Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2020/12/NID-card-online-copy-download.html

এনআইডি কার্ড NID Card ডাউনলোড করার নিয়ম

অনলাইনে এন আইডি কার্ড বা ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড, চেক করা এবং এবং আপনার অনলাইন কপি কিভাবে সংগ্রহ করবেন তা দেখে নিন। এন আইডি কার্ড ডাউনলোড বা ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার সম্পূর্ণ ২০২০ সালের নতুন নিয়ম। আমরা আজকের আর্টিকেলে ভোটার আইডি কার্ড চেক, এন আইডি কার্ড সফট কপি NID Card Soft Copy কিভাবে ডাউনলোড করবেন তা সম্পূর্ণ তুলে ধরবো আপনার সামনে।

আর আপনি এই NID Card দিয়ে যে সকল কাজ করতে পারবেন যেমন; সিম রেজিস্ট্রেশন বা সিম কার্ড তোলা সহ বিকাশ , নগদ, ডাচ-বাংলা ব্যাংকিং সহ সকল ধরনের কাজ করতে পারবেন। এনআইডি কার্ড ডাউনলোড। নতুন এন আই ডি করার নিয়ম। 

এন আইডি কার্ড চেক করবেন বা ডাউনলোড করবেন যেভাবে ঃNID Card Check, NID Card Correction, NID Card Download, nidw.gov.bd, NID Card Online Copy pdf download, NID Card Online copy Download, NID Card Registration। তো আর বেশি কথা না বাড়িয়ে চলুন দেখে নেয়া যাক আপনি কিভাবে আপনার প্রয়োজনে অনলাইন কপি ডাউনলোড বা Soft Copy NID Card ডাউনলোড করে নিবেন।nid card pdf file download। অনলাইন থেকে আপনার আইডি কার্ড সংগ্রহ করুন 

আমরা আজকের এই আর্টিকেল সংক্ষেপে অনলাইন এন আইডি কার্ড ডাউনলোড করার সহজ উপায় জানিয়ে দিবো আপনাকে। এই পদ্ধতি ব্যবহার করার ফলে আপনি খুব অল্প সময়ে আপনার বা ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। তবে হা আপনার মনে অবশ্যই এই প্রশ্ন আস্তে পারে যে এন আই ডি কিভাবে পাবো? 

অনেক এই আছেন জারা ভোটার হওয়ার জন্য দেশের নাগরিক হওয়ার জন্য ছবি উঠেছেন। কিন্ত তারা তাদের ভোটার কার্ড পাননি তবে এর ভোটার এর জন্য স্লিপ নম্বর পেয়েছেন আর আপনি এই স্লিপ নম্বর ব্যবহার করে আপনার কার্ডটি অনলাইন থেকে তুলতে পারবেন। ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার নিয়ম। nid cad

ভোটার আইডি কার্ড রেজিস্ট্রেশন করতে যা যা লাগে

আপনি যদি NID card এর জন্য আবেদন করে থাকেন বা ছবি তুলে থাকেন আর এখনও পর্যন্ত কোন কপি বা ভোটার কার্ড এর কপি পাননি। আর সেই সময় আপনাকে যে ভোটার কার্ড এর নম্বর এবং স্লিপ নম্বর দিয়ে আপনি আপনার NID Card তুলতে পারবেন। আর আপনি এই স্লিপ নম্বর দিয়ে আপনার NID CARD এর ফটোকপি PDF file আকারে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। আর সেটি আপনার বিভিন্ন প্রয়োজনে ব্যবহার করতে পারবেন। 

ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড 

আপনার কাছে যদি ভোটার আইডি কার্ড এর স্লিপ নম্বর থাকে বা ভোটার এর জন্য ছবি তুলে থাকেন তাহলে আপনি এই প্রথম ধাপ থেকেই কাজটি করা শুরু করুন। এই কাজটি করার জন্য আপনি আপনার ডেক্সটপ ব্যবহার করুন। আপনি চাইলে এটি মোবাইল এর মাধ্যমে করতে পারবেন এর জন্য আপনাকে মোবাইল এর ব্রাউজার কে ডেস্কটপ মুডে নিতে হবে। এর পর আপনাকে ব্রাউজার এর গিয়ে এই NID CARD DOWNLOAD WEBSITE লিঙ্কে গিয়ে আপনার ভোটার আইডি কার্ড এর স্লিপ নম্বর, ক্যাপচা এবং আপনার জন্ম তারিখ সঠিক ভাবে পুরন করে আপনার কাঙ্খিত ভোটার আইডি কার্ড এর নাম্বার সংগ্রহ করুন। 

