Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2021/03/Unsuccessful-people-6-habits-that-you-need-to-know.html

অসফল মানুষদের 6 টি অভ্যাস যা আপনার জানা দরকার

Habits can make you habits can break you। অর্থাৎ অভ্যাস হলো এমন একটি মূল্যবান সম্পদ যেটা আমাদের জীবনকে সুপ্রতিষ্ঠিত করতে পারে আবার আমাদের জীবনকে ধ্বংস করে দিতে পারে। বন্ধুরা আমরা বিভিন্ন ভিডিওতে বা পত্রপত্রিকাতে সফল মানুষদের অভ্যাসগুলো সম্পর্কে আলোচনা করতে দেখি। 

অসফল মানুষদের 6 টি অভ্যাস যা আপনার জানা দরকার

সে ক্ষেত্রে অসফল মানুষদের সফল না হওয়ার পিছনে কোন কোন অভ্যাস দায়ী থাকে তা নিয়ে আলোচনা হয় না। তাই আজ আমরা আলোচনা করব অসফল ব্যক্তিরা কোন ৬টি খারাপ অভ্যাস এর  জন্য সফলতা পান না তা নিয়ে। 

পেজ সূচিপত্রঃ

পোস্টটি আপনি পড়ছেন তার মানে আমি ধরে নিতে পারি আপনার মধ্যে সফল হওয়ার প্রবল ইচ্ছা রয়েছে। কিন্তু কোন অজানা কারণে আজও আপনি সফল হতে পারেননি। তো এই পোস্টটি শেষ পর্যন্ত পড়তে থাকুন আর চিহ্নিত করে থাকুন এই ৬ টি খারাপ অভ্যাস এর মধ্যে কোনটি আপনার মধ্যে আছে। এবং সেগুলো পরিবর্তন করে আপনি সফল হতে পারবেন। তো চলুন শুরু করা যাক। 

তারা কখনো কল্পনাও করেনি যে তারা ধনী হতে পারবে 

আসলে আমাদের মানসিকতা এমন হয় কারণ ছোটবেলা থেকেই আমাদের মাথার মধ্যে ঢুকিয়ে দেওয়া হয় বেশি টাকা-পয়সা ভালো নয়, বড় স্বপ্ন দেখা উচিত নয়, ক্ষমতা অনুযায়ী সপ্ন দেখা উচিত। আর এসব কারণেই আমাদের মধ্যে টাকা-পয়সা নিয়ে একটা নেগেটিভ আচরন তৈরি হয়ে যায়। তারা সারা জীবন টাকা পয়সার অভাবে খারাপ অবস্থার মধ্যে জীবন অতিবাহিত করে। তা সত্তেও টাকা কে খারাপ জিনিস ভাবে। 

আরও পড়ুনঃ মোবাইল দিয়ে অনলাইনে আয় করার সহজ উপায়

কি আজব এই দুনিয়া। এই মানুষগুলো সামান্য টাকার জন্য দিনে ১০ ঘন্টা কঠোর পরিশ্রম করবে। তা সত্তেও টাকাকে খারাপ বলবে। তারা বলবে বেশি থাকা ভালো নয় টাকা সমস্ত সমস্যার মূল কারণ। যদি আপনাকে কেউ এমন বলে যে বেশি টা ভালো নয় তাহলে তাকে জিজ্ঞাসা করবেন বিষয়টা যদি তাই হয় তাহলে সামান্য টাকার জন্য এত পরিশ্রম কেন করে। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত কেন চাকরি করে। যদি তাদের বাবা-মা বা সন্তানরা অসুস্থ হয় তাহলে কি সরকারি হসপিটালে ধাক্কা খেতে পছন্দ করবে নাকি সবচেয়ে ভালো জায়গা চিকিৎসা করবে।

এখন আপনি আমাকে প্রশ্ন করতে পারেন আপনার প্রধান ইন্ডিকেটর কি টাকা পয়সা উত্তর আমি বলব অবশ্যই না কিন্তু টাকাপয়সা। উত্তরে আমি আপনাকে ঐ সমস্ত জিনিস দিতে পারে যা আপনাকে সফলতা বিশেষভাবে সাহায্য করবে। 

