Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2022/04/business-ideas.html

মেয়েদের জন্য বিজনেস আইডিয়া

মেয়েদের জন্য বিজনেস আইডিয়া — বর্তমান সময়ে পুরুষের পাশাপাশি নারীরাও কিন্ত পিছিয়ে নেই পুরুষের থেকে। চাইলে নারীরাও এখন ঘরে বসে বিভিন্ন প্রকার ব্যবসার মাধ্যমে টাকা উপার্জন করতে পারে। মেয়েদের জন্য প্রচুর পরিমাণে ব্যবসার আইডিয়া আছে তার মধ্যে থেকে আমরা কিছু আইডিয়া নিয়ে আজকে কথা বলব। সঠিক উপায়ে ব্যবসা ঠিকভাবে না বুঝতে পারলে কোন ব্যবসায়িক সফলতা সম্ভব নয়। আজকের আর্টিকেলে মেয়েদের জন্য কিছু ব্যবসার আইডিয়া নিয়ে হাজির হয়েছি যেগুলো অবলম্বন করে মেয়েরা ঘরে বসে ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

মেয়েদের জন্য বিজনেস আইডিয়া

পেজ সূচীপত্রঃ মেয়েদের জন্য বিজনেস আইডিয়া

মেয়েদের জন্য বিজনেস আইডিয়া

বেশিরভাগ মেয়েরা চাকরি করতে না চাইলেও কিছু একটা করার পিছে ছুটে চলে। কিন্তু সঠিক ধারণা অনেকের না থাকার ফলে কোনো কিছুই করতে পারেনা। তাই নিচে মেয়েদের জন্য কয়েকটি বিজনেস আইডিয়া শেয়ার করলাম। যেগুলো ব্যাবহার করে মেয়েরা ঘরে বসে বিজনেস ও টাকা উপার্জন করতে পারবেন। 

১। অনলাইনে জামাকাপড় এর ব্যবসা

বর্তমানে ফেসবুক খুললেই দেখা যায় কোনো মেয়ে ফেসবুক লাইভের মাধ্যমে শাড়ি বা কোনো জামা, কাপড় ইত্যাদি বিক্রি করতেছে। বর্তমানে অনলাইনে জামাকাপড় বিক্রি করা ট্রেন্ডিং একটি ব্যবসা। বেশিরভাগ মেয়ে এই ব্যবসার সাথে জড়িত। ঘড়ে বসেই সকল কাজগুলো করে ফেলা যায়। লাভ ও অনেক বেশি। 

ফেসবুক লাইভ করতে না চাইলে শুধুমাত্র পেজ অথবা গ্রুপের মাধ্যমে এগুলো বিক্রি করতে পারবেন। যেভাবে মেয়েরা অনলাইনে জামা কাপড় এর ব্যবসা করবেনঃ-

১। প্রথমে একটি ফেসবুক পেজ ওপেন করে নিন ২। পেজে কিছুসংখ্যক ফলোয়ার যুক্ত করুন ৩। প্রয়োজনে ফেসবুক বুস্টিং পরিষেবা গ্রহন করুন ৪। আপনি যে পোষাক টি বিক্রি করবেন সকল গুনাগুন ভালো করে লিখে দিন ৫। সম্ভব হলে নিজে পোষাক পরিধান করে লাইভ করুন। এতে কাস্টমার বেশী আগ্রহী হবে ক্রয়ের জন্য ৬। কুরিয়ার বা রেডেক্স এর মাধ্যমে পন্য ডেলিভারি দেয়ার ব্যাবস্থা করতে হবে ৭। কাস্টমার কে কনভিন্স করার জন্য যেভাবে কথা বলতে হয় ঠিক সেভাবেই কথা বলবেন।

আরো পড়ুনঃ গান রেকর্ড করার সফটওয়্যার

২। রান্না করে খাবার ডেলিভারি ব্যবসা

বর্তমানে ইন্টারনেটের মাধ্যমে অন্যতম মেয়েদের ব্যবসা হলো বাসায় রান্না করা খাবার বিক্রি করা। বাসায় বসে রান্না করবেন বিভিন্ন আইটেম সেগুলো অন্যের কাছে বিক্রি করে আয় করতে পারবেন। এটাকে আপনি ফুডপান্ডার অল্টারনেট বলতে পারেন। অনেক লোক রয়েছে যাদেরকে বাহিরের খাবার খেতে হয়। তারা যদি ঘরের রান্না হওয়া খাবার পায় এবং আপনার রান্না যদি ভালো লাগে তাদের। আপনি খুব সহজেই দারুন একটি ব্যবসা দাড় করাতে পারবেন। রান্না করে খাবার ডেলিভারি ব্যবসা যেভাবে করবেনঃ