তবে এই কাজটি করার ক্ষেত্রে যদি কোন সমস্যা হয় যেমন আপনার স্লিপ নম্বর দিয়ে আপনি আপনার NID Card টি খুজে পাচ্ছেন না। তাহলে কোন চিন্তার কারন নেই কারন এটি অনেক সময় সার্ভার এর কারনে হয়ে থাকে। nid card pdf download। 
মেসেজ এর মাধ্যমে এন আইডি কার্ড (NID)যাচাই 
আপনি এসব পদ্ধতি ব্যবহার না করেও আপনি চাইলে নিমিষেই মোবাইল ফোন এর মেসেজ এর মাধ্যমে আপনার এন আইডি নম্বর জেনে নিতে পারবেন। এর জন্য আপনাকে যা করতে হবে ; মোবাইল ফোন এর মেসেজ অপশনে গিয়ে টাইপ করতে হবে NID< >From Number< > BirthDay লিখে ১০৫ এই নাম্বারে মেসেজটি পাঠিয়ে দিতে হবে। 

এর কিছুক্ষন পর আপনি একটি মেসেজ পেয়ে জাবেন যেখানে আপনার এন আইডি নম্বরটি দেয়া থাকবে। এই সামান্য পদ্ধতি ব্যবহার করার ফলে আপনি আপনার এন আইডি কার্ড এর নাম্বার পেয়ে যাবেন। এন আইডি কার্ড এর সার্ভিস এর জন্য আপনি সকাল ৯ টা থেকে ৫ টা পর্যন্ত ১০৫ নাম্বারে সার্ভিস পেয়ে জাবেন। ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার নিয়ম। 

মেসেজ টাইপঃ nid 124535 10/20/1993

কারা কারা ভোটার আইডি কার এর জন্য রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন
  • অনেক এই আছেন যারা ভোটার আইডি কার্ড পেয়েছেন কিন্তু চাছেন যে আপনার একটি ডুপ্লিকেট আইডি কার্ড দরকার তাহলে আপনি ডুপ্লিকেট এন আইডি কার্ড এর জন্য আবেদন করতে পারবেন। আর অনেক এই আছেন যারা ভোটার এর জন্য নিবন্ধন করেছেন কিন্তু জাতীয় পরিচয় পত্র পান নি আর সেখান থেকে আপনাকে একটি স্লিপ আপনাকে দেয়া হয়েছিলো আপনি সেই স্লিপ কোড ব্যবহার করে অনলাইন থেকে কার্ড নেয়ার জন্য রেজিস্ট্রেশান করতে পারবেন।
রেজিস্ট্রেশান করার জন্য যেসকল ধাপ আপনাকে অনুসরন করতে হবে 
  • আপনার সকল প্রয়োজনীয় তথ্য নিয়ে নিবন্ধন প্রকিয়া সম্পূর্ণ করতে হবে 
  • আপনি NID Card এর রেজিস্ট্রেশান এর জন্য কার্ড এর তথ্য এবং মোবাইল ফোন এর মেসেজ এর এক্টিভেসন কোড সহকারে আপনি লগইন করুন 
  • এছাড়া তথ্য পরিবর্তন এর ফরমে তথ্য হালনাগাদ করে সেটির প্রিন্ট আপনি নিয়ে নিন 
  • তথ্য পরিবর্তন এর সময় আপনার প্রয়োজনীয় দলিলদারি একটি কালার স্ক্যান করে অনলাইনে জমা দিন 

