পলিটেকনিক ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট ট্রেনিং - ডিপ্লোমা ইন্টার্নি ২০২৪

হাসিবুর
By -
0

ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট ট্রেনিং সেন্টার - বাংলাদেশের সেরা ইন্ডাস্ট্রিয়াল ট্রেনিং সেন্টার - ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট করার জন্য সেরা আইটি কোম্পানি ও ট্রেনিং ইনস্টিটিউট — আপনি যদি বাংলাদেশের সেরা ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট ট্রেনিং ইনস্টিটিউট খুঁজছেন তাহলে আপনি একেবারে সঠিক জায়গায় এসেছেন!! যারা ডিপ্লোমা ৭ম সেমিস্টার শেষ করেছেন এবং ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট করার জন্য বাংলাদেশের সেরা ইন্ডাস্ট্রিয়াল ট্রেনিং ইন্ডাস্ট্রি খুঁজছেন তাদের জন্য সেরা কয়েকটি প্রতিষ্ঠান নিয়ে আজকে আমরা আলোচনা করবো। আর যারা ডুয়েট এডমিশন কোচিং করার পাশাপাশি ইন্ডাস্ট্রিয়াল ট্রেনিং করে নিজের ভবিষ্যত সুনিশ্চিত করতে চান তাদের জন্যও সেরা প্রতিষ্ঠান নিয়েও আমরা আলোচনা করবো।

পলিটেকনিক ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট ট্রেনিং

সূচীপত্রঃ বাংলাদেশের সেরা ইন্ডাস্ট্রিয়াল ট্রেনিং সেন্টার

ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট কি

ইন্ডাস্ট্রিয়াল ট্রেনিং বা ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট হচ্ছে ইন্টার্নশীপ এর অপর নাম অর্থাৎ মূল বিষয় একই। মূলত ৪ বছর মেয়াদী সব ধরনের ডিপ্লোমা এবং বিএসসি কোর্স এর উপর প্রাকটিক্যাল বিষয়ে সঠিক জ্ঞান অর্জন করার জন্য একটা নির্দিষ্ট সময় যার যার সাবজেক্ট বা কোর্সের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে কোনো অফিস কিংবা ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করার নামই হচ্ছে ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট বা ইন্টার্নশীপ। ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট সম্পর্কে তো জানলাম, তাহলে ইন্ডাস্ট্রিয়াল ট্রেনিং কি?

আরো পড়ুনঃ দ্রুত চাকরি পাওয়ার উপায়

ইন্ডাস্ট্রিয়াল ট্রেনিং কি

শিক্ষা জীবনে যারা ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং অথবা বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং এ পড়ে থাকেন তাদের মধ্যে ৯০% শিক্ষার্থীই চাকুরী ক্ষেত্রে বিভিন্ন টেকনিক্যাল ইন্ডাস্ট্রি যেমন সফটওয়্যার, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, নেটওয়ার্কিং ইত্যাদি যেকোনো প্রতিষ্ঠানে বেশিরভাগ আইটি ম্যানেজার হিসেবে কাজ করেন। আর এই সকল প্রতিষ্ঠানে কাজ করার আগে তাদেরকে প্রাকটিক্যাল জ্ঞান অর্জন করার জন্য কোনো না কোনো প্রতিষ্ঠানে ইন্টার্নশীপ করতে হয়। মূলত এই ইন্টার্নশীপ এর এই কোর্সটিকে বলা হয় ইন্ডাস্ট্রিয়াল ট্রেনিং।

ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট নিয়ে একেকজনের মাথায় একেক ধরনের টেনশন কাজ করতে থাকে, বিশেষ করে প্রধান যে টেনশন তা হচ্ছে কি নিয়ে কাজ শেখা উচিত? কোথায় এবং কোন প্রতিষ্ঠানে কাজ করবো? যেখানে কাজ শিখবো, সেখানে কি পরবর্তীতে চাকরির ব্যবস্থা রয়েছে কি-না। 

অনেকই আছেন যারা আবার এই সময়টিতে বিভিন্ন বিষয়ের উপর ট্রেনিং করে থাকেন নিজের স্কিল আরো বেশি ডেভেলপ করার জন্য। অনেকেই ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্টকে খুবি গুরুত্বতার সাথে দেখেন, আবার অনেকেই আছেন ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্টকে সঠিক গুরুত্ব দেয়না। আচ্ছা তাহলে কোনটা সঠিক? ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট কে গুরুত্ব সহকারে দেখা? নাকি ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট যে গুরুত্ব না দেয়া?

