Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2020/12/How-to-increase-laptop-battery-life.html

ল্যাপটপের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় জেনে নিন

বর্তমান সময়ে ইন্টারনেট ও ল্যাপটপ, কম্পিটার মানুষের জীবনের সাথে ওতপ্রোতভাবে মিশে গেছে। এই ইন্টারনেট ও ল্যাপটপ ছাড়া যেন আজকাল কোনো কাজ করা সম্ভব না। আমরা এখন পৃথিবীর যেকোনো যায়গা থেকে অন্যজনের সাথে যোগাযোগ করতে পারি খুবই সহজে এবং কাজের জন্য ল্যাপটপ ব্যবহার করে থাকি। 
ল্যাপটপের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায় জেনে নিন

কিন্তু অনেক ল্যাপটপ ব্যবহারকারীর চিন্তা যে ল্যাপটপে কিভাবে চার্জ দিতে হয় ল্যাপটপে কিভাবে কোনো প্রক্রিয়া ল্যাপটপ চার্জ করলে কতক্ষণ চার্জ থাকবে এই নিয়ে চিন্তায় থাকতে হয় ল্যাপটপ ইউজারদের। ল্যাপটপ এর চার্জ যেন শেষ না হয়ে যায় এই জন্য অনেক এই সব সময় ল্যাপটপ এর চার্জার লাগিয়ে রাখেন। ল্যাপটপের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায়।

অনেকের কমন প্রশ্ন, ল্যাপটপের ব্যাটারি কি সবসময় চার্জে লাগিয়ে চালানো উচিত? বা লাপটপের চার্জার প্লাগিন না লাগিয়ে ল্যাপটপ চালানো উচিত? এই দুটির প্রক্রিয়ার মধ্যে আপনার ল্যাপটপ এর জন্য কোনটি প্রক্রিয়া ভালো? আমাদের আর্টিকেলে এই বিষয়টি তুলে ধরবো চলুন তাহলে দেখে নেই; 

ব্যাটারি অভার চার্জ করা

আগের আমলের পুরাতন ইলেকট্রনিক ডিভাইস কথা, যখন ব্যাটারি বেশি চার্জ বা ওভার চার্জ নিয়ে অনেক বেশি পরিমান চিন্তায় থাকতে হতো। কিন্ত বর্তমান সময়ে এই চিন্তা বা ভয় অনেক মাঝে কাজ করে থাকে। তবে আমি আপনাকে এই বিষয়ে নিশ্চিতভাবে বলতে পারি যে, আপনার মোবাইল ফোন, ল্যাপটপ বা অন্য প্রোটেবল ডিভাইস গুলিতে এখন ওভার চার্জিং সার্কিট লাগানো থাকে যার ফলে সেসব ব্যাটারি ওভার চার্জ হবার কোনো কথা আছে না। ল্যাপটপের ব্যাটারি চার্জের নিয়ম। 

আপনাকে এটি অবশ্যই মনে রাখতে হবে "লিথিয়াম পলিমার এবং লিথিয়াম আয়ন" এই টেকনোলজির ব্যাটারি গুলি আপনার ল্যাপটপ বা অন্য ডিভাইসে থাকুক না কেন, অবশ্যই এই ব্যাটারি গুলি অনেক ভালোমানের হয়ে হয়ে থাকে তাই এগুলি ওভার চার্জ হবার কোনো প্রশ্ন আছে না। যখন আপনার ল্যাপটপে চার্জার লাগানো থাকবে তখন স্বয়ংক্রিয়ভাবে ১০০% চার্জ হয়ে যাবে আর তখন চার্জার নিজে নিজে বন্ধ হয়ে যাবে। এরপর ১০০% চার্জ বা ল্যাপটপের ব্যাটারির উপর চলতে থাকবে। 

