ভালো স্মার্টফোন চেনার উপায় - ভালো মোবাইল চেনার উপায়

ভালো স্মার্টফোন চেনার উপায় - ভালো মোবাইল চেনার উপায় প্রিয় পাঠক, আপনি নিশ্চয়ই নতুন একটি স্মার্টফোন কেনার কথা ভাবছেন। বর্তমানে শুধুমাত্র মাত্র স্মার্টফোন কথা বলতে ব্যবহার করা হয় না। এই স্মার্টফোন দিয়ে হাজারো কাজ করা হয়। তাই স্মার্টফোন কেনার আগে আপনাকে অবশ্যই ভালো স্মার্টফোন চেনার উপায়গুলো জেনে নিয়ে স্মার্টফোন কেনা উচিত।

ভালো স্মার্টফোন চেনার উপায়

সূচিপত্রঃ ভালো স্মার্টফোন চেনার উপায় - ভালো মোবাইল চেনার উপায়

কেননা আপনি যে ফোনটি কিনতে চাচ্ছেন সেটা দিয়ে যদি আপনার কাজ না করতে পারেন তবে আপনার স্মার্টফোন কেনা বৃথা হয়ে যাবে। তাই আজকের পোস্টটিতে ভালো স্মার্টফোন চেনার উপায় - ভালো মোবাইল চেনার উপায় নিয়ে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করব। তাহলে চলুন জেনে নেই ভালো মোবাইল চেনার উপায়গুলো কি কি এই সম্পর্কে। 

ভালো মোবাইল চেনার উপায় নিয়ে কিছু কথা 

বর্তমানে প্রায় সকল বয়সী লোকেরা স্মার্টফোন ব্যবহার করে থাকেন। সকলেই চায় তার কষ্ট করে কেনা স্মার্টফোন ভালো হোক। কিন্তু আপনারা অনেকেই জানেন না যে একটি স্মার্টফোনের কি কি দেখে চেনা যায় ওই স্মার্টফোন টি ভালো না কি খারাপ। আমার জন্য কি ওই স্মার্টফোন কেনা উচিত হবে? এসব বিষয় ভাবতে থাকেন। 

তো যাইহোক, ভালো স্মার্টফোন চেনার উপায় - ভালো মোবাইল চেনার উপায় নিয়েই আজকের পোস্টটি সাজিয়েছি। আপনার স্মার্টফোন টি ভালো না কি খারাপ এই বিষয়ে যদি জানতে চান তাহলে এই পোস্টটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ুন।

আরো পড়ুনঃ মোবাইল রেডিয়েশন থেকে বাঁচার উপায়

ভালো স্মার্টফোন চেনার উপায়গুলো কি কি 

একটি ভালো স্মার্টফোন চেনার বেশ কয়েকটি উপায় আছে। যেগুলো যদি আপনার জানা থাকে তবে আপনি সহজেই বুঝে নিতে পারবেন আপনার স্মার্টফোন টি ভালো ফোন। সাধারণত পাঁচটি বিষয় দেখলে বোঝা যায় ওই স্মার্টফোন টি ভালো ফোন। নিচে বিষয়গুলো উল্লেখ করা হলোঃ-

(১) ব্যাটারি লাইফ

(২) স্টোরেজ

(৩) ক্যামেরা

(৪) অপারেটিং সিস্টেম

(৫) প্রসেসর 

উপরের পাঁচটি বিষয় দেখলে আপনি খুব সহজেই বুঝে নিতে পারবেন। আপনার স্মার্টফোন টি ভালো স্মার্টফোন। ভালো ফোন চেনার উপায় জানতে চাইলে নিচে আলোচনাগুলো বিস্তারিত পড়ুন। 

ব্যাটারি লাইফ দেখে ভালো ফোন চেনার উপায়

ভালো স্মার্টফোন কিনতে হলে তার ব্যাটারি লাইফ কত এমএএইচ এটা দেখা কেনা উচিত। কেননা আপনি আপনার স্মার্টফোন দিয়েই যেকোন কাজ করেন না কেন ব্যাটারি ব্যাকআপ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আপনি চেষ্টা করবেন বেশী mAh আছে এমন স্মার্টফোন কিনবেন।

তবে বর্তমানের স্মার্টফোন গুলোতে আপনি 5000 mAh অথবা 6000 mAh ব্যাটারি পাবেন। এগুলো কিনতে পারেন। যারা বেশী সময় গেমিং করেন অথবা সোশ্যাল মিডিয়াতে লাইভ স্ট্রিমিং করেন তাদের স্মার্টফোনে ব্যাটারি লাইফ বেশী থাকাটা জরূরী।