আমার মতে ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং বলেন আর বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং বলেন, এই দুইটি শিক্ষার যেকোনোটি শেষ করার পরবর্তীতে একজন শিক্ষার্থীদের প্র্যাক্টিকাল বিষয়ের উপরে জ্ঞান কম থাকে আবার দেখা যায় অনেকের একদম বাস্তব কাজের অভিজ্ঞতা থাকেনা বললেই চলে। 

আর শিক্ষার্থীদের বাস্তব কাজের অভিজ্ঞতা না থাকা বা প্রাকটিক্যাল নলেজ না থাকার কারণে বাংলাদেশের মতো দেশে চাকুরির বাজারে চাকরি পাওয়া আকাশের চাঁদ হাতে পাওয়ার মতোই। আর মূলত এই কারণে একজন শিক্ষার্থীকে চাকুরি দাতাদের যাচাই বাছাই করার প্রাথমিক মানদন্ড হচ্ছে এই ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট। আর এই সময়টুকু একজন শিক্ষার্থীর উচিত ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট টাকে অধিকতর গুরুত্ব সহকারে দেখা।

আরো পড়ুনঃ ইংরেজি শেখার বাংলা ওয়েবসাইট

কোন বিষয়ে ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট করবেন?

ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং অথবা বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং এ একাডেমিক পড়ালেখার সমাপ্তি করার পরে অনেকেই সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগেন যে, কোন সেক্টরে কিংবা কোন বিষয়ের উপরে কাজ করলে বা কাজ শিখলে সেটা ভবিষ্যৎতের জন্য ভালো এবং কাজ শেখার পরে ভালো কোনো চাকুরি পাওয়া যাবে। এই বিষয়ে আমি পরামর্শ দিবো আপনি সর্বপ্রথমে সিদ্ধান্ত নিন যে আপনি নিজেকে ফিউচারে কি হিসেবে দেখতে চান বা প্রতিষ্ঠিত করতে চান?

এরপরে দেখুন বর্তমান বাজারে আপনি নিজেকে যে পেশার উপরে স্কিল গড়তে চান সেই পেশায় চাকুরির পাওয়ার সম্ভবনা কিংবা এই পেশার ভবিষ্যৎতে চাকুরির Availability কেমন থাকবে? অর্থাৎ যে পেশায় আপনি নিজেকে স্কিল করে গড়ে তুলতে চান সেই বিষয় আগামী ৫ থেকে ১০ বছর পরে এই পেশার অবস্থান কোথায় যাবে এই বিষয়ে ধারণা নিতে হবে। 

আর এই বিষয়টুকু খুবই সহজে ঘরে বসেই জানতে পারবেন। এই সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে বিভিন্ন জব পোর্টাল সাইট গুলোতে নিয়মিত ভিজিট করুন। এছাড়াও বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস গুলোতে কোন কাজের কেমন চাহিদা সে সম্পর্কে জানতে পারেন।

এরপরে আপনার পেশার জবগুলোকে একটি শর্টলিস্ট করুন দেখুন কোন কোন বিষয়ে জব হওয়ার সম্ভাবনা বেশি? এবং থেকে আপনার নিজের পছন্দের সাবজেক্টটি নির্বাচন করে নিন। তারপরে আপনার ভালো লাগা বা পছন্দের সাবজেক্টটির কোন কোন বিষয়ের উপরে এক্সপার্ট হতে হবে তার একটি তালিকা তৈরী করুন এবং আপনার তালিকা করার কাজের উপর ভিত্তি করে ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট এর জন্য প্রস্তুতি নিন। 

মনে রাখবেন অন্যের দেখে অন্যের পছন্দের করা সাবজেক্ট নিয়ে আপনার কখনো ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট করা উচিত নয়। আপনার যে কাজের প্রতি ভালো লাগা কাজ করবে বা যে কাজের প্রতি ইন্টারেস্ট আসবে সেই কাজের উপরে আপনি ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট করুন। 