অনলাইন ভোটার রেজিস্ট্রেশন

আপনার যদি পূর্ববর্তী কোন ভোটার আইডি এর জন্য রেজিস্ট্রেশন করা না থেকে থাকে তাহলে আপনি আমাদের এই পদ্ধতি ব্যবহার করে তা সঠিক ভাবে করে নিতে পারবেন। ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন রেজিস্টার লিঙ্ক এই লিঙ্কের মাধ্যমে আপনি সরাসরি অনলাইনে রেজিস্ট্রেশান করতে পারবেন। আপনি যদি আপনার ভোটার তালিকার নম্বর বা এন আইডি নম্বর পেয়ে থাকেন তাহলে আপনি এটি দিয়ে রেজিস্ট্রেশান এর মাধ্যমে আপনার সকল তথ্য দেখতে পারবেন। এমনকি এর মাধ্যমে আপনি দেখতে পারবেন যে আপনার কোথায় কোন তথ্য ভুল দেয়া আছে। আর তা সেখান থকে সঠিক ভাবে করতে পারবেন। এনআইডি কার্ড ডাউনলোড। 

রেজিস্ট্রেশান করার জন্য আপনাকে ইউজারনেম এবং পাসওয়ার্ড সেটআপ করতে হবে। আর মনে রাখবেন সব সময় এমন পাসওয়ার্ড দিবেন যা আপনার মনে থাকে। কেননা আপনি যদি NID Card পরবরতি ডাউনলোড করতে চান সেক্ষেত্রে আপনাকে পাসওয়ার্ড দিতে হবে। আর যদি এটি না করেন তাহলে তা ডাউনলোড করতে পারবেন না। ফলে আপনাকে পুনঃরায় রিসেট দিতে হবে। 

এর পর আপনার ইউজার নেম এবং পাসওয়ার্ড এর কাজ শেষ হয়ে গেলে লগ ইন বাটনে ক্লিক করতে হবে। আর এসব কাজ সম্পূর্ণ করার পর আপনার ছবির ডানপাশে দেখতে পারবেন এনআইডি কার্ড ডাউনলোড এর অপশন। আপনি এই এই অনলাইন এনআইডি কার্ড NID CARD যেকোন কাজে ব্যবহার করতে পারবেন এটি লেমনেটিং করে এটি ভোটার মুল আইডি কার্ড হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন। 
ডাউনলোড করার পর 
 
ভোটার আইডি কার্ড বা জাতীয় পরিচয়পত্র নিয়ে কিছু কথা
জাতীয় পরিচয় পত্র বা ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার জন্য অবশ্যই ১৮ বছর হতে হবে।অন্যথায় সে NID CARD ডাউনলোড করতে পারবে না। অনেক এই আছেন যারা অনেক আগে এই ন্যাশনাল আইডি কার্ড এর জন্য আবেদন করেছিলেন কিন্তু এখনও পান নাই তারা খুব অল্প সময়ে অনলাইন থেকে তাদের আইডি কার্ডটি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। 

তবে এখানে আর একটি কথা না বললেই না, দেখা যায় যে সকল বাক্তির জাতীয় পরিচয় পত্র অলরেডি নির্বাচন কমিশন বিভাগ থেকে স্থানীয় নির্বাচন কমিশনে প্রেরন করেছেন সে সকল লোকজন অনলাইন থেকে তাদের আইডি কার্ড পাবেন না। সেক্ষেত্রে স্থানিয় নির্বাচন কমিশনে যোগাযোগ করতে হবে। 

আর যদি এই রকম পরিস্থিথিতে আপনি আপনার আইডি কার্ড না পেয়ে থাকেন তাহলে আপনি সেটির জন্য আবার পুনঃরায় আবেদন করতে পারবেন। যার ফলে সেখান থেকে আপনার এনআইডি কার্ড ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। 

এনাইডি কার্ড নিয়ে প্রশ্ন উত্তর

প্রশ্নঃ এনআইডি কার্ড হারিয়ে গিয়েছে এখন কি করবো
উত্তরঃ এন আইডি কার্ড হারিয়ে গিয়েছি এখন কি করবো। অনেক এর এই এনআইডি কার্ড হারিয়ে যায় সুতরাং চিন্তার কোন কারন নাই। এনআইডি NID কার্ড হারিয়ে যাওয়ার পর সর্বপ্রথম আপনাকে যা করতে হবে তা হচ্ছে ; আপনাকে নিকটস্থ কোন থানায় একটা ডায়েরি করতে করতে হবে এবং এর পর আপনাকে নির্বাচন কমিশন থেকে যে নির্ধারিত একটি ফি দিয়েছে তা দিয়ে আবার নতুন করে আবেদন করতে হবে। আর এটি করার পর ৭ থেকে ১০ কর্ম তারিখ এর মধ্যে আপনার এটি অনলাইনে জেনারেট হয়ে যাবে। 