স্মার্টফোনের স্টোরেজ দেখে ভালো ফোন চেনার উপায়

আপনার স্মার্টফোনে কতটা অ্যাপ রান করতে পারবে এটা নির্ভর করে আপনার ফোনের স্টোরেজের উপর। আপনার হয়ত জেনে থাকবেন স্মার্টফোনে সাধারণত দুই ধরনের স্টোরেজ থাকে একটি  হচ্ছে র‍্যাম এবং অন্যটি হচ্ছে রোম বা ইন্টারনাল স্টোরেজ। স্মার্টফোনে এই দুই ধরনের স্টোরেজ থাকা গুরুত্বপূর্ণ। 

যদি আপনার স্মার্টফোনে বেশি র‍্যাম থাকে তাহলে আপনি বেশী অ্যাপস বা গেমস রান করতে পারবেন আর স্মার্টফোন যত ইন্টারনাল স্টোরেজ বা রোম থাকবে তত আপনার ডকুমেন্ট, ছবি, গান, ভিডিও ইত্যাদি সংগ্রহ করতে পারেন। সুতরাং, ভালো স্মার্টফোনে বেশী র‍্যাম এবং রোম থাকা উচিত। 

তবে বর্তমানে স্মার্টফোন গুলোতে চার, আট এবং বার জিবি পর্যন্ত র‍্যাম হয়ে থাকে। তবে আইফোনের ক্ষেত্রে ব্যাপার টা ভিন্নতা রয়েছে। আইফোনের  স্টোরেজ অপ্টিমাইজেশন অনেক ভালো যার জন্য এন্ড্রয়েডের তুলনায় কম র‍্যাম হলেও ভালো পারফরম্যান্স করে। তাই ভালো স্মার্টফোন চেনার উপায় হচ্ছে বেশী স্টোরেজ থাকা।

আরো পড়ুনঃ মোবাইল আসক্তি থেকে বাঁচার উপায়

ক্যামেরা দেখে ভালো স্মার্টফোন চেনার উপায়

বর্তমানে তরুণ প্রজন্মের ছেলে মেয়েরা স্মার্টফোনে অন্যসব ফিচার থাকুক বা না থাকুক সেটা জরুরী না তবে স্মার্টফোনের ভালো মানের ক্যামেরা থাকাটা জরুরী বলে মনে করে। কেননা ছেলে-মেয়েরা স্মার্টফোনের ক্যামেরা দিয়ে ছবি তুলতে অনেক সাচ্ছন্দ্যবোধ করে।

ভালো স্মার্টফোনের ক্যামেরা মেগাপিক্সেল বেশী হয়। তাই ভালো কোয়ালিটির ছবি এবং ভিডিও পেতে চাইলে বেশী মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা কেনা উচিত। 

তবে আপনারা যারা গেমিং বা ফেসবুকে বা ইউটিউবে লাইভ স্ট্রিমিং করেন তারা স্মার্টফোনের ক্যামেরা দিকে ফোকাস না দিলেও হবে কেননা তখন ভালো ক্যামেরা আপনার কাজে না লাগতে পারে তাই আপনার উচিত হবে বেশী র‍্যাম, রোম এবং ভালো প্রসেসরের ফোন কেনা। 

আপনারা যারা স্মার্টফোন দিয়ে ছবি তুলতে বা ভিডিও করতে ভালোবাসেন তারা বেশী মেগাপিক্সেলের ফোন কিনতে পারেন। তবে আমি আপনাদের একটি সাজেশন্ দেই ভালো ছবি বা ভিডিও পেতে হলে আপনারা গুগল ক্যামেরা বা জি ক্যাম অথবা এলএমসি ৮.৪ ব্যবহার করে ছবি কিংবা ভিডিও করতে পারেন। 

স্মার্টফোনের অপারেটিং সিস্টেম দেখে ভালো মোবাইল কেনার  উপায় 

আপনার মোবাইল ফোনটি ঠিক কোন সিস্টেম দিয়ে অপারেটর করা হবে সেটা নির্ধারণ করতে পারবে আপনার স্মার্টফোনের অপারেটিং সিস্টেম। মোবাইল ফোনের অপারেটিং সিস্টেম সাধারণত দুই ধরনের হয়ে থাকে আইওএস এবং এন্ড্রয়েড।

