Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2022/08/expert-option-trading.html

এক্সপার্ট অপশন কি - এক্সপার্ট অপশন কিভাবে কাজ করে

এক্সপার্ট অপশন কি - এক্সপার্ট অপশন কিভাবে কাজ করে — বর্তমান সময়ে এক্সপার্ট অপশন কি এবং এক্সপার্ট অপশন কিভাবে কাজ করে এই বিষয় সম্পর্কে সঠিক তথ্য জানার কৌতূহল থেকে যায়। কিন্তু সঠিক তথ্য না পাওয়ার কারণে জানতে পারি না। তবে আজকের পোস্টে আমরা আপনাদের জানানোর চেষ্টা করব এক্সপার্ট অপশন কি এবং এক্সপার্ট অপশন কিভাবে কাজ করে বিস্তারিত কিছু অজানা তথ্য।

এক্সপার্ট অপশন কি

সূচীপত্রঃ এক্সপার্ট অপশন কি

আজকে আমরা আলোচনা করতে যাচ্ছি, জনপ্রিয় কোম্পানি এক্সপার্ট অপশন সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা। এক্সপার্ট অপশন কি এবং এক্সপার্ট অপশন কিভাবে কাজ করে, তা জানতে অবশ্যই এই আর্টিকেল মনোযোগ সহকারে প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ুন। আশা করি আপনি আজকের পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়লে এক্সপার্ট অপশন সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জানতে পারবেন। 

চলুন জেনে নেওয়া যাক, আজকের মূল আলোচ্য বিষয় সমূহঃ ১। এক্সপার্ট অপশন কি? ২। অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম সমূহ ৩। অ্যাকাউন্টের ধরন এবং ন্যূনতম আমানত ৪। Expert Option এর পেমেন্ট সিস্টেম ৫। এক্সপার্ট অপশন এর সুবিধা ও অসুবিধা ৬। এক্সপার্ট অপশন কোন কোন দেশে সেবা প্রদান করে না ৭। এক্সপার্ট অপশন নিয়ে নির্দেশনা।

আরো পড়ুনঃ কোটি টাকা আয় করার উপায়

এক্সপার্ট অপশন কি

এক্সপার্ট অপশন হল এক ধরনের অনলাইন ট্রেডিং প্ল্যাটফর্ম যা আপনাকে একটি সু-পরিকল্পিত এবং সহজেই ব্যবহারযোগ্য ইন্টারফেসে বিভিন্ন ধরণের আর্থিক উপকরণ ট্রেড করতে দেয়। আপনি তাদের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অথবা তাদের একটি অ্যাপ ডাউনলোড করে ট্রেড করতে পারবেন। 

এক্সপার্ট অপশন যদি আপনি করতে চান তাহলে আপনাকে ট্রেডিং বিষয়ে ভালো জ্ঞান রাখতে হবে। এছাড়াও এক্সপার্ট অপশন এ ট্রেডিং শিখতে হলে ডেমো অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে ট্রেডিং শিখতে পারবেন। 

এক্সপার্ট অপশন কিভাবে কাজ করে

এক্সপার্ট অপশনে কাজ করতে হলে আগে আপনাকে ভালোভাবে জেনে নিতে হবে এক্সপার্ট অপশন কিভাবে কাজ করে। এক্সপার্ট অপশন মূলত তিনভাবে কাজ কাজ করে থাকে। নিম্নে আলোচনা করা হলোঃ-

১. ডিপোজিট ২. ট্রেডিং ৩. উইথড্র

ডিপোজিট

প্রথমে এখানে আপনার একটি অ্যাকাউন্ট করতে হবে। এরপর ট্রডিং করার জন্য আপনার এক্সপার্ট অপশন অ্যাকাউন্টটে টাকা ডিপোজিট করতে হবে ট্রেডিং করার জন্য। এক্সপার্ট অপশনে ২০ টির ও অধিক পেমেন্ট মেথড আছে যেগুলোর মাধ্যমে ডিপোজিট করা যায়। 

ট্রেডিং

ট্রেডিং হচ্ছে একটি অর্থনৈতিক ধারণা যার মধ্যে জিনিসপত্র এবং পরিষেবার কেনাবেচা করা হয়। ক্রেতার দ্বারা বিক্রেতাকে দেওয়া ক্ষতিপূরণ বা দুই পক্ষের মধ্যে জিনিসপত্র বা পরিষেবার কেনাবেচার প্রক্রিয়াই হচ্ছে ট্রেডিং। 

আপনি যদি এক্সপার্ট অপশনে ট্রেডিং করতে চান তাহলে আপনাকে আপনার অ্যাকাউন্টে নূন্যতম ৫০ ডলার ডিপোজিট করতে হবে। এক্সপার্ট অপশনে ৬ টি প্লান রয়েছে মাইক্রো, বেসিক, সিলভার, গোল্ড, প্লাটিনাম এবং এক্সকুসিভ। আপনি যদি ট্রেডিং শিখতে চান তাহলে ডেমো একাউন্টে চেষ্টা করে দেখতে পারেন।

