পুরাতন আইফোন কেনার আগে যা যা জানা দরকার

পুরাতন আইফোন কেনার আগে যা যা জানা দরকার - আপনি যদি এই মুহূর্তে পুরাতন আইফোন কিনতে চান তাহলে আপনাকে বেশ কিছু বিষয় জেনে রাখতে হবে। কেননা আপনি যার কাছ থেকে আইফোন কিনবেন সে আপনাকে ঠিক ফোন দিচ্ছে কি না, ফোনে কোন ধরনের সমস্যা আছে কি না এসব পুরাতন আইফোন কেনার আগের জানা দরকার।

সুচিপত্রঃ পুরাতন আইফোন কেনার আগে যা যা জানা দরকার

আজকের এই আর্টিকেলে আমি আপনাদের পুরাতন আইফোন কেনার আগে যা যা জানা দরকার নিয়ে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করব। আপনি যদি পুরাতন আইফোন কেনার চিন্তা-ভাবনা করে থাকেন তবে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ার অনুরোধ রইল।

পুরাতন আইফোন কেনার আগে যা যা জানা দরকার নিয়ে সংক্ষিপ্ত তথ্য

সকলের কাছে আইফোন কেনার একটি শখ রয়েছে। পুরাতন হোক কিংবা নতুন আইফোন হোক। আইফোন যেন আমাদের বর্তমান দিনের নিত্য সঙ্গী। তবে পুরাতন আইফোন কেনার ক্ষেত্রে আইফোন কেনার আগে অবশ্যই কিছু জিনিস দেখে নিতে হবে।

যার নতুন মডেলের আইফোন আছে সে আরও লেটেস্ট আইফোন চায়, আর যার আইফোন নেই সে সেকেন্ড হ্যান্ড বা পুরাতন আইফোন পেলেও অনেক কিছু।

সে যাইহোক, আজকের এই আর্টিকেলটি বিশেষ করে যারা পুরাতন আইফোন কিনবেন তাদের জন্য। একটি সেকেন্ড হ্যান্ড পুরাতন আইফোন কেনার আগে যা যা জানা জানা আব্যশক তা নিয়ে সাজিয়েছি। তাহলে চলুন জেনে নেই পুরাতন আইফোন কেনার আগে যা যা জানা দরকার।

আরো পড়ুনঃ আইটেল মোবাইল দাম বাংলাদেশ

পুরাতন আইফোন কেনার আগে কি কি দেখে কেনা উচিত হবে

আমরা যখন নতুন স্মার্ট ফোন কেনার আগে অনেক বিষয় যেমন: ফোনের ফিচারসমূহ, ব্যাটারি, প্রসেসর, র‍্যাম, রোম ইত্যাদি নিয়েই চিন্তা করি তারপর একটি নতুন কেনার সিদ্ধান্ত নেই।

কিন্তু যখন পুরাতন আইফোন সাধারণত একজন স্মার্টফোন বা এন্ড্রেয়েড ফোন ব্যবহারকারী কিনতে যান, যার আইফোন ব্যবহারের পূর্ব অভিজ্ঞতা নেই। যার জন্য সে বিভিন্ন ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে পারে।

তাই যারা একটি পুরাতন আইফোন কিনবেন কেনার আগে ভালোভাবে যাচাই করে নিবেন। পুরাতন আইফোন কেনার আগে কি কি বিষয় জানা দরকার তা নিচে উল্লেখ করছি।

সেকেন্ড হ্যান্ড আইফোনের বয়স

সেকেন্ড হ্যান্ড আইফোন কেনার আগে অবশ্যই ফোনের বয়স যাচাই করা উচিত। ফোনটির আইএম ই আই নাম্বার চেক করলে ফোনের বর্তমান বয়স কত তা জানতে পারবেন। তবে আপনারা জেনে খুশি হতে পারেন আইফোন সহজে নষ্ট হতে চায় না।

তবে ৫ বছর থেকে ৭ বছরের পুরাতন আইফোন ব্যবহার করা ফোন কেনা একটু ঝুকিপূর্ণ হয়ে যায়। আপনি ২-৩ বছর ব্যবহৃত হয়েছে এমন পুরাতন আইফোন কিনতে পারেন।

