ৭টি উপায়

সোশ্যাল মিডিয়া কাজ করে কিভাবে?

যেহেতু সোশ্যাল মিডিয়া সাইট বিভিন্ন ওয়েবসাইট এবং অ্যাপ্লিকেশনগুলোকে কভার করে, তাই এই সরঞ্জামগুলোর কার্যকারিতাও পরিবর্তিত হয়। তবে বেশিরভাগ সোশ্যাল মিডিয়া সাইটগুলো কোনো ইউজার প্রোফাইল তৈরি করে শুরু করে এবং সাধারণত একটি নাম ও ইমেল ঠিকানা সরবরাহ করে। প্রোফাইলটি তৈরি হয়ে গেলে ইউজাররা কনটেন্ট তৈরি এবং শেয়ার করতে পারেন। 

ধরুন, একটি নতুন অ্যাকাউন্টযুক্ত একটি ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারী একটি ছবি তুলতে এবং একটি ক্যাপশন দিয়ে তাদের প্রোফাইলে শেয়ার করতে পারেন। তাদের প্রোফাইলগুলোর জন্য কনটেন্ট তৈরি করার পাশাপাশি, সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীরা অন্যান্য ইউজারদের সন্ধান করতে পারেন যাদের বিষয়বস্তু তারা অনুসরণ করতে বা মন্তব্য করতে চায়। সোশ্যাল মিডিয়ার ধরণের উপরে নির্ভর করে কোনো ইউজার অন্য ইউজারকে অনুসরণ করতে পারে, তারা একে উপরের বন্ধু হিসেবে যুক্ত করতে পারে বা তারা অন্য ইউজারের পৃষ্ঠায় সাবস্ক্রাইব করতে পারে।

সোশ্যাল মিডিয়া কত প্রকার?

সোশ্যাল মিডিয়া সাইট বেশ কয়েক রকমের হয়ে থাকে। সোশ্যাল মিডিয়া গুলি বিভিন্ন ধরনের হয় এবং একেকটার ধরন একেক রকম হয়ে থাকে আর একেক সোশ্যাল মিডিয়া সাইটের আলাদা আলাদা পরিসেবা রয়েছে। আমি নিম্নে কয়েকটি সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইটের ধরণ উল্লেখ করেছি।

সোশ্যাল মিডিয়া বা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম

সামাজিক নেটওয়ার্কগুলো অন্যান্য ইউজারদের সঙ্গে চিন্তাভাবনা, ধারণা ও বিষয়বস্তু সংযোগস্থাপন এবং আদান-প্রদানের ক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞ হয় প্রায়শই পছন্দযুক্ত এবং আগ্রহী ইউজারদের সঙ্গে। সামাজিক নেটওয়ার্কগুলোর উদাহরণগুলো হচ্ছে ফেসবুক ও টুইটার।

আরও পড়ুনঃ স্মার্টফোন হ্যাক হওয়ার লক্ষণ ও করণীয়

মিডিয়া নেটওয়ার্ক

সামাজিক নেটওয়ার্কগুলোর বিপরীতে যা ইউজারদের চিন্তাধারা এবং ধারণাগুলো শেয়ার করে নিতে এবং বিনিময় করতে বিশেষভাবে মঞ্জুরি দেয়, মিডিয়া নেটওয়ার্কগুলো ফটোগ্রাফ ও ভিডিওগুলোর মতো সেবা বিতরণে বিশেষীকরণ করা। ইনস্টাগ্রাম ও ইউটিউব হচ্ছে মিডিয়া নেটওয়ার্কের উদাহরণ।

ডিসকাশন নেটওয়ার্ক

রেডডিটের মতো ডিসকাশন নেটওয়ার্কগুলো পোস্টগুলোর জন্য আদর্শ আউটলেট যা ইউজারদের মধ্যে গভীর আলোচনার দিকে পরিচালিত করতে পারে। ইউজারদের মন্তব্য বিভাগে বিশদ প্রতিক্রিয়া রাখতে পারেন ও অন্যান্য ইউজাররা সেই মন্তব্যে সরাসরি প্রতিক্রিয়া জানাতে পারবেন, কথোপকথোনটিকে জৈবিকভাবে বৃদ্ধি ও বিকাশ করতে দেয়। ওয়ার্ডপ্রেস এর মতো ব্লগিং সাইটগুলো ডিসকাশন নেটওয়ার্ক বিভাগে অন্তর্ভুক্ত করা যেতে পারে, যদিও কিছু তাদের নিজস্ব ধরনের সামাজিক মিডিয়া ব্লগিং সাইট বিবেচনা করবে।