১। ফেসবুকে এমন একটি গ্রুপ কে বেছে নিন যেখানে আপনার নিজস্ব এলাকার সকল মানুষ আছে ২। বিভিন্ন খাবার রান্না করুন। সুন্দর ভাবে সাজিয়ে সেগুলোর ছবি তুলে ফেসবুকে দিন ৩। অনেক মানুষ পেয়ে যাবেন। আপনি চাইলে নিজে গিয়ে ডেলিভারি করতে পারবেন অথবা কাউকে দিয়ে পাঠিয়ে দিবেন। 

৩। পোষাক তৈরি করার ব্যবসা

সেলাই মেশিন ব্যবহার করে কাপড় তৈরি করে ব্যবসা মেয়েদের জন্য একটি প্রাচীনতম ব্যবসা। বহুবছর আগে থেকেই প্রায় ৭০% নারী এই পেশায় নিয়োজিত। অনেক মানুষ আছে যারা বাজারের তৈরি পোষাক পড়তে অনাগ্রহ দেখায়। তারা বেশিরভাগই হাতে শেলাইকৃত পোষাক পড়তে পছন্দ করে। আপনি চাইলে বিভিন্ন মেয়েদের কাপড় তৈরি করে তা বিক্রি কররে পারবেন। 

আপনার এলাকার অধিকাংশ মেয়ে পাবেন যারা বাজারে দর্জির কাছে সেলাই না করে আপনার কাছে আসতে স্বাচ্ছন্দ বোধ করবে। এই ব্যবসা শুরু করতে যা দরকারঃ ১। একটি সেলাই মেশিন কিনে নিন ২। আপনি নিজে সেলাই না পারলে কোনো প্রতিষ্ঠানিক ট্রেনিং সেন্টার কিংবা যে সেলাই জানে তার মাধ্যমে শিখে নিন ৩। বিভিন্ন কাপড় তৈরি করে ফেসবুকে এডস প্রদান করতে পারেন। নিজস্ব এলাকায় বিক্রি করতে পারেন।

আরো পড়ুনঃ ইংরেজি শেখার সহজ উপায়

৪। রেসিপি ভিডিও তৈরি করার ব্যবসা

এই ডিজিটাল যুগে এখন আর কেউ বই কিনে রেসিপি দেখে না। আমরা যখন নতুন কোনো খাবার বা যেকোনো খাবার তৈরি করতে যাই। ইউটিউব ব্যবহার করে সেটা কিভাবে রান্না করবো সম্পুর্ন দেখে নেই। আপনি চাইলে আপনার হাতে থাকা স্মার্টফোন দিয়ে ঘড়ে বসে বিভিন্ন প্রকার রান্নার উপকরণ, রেসিপি ভিডিও বানিয়ে ইউটিউবে আপলোড করতে পারেন। আজকাল অধিকাংশ মানুষ রান্নার রেসিপি ভিডিও তৈরির কাজ করে থাকে। রেসিপি ভিডিও তৈরি করার ব্যবসা যেভাবে করবেনঃ

১। বিভিন্ন প্রকার রেসিপি সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করুন। চাইলে কোনো রেসিপি বই, বিদেশি রেসিপি বই ইত্যাদি সংগ্রহ করুন ২। আপনার ক্যামেরা না থাকলে হাতে থাকা স্মার্টফোন টির ক্যামেরা যেন সুন্দর কোয়ালিটি ধারণ কর‍তে পারে সেদিকে লক্ষ রাখুন 

৩। যে রেসিপি তৈরি করবেন অবশ্যই ভিডিও শেষে ভালো একটি রিভিউ দেয়ার চেষ্টা করবেন। রান্নার সকল উপকরন গুলো ভিডিও তে লিখে বা বলে দিতে পারেন ৪। ভিডিও এডিটিং করতে পারবেন ফোনের মাধ্যমেই। ফোন থেকে কিভাবে এডিট করবেন ইউটিউব থেকে দেখে নিন ৫। ভিডিও শেয়ারিং প্লাটফর্মে আপলোড করে দিন। যেমন - ফেসবুক, ইউটিউব। 

