দাঁত ফাঁকা দূর করার ঘরোয়া উপায় - ফাঁকা দাঁতের চিকিৎসা খরচ

দাঁত ফাঁকা দূর করার ঘরোয়া উপায় এবং ফাঁকা দাঁতের চিকিৎসা খরচ সম্পর্কে জানতে চান অনেকেই। সুন্দর স্নিগ্ধ হাসি কে না চায়? কিন্তু হাসি সুন্দর পেতে হলে দাঁত সুন্দর হতে হবে। আমাদের মধ্যে অনেকেই আছে যাদের সামনের ফাঁকা থাকে। সামনে দাঁতে ফাঁকা থাকার কারণে হাসি দিলে তাদের ফাঁকা দাঁত বেরিয়ে আসে।

এতে করে অনেক সময় তারা লজ্জার সম্মুখীন হতে হয়। মাঝে মাঝে সামনের দাঁত ছাড়াও পাশের দাঁতও কারো কারো ফাঁকা থাকে। দাঁত ফাঁকা বিভিন্ন কারণে হতে পারে, কারো কারো বংশগত কারণে দাঁত ফাঁকা থাকে এবং কারো কারো মুখের গঠন পরিবর্তনের কারণে হয়ে থাকে।

দাঁত ফাঁকা দূর করার ঘরোয়া উপায়

চিকিৎসার পদ্ধতি এখন আগের থেকে অনেক উন্নত হয়েছে। দাঁতের ফাঁকা বন্ধ করতে এখনকার ডাক্তাররা নানা ধরনের চিকিৎসা দিচ্ছেন। কিছু পদ্ধতি আছে যেগুলোর মাধ্যমে খুব কম খরচে চিকিৎসা করা যায় আবার কিছু পদ্ধতি আছে যেগুলোর চিকিৎসার জন্য অনেক টাকা লাগে।

তবে অনেকেই আছেন যারা ডাক্তারের কাছে যেতে ভয় পায়। আমরা আমাদের আজকের আর্টিকেলে আপনাদের জানাবো দাঁত ফাঁকা দূর করার ঘরোয়া উপায়, ফাঁকা দাঁতের চিকিৎসা খরচ। আমাদের আজকের আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে পড়লে আপনারা দাঁত ফাঁকা দূর করার ঘরোয়া উপায় - ফাঁকা দাঁতের চিকিৎসা খরচ সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা পাবেন।

(toc) #title=(এক নজরে সম্পূর্ণ লেখা পড়ুন)

দাঁত ফাঁকা হওয়ার কারণ

  • জন্মগতভাবে দাঁতে ত্রুটি থাকলে দাঁত ফাঁকা হয়।
  • কোনো কারণে দাঁত নষ্ট হয়ে গেলে এবং প্রতিস্থাপন না করলে।
  • অনেকেরই বদ অভ্যাস থাকে যেমন জিব্বা দিয়ে বার বার ধাক্কা দেওয়া, বুড়ো আঙ্গুল চোষা ইত্যাদি বিভিন্ন কারণে ফাঁকা হতে পারে।
  • দীর্ঘস্থায়ী মাড়ির রোগের কারণে দাঁতের ক্ষয়।
  • দাঁতের মিসলাইনমেন্টের ফলে দাঁত ফাঁক হয়ে যেতে পারে।
  • আঘাতের কারণে দাঁত আলগা হয়ে ফাঁকা হয়ে যেতে পারে।

দাঁত ফাঁকা দূর করার ঘরোয়া উপায়

দাঁতের ক্ষয়ের ঘরোয়া প্রতিকার সম্পর্কে জানতে চাইলে এই পর্বটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। এই পর্বে আপনি দাঁতের ফাঁকা দূর করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে জানবেন। তাহলে চলুন জেনে নিই ফাঁকা দাঁত থেকে মুক্তি পাওয়ার ঘরোয়া উপায়গুলো কী কী।