Procrastination | প্রক্রাস্টিনেশন | ঢিলেমি করা

অধিকাংশ মানুষ বেশি বেশি বলেন যেমন আমি এটা করব আমি ওটা করব আমি এটা পারি ওটা পারি। কিন্তু তারা বাস্তবে ওটা করেন না শুধুমাত্র ভাবতে থাকেন।প্রক্রাস্টিনেট করতে থাকেন একচুয়ালি ওটা নিয়ে তারা কোন প্ল্যান করে না বা কোন সিদ্ধান্ত নেয় না। ব্যাস শুধুমাত্র ফাঁকা বকতে থাকেন। তো শুধুমাত্র চিন্তা করলে হবে না মুখে বললেও কোনো লাভ হবে না আসলে ওটা আপনাকে করতে হবে। আবার শুধুমাত্র প্ল্যান থাকলেও কোনো লাভ হবে না ওঠা আপনাকে এক্সিউট করতে হবে বাস্তবে রূপ দিতে হবে। 

আরও পড়ুনঃ WIFI পাসওয়ার্ড বের করার উপায় জেনে নিন

একটা সময় ছিল যখন আমি অনেক কিছু ভাবতাম এবং শুধুই ভাবতাম। ভাবতাম একদিন অনেক কিছু করব কিন্তু শুরু করা হয়ে উঠত না নানা কারণে ঢিলেমি করতাম দেখতাম খেলতাম অথবা অযথা সময় নষ্ট করতাম। ভাবতাম একদিন আপনা টাইম আয়েগা। কিন্তু সেই টাইমটা আসছিল না। যাই হোক একদিন এসব ভাবতে ভাবতেই দু'বছর আগে ব্লগিং শুরু করি। আর আজ প্রতিদিন সেখান থেকে অনেক কিছু পাচ্ছি। 

এখানে আমি আপনাকে যেটা বলতে চেয়েছি তাহলে শুধুমাত্র ভাবতে থাকলে হবেনা শুরু করতে হবে। আর শুরু করলেই বিভিন্ন রাস্তার সামনে খুলে যাবে। তাই আপনার কাছে ছোট্ট একটি অনুরোধ আর ঢিলেমি নয় এবার শুরু করুন। 

কোন কিছু তারা শেখা বন্ধ করে দেয়

যদি তাদের কেউ নতুন কিছু বলে তাহলে তারা এমন ভাবে তাকায় এমন অ্যাটিটিউড নিয়ে থাকে মনে হয় সে সব জানে। তারা মনে করে কোন কিছু না জানা মহাপাপ। এতে তাদের মিছে স্মার্টনেস নষ্ট হবে কিন্তু বন্ধুরা এমনটা নয়। একটা মানুষের পক্ষে সমস্ত ধরনের জ্ঞান থাকা সম্ভব নয়। আমরা অনেকেই মনে করি আমি অনেক পড়াশোনা করেছি আমার অনেক বড় ডিগ্রি আছে আমি সব জানি কিন্তু সময় পরিবর্তনের সাথে সাথে আমাদের নিজেদের আপডেট করা প্রয়োজন। নিত্যনতুন জ্ঞানে সমৃদ্ধ হওয়া প্রয়োজন। 

আরও পড়ুনঃ অনলাইন থেকে আয় করার সহজ উপায়

খোজ নিলে জানতে পারবেন বিল গেটস, ওয়ারেন বাফেট তারা এখনও প্রতিদিন বই পড়েন নিজেকে আপডেট রাখার জন্য। সুতরাং সবার জন্য শেখা বন্ধ করলে চলবে না। 

অতিরিক্ত টিভি দেখা

চতুর্থ অভ্যাস যেটা আপনাকে কখনো সফল হতে দেবে না তাহলো টিভি দেখা। আপনি যেকোন সকল ব্যক্তিকে দেখুন তারা কখনো অজথা টিভির সামনে বসে থাকেন না। বরং তারা নতুন কিছু করার জন্য লেগে থাকে অথবা নতুন কিছু শিখতে থাকে। সফল ব্যক্তিরা যদি টিভি দেখেন তাহলে তাদের টার্গেট ফিক্সড হয় নির্দিষ্ট কোন সিনেমা বা নির্দিষ্ট খবর অথবা কাজের সঙ্গে সম্পর্কিত কোন বিষয়ে দেখেন।এবং তারপর টিভি বন্ধ করে দেন। 

কিন্তু অসফল ব্যক্তিরা যাতে কাজ করতে না হয় তার জন্য টিভি দেখে। টিভি দেখার জন্য তারা বাহানা করে বলে সারাদিন অফিস করে আমি ক্লান্ত। অথবা একটানা ৪ দিন কাজ করে আর ভালো লাগছে না আজ টিভি দেখব অথবা কোন কাজ নেই, নেই পড়াশুনা তাি আজ সারাদিন কমেডি দেখব। এই বাহানা করে ঘন্টার পর ঘন্টা কোথা দিয়ে চলে যায় তারা টেরও পায়না। তাই আজ থেকে অজথা টিভি দেখা বন্ধ করে নিজের প্রয়োজনে নিজেকে ইম্প্রুভ করার জন্য টিভি দেখুন। 