উইথড্র

আপনি ট্রেডিং করে যে লাভ করবেন সেই টাকা আপনি আপনার অ্যাকাউন্ট থেকে খুব সহজেই উইথড্র করতে পারবেন। এখানে আপনি ভিসা কার্ড, মাস্টার কার্ড, ক্রিপ্টােকারেন্সি, স্ক্রিল, নেটেলার সহ বিভিন্ন পেমেন্ট মাধ্যেমে আপনি এক্সপার্ট অপশন থেকে উইথড্র করতে পারবেন। 

এক্সপার্ট অপশনে অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম

আপনি যদি একজন পেশাদার ট্রেডার হয়ে থাকেন তাহলে আপনি এক্সপার্ট অপশনে একটি রিয়েল অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন। অ্যাকাউন্ট ক্রিয়েট করার জন্য “ওপেন রিয়েল অ্যাকাউন্টে ক্লিক করুন” আপনি কয়েকটিভাবে রিয়েল অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন আপনার ব্যক্তিগত ই-মেইল এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে, ফেসবুক অথবা গুগল অ্যাকাউন্ট দিয়ে অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারবেন।

এক্সপার্ট অপশন একাউন্ট খোলার জন্য ন্যূনতম ১০ ডলার দিয়ে ট্রেডিং এর জন্য রিয়েল আকাউন্ট খুলতে হবে। এরপর আপনি বিভিন্ন প্ল্যানের জন্য ডিপোজিট করত পারেন। অনৈতিক এবং অর্থ পাচার রোধে আপনার পরিচয় যাচাই করার জন্য এক্সপার্ট অপশনে কেওয়াইসি পদ্ধতিও রয়েছে। 

কেওয়াইসি পূরণ করার জন্য আপনার এনআইডি কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স, পাসপোর্ট ইত্যাদি দিয়ে আপনার পরিচয় যাচাই করতে বলবে। বেশীরভাগ সময়ে এক্সপার্ট অপশনে নতুন ক্লায়েন্টদের পরিচয় এবং ঠিকানা উভয় যাচাই করে প্রয়োজনীয় সকল ডকুমেন্ট জমা দিতে বলে। 

পরিচয়ের প্রমাণ সম্ভবত সরকার কর্তৃক জারি করা এবং আপনার ছবি, নাম এবং জন্মতারিখ ন্যূনতমভাবে অন্তর্ভুক্ত করা প্রয়োজন মনে করে এক্সপার্ট অপশন টিম।

আরো পড়ুনঃ 2022 সালের সেরা ইনকাম সাইট

কিভাবে এক্সপার্ট অপশনে ট্রেডিং করব

আপনারা অনেকেই জানতে চেয়েছে এক্সপার্ট অপশনে কিভাবে ট্রেডিং করা যায় এই বিষয়টি নিয়ে। এজন্য আপনাকে ট্রেডিং বিষয়টা ভালো করে শিখে নিতে হবে। আপনি এক্সপার্ট অপশনে ডেমো অ্যাকাউন্ট দিয়েও শিখতে পারেন। 

এক্সপার্ট অপশনে ক্লায়েন্টদের বেশী অগ্রাধিকার দেয়। এখানে ১০০ টিরও বেশি অ্যাকাউন্ট ম্যানেজার রয়েছে, যার প্রত্যেকটি ক্লায়েন্টের চাহিদা পূরণের দিকে মনোনিবেশ করন। এখন পর্যন্ত ৩৭ মিলিয়নেরও বেশি রিয়েল অ্যাকাউন্ট খোলা হয়েছে।

কয়েকটি মাধ্যেম এক্সপার্ট অপশনে টেডিং করা যেতে পারে। সোশ্যাল ট্রেডিং, technical analysis and trade, মোবাইল অ্যাপস, ডেস্কটপ অ্যাপস, ওয়েব প্ল্যাটফর্ম এই মাধ্যমগুলোর মাধ্যমে এক্সপার্ট অপশনে ট্রডিং করার সুযোগ আছে। 

সোশ্যাল ট্রেডিং

আপনারা যারা ব্যবসায়ী আছেন আপনারা চাইলে বন্ধু এবং পরিবারের সদস্যদের সাথে ট্রেড করতে পারেন এবং তাদের রিয়েল টাইমে ট্রেডিং করতে পারেন। যারা টপ বিজনেস ম্যান আছেন তারা সামাজিক যোগাযোগ সাইট যেমন ফেসবুক, ইউটিউব, টুইটার এবং ইনস্টাগ্রামের ট্রেড অনুসরণ করতে পারেন।