৫। ফ্যাশন ডিজাইন এর ব্যবসা

প্রতিটা মানুষ চায় তার পরিধানকৃত পোষাকটি যেন চমৎকার লাগে। আপনি চাইলে বিভিন্ন প্রকার জামাকাপড় ক্রয় করে তার উপরে হাতের তৈরি বিভিন্ন নকশা তৈরি করে বিক্রি করতে পারেন। আপনি যদি আর্ট করায় দক্ষ হয়ে থাকেন চাইলে আর্ট করে বিক্রি করতে পারবেন। অনলাইন কিংবা অফলাইনে হাতে তৈরি আর্ট করা জামাকাপড় ব্যাপক চাহিদা সম্পন্ন। আপনি চাইলে সেলাই করার মাধ্যমে বিভিন্ন নকসা ফুটিয়ে তুলতে পারেন। এই ব্যবসা অনলাইন বা অফলাইন করে ভালো পরিমান টামা উপার্জন করতে পারেন। মেয়েদের ব্যবসার আইডিয়ার জন্য এটাকে বেছে নিতে পারেন।

আরো পড়ুনঃ পড়াশোনার পাশাপাশি কিভাবে আয় করা যায় জেনে নিন

৬। ড্রপশিপিং ব্যবসা

আমরা প্রায়সময়েই ফেসবুকে বিভিন্ন লোকের এডস দেখতে পাই। যেসব পণ্য তার ক্রয়কৃত থাকে না। কোনো ক্রেতা যদি উক্ত পণ্য অর্ডার করে এরপরে দোকান থেকে ক্রয় করে ডেলিভারি করে দেয়া হয়। আপনার নিজস্ব পণ্যের ব্যবস্থা না থাকলে এটি করতে পারেন। অনলাইন অথবা অফলাইন ২ টাতেই এই ব্যবসা মেয়েরা করতে পারে। 

সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম ব্যাবহার করে সমগ্র দেশের মানুষের কাছে আপনার পণ্য স্থানান্তর করতে পারবেন। চাইলে আপনি কোনো দোকানের সাথে ডিল করে নিতে পারেন। যে তার পন্যগুলো আপনি সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে মার্কেটিং করে দিবেন। এ ক্ষেত্রে দোকান থেকেও আপনি পণ্য নেয়ার পরিবর্তে অতিরিক্ত কমিশন পাবেন।

৭। টিউশনি করানোর ব্যবসা

আপনি যদি কোনো প্রতিষ্ঠানে অধ্যায়নরত বা আপনার পড়াশোনা শেষ হয়ে যায় আপনি চাইলে আপনার ফ্রি সময়ে প্রাইভেট পড়াতে পারেন। টিউশনি করে প্রচুর টাকা আয় করা সম্ভব। আপনার আশে পাশে যেসব শিক্ষার্থী রয়েছে তাদের চাইলে ঘড়ে বসে পড়াতে পারবেন। আপনি ভালো করে পড়াতে পারলে ছাত্র/ ছাত্রীর কখনো অভাব হবে না।

টিউশনি এমন একটি ব্যবসা যেখানে আপনি আয় করার পাশাপাশি নিজের ক্যারিয়ার জীবনের সকল কিছু পড়ে নিতে পারবেন। টিউশনি জ্ঞানের পরিধি বাড়াতে সাহায্য করে৷ আপনি চাইলে অনলাইনেও প্রাইভেট পড়ানোর ব্যবসা শুরু করতে পারেন। বিভিন্ন শিক্ষার্থীর গ্রুপে পোষ্ট করতে পারেন যে আপনি পড়াতে চান। সেখান থেকে নানা স্টুডেন্ট আপনি পড়ানোর জন্য পাবেন। প্রথম একজন স্টুডেন্ট পেলে পরে আর অভাব হবে না আসতেই থাকবে। 

আজকের আর্টিকেলে মেয়েদের কয়েকটি বিজনেস আইডিয়া শেয়া করলাম। এই উপায় গুলো ফলো করে আপনারা ঘড়ে বসে বিজনেস করতে পারবেন। অধিকাংশ মেয়েরা ঘড়ে বসে থাকার চেয়ে কিছু একটা করতে চান। তাদের জন্য আজকের পোষ্ট মেয়েদের জন্য বিজনেস আইডিয়া অনেকটাই সহায়তা করবে।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?