  1. আমাদের দাঁত ফাঁকা থাকার প্রধান কারণ হল আমরা যে খাবার খাই তা দাঁতের মাঝে আটকে যায়। আটকে থাকা খাবারগুলো ধীরে ধীরে অ্যাসিডে পরিণত হয় এবং দাঁতের মধ্যে ফাঁক তৈরি করে। তাই খাবারের পর অবশ্যই ভালো করে দাঁত ব্রাশ করতে হবে।
  2. খাবারের পর ক্ষারীয় পেস্ট দিয়ে দাঁত ব্রাশ করুন। ক্ষারীয় টুথপেস্ট দাঁতের মধ্যে আটকে থাকা খাবারকে লবণ ও পানিতে অ্যাসিডিফাই করে ভেঙ্গে ফেলে। যার কারণে দাঁতে ফাঁকা বন্ধ হয়ে যায়।
  3. আপনি আলগা দাঁত অপসারণের জন্য খাবারের পরে ডেন্টাল ফ্লস ব্যবহার করতে পারেন। আটকে থাকা খাবার পরিষ্কার করলে দাঁতের ক্ষয় থেকে মুক্তি মিলবে। ডেন্টাল ফ্লস হল এক ধরনের সাদা প্লাস্টিক।
  4. যদি আপনার দুটি দাঁতের মধ্যে ফাঁকা থাকে তবে আপনি রাবার ব্যান্ড দিয়ে ফাঁকটি মুছে ফেলতে পারেন। প্লাস্টিকের রাবার দুটি দাঁতে লাগিয়ে প্রতি রাতে নিয়মিত বেঁধে রাখতে হবে। এইভাবে, আপনি দাঁতের ফাঁকা দূর করতে পারেন।

সামনের ফাঁকা দাঁত ঠিক করার উপায়

বর্তমানে চিকিৎসাশাস্ত্রে অনেক আধুনিকায়ন হয়েছে। দাঁতের ক্ষয়ের চিকিৎসা হল-

  • অর্থোডোনটিক্স চিকিৎসার মাধ্যমে সামনের ফাঁকা দাঁতের অথবা আঁকাবাঁকা দাঁতের সমস্যা ঠিক করা যায়। এই পদ্ধতিতে দাঁতের ফাঁকা দূর করতে অথবা আঁকাবাঁকা দাঁত সোজা করতে সময় লাগে প্রায় ছয়মাস থেকে দুই বছর।
  • পোরসেলিন বা জিরকোনিয়াম দ্বারা দাঁতে ক্যাপ বা ক্রাউনিং করানোর মাধ্যমে এক সপ্তাহের মধ্যে দাঁতের ফাঁকা দূর করা যেতে পারে।
  • ক্যাপিং বা ক্রাউনিং করালে দাঁতের অত্যধিক ক্ষতি হয়, তাই বিভিন্ন ধরণের ভেনিয়ারিং পদ্ধতির মাধ্যমে ফাঁকা দাঁতের চিকিৎসা করানো যেতে পারে। দুই থেকে তিন দিনের মধ্যে এই চিকিৎসা সম্ভব। এতে দাঁতের ক্ষতিও কমায়।
  • এছাড়া বর্তমানে বাজারে অনেক ধরনের আধুনিক কম্পোজিট বন্ডিং ম্যাটেরিয়াল পাওয়া যায়, যার মাধ্যমে ডাক্তারের চেম্বারে খুব দ্রুত ফাঁকা দাঁতের চিকিৎসা করা যায়। রোগীকে এই পদ্ধতিতে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে, কারণ শক্ত খাবার খেলে বন্ডিং ভেঙে যেতে পারে। এই চিকিৎসার জন্য এক থেকে দুই দিন সময় লাগে।
  • দাঁত না থাকার কারণে দাঁতে ফাঁকা থাকলে বা ফাঁকা বড় হলে ডেন্টাল ইমপ্লান্টের মাধ্যমে সেই ফাঁক ঠিক করা যায়। তবে এক্ষেত্রে চিকিৎসক, অর্থোডন্টিস্ট বা এস্থেটিক ডেন্টিস্টের পরামর্শে একটি সুবিধাজনক পদ্ধতি গ্রহণ করা যেতে পারে, যা দীর্ঘস্থায়ী হয়। সেক্ষেত্রে ছয় মাস থেকে এক বছর সময় লাগে।

আরো পড়ুন:

মাথা ব্যথা কমানোর ১০টি ঔষধের নাম

মুলতানি মাটির উপকারিতা ও অপকারিতা

কাজু বাদাম খাওয়ার নিয়ম ও উপকারিতা

ফাঁকা দাঁতের চিকিৎসা খরচ

আপনি কি দাঁতের চিকিৎসার খরচ সম্পর্কে জানতে চান? এই পর্বটি আপনার জন্য। এই পর্বে দাঁতের চিকিৎসার খরচ সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা পাবেন। সাধারণত ২টি উপায়ে বেশিরভাগ লোকেরা ফাঁকা দাঁতের চিকিৎসা করে। তাদের খরচ সম্পর্কে নীচে আলোচনা করা হল-

১। অর্থোডন্টিক ব্রেস

অর্থোডন্টিক ব্রেস

অনেকে অর্থোডন্টিক ব্রেসেস দিয়ে ফাঁকা দাঁতের চিকিৎসা করেন। এই পদ্ধতিতে আঁকাবাঁকা বা ফাঁকা দাঁতের চিকিৎসার খরচ অন্যান্য চিকিৎসার তুলনায় অনেক বেশি। এভাবে ব্রেসেস দিয়ে দাঁতের চিকিৎসা করতে গেলে খরচ পড়বে ৩০ হাজার থেকে ৫০ হাজার টাকা।

২। কম্পোজিট ভিনিয়ার

কম্পোজিট ভিনিয়ার

আপনি কম্পোজিট ভিনিয়ার দিয়ে আঁকাবাঁকা দাঁত বা ফাঁকা দাঁত চিকিৎসা করতে চান? আপনি খুব অল্প সময়ে এবং কম খরচে দাঁতের চিকিৎসা পেতে পারেন। এই পদ্ধতিতে এক দাঁতের জন্য ১৫০০ টাকা এবং দুই দাঁতের জন্য ৩০০০ টাকা খরচ হবে।

বহুল জিজ্ঞাসিত প্রশ্নের উত্তর - FAQ

ফাঁকা দাঁত সমান করার উপায়?

ফাঁকা দাঁত সমান করার জন্য দাঁতে ব্রেস পড়তে পারেন ৷ ব্রেস দ্বারা দাঁত ঠিক করতে অনেক বেশি সময় লেগে থাকে এবং খরচ ও তুলনামূলক বেশি ৷

কম্পোজিট ভিনিয়ার দিয়ে দাঁতের ফাঁকা ঠিক করতে কত টাকা খরচ হতে পারে?

কম্পোজিট ভিনিয়ার দিয়ে আঁকাবাঁকা একটি দাঁত ঠিক করতে ১৫০০ টাকা দুইটি দাঁত ঠিক করতে তিন হাজার টাকা খরচ হবে ৷

দাঁত সুস্থ রাখার সবচেয়ে কার্যকরী ঘরোয়া উপায় কোনটি?

দাঁত সুস্থ রাখার সবচেয়ে কার্যকরী ঘরোয়া পদ্ধতি হলো খাবার পর নিয়মিত ক্ষার জাতীয় পেস্ট দিয়ে দাঁত ব্রাশ করা ৷

আরো পড়ুন:

জ্বরের এন্টিবায়োটিক ট্যাবলেট এর নাম

অ্যাপোলো হাসপাতাল কলকাতা ডাক্তার লিস্ট

চিকেন পক্স হলে কি গোসল করা যাবে

লেখকের শেষকথা

দাঁত ফাঁকা দূর করার ঘরোয়া উপায়, ফাঁকা দাঁতের চিকিৎসা খরচ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা করেছি ৷ আশা করি আমাদের আজকের আর্টিকেলটি পুরোপুরি মনোযোগ দিয়ে পড়লে দাঁত ফাকা দূর করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে আপনারা পুরোপুরি ধারণা পাবেন। আশা করি আমাদের আজকের আর্টিকেলটি পড়ে আপনারা উপকৃত হবেন।

পোষ্ট ক্যাটাগরি:

এখানে আপনার মতামত দিন

0মন্তব্যসমূহ

আপনার মন্তব্য লিখুন (0)