মোবাইল অ্যাপস

যারা এক্সপার্ট অপশনে মোবাইলের মাধ্যমে ট্রেডিং করতে চান, তাদের জন্য এই সুযোগ করা হয়েছে। আইওএস এবং এন্ড্রয়েডের জন্য এই মোবাইল অ্যাপস তৈরি করা হয়েছে যাতে করে সকলেই ট্রেডিং করতে পারেন। এক্সপার্ট অপশনে করার জন্য আপনার মোবাইলে অ্যাপস ইন্সটল করে অ্যাকাউন্ট তৈরি করে ট্রেডিং শুরু করতে পারেন। 

ওয়েব প্ল্যাটফর্ম

ডেমো অ্যাকাউন্ট ওয়েব প্ল্যাটফর্মে পাওয়া যায়। ভার্চুয়াল ফান্ডে $১০,০০০ দিয়ে ট্রেডিং শিখতে পারেন। 

এক্সপার্ট অপশনে ট্রেডিং করার জন্য নূন্যতম আমানত কত

আপনি এক্সপার্ট অপশনে রিয়েল অ্যাকাউন্ট করে মাত্র ১০ ডলার দিয়ে আপনি ট্রেডিং শুরু করতে পারেন। এক্সপার্ট অপশনে মোট ৬ ধরনের অ্যাকাউন্টের মাধ্যেমে আপনি ট্রেডিং শুরু করতে পারেন।নিম্নে আলোচনা করা হলোঃ

মাইক্রো 

আপনি যখন রিয়েল অ্যাকাউন্ট করবেন তখন প্রথমে ট্রেডিং শুরু করার জন্য আপনি এই প্ল্যানটি নিতে পারেন। যারা ট্রেডিং বিষয়ে বিগেনার তারাই এই প্ল্যান দিয়ে শুরু করতে পারেন। এই প্ল্যানটির মূল্য ১০ ডলার।

বেসিক

এই প্ল্যানটি একদম নতুনদের জন্য যারা ট্রেডে বেশি অর্থ বিনিয়োগ করার আগে আরও ট্রেডিং বিষয়ে ভালোভাবে শিখতে চায়। এই প্ল্যানটির মূল্য ৫০ ডলার। যদি এই প্ল্যানটি যদি কেউ কেনে তাহলে মনে করা হয় সে একজন এক্সপার্ট ট্রেডার। 

সিলভার

বেশীর ভাগ বড় বড় ব্যবসায়ী এই প্ল্যান কিনে থাকে। আপনিও যদি ব্যবসায়ী হয়ে ট্রেডিং করতে চান তাহলে সিলভার প্যাকেজটি কিনে শুরু করতে পারেন। এই প্ল্যানটির মূল্য ৫০০ ডলার।

গোল্ড

যারা এই গোল্ড প্যাকেজটি কিনে ট্রেডিং করতে চান তারা এই প্যাকেজটি কিনে ডিপোজিট করতে পারেন। এই প্যাকেজটির মূল্য ২৫০০ ডলার। 

প্লাটিনাম

আপনি একজন বিশেষজ্ঞ ট্রেডার হয়ে থাকেন তাহলে আপনার জন্য এই প্লাটিনাম প্যাকেজটি। আপনি যদি এই প্যাকেজটি কিনতে চান তাহলে আপনার কমপক্ষে ৫০০০ ডলার খরচ করতে হবে। 

এক্সক্লুসিভ

এটি হচ্ছে এক্সপার্ট অপশন এর সর্বোচ্চ প্যাকেজ। এই স্তরের গ্রাহকেরা শুধু মাত্র আমন্ত্রণে এই লেভেলটি অর্জন করতে পারবেন। আপনিও যদি এক্সক্লুসিভ লেভেলে যেতে চান তাহলে আপনার অ্যাকাউন্ট ম্যানেজারের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।

আরো পড়ুনঃ বিকাশ থেকে লোন নেওয়ার উপায়

এক্সপার্ট অপশনে ভিআইপি মেম্বারদের জন্য কি কি সুবিধা থাকবে

আপনি যদি বিশেষজ্ঞ ভিআইপি ট্রেডার হয়ে থাকেন তবে আপনি বিভিন্ন ধরনের সুযোগ সুবিধা পেতে পারেন। এক্সপার্ট অপশনে ভিআইপি মেম্বারদের জন্য যে যে সুবিধাগুলো পেতে পারেন।

  • অ্যাকাউন্ট ম্যানেজারের সেরা সাপোর্ট 
  • শিক্ষা উপকরণ
  • দৈনিক আর্থিক গবেষণা প্রতিবেদন এবং বাজার পর্যালোচনা
  • অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্রত্যাহার
  • বিভিন্ন ট্রেডিং কৌশল অ্যাক্সেস
  • একটি ট্রেডে $ ২৫ থেকে $ ৫০০০ এর মধ্যে যেকোনো জায়গায় বিনিয়োগ করার সুবিধা
  • ৬% পর্যন্ত সম্পদের মুনাফা বৃদ্ধি করার সুবিধা 