আবার যখন ল্যাপটপের চার্জ কমতে থাকবে তখন আবার স্বয়ংক্রিয়ভাবে চার্জ হতে থাকবে ল্যাপটপে।ল্যাপটপ কত ঘন্টা চার্জ দিতে হয়। আবার অনেক ল্যাপটপ এর দেখা গেছে যখন চার্জার লাগানো অবস্থায় যখন ১০০% চার্জ হয়েছে তখন ল্যাপটপ এর ব্যাটারি থেকে চার্জ না নিয়ে ছড়াছড়ি চার্জার থেকে পাওয়ার নিয়ে ল্যাপটপ রান হতে থাকে। অনেক ল্যাপটপ আছে যেগুলি অন-লাইন-ইউপিএস এর মতো ব্যবহার হয়ে থাকে। ল্যাপটপের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায়। ল্যাপটপ চালানোর নিয়ম। 

আরও পড়ুনঃ ব্লগারে ভিজিটর বাড়ানোর উপায়

ব্যাটারি ডেড 

আমরা এখন যে বিষয়টি আপনাকে বলবো তা আপনাকে অবশ্যই মনে রাখতে হবে বা এই সত্য অবশ্যই আপনাকে মেনে নিতে হবে। আপনার ল্যাপটপ যত দামি হোক না কেন তা সময়ের পরিবর্তনে আপনার ল্যাপটপ এর ব্যাটারি এর পারফরমান্স দিন দিন কমতে থাকে। এই এই প্রক্রিয়া থেকে আপনি আপনার ল্যাপটপ এর ব্যাটারিকে কোনো ভাবেই বাচাতে পারবেন না। এখন কথা হলো এখন এটি আপনি কিভাবে রোধ করবেন। আপনি যদি আমাদের দেয়া এসব সঠিক নিয়ম প্রয়োগ করে থাকেন তাহলে আপনি আপনার ল্যাপটপ এর ব্যাটারি ডেড হওয়ার প্রসেস টা স্লো হয়ে যাবে। তবুও কিন্ত নিয়ম অনুযায়ী ব্যাটারি ডেড হতে থাকবে। ল্যাপটপের ব্যাটারি ভালো রাখার উপায়। 

আপনার ব্যাটারি এর চার্জার এর ধারনক্ষমতা ধীরে ধিরে কমতে থাকবে। যদি আপনার ল্যাপটপ এর বয়স ৬ মাস থেকে ১ বছর হয়ে থাকে তাহলে এই বিষয়ে খেয়াল করে দেখবেন যে আপনার ল্যাপটপ এর ব্যাটারি ব্যাকআপ আর আগের মতো নেই। তবে ল্যাপটপ এর ব্যাটারি আলাদা আলাদা ব্রান্ড হিসেবে ব্যাটারি এর পারফরমান্স খারাপ হতে থাকে। একটি ল্যাপটপ এর ব্যাটারি ৫০০ রিসার্চ সাইকেলে ব্যাটারি পারফরমান্স কমতে থাকে।

১ রিসার্চ সাইকেল বলতে বোঝায়, ব্যাটারি ১০০% থেকে ০ তে নামিয়ে নিয়ে আসা এবং আবার নতুন করে ০ থেকে ১০০% চার্জ করা। আপনি যদি এই প্রক্রিয়া ব্যবহার করেন আর তা যদি ৫০০ বার হয় সেক্ষেত্রে আপনার ব্যাটারি ৫০০ বার পর্যন্ত ভালো থাকতে পারে। তারপর নিয়ম অনুযায়ী পারফরমান্স কমতে থাকবে।

আরও পড়ুনঃ মোবাইল স্লো হলে কি করবেন? ফাস্ট করার উপায় জেনে নিন

এখন আপনার মনে হয়তো প্রশ্ন আসতে পারে যে, তাহলে আমি আমার ল্যাপটপ এর ব্যাটারি ডিস-চার্জ করবো না। এমন কাজ কখন করা যাবে না। ব্যাটারি সব সময় বেশি চার্জে রাখা যাবে না আর এটি আপনার ল্যাপটপ বা মোবাইল এর এর জন্য ক্ষতিকর। আবার যদি আপনি ফুল চার্জ করতে চান সেক্ষেত্রে আপনার ডিভাইস এর ব্যাটারি অনেক উত্তপ্ত হয়ে যায় যার ফলাফল ল্যাপটপ এর ব্যাটারি আয়ু কমতে থাকে। ব্যাটারি সব সময় ১৫% থেকে ৮০ অথবা ৮৫% করে চার্জ করা উচিত। তাহলে ব্যাটারি অনেক ভালো থাকেব। ১০ হাজার টাকার মধ্যে কম্পিউটার। 