পর্যালোচনা নেটওয়ার্ক

ইয়েলপ ও ট্রিপএডভাইজারের মতো পর্যালোচনা নেটওয়ার্কগুলো পণ্য ও পরিষেবাদির ইউজারদের পর্যালোচনায় সোশ্যাল মিডিয়ার দিকগুলো যুক্ত করে। ইউজাররা পর্যালোচনাগুলোর সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ করতে পাড়েন যেমন ব্যবসায়ের পর্যালোচনা হচ্ছে।

সেরা সোশ্যাল মিডিয়া সাইট 2021

অনেক রকমের সোশ্যাল মিডিয়া সাইট আছে। আজকের এই আর্টিকেলে আপনাদেরকে সেরা কয়েকটি সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইট সম্পর্কে বিস্তারিত বলবো। যদি আপনারা সেরা সোশ্যাল মিডিয়া সাইট গুলো সম্পর্কে জানতে চান তবে আমার এই আজকের আর্টিকেলটি প্রথম থেকে শুরু করে শেষ পর্যন্ত পড়ুন।

আরও পড়ুনঃ তথ্যের সুরক্ষা নিশ্চিতে ইমুর নতুন 'সিক্রেট চ্যাট' ফিচার

ফেসবুক | সোশ্যাল মিডিয়া সাইট

ফেসবুক সোশ্যাল মিডিইয়া সাইট যা সংক্ষেপে ফেসবুক নামেও পরিচিত একটি গ্লোবাল সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট, যেটি ফেব্রুয়ারী ৪, ২০০৪-এ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা হচ্ছে মার্ক জাকারবার্গ। এটি হচ্ছে একটি নিখরচায় মেম্বার হওয়া সম্ভব। এটি ফেসবুকইনক এর মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান। ইউজাররা বন্ধুদেরকে যুক্ত করতে, মেসেজ প্রেরণ করতে ও তাদের ব্যক্তিগত তথ্য আপডেট করতে এবং আদান-প্রদান করতে পারবেন, পাশাপাশি একজন ইউজার শহর, কর্মক্ষেত্র, স্কুল ও অঞ্চল ভিত্তিক নেটওয়ার্কগুলোতে যুক্ত করতে পারেন।

ফেসবুক পরিচালনার জন্য তারা পথে বেশ কয়েকটি বাধার মুখোমুখি হতে হয়েছে। বাংলাদেশ, সিরিয়া, চীন এবং ইরান সহ আরো বেশ কয়েকটি দেশে এটি আংশিক কার্যকর। সময় নষ্টের ব্যাখ্যা দিয়ে কর্মীদের নিরুৎসাহিত করে এর ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ফেসবুক ওয়েবসাইটটি জুকারবার্গের বন্ধুদের দ্বারা আইনটি বেশ কয়েকবার পড়তে হয়েছিল অভিযোগ করে যে, ফেসবুক তাদের সোর্স কোড ও অন্যান্য বৌদ্ধিক সম্পত্তি আত্মসাৎ করছে। ফেব্রুয়ারী ২০১৫ পর্যন্ত ফেসবুকের মূলধন ২১২ বিলিয়ন পৌঁছেছে। 

হোয়াটসঅ্যাপ | সামাজিক নেটওয়ার্কিং সাইট

হোয়াটসঅ্যাপ ম্যাসেঞ্জার হচ্ছে সর্বাধিক জনপ্রিয় মেসেজিং অ্যাপ ও ভয়েস ওভার ইন্টারনেট প্রোটোকল সেবা। এই অ্যাপ্লিকেশনটিতে প্রায় ২ বিলিয়ন ইউজার আছে, যা আজকের মতো অন্যান্য সকল অ্যাপের চেয়ে বেশি। হোয়াটসঅ্যাপে প্রতিষ্ঠাতা হচ্ছেন জ্যান কউম ও ব্রায়ান একটন। হোয়াটসঅ্যাপ প্রতিষ্ঠিত হয় ২০০৯ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি। ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত হোয়াটসঅ্যাপের বিশ্বের সর্বাধিক জনপ্রিয় ম্যাসেঞ্জার অ্যাপ হিসেবে ১০৫ বিলিয়নেরও বেশি সক্রিয় ইউজার রয়েছে। 