আর এই কার্ডটি আপনি অনলাইন থেকে ডাউনলোড করে লেম্নেটিং করে আগের মতো ব্যবহার করতে পারবেন। এটি দেখতে একদম অরজিনাল ভোটার আইডি কার্ড এর মতোন হয়ে থাকে। অথবা আপনি যদি চান যে আপনার নিক্টস্থ নির্বাচন কমিশন অফিস থেকে আপনার আইডি কার্ড এর সার্ভার কপি নিতে পারেন। এমনকি এটি দিয়ে আপনি আপনার সকল ধরনের কাজ করতে পারবেন। 
প্রশ্নঃ ভোটার আইডি কার্ড এর ভুল তথ্য এখন কি করা যায় 
উত্তরঃ ভুল সকলের হয়ে থাকে। অনেক সময় দেখা যায় টাইপ করতে গিয়ে কারও বাবার নাম ভুল, মায়ের নাম ভুল, নিজের নাম, ঠিকানা ভুল ইত্তাদি নানা রকম ভুল হয়ে থাকে ভোটার আইডি এর মাঝে।তো এর জন্য চিন্তার কোন কারন আমি আপনাকে আজ দেখিয়ে দিবো কিভাবে আপনি আপনার এসব ভুল সংশোধন করতে পারবেন। 

যদি আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র এর ভুল থাকে তাহলে সেটি আপনি নির্ধারিত ফি বা নির্ধারিত টাকার মাধ্যমে আপনি রকেটে পেমেন্ট করে তা নিজে নিজে সঠিক ভাবে সংশোধন করতে পারবেন। আবেদন করার ৩ থেকে ৭ দিন কর্ম দিবস এর মধ্যে আপনার কাজটি সম্পূর্ণ হয়ে যাবে এবং আপনি আপনার ইউজার নেম এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে তা ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। 
প্রশ্নঃ হারিয়ে যাওয়া আইডি কার্ড এর জন্য থানায় কত টাকা দিতে হয় 
উত্তরঃ আপনার আইডি কার্ড যদি কখনও বা কোন সময় হারিয়ে যায়। সেক্ষেত্রে আপনার সর্ব প্রথম করনীয় হচ্ছে থানায় জিডি করা। অনেক এর মনে ধারনা যে থানায় জিডি করতে গেলে টাকার প্রয়োজন হয়। কিন্তু এটি সম্পূর্ণ ভুল ধারনা। আইডি কার্ড হারিয়ে জাওয়ার পর তা থানায় জিডি করতে কোন রকম টাকা লাগে না। 
প্রশ্নঃ এনআইডি কার্ড এর তথ্য কিভাবে সংশোধন করা যায়
উত্তরঃ এনআইডি কার্ড রেজিস্ট্রেশন উপজেলা/ থানা এবং জেলা নির্বাচন কমিশন অফিসে আইডি কার্ড এর ভুল তথ্য সংশোধন এর জন্য আবেদন করতে হয়। আর এই সংশোধন এর জন্য উপযুক্ত তথ্য বা দলিলাদি নিয়ে থাকতে হয়। 
প্রশ্নঃ ভোটার আইডি কার্ড এর ছবি পরিবর্তন
উত্তরঃ এই বিষয় নিয়ে অনেক এর মন খারাপ হয়ে থাকে যে তার এনআইডি কার্ডে ছবি দেখতে খারাপ।কিন্তু এখন উপায় হচ্ছে আপনি এই ছবি কিভাবে পরিবর্তন করবেন কিভাবে করবেন। এনআইডি কার্ড এর ছবি পরিবর্তন করার জন্য আপনাকে ২৩০ টাকা ফি দিতে হবে এবং আবেদন করতে হবে। 

আর এই আবেদন সম্পূর্ণ হওয়ার পর আপনাকে মেসেজ এর মাধ্যমে একটি নিদিষ্ট তারিখ জানিয়ে দেয়া হবে। আর সেই নিদিষ্ট তারিখ এর মধ্যে আপনার নিকটস্থ নির্বাচন কমিশন অফিসে গিয়ে ছবি তুলে আসবেন এবং তার কিছুদিন পর আপনার এনআইডি কার্ডে নতুন ছবি যুক্ত হয়ে যাবে। 

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

1 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া