ব্যাটারি চার্জ করার সময় দেখতে হবে যে আপনার ল্যাপটপটি বেশি পরিমান গরম হচ্ছে কিনা। যদি ল্যাপটপ গরম হয়ে যায় তাহলে আমি আপনাকে সাজেস্ট করবো আপনার ল্যাপটপ এর সুবিধার জন্য আপনাকে বাজার থেকে একটি কুলার ফ্যান নিতে। কেননা আজকাল যে ল্যাপটপ গুলি তৈরি হচ্ছে তা আগের থেকে অনেক স্লিম হয়ে যাচ্ছে যার ফলে লাপটপে কুলিং ফ্যান থাকা চ্যালেঞ্জ এর সম্মুখীন। আপনি যদি একটি কুলার কিনে নেন তাহলে অনেকটা গরম থেকে আপনার ল্যাপটপ ভালো থাকবে।

একটি কুলার ব্যবহার করার ফলে আপনার ল্যাপটপ ঠান্ডা রাখতে পারবেন যার ফলে আপনি ল্যাপটপ থেকে ভালো পারফরমান্স পেয়ে যাবেন এবং ব্যাটারি এর লাইফটাইম বৃদ্ধি পাবে। 

যদি আপনার ল্যাপটপ বেশি পরিমান গরম হয়ে যায় তাহলে যদি সম্ভব হয় তাহলে ল্যাপটপ এর ব্যাটারি খেলে ফেলুন। আর চার্জার লাগিয়ে চালানো চেষ্টা করুন। আপনি যদি চান আপনার ল্যাপটপ এর ব্যাটারি অনেক ভালো রাখবেন তাহলে ল্যাপটপকে অনেক বেশি গরম যায়গা থেকে ঠান্ডা যায়গা রাখার চেষ্টা করবেন। যদিও বর্তমান সময়ের ল্যাপটপ গুলির ব্যাটারি আপনি এখন খুলতে পারবেন না তাই আপনি সেক্ষেত্রে একটি কুলার ব্যবহার করবেন।

আরও পড়ুনঃ এসএসডি SSD কার্ড কি? এসএসডি SSD কার্ড এর সুবিধা কি কি 

ল্যাপটপ চালু করার নিয়ম | ল্যাপটপ ভালো রাখার উপায়

আপনার ল্যাপটপটি যদি অনেক দিন ব্যবহার করতে চান তাহলে ল্যাপটপটি খুব আসতে আসতে খুলুন এবং বন্ধ করুন। ল্যাপটপ তোলার সময় কখন ল্যাপটপ এর ডিসপ্লে ধরে তুলবেন না। কারণ ল্যাপটপ এর ডিসপ্লে যায়গা খুব দুর্বল। তাই আপনি ল্যাপটপ তোলার জন্য সবসময় মাঝখান ধরে তুলবেন। 

আরও পড়ুনঃ টিভি ও মনিটর এর মধ্যে পার্থক্য জেনে নিন

ল্যাপটপ চার্জার আন-প্লাগ করুন ধীরে ধীরে

আমরা ল্যাপটপ চার্জের ক্ষেত্রে তেমন গুরুপ্ত দেই না। অনেক ব্যাস্ততার কারনে আমরা ল্যাপটপ এর চার্জার প্লাগিন তাড়াহুড়া করে খুলে থাকি যার ফলে প্লাগিন এর সমস্যা হতে পারে। এমনকি এর ফলে ল্যাপটপ এর চার্জিং এর ক্ষতি হতে পারে। 