এছাড়াও আপনি আরও অনেক সুযোগ সুবিধা পারেন যদি আপনি এক্সপার্ট অপশনে ভিআইপি মেম্বার হতে পারেন।

এক্সপার্ট অপশনে অ্যাকাউন্ট ভেরিফাই করার নিয়ম

আপনি যদি এক্সপার্ট অপশনে একটি রিয়েল অ্যাকাউন্ট করেন তবে অব্যশই আপনার অ্যাকাউন্ট ভেরিফাই করতে হবে। অ্যাকাউন্ট ভেরিফাই করতে চান তাহলে নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করতে পারেন। 

ই-মেইল ভেরিফিকেশন

আপনি যখন আপনার ই-মেইল দিয়ে অ্যাকাউন্ট খুলবেন তখন আপনার ই-মেইলে একটি Conformation মেইল যাবে। আপনি এবার যে ডিভাইসে ব্রাউজার দিয়ে এক্সপার্ট অপশন অ্যাকাউন্ট খুলেছিলেন সেই ব্রাউজারে আপনার ই-মেইল টি লগিন করবেন। 

এরপর ইনবক্সে দেখবেন এক্সপার্ট অপশন থেকে একটি ই-মেইল এসেছে আপনি মেইলটি ওপেন করে Conformation এর উপর ক্লিক করলেই এক্সপার্ট অপশন অ্যাকাউন্ট ভেরিফাই হয়ে যাবে। 

এনআইডি দিয়ে এক্সপার্ট অপশনে অ্যাকাউন্ট ভেরিফাই করার নিয়ম

সরকার কতৃক ইস্যুকৃত আপনার একটি এনআইডি কার্ড থাকতে হবে। প্রথমে আপনার অ্যাকাউন্ট লগিন করে নিবেন। এরপর এক্সপার্ট অপশনের “এডিট প্রফাইলে” যাবেন এরপর আপনার ব্যক্তিগত তথ্য, ঠিকানা এবং আপনার এনআইডি কার্ডের সামনের অংশ এবং পেছনের অংশ ভালোভাবে ছবি তুলতে হবে। 

এরপর আপনার নিজের একটা ছবি তুলতে হব এরপর আপ্লোড করে সেইভ করতে হবে। আপনার এক্সপার্ট অপশন অ্যাকাউন্টের সকল কিছু যাচাইয়ের পর ২৪ থেকে ৪৮ ঘন্টার মধ্য আপনার এক্সপার্ট অপশন অ্যাকাউন্ট ভেরিফাই হয়ে যাবে। 

কোন কোন দেশ থেকে এক্সপার্ট অপশন ব্যবহার করা যায়

বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে এক্সপার্ট অপশনে অ্যাকাউন্ট ক্রিয়েট করা যায় তবে বর্তমানে ৪৮টি দেশের লোকেরা ExpertOption এ বাণিজ্য করে। তার মধ্য কয়েকটি দেশ হচ্ছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, ইউরোপীয় অর্থনৈতিক এলাকা, সুইজারল্যান্ড, ইসরাইল, নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, উত্তর কোরিয়া, সিঙ্গাপুর, বাংলাদেশ, ইন্দোনেশিয়া, রাশিয়সহ বিভিন্ন দেশ এক্সপার্ট অপশনে ট্রেডিং করে।

এক্সপার্ট অপশন কিভাবে খেলে

শেষ কথাঃ এক্সপার্ট অপশন কি - এক্সপার্ট অপশন কিভাবে কাজ করে

পরিশেষ আমি কিছু কথা বলতে চাই, আজকে আমি আপনাদের জানানোর চেষ্টা করেছি এক্সপার্ট অপশন কি - এক্সপার্ট অপশন কিভাবে কাজ করে সম্পর্কে বিস্তারিত। এক্সপার্ট অপশন হলো একটি অনলাইন ট্রেডিং প্ল্যাটফর্ম। যা ব্যবহার করা সহজ, যদি তা আপনি ঠিকভাবে শিখতে পারেন। 

তবে এটাও জেনে রাখা উচিত এক্সপার্ট অপশননে টাকা ডিপোজিট করে যদি আপনি ঠিক ভাবে ট্রেডিং না করতে পারেন তাহলে বেশ ঝুকি আছে। তাই যারা এক্সপার্ট অপশনে ট্রেডিং করতে আগ্রহী তারা জেনে বুঝে ভালোভাবে ট্রেডিং শিখে তারপর ডিপোজিট করবেন। ধন্যবাদ!

0 Comments