আরও পড়ুনঃ ল্যাপটপের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় জেনে নিন

সঠিক খাবার না খাওয়া

সঠিক খাবার না খাওয়া আপনার অসফলতার একটি কারন হতে পারে। যদি আপনি খাবার হিসেবে ফাস্ট ফুড, জাঙ্ক ফুড খান বা এমন কোন খাবার খান যেটা আপনাকে মোটা করে অলস বানায় তাহলে আপনি সমস্ত সময় ওই গুলো নিয়ে পড়ে থাকবেন। অলসতা কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করতে থাকবেন। 

তারপর যদি আপনার হাতে সময় থাকে তাহলে আপনি সফল হওয়ার চেষ্টা করতে থাকবেন। না হলে বিছানায় শুয়ে নিজের রোগ সারানোর উপায় খুঁজতে লাগবেন। আর না হয় এর বেশি কিছু করতে পারবেন না। আপনি যে কোন সফল ব্যক্তিকে দেখুন তারা সবসময় খাওয়া-দাওয়ার প্রতি বিশেষ নজর দেন। তারা সর্বদা এমন খাবার খান যেটা তাদেরকে এনার্জি ঠিক রাখে হেলথি রাখে।

তাই দিনের বেশিরভাগ সময় এনার্জি ঠিক থাকার জন্য কোয়ালিটি টাইম কাটানোর জন্য ফাস্টফুড, জাংক ফুড ত্যাগ করতে হবে। খাদ্যের সাথে সম্পর্কিত আর একটি খারাপ অভ্যাস যেটা হল অসফল মানুষদের মধ্যে বর্তমান তা হলো শরীরচর্চা না করা। তাই এখানে আমি বিস্তারিত আলোচনা যাচ্ছিনা কারণ আমরা সবাই জানি শরীরচর্চা আমাদের ভালো স্বাস্থ্যের জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ। তাই হেলথি খাদ্যভাস সাথে সাথে শরীর চর্চা শুরু করুন। 

আরও পড়ুনঃ অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়ম

একটানা কোন কাজ না করা

তারা কোনো কাজ করে না। সফল এবং সফল ব্যক্তিদের মধ্যে এটা একটা বড় পার্থক্য। সফল ব্যক্তিরা একটানা চেষ্টা করতে থাকে তারা কোন কাজ ছেড়ে দেয় না। উহদারন হিসেবে বলা যায় তাদের একদিন হঠাৎ মনে হল ভুড়িটা অনেক বড় হয়ে গেছে এবার সকালে দৌড়ানোর দরকার শরীরচর্চা করা দরকার। পরদিন থেকে দৌড় শুরু করলেন কিন্তু তাদের মধ্যে বেশিরভাগ মানুষ দশ বারো দিন পর দৌড়ানো ছেড়ে আগের পুরোনো রুটিনে ফিরে আসেন। 

আবার অনেক এই শুরু করেন স্বাস্থ্যসম্মত খাবার খেতে শুরু করেন কিন্তু সেটা বেশিদিন ধরে রাখতে পারেন না। পুনরায় জাঙ্কফুড খাওয়া শুরু করে দেন তাদের এই মাঝপথে হাত ছেড়ে দেওয়ার প্রতিটা ক্ষেত্রেই প্রতিফলিত হয়। সেটা টাকা পয়সা সেভিংস করা হোক বা কোন নতুন কাজ শুরু করার ক্ষেত্রে। প্রথম কিছুদিন চূড়ান্ত আগ্রহ সহকারে কাজ করতে থাকে তারপর কোথায় যে সমস্ত উৎসাহ ফুস করে উপরে উড়ে যায় তা কেউ বলতে পারে না। 

আরও পড়ুনঃ ল্যাপটপ ও ডেক্সটপ টিপস | কিভাবে ল্যাপটপ এর যত্ন নিবেন

তো বন্ধুরা এই ছিল 6 টি অভ্যাস যা আমাদের সফল হতে দেয় না। এর মধ্যে কোন কোন বিষয়টি আপনার মধ্যে বর্তমান রয়েছে তা কমেন্ট করে আমাকে জানান। আর প্রতিজ্ঞা করুন আজ থেকে ওই অভ্যাসটি ত্যাগ করে জীবনে সফল হওয়ার জন্য অগ্রসর হবেন।আর এই পোস্টটি উপকারী মনে হলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া