ইনস্টাগ্রাম | সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইট

ইনস্টাগ্রাম হচ্ছে ফেসবুক, টুইটার ও টাম্বলার এবং ফ্লিকারের মতো অনলাইনে ছবি এবং ভিডিও শেয়ার করার জন্য একটি অনলাইন মোবাইল ফটো শেয়ারিং, ভিডিও শেয়ারিং এবং সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সেবা। ছবি এবং ১৫ সেকেন্ডের ভিডিওগুলো ইনস্টাগ্রামের মাধ্যমে আপলোড করা যায়। প্রতিদিন ৩০০ মিলিয়ন এরও বেশি ইউজার ছবিগুলি শেয়ার করার জন্য ইনস্টাগ্রাম ব্যবহার করে। প্রতিদিন ৬০ মিলিয়ন স্টিল ও ভিডিওগুলো ইনস্টাগ্রামের মাধ্যমে ভাগ করা হয়। ইন্সটাগ্রামের প্রতিষ্ঠাতা কেভিন সাইস্ট্রম ও মাইক ক্রিঞ্জারন। ইনস্টাগ্রাম প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল ২০১০ সালের ৬ অক্টোবর সালে।

আরও পড়ুনঃ ফেসবুকে ফেক আইডি চেনার সহজ উপায়

টুইটার | সেরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম

টুইটার হচ্ছে একটি সামাজিক নেটওয়ার্কিং ও মাইক্রোব্লগিং ওয়েবসাইট, যেখানে ইউজাররা 280 টি অক্ষর পর্যন্ত লম্বা মেসেজ আদান-প্রদান প্রকাশ করতে পারেন। এই বার্তাগুলোকে বলা টুইট। টুইটারের প্রতিষ্ঠাতা হচ্ছেন জ্যাক ডোরসে ও নোয়া গ্লাস, বিয স্টোন এবং ইভান উইলিয়ামস। টুইটার প্রতিষ্ঠিত হয় ২০০৬ সালের ২১ মার্চ। টুইটার ২০০৬ সালের মার্চ মাসে চালু হয়েছিল। 

তবে ২০০৮ সালের জুলাই মাসে জ্যাক ডরসি আনুষ্ঠানিকভাবে টুইটার উদ্বোধন করেছিলেন। টুইটার বিশ্বজুড়ে খুব জনপ্রিয় এই সোশ্যাল সাইট। টুইটার বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। অক্টোবর ৩১, ২০১০ পর্যন্ত টুইটারের ১৭৫ মিলিয়ন মেম্বার ছিলো। অন্যান্য পরিসংখ্যান অনুযায়ী টুইটারে একই সময়ে ১৯০ মিলিয়ন মেম্বার ছিল, যার সঙ্গে দিনে ৭৫ মিলিয়ন টুইট ছিলো এবং ৮ মিলিয়ন সার্চ হয়েছিল। টুইটারকে ইন্টারনেটের SMS ডাব করা হয়েছে।

স্কাইপ | সেরা সোশ্যাল মিডিয়া সাইট

স্কাইপ হচ্ছে একটি ভিওআইপি সেবা এবং সফ্টওয়্যার অ্যাপ্লিকেশন। স্কাইপ এর প্রতিষ্ঠাতা হচ্ছেন প্রিত কাসিসেলু ও জন টালিন। স্কাইপ প্রতিষ্ঠিত হয় ২০০৩ সালের আগস্টে। এই পরিষেবাটি ইউজারদের ইন্টারনেটের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন ও ভয়েস, ভিডিও কল এবং তাত্ক্ষণিক বার্তাপ্রেরণের মাধ্যমে একে অপরের সঙ্গে যোগাযোগ করার অনুমতি প্রদান করে। একজন স্কাইপ ইউজার অন্য স্কাইপ ইউজারকে ফ্রিতে কল করতে পারবেন। ২০১১ সালে মাইক্রোসফ্ট কর্পোরেশন স্কাইপ ৫ বিলিয়নে স্কাইপ লিঃ কে কিনে নেয়। 

আরও পড়ুনঃ ফেসবুক আইডি নিরাপদ রাখার উপায়

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া