বিদ্যুৎ সংযোগ খোলা ও বন্ধ করা

১. ল্যাপটপ চালু রাখা অবস্থায় ল্যাপটপ এর চার্জার এর সাথে কারেন্টের সুইচ অন-অফ করা যাবে না। আপনার ল্যাপটপটি যখন বন্ধ থাকবে সেই সময় কারেন্টের সাথে সংযোগ প্রদান করতে হবে। 

২. বিদ্যুৎ সংযোগ চালু রাখা অবস্থায় চার্জার লাগানোর চেষ্টা করবেন না আবার হঠাৎ করে চার্জার অ্যাডাপ্টার খুলবেন না। বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ করে করে এসব কাজ করতে হবে। 

৩. বিদ্যুৎ এর পাওয়ার সকেট থেকে আপনার প্লাগিন টি টান দিয়ে খোলার চেষ্টা করবেন না এতে আপনার সকেটটি ভেঙ্গে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকবে। 

আরও পড়ুনঃ অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়ম দেখে নিন 

তাপমাত্রা পরিবর্তন করা 

১. হঠাৎ করে গরম উষ্ণ স্থান থেকে ঠান্ডা স্থান থেকে ল্যাপটপ স্থানাতর করা যাবে না আবার শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত স্থান থেকে উষ্ণ স্থানে ল্যাপটপ ডিভাইস কে নিয়ে যাওয়া যাবে না। আপনি যদি অভ্যাস বিছানা, বালিস কুশন টেবিল হিসেবে ল্যাপটপ ব্যবহার করে থাকেন তাহলে আপনার জন্য তা বিপদজনক। এর কারন হচ্ছে ল্যাপটপ এইভাবে চালানোর সময় ল্যাপটপ এর বাতাস চলাচল বন্ধ হয়ে থাকে যার ফলে আপনার ল্যাপটপ এর ব্যাটারি গরম হতে থাকে ফলে আপনার ব্যাটারি গরম হতে থাকে। আর এই কারনে ল্যাপটপ এর ক্ষতি হয়ে থাকে। 

২. ল্যাপটপ এমন যায়গায় রাখবেন না যেখানে তাপমাত্রা উঠানামা করে। আবার শীতকালে ল্যাপটপ এক রুম থেকে অন্য রুমে নিয়ে গিয়ে সাথে সাথে ল্যাপটপ চালু করবেন না। আপনি যে রুমে ল্যাপটপ নিয়ে যাবেন সেই রুম এর সঙ্গে ল্যাপটপ এর তাপমত্রা মানিয়ে নিন তারপর ল্যাপটপ চালু করুন। আর হ্যা সূর্যের আলোতে বেশি গরমে ল্যাপটপ কখনও চালু করবেন না।

৩. ল্যাপটপ সব সময় এমন যায়গায় রাখবেন যেখানে বাতাস চলাচল করে এবং যেখানে রাখলে ল্যাপটপ গরম হওয়ার আশঙ্কা থাকে না। তবে হ্যা এর মানে এই না যে আপনি সব সময় শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত স্থান থেকে ল্যাপটপ চালাবেন। 

৪. সূর্যের আলোতে ল্যাপটপ ব্যবহার করবেন না। কারন এর ফলে আপনার ল্যাপটপ গরম হয়ে যেতে পারে এর ফলে ল্যাপটপ এর যেকোনো ক্ষতি হতে পারে। 