আইওএস হচ্ছে যারা আইফোন ব্যবহা করে থাকে তাদের জন্য অপারেটিং সিস্টেম। আর যারা স্মার্টফোন ব্যবহার করেন তাদের অপারেটিং সিস্টম হচ্ছে এন্ড্রয়েড। এছাড়াও স্মার্টফোন ব্যবহারের জন্য মার্কেটে অনেক ধরনের অপারেটিং সিস্টেম রয়েছে। আপনি যেহেতু স্মার্টফোন ব্যবহার করবেন তাই আপনার অপারটিং সিস্টেম হবে এন্ডয়েড। গুগল কোম্পানীর তৈরি হচ্ছে এন্ড্রয়েড।

আপনার স্মার্টফোন টি ঠিক কোন ফাংশনে ব্যবহার করা হবে এট নির্ভর করে এন্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের উপর। তাই আপনার ফোন কেনার সময় অবশ্যই অপারেটিং সিস্টেম নিয়মিত আপডেট আসে এমন ফোন কিনতে হবে। এবং নিয়মিত আপনার স্মার্টফোন আপডেট রাখার চেষ্টা করতে হবে। ভালো স্মার্টফোন চেনার উপায় হচ্ছে অপারেটিং সিস্টেম দেখে ফোন কেনা।

স্মার্টফোনের প্রসেসর দেখে ভালো মোবাইল চেনার উপায় 

আপনার স্মার্টফোন কতটা স্মুথ বা সচল্ভাবে চলবে এটা নির্ভর করছে ফোনের প্রসেসরের  উপরে। তাই স্মার্টফোনের প্রাণকেন্দ্র বলা হয় প্রসেসর কে। বিভিন্ন ধরনের স্মার্টফোনের এন্ড্রয়েড ভার্সন এর উপর বিবেচনা করে মার্কেটে বিভিন্ন ধরনের প্রসেসর বিদ্যমান হয়ে থাকে। 

আপনি হয়ত জেনে থাকবেন স্মার্টফোনের চিপসেট যত কম ন্যানোমিটারের হয় ততো সে প্রসেসর টি ভাল। বাজারে বেশ কিছু প্রসেসর কোম্পানি লক্ষ্য করে যায় যেমনঃ মিডিয়াটেক, স্ন্যাপড্রাগন, ইউনিসক, এক্সিনস ইত্যাদি। প্রত্যক টি স্মার্টফোন লঞ্চ করার সময় ভালো মানের চিপসেট বা প্রসেসর দেওয়ার চেষ্টা করে। তবে সেক্ষেত্রে আপনার নিজেকে বেছে নিতে হবে আপনি কোণ কোম্পানির প্রসসরের স্মার্টফোন কিনছেন। 

আপনারা যারা গেমার ভাই-বোনেরা আছেন তারা অবশ্যই চেষ্টা করবেন ভালো কোম্পানীর প্রসেসর স্মার্টফোন কেনার। কেননা আপনি যখন গেম খেলা শুরু করবেন তখন প্রসেসর আপনার গেমস খেলতে সহয়তা করবে। তাই ফোন কেনার আগে আপনি যাচাই বাছাই করে তারপর আপনার শখের স্মার্টফোন টি কিনবেন।

আরো পড়ুনঃ পুরাতন মোবাইল আগে যা জানা জরুরী

শেষ কথাঃ ভালো স্মার্টফোন চেনার উপায় - ভালো মোবাইল চেনার উপায়

সুপ্রিয় পাঠক, একটি ভালো স্মার্টফোন কেনার আগে অবশ্যই যাচাই বাছাই করে তারপর স্মার্টফোন কিনতে হবে। কেননা আপনি যে কাজের জন্য ফোন কিনছেন সে কাজের জন্য উপযুক্ত হচ্ছে কি না তা আপনাকে যাচাই করতে হবে। প্রয়োজনে স্মার্টফোনে দক্ষ আছে এমন ব্যক্তির সাথে কথা বলতে হবে।

আজকের এই পোস্টে আমি আপনাদের সাথে  ভালো স্মার্টফোন চেনার উপায় - ভালো মোবাইল চেনার উপায় নিয়ে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করেছি। কি কি দেখে আপনি একটি ভালো মোবাইল কিনবেন তা আলোচনা করেছি। এই পোস্টটি যদি তথ্যবহুল হয়ে থাকে তবে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে পারেন। ধন্যবাদ।