কেননা বর্তমানে দেখা যায় কোনো বন্ধু-বান্ধবী যদি একটি বিষয়ের উপরের ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট করতে চায় তবে তার দেখাদেখি আরো কয়েকজন সেখানে হুজুগে চলে যায়। কিন্ত পরবর্তীতে উক্ত কাজের প্রতি তার ইন্টারেস্ট থাকে না। তাই যাই করুন না কেন আগে থেকে ভালো ভাবে বুঝে করুন।

আরো পড়ুনঃ বাংলাদেশে অনলাইনে লোন পাওয়ার উপায়

কোথায় ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট করবেন?

কোথায় কিংবা কোন আইটি বা প্রতিষ্ঠানে ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট ট্রেনিং বলতে গেলে এক কথায় যে প্রতিষ্ঠান আপনার সকল চাওয়া পূরণ গুলো করতে সক্ষম হবে আপনি সেখানে ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট করবেন। তাই সর্বপ্রথমে আপনার চাওয়াটাকে ঠিক করে নিতে হবে। মনে করুন আপনি সকলকিছু হিসাব নিকাশ করে সিধান্ত নিয়েছেন যে ওয়েব ডেভেলপমেন্টের উপর ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট করবেন। এটি করার জন্য প্রথমেই জেনে নিন ওয়েব ডেভেলপার (Web Developer) হিসেবে ক্যারিয়ার গড়তে হলে আপনাকে কোন কোন বিষয়ের প্রতি এক্সপার্ট হতে হবে।

আবার ধরুন আপনি ওয়েব ডেভেলপমেন্ট না শিখে গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখতে চান। তাই গ্রাফিক্স ডিজাইন শেখার পূর্বে জেনে নিন একজন প্রফেশনাল মানের গ্রাফিক্স ডিজাইনার হওয়ার জন্য আপনার কোন বিষয়ের উপরে অভিজ্ঞতা অর্জন করতে হবে।

অথবা ধরুন আপনি একজন নেটওয়ার্ক ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে নিজের ক্যারিয়ার গড়তে চান। এখানেও একইভাবে আপনাকে জেনে নিতে হবে একজন নেটওয়ার্ক ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে ক্যারিয়ার গড়তে হলে কোন কোন বিষয়ের প্রতি নিজেকে এক্সপার্ট করে তুলতে হবে।

তারপর যেখানে আপনি ইন্ডাস্ট্রিয়াল ট্রেনিং করবেন তাদেরকে আপনার মনের ভিতর থাকা সকল প্রশ্ন করুন এবং আপনার করা ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট বিষয় সম্পর্কে লিস্ট তাদের হাতে ধরায় দেন। আর তারা আপনাকে আপনার দেয়া লিস্টের বিষয়গুলোর প্রতি এক্সপার্ট বানাতে পারবে কিনা? যদি তারা আপনাকে বলে হ্যাঁ আপনাকে উক্ত বিষয়ের উপরে এক্সপার্ট করে গড়ে তুলবে। 

তাহলে নিশ্চিন্তে আপনি সেখানে ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট ট্রেনিং করতে পারেন। আর যদি না হয় তাহলে অন্য কোনো প্রতিষ্ঠান খুঁজে দেখুন। আপনার জন্য মনে রাখা ভালো হবে যে, প্রতিষ্ঠান বাছাইয়ের ক্ষেত্রে কমার্শিয়াল ট্রেনিং সেন্টার গুলো থেকে বিরত থাকার চেষ্টা করবেন। কেননা বর্তমানে ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট ট্রেনিং শেখানোর নাম করে কমার্শিয়াল ট্রেনিং সেন্টার দিয়ে ভরপুর।

ব্লগ ক্যাটাগরি:

এখানে আপনার মতামত জানান

0মন্তব্যসমূহ

আপনার মন্তব্য লিখুন (0)

#buttons=(ঠিক আছে, ধন্যবাদ) #days=(20)

টেকনিক্যাল কেয়ার বিডি তে আপনাকে স্বাগতম. ❤️
Ok, Go it!