আরও পড়ুনঃ এনআইডি NID কার্ড ডাউনলোড করার নিয়ম 

ল্যাপটপের প্রসেসর এর যত্ন নিন 

১. ল্যাপটপ এর প্রসেসর এর চাপ কমাতে অপ্রয়োজনীয় প্রোগ্রাম ব্যবহার বন্ধ রাখুন 

২. অতিরিক্ত পরিমান উইন্ডো চালু না করা 

৩. হার্ডডিস্ক ডিফ্রাগমেন্ট করুন মাসে ১-২ বার 

চুম্বকীয় পদার্থ থেকে ল্যাপটপ দূরে রাখা 

হার্ড ডিস্ক ড্রাইভ চুম্বকীয় পদার্থ ব্যবহার করে ডাটা সংরক্ষণ করে থাকে। আর এর ফলে যদি কোনো রকম শক্তিশালী চুম্বক ডেস্কটপ এর পাশে ব্যবহার করা হয় সেক্ষেত্রে হার্ড ডিস্ক এর কার্যক্ষমতা কমে যেতে পারে এমনকি আপনার প্রয়োজনীয় ডাটা হারিয়ে যেতে পারে। আর এই জন্য আপনার সুরক্ষার জন্য যেকোনো চুম্বক থেকে আপনার ল্যাপটপকে দূরে রাখতে হবে।

ল্যাপট বন্ধ করে রাখা

আপনি যখন ল্যাপটপ ব্যবহার করেন না তখন আপনার উচিত ল্যাপটপটি বন্ধ করে রাখা। কারন অতিরিক্ত সময় ল্যাপটপ এর চালু করা থাকলে হার্ড ডিস্ক ড্রাইভ এবং কুলিং ফ্যান ধীরে ধীরে নস্ট বা ড্যামেজ হতে থাকে। 

আরও পড়ুনঃ ল্যাপটপ ডেক্সটপ টিপস জেনে নিন

তো আপনি ল্যাপটপ চার্জার লাগিয়ে লাপটপ ব্যবহার করবেন নাকি চার্জার খুলে ব্যবহার করবেন

প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞদের মতামত অনুযায়ী ল্যাপটপ সব সময় চার্জে লাগিয়ে চালানো উচিত না। আপনার ল্যাপটপ এর আয়ু দীর্ঘ মেয়াদি করার জন্য ল্যাপটপ সব সময় চার্জে লাগিয়ে চালানো এখনি বন্ধ করুন।কেননা এই পদ্ধতি অবলম্বন করার ফলে ল্যাপটপ এর ব্যাটারি চার্জ খুব তারাতারি শেষ হয়ে যায়।

ল্যাপটপ এর লিথিয়াম পলিমার এবং লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি সম্পূর্ণ চার্জ হইলে আপনি অবশ্যই ল্যাপটপের চার্জার খুলে রাখবেন। অথবা আপনি পারলে ল্যাপটপ ১০০% পূর্ণ হওয়ার আগে চার্জার খুলে রাখুন। বিশেষজ্ঞদের মতে ব্যাটারি চার্জ ৮০% করা উত্তম। আপনি যদি ৮০% এর থেকে ৪০% খরচ করে আবার ৪০% থেকে নতুন ভাবে চার্জ করেন সেক্ষেত্রে আপনার ল্যাপটপ আরও ভালো থাকবে। 

আরও পড়ুনঃ সেরা পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট দেখে নিন

ব্যাটারির চার্জ করার নিয়ম যদি আপনি সঠিক ভাবে ব্যাটারি চার্জ করা এবং ব্যাটারি খালি করতে পারেন নিয়মিত তাহলে আপনি আপনার ব্যাটারির আয়ু বাড়িয়ে নিতে পারবেন। আপনি যদি ব্যাটারি সম্পূর্ণ চার্জ করে থাকেন। তাহলে চার্জ শেষ করতে সময় লাগে এবং বেশি পরিমান চার্জ করার ফলে ব্যাটারি কোষ গুলি দিন দিন ধারন ক্ষমতা কমতে থাকে। বেশি পরিমান চার্জ করার ফলে ব্যাটারি গরম হয়ে যায় এবং ব্যাটারি ফুলে যায় যার ফলে আর ব্যবহার করা যায় না। তাই বিশেষজ্ঞদের মতে, ল্যাপটপ এর ব্যাটারি ৪০% নিচে আসলে চার্জার লাগানো যেতে পারে এবং ৮০% হইলে চার্জার খুলে রাখা যেতে পারে।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া