আরো পড়ুনঃ মোবাইল রুট করার নিয়ম

আইফোনের মডেল

একটি পুরাতন আইফোন যতই ভালো হোক না কেন, ফোনের আপ টু ডেট ফিচার না থাকলে ফোন কেনা বৃথা হবে। আইফোনের হার্ডওয়্যারের সাথে সাথে সফটওয়্যার আপ টু ডেট রাখতে প্রায়ই অপারেটিং সিস্টেমে আপডেট আসে। কিন্তু সব আইফোনের ক্ষেত্রে আপডেট আবার আসে না।

অ্যাপল কোম্পানি I phone 6 এর পরের ফোন থেকে অপারেটিং সিস্টেম আপডেট প্রকাশ করে। I phone 6 এর আগের ফোন গুলোতে এখন আর আপডেট আসে না। তাই আপনি I phone 6 এর পরের মডেল কিনতে পারেন। পুরাতন আইফোন কেনার আগে আইফোনের মডেল জানা দরকার।

১। আইক্লাউড ও কান্ট্রি লকড

পুরাতন আইফোন কেনার ক্ষেত্রে ফোনের আইক্লাইড ও কান্ট্রিলকড যাচাই করে ফোন কেনা উচিত। আইফোনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে এর সিকিউরিটি সিস্টেম। যে কোন ফোন চুরি হয়ে গেলে তা পরবর্তী সময়ে খুজে পাওয়া সম্ভব। তাই,  আপনি এমন মানুষের কাছ থেকে ফোন কিনবেন না যারা আইফোনে কান্ট্রি লকড বা আইক্লাউড দেওয়া।

যদিও বাংলাদেশের অনেক জায়গায় আইফোনের কান্ট্রি লকড খুলে দেয়। তাই কেনার আগে অবশ্যই পরিচিত ব্যক্তিদের সাথে ফোন সম্পর্কে বিস্তারিত কথা বলে তারপর ফোন কিনবেন। নতুন সকালে আপনি আইফোন কিনলেন বিকেলে দেখলেন আপনার বাড়িতে পুলিশ হাজির। তাই এই ব্যাপারে সবাই সাবধান থাকবেন।

২। ব্যটারি ব্যাকআপ 

পুরাতন আইফোন কেনার ক্ষেত্রে ব্যাটারি ব্যাকআপ কত সময় ধরে দেয় এটা জানা অত্যন্ত জরুরী বিষয়। যদিও আইফোনের ইউজাররা আইফোন সুইচ করার পর ব্যাটারি সমস্যা অনুভব করেন। তবে পুরাতন আইফোন কেনার সময় দেখে নিতে হবে ফোনটির ব্যাটারি ক্যাপাসিট কত % বাকি আছে।

যদি ফোনটির ব্যাটারি ৬০% এর নিচে হয়ে থাকে তবে ব্যাটারি পরিবর্তন করা বাধ্যতামূলক হয়ে যায়। তাই পুরাতন আইফোন কেনার ক্ষেত্রে ব্যাটারি ব্যাকআপ ৮০% থাকবে এমন সেকেন্ড হ্যান্ড আইফোন কেনা উচিত হবে।

৩। মাইক্রোফোন

পুরাতন আইফোন কেনার আগে মাইক্রোফোন ঠিকভাবে কাজ করছে কিনা তা যাচাই করা উচিত। আপনারা হয়তোবা জেনে থাকবেন আইফোনের কমান্ড দেওয়ার জন্য siri, ব্যবহার করা হয়। এজন্য মাইক্রোন টেস্ট করা প্রয়োজন।

৪। ক্যামেরা

ছবি কিংবা ভালো হাই-কোয়ালিটির জন্য আইফোনের ক্যামেরা সেরা হয়ে থাকে এটা আমরা সকলেই জানি। তবে পুরাতন আইফোনের ক্যামেরা যদি ভালো ছবি বা ভিডিও কোয়ালিটি ভালো না দেয় তাহলে আপনার পুরাতন আইফোন কেনা বৃথা হয়ে যাবে। তাই পুরাতনা আইফোন কেনার আগে ক্যামেরা অবশ্যই যাচাই করে নিবেন।

৫। আইফোন ডিসপ্লে

আইফোন ব্যবহারে সুবিধা হলো এটা সহজে হ্যাং করে না। তবে যদি ডিসপ্লে কোন কারণে ভেঙ্গে যায় এবং ভালোমানের ডিসপ্লে না লাগানো হয় তখনই হ্যাং সহ বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে। অনেক সময় বিক্রেতা আইফোন বিক্রির জন্য এটি লুকাতে পারে। তাই কেনার আগে ২০ মিনিট ভারি কোন গেমস খেলে যাচাই করতে পারেন।

৬। আইফোন স্টোরেজ

আইফোনের স্টোরেজ খুবই গুরুত্বপূর্ণ । কেননা আইফোনে  আলাদা কোন  এক্সট্রানাল মেমরি স্লট থাকে না। তাই এ দিকে লক্ষ্য করে আপনার পুরাতন আইফোন কেনা উচিত হবে। আপনার যদি একেবারে কমও স্টোরেজ প্রয়োজন হয় তবে আপনি ৩২ জিবি নিতে পারেন।

আর যদি সম্ভব হয় তবে আপনি ৬৪ জিবি কিংবা ১২৮ জিবি স্টোরেজের আইফোন কিনতে পারেন। র‍্যামের ক্ষেত্রে একই ব্যাপার। পুরাতন আইফোন কেনার আগে আইফোনের স্টোরেজ কত তা জেনে নিতে হবে।

৭। আইফোনের চার্জার

পুরাতন আইফোন কেনার আগে বিক্রেতার কাছে আগে থেকেই জেনে নিবেন, আইফোনের  চার্জার আছে কি না। যদিও অনেক পুরাতন আইফোন বিক্রেতা আইফোনের  চার্জার দিতে চায় না। এজন্য আগে তার কাছে শুনে নিবেন। আর যদি সে না দিতে চায়, তাহলে আপনি বাজার থেকে আইফোনের একটি  চার্জার কিনতে পারেন।

বহুল জিজ্ঞসিত প্রশ্নসমূহ

পুরাতন আইফোন কেনার আগে যা যা জানা দরকার নিয়ে আপনার মনে বেশ কিছু প্রশ্ন উঁকি দিতে পারে। তাহলে চলুন একনজরে দেখে নেই সেই সকল প্রশ্নের উত্তর।

পুরাতন আইফোনের দাম কত বাংলাদেশ

আপনারা অনেকেই পুরাতন আইফোনের দাম বাংলাদেশে কত এই ব্যাপারে জানতে চান, আসলে পুরাতন আইফোনের দাম নির্ভর করছে আপনি কোন আইফোনের মডেলের ফোন কিনবেন তার উপর। তবে আপনি ১০,০০০ টাকা শুরু করে ১ লক্ষ টাকার মধ্য আপনার পছন্দের আইফোনের মডেল খুজে পাবেন। আশা করি বুঝতে পেরেছেন।

আরো পড়ুনঃ মোবাইল দিয়ে ফ্রিল্যান্সিং করে আয় করার উপায়

আইফোন ১১ এর দাম কত বাংলাদেশ

আইফোন ১১ কিনতে চাচ্ছেন, এজন্য দাম কত এই ব্যাপারে জানতে চাচ্ছেন, আইফোন ১১ মডেলটির দাম ৪৯,৯০০ টাকা। ভ্যারিয়েন্ট ৬৪ জিবি স্টোরেজের জন্য।

শেষ কথা: পুরাতন আইফোন কেনার আগে যা যা জানা দরকার নিয়ে

পুরাতন আইফোন কেনার আগে আপনাকে বেশ কিছু জিনিসের উপর লক্ষ্য করে তারপর পুরাতন আইফোন কেনার চেষ্টা করবেন। মনে রাখবেন বাংলাদেশে আইফোন সার্ভিসের জন্য অফিশিয়ালভাবে কোন কাস্টমার সার্ভিস নেই। তাই পুরাতন আইফোন কেনার ক্ষেত্রে এসব বিষয়ে লক্ষ্য করা উচিত।

আজকের এই আরটিকেলে পুরাতন আইফোন কেনার আগে যা যা জানা দরকার তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। আপনারা শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়লে বুঝতে পারেন। আর্টিকেলটি তথ্যবহুল হলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না। ধন্যবাদ।

পোষ্ট ক্যাটাগরি: