Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2021/09/how-to-earn-money-from-google-without-investment.html

Google থেকে টাকা ইনকাম করার উপায় | গুগল থেকে টাকা আয় করার সহজ উপায়

Google থেকে টাকা ইনকাম করার উপায় | গুগল থেকে টাকা আয় করার সেরা ৫টি উপায় — বর্তমানে আমাদের অনলাইন ব্যবহারের জনপ্রিয়তা প্রতিনিয়ত বেড়েেই চলছে। আমরা আমাদের প্রতিদিনের নিয়মিত কাজে যথাযথ ভাবে অনলাইন ব্যবহার করে থাকি। আর এই অনলাইনের ব্যবহার বর্তমান একটি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে গিয়েছে। অনলাইনে ইনকাম করার অসংখ্য ওয়েবসাইট রয়েছে তার মধ্যে গুগল থেকে আয় করা একটি জনপ্রিয় মাধ্যম হয়ে থাকে। গুগল থেকে প্রচুর টাকা আয় করার সেরা ৫টি উপায় সম্পর্কে আমাদের আজকের এই আর্টিকেলে আলোচনা করবো।

Google থেকে টাকা ইনকাম

টেকনোলজির বিশেষভাবে এগিয়ে যাওয়াতে সারাবিশ্বে বর্তমানে অনলাইনের মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছে। বর্তমান সময়ে শুধু আমাদের দেশেই নয় পৃথিবীর প্রায় বেশিভাগ দেশে অনলাইনের মাধ্যমে নানা কাজ পরিচালিত করা হয়ে থাকে। 

আজকের এই দিনে অধিকাংশ মানুষ কাজকর্ম পরিচালিত করতে অনলাইনকে বেশিভাগ গুরুত্ব দিয়ে চলছে। আর এই আধুনিক যুগে অনলাইন ব্যবহার বৃদ্ধির মাধ্যমে আমরা বিভিন্ন সেবা পেয়ে থাকি। তা অনলাইনকে আমরা আমাদের ক্যারিয়ার গঠন করার জন্য প্রধান উপায় হিসাবে ব্যবহার করে থাকি। বর্তমানে এই মর্ডান যুগে ইন্টারনেটকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন পদ্ধতিতে টাকা আয় করে যাচ্ছি।

অনলাইনে ইনকাম করার ব্যাপারটি দিন দিন বৃদ্ধি পেয়ে যাচ্ছে। বর্তমান এই সময় চাকরি বাজারে এক বিশেষ মেধার প্রতিযোগিতার কারণে আমরা বেশিভাগই অনলাইনে ইনকাম করে কিভাবে নিজেকে প্রস্তুত করব, কিভাবে নিজের পায়ে দাঁড়াবো সেই সম্পর্কে চিন্তাভাবনা করেই চলছি।

সাধারণত অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করার জন্য বিভিন্ন পদ্ধতি রয়েছে। অনলাইনে বিভিন্ন সাইটে বিভিন্নভাবে কাজ করে মানুষ প্রতিনিয়ত ইনকাম করতে পারে। তবে অনলাইনে ইনকাম করার পেশাটিকে ফ্রিল্যান্সিং আউটসোর্সিং বলে সম্বোধন করা হয়। ফ্রিল্যান্সিং পেশাকে বর্তমানে অধিকাংশ মানুষের কাছে একটি জনপ্রিয় পেশা হয়েই দাঁড়িয়েছে।

আমাদের দেশের অনেক বেকাররা এখন তাদের ক্যারিয়ার গঠনের জন্য ফ্রিল্যান্সিং পেশাকে বেছে নিয়েছে। এই ফ্রিল্যান্সিং করে অনেকেই লক্ষ লক্ষ টাকা উপার্জন করে চলছে, আবার কেউ কেউ কাজ ভালো মতন না পারার কারণে এক টাকাও ইনকাম করতে পারে না। এই পেশা করে আপনি মাসে বা বছরে কত টাকা ইনকাম করতে পারবেন সে সম্পর্কে ধরাবাঁধা কোনো নিয়ম নেই। এখানে আপনি যতবেশি ভালোভাবে কাজ করতে পারবেন আপনার ইনকামও কিন্ত ততবেশি হয়ে থাকবে।

তাই আপনাকে সর্বপ্রথম যেটা করতে হবে সেটা হচ্ছে, আপনি যে বিষয় নিয়ে কাজ করতে ইচ্ছুক সেই বিষয়ে আপনাকে ভালো মতো জানার প্রয়োজন হবে। আপনাকে ভালো কাজ করার দক্ষতা অর্জন করতে হবে। চাকরির বাজারের মতো এখানেও এক ধরনের প্রতিযোগিতা আছে। আর ভালো দক্ষতা অর্জন করার জন্য আপনাকে ধৈর্যশীল হয়ে কাজ করে যেতে হবে।

আপনি যদি আপনার চেষ্টাকে পুরোপুরি কাজে লাগাতে পারেন তবে আপনি সফল হবেন। অনলাইনে ইনকাম করার সাইট গুলোতে এমন চিন্তা ভাবনা একেবারেই করবেন না যে আপনি রাতারাতি বড়লোক হয়ে যাবেন। বলতে গেলে সেটাই বলতে হবে যে, আপনি ধৈর্য ধরে কাজ চালিয়ে যান এবং নিজের চেষ্টাকে কাজে লাগিয়ে যান তাহলেই আপনি সফলতা লাভ করতে পারবেন।

আর এই অনলাইনের অধিকাংশ সাইটের মধ্যে গুগল সাইটে কাজ করে প্রচুর টাকা আয় করার বিষয়টি ইতিমধ্যে অনেক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। আজকের এই আধুনিক যুগে গুগল সাধারণত একটি বিশেষ জনপ্রিয় সাইট। যা শুধুমাত্র বাংলাদেশেই নয় সারা বিশ্বের বিভিন্ন দেশ এই সাইটকে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে থাকে। 

এই সাইটটি অসংখ্য জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে সারা বিশ্বে তা বলে শেষ করা যাবেনা। আর এই সাইটটিতে কাজ করে আয় করার বিষয়টি এটিকের চাকরি করা তেমন কিন্তু কিছু নয়। আজকালের এই অনলাইন প্রিয় জগতে মানুষ অসংখ্য সাইটে কাজ করে ইনকাম করে চলছে ঠিক তেমনি গুগল একটি সাইট যেখানে আপনি কাজ করে ভালো মানের ইনকাম করতে পারবেন।

গুগল হচ্ছে সাধারণত ইন্টারনেট ভিত্তিক একটি সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান। গুগল এর বিভিন্ন সেবার মধ্যে সবচেয়ে বেশি যেটি ব্যবহৃত হয় সেটি হলো গুগল সার্চ। তবে যাই হোক কিন্তু আপনি কিভাবে গুগল ওয়েবসাইটকে কাজে লাগিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারবেন সেই সম্পর্কে আপনাদেরকে বিস্তারিত জানানোর জন্য আজকে আমাদের এই গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা।

আমাদের মাঝে অনেকেই আছি যারা এখনো জানি না যে, গুগল ওয়েবসাইট থেকে কিভাবে ইনকাম করবো। গুগল থেকে টাকা ইনকাম করার সেরা ৫টি উপায়গুলো সম্পর্কে আজকে আমরা এই আর্টিকেলে জানাবো। তো চলুন আর দেরি না করে বিস্তারিত জেনে নেই গুগল থেকে ইনকাম করার উপায় বা কিভাবে আপনি গুগল থেকে ইনকাম করতে পারবেন। Google থেকে ইনকাম করার সেরা উপায় গুলো সম্পর্কে বলা হলোঃ

১। ইউটিউব থেকে টাকা আয়

ইউটিউবকে সাধারণত গুগলের একটি ভালো সাইট বলা যায়। অধিকাংশ মানুষের এখন ভিডিও দেখার সবচেয়ে জনপ্রিয় সাইটটি হলো এই ইউটিউব। এখানে সাধারণত আপনি অনেক সুন্দর সুন্দর ভিডিও আপলোড করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

তবে আপনার আপলোড করা ভিডিও গুলো হতে হবে নিজস্ব কোনো প্রকার কপি করা যাবেনা। এখানে আপনি আপনার দৈনন্দিন জীবনের বিভিন্ন ভিডিও শেয়ার করতে পারেন। এসব ভিডিও দেখে মানুষ যেন কিছু শিখতে পারে বা জানতে পারে বা আপনার করা ভিডিও মানুষকে আনন্দ দিতে পারে এসব বিষয় অবশ্যই আপনি খেয়াল রাখবেন।

তাছাড়া আপনি ইউটিউবে নিজের কোনো পণ্যের ভিডিও তৈরি করে সেখান থেকে প্রচার করতে পারেন এবং পণ্য বিক্রি করতে পারেন। ইউটিউবে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে বা বিভিন্ন স্পন্সরশীপ নিয়ে প্রচুর টাকা আয় করতে পারেন।

স্পন্সরশীপ কাজ করলে তখন গুগল থেকে আয় করার পাশাপাশি সেই কোম্পানি থেকে একটি নির্দিষ্ট পরিমান টাকা আপনি ইনকাম করতে পারবেন। তবে শুরুতে আপনাকে যেটি করতে হতে পারে সেটি হচ্ছে ইউটিউবে আপনাকে একটি চ্যানেল খুলতে হবে। তারপর আস্তে আস্তে সেখানে ভিডিও আপলোড করতে হবে আপনার ভিউয়ার্স বাড়ার সাথে সাথে আয় ও বাড়বে। যা গুগল থেকে টাকা ইনকাম করার সহজ এবং সেরা একটি উপায়।

আরও পড়ুনঃ ইউটিউব চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার বাড়ানোর উপায়

২। গুগল অ্যাডসেন্স থেকে টাকা ইনকাম

গুগল অ্যাডসেন্স হচ্ছে সাধারণত ব্লগারদের একটি প্রিয় ওয়েবসাইট। যে ওয়েবসাইট থেকে মানুষ নানা পদ্ধতিতে টাকা ইনকাম করতে পারে। এই গুগল অ্যাডসেন্স ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে অ্যাড বা বিজ্ঞাপন দেখানো হয়ে থাকে। ওয়েবসাইটে কিংবা ইউটিউবে অ্যাড দেখানোর মাধ্যমে গুগল সেই ইউটিউব কিংবা ওয়েবসাইটের মালিকদেরকে টাকা প্রদান করে।

গুগল অ্যাডসেন্স বিভিন্ন কোম্পানি থেকে টাকার বিনিময়ে অ্যাড নিয়ে থাকে। এখন কথা হচ্ছে যে, এই অ্যাডগুলো তারা কোথায় প্রদর্শন করবে বাংলাদেশ টেলিভিশনে দেখানো তো সম্ভব না। তারা এই অ্যাডগুলোকে যথাক্রমে ইউটিউব চ্যানেল এবং বিভিন্ন ব্লগ ওয়েবসাইটে প্রদর্শন করিয়ে থাকে। এখানে আপনার আয়ের সাধারণত নির্ভর করে ভিজিটর বা ভিউ এর উপরে। গুগল এডসেন্স সাধারণত ওয়েবসাইট মালিকদের দেয় ৬৮% ইউটিউববারদের দেয় ৫১%।

আপনার ওয়েবসাইট ব্লগ, ইউটিউব চ্যানেলটি যখন পপুলার হয়ে যাবে তখন আপনি সেখানে গুগল এডসেন্স যুক্ত করে দিবেন। সেখানে গুগল এড দেখাবে যখন কেউ দেখবেও ক্লিক করবে তখন গুগল টাকা দিবে। গুগল থেকে টাকা ইনকামের সেরা ওয়েবসাইট গুলোর মাঝে এটিও একটি।

৩। ব্লগিং করে টাকা আয়

ব্লগিং করে সাধারণত গুগল থেকে টাকা ইনকাম করা যায়। বর্তমানে এই কাজটি অনেক বেশি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। আমাদের দেশে বর্তমানে অনেক ভালো ভালো ব্লগার আছে তাদের মাসিক ইনকাম প্রচুর পরিমাণে হয়ে থাকে। ব্লগার হচ্ছে গুগলের একটা সার্ভিস। ব্লগে বিভিন্ন আর্টিকেল দেয়ার মাধ্যমে টাকা ইনকাম করা যায়। আপনি আপনার বিভিন্ন টপিক নিয়ে ব্লগে লিখতে পারেন। সেই টপিক সম্পর্কিত কিছু যখন মানুষ গুগলের সার্চ করবে তখন আপনার লেখা সবাই দেখতে পারবে এক্ষেত্রে অবশ্যই আপনার লেখার মান ভালো হতে হবে। তাহলে আপনি অনেক ভালোভাবে ও সহজেই ভালো টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

ব্লগিং বাংলা অথবা ইংলিশ ২ ভাষাতেই হতে পারে। যেকোনো বিষয়ের উপরে লেখার জন্যে পূর্বে থেকে সেই বিষয়টি নিয়ে রিসার্চ করার প্রয়োজন হবে। লেখাটিকে আপনাকে সাধারণত মানসম্মতভাবে এবং অনেক সুন্দর তথ্যবহুল দিয়ে সাজাতে হবে। সাধারণ জনগন যাতে করে আপনার ভাষা ভালোমতো বুঝতে পারে সেই ধরনের ভাষা আপনাকে প্রয়োগ করার প্রয়োজন হবে এমন কোনো ধরনের ভাষা আপনি কখনো ব্যবহার করবেন না যাতে উক্ত ভাষা মানুষের বুঝতে অনেক সমস্যা হয়।

ব্লগিং করে সাধারণত লাখ লাখ টাকা ইনকাম করা সম্ভব প্রতিমাসে যদি ১০০ ডলার হয়ে থাকে তাহলে গুগল সরাসরি আপনার ব্যাংক একাউন্টে টাকা পাঠিয়ে দিবে। গুগল সাইট থেকে টাকা আয় করার সেরা ওয়েবসাইট গুলোর মাঝে এটি একটি অন্যতম সেরা ওয়েবসাইট।

আরও পড়ুনঃ ব্লগারে ভিজিটর বাড়ানোর উপায়

৪। গুগল এডওয়ার্ড থেকে টাকা আয়

গুগল এড ওয়ার্ল্ড হচ্ছে অ্যাড দেয়ার একটি মাধ্যম। এটি এমন একটি অ্যাপ্লিকেশান যেখানে আপনি আপনার বিভিন্ন প্রোডাক্টের অ্যাড দেখাতে পারেন এবং সেখান থেকে বিক্রিও করতে পারেন। গুগল ওয়েবসাইটে টাকা ইনকামের সেরা উপায়গুলো যেগুলো রয়েছে এই উপায়টিও তাদের মধ্যে একটি। তবে এখানে অ্যাড দেখানোর জন্যে কিছু পরিমাণে অর্থ ব্যয় করার প্রয়োজন হবে, অ্যাফিলিয়েট করা প্রোডাক্ট গুগল এডওয়ার্ডের মাধ্যমে বিক্রি করতে পারবেন। এখানে আপনাকে একাউন্ট খুলতে হবে তারপর আপনার নির্দিষ্ট ভাবে আপনাকে কাজ চালিয়ে যেতে হবে। আপনি এখানে কোনো রকম ঝামেলা ছাড়াই কাজ করে যেতে পারবেন।

৫। গুগল অ্যাডমোব থেকে টাকা আয়

এডমোব হচ্ছে এক ধরনের মোবাইল অ্যাডভার্টাইজিং সার্ভিস। এটার নির্দিষ্ট কাজ হচ্ছে মোবাইলে বিভিন্ন অ্যাপের মাঝে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করা। এটি সাধারণত গুগল অ্যাডসেন্সের মতোই হয়ে থাকে। তবে এখানে মোবাইলের অ্যাপস অ্যাড দেখানো হয়। যদি আপনি কোনো মোবাইল অ্যাপ তৈরি করে থাকেন তবে সেখানে অ্যাড দেখিয়ে আপনি ভালো অংকের টাকা আয় করতে পারবেন।

আমরা আমাদের মোবাইলে বিভিন্ন ধরনের অ্যাপ ডাউনলোড করে থাকি। প্রতিনিয়ত এই সকল অ্যাপ ব্যবহার করার সময়ে বিভিন্ন ধরনের অ্যাড দেখতে পাবেন। এই অ্যাডগুলো দেখানোর মাধ্যম এই অ্যাপের প্রতিষ্ঠাতা টাকা ইনকাম করে থাকে। তবে আপনি যদি কোন অ্যাপস বানান তাহলে তা অবশ্যই গুগল প্লে স্টোরে পাবলিশ করতে হবে। প্লে স্টোরে যদি পাবলিশ করতে না পারেন তাহলে তা বেশি মানুষের কাছে পৌঁছাবে না এবং আপনার ভালো ইনকাম কখনোই হবে না।

আরও পড়ুনঃ অনলাইন থেকে আয় করার সহজ উপায়

শেষ কথা

গুগলের যে ওয়েবসাইট গুলো সম্পর্কে আমরা আলোচনা করলাম সেই সবগুলো ওয়েবসাইট গুগল থেকে আয় করার এক সেরা ওয়েসাইট বলা হয়ে থাকে। আপনি চাইলে আর দেরি না করে চেষ্টা করে দেখতে পারেন। উপরের আলোচিত সেরা ৫টি উপায়কে আপনি যথাযথ ভাবে কাজে লাগিয়ে খুব ভালোভাবে আয় করে যেতে পারেন।

এই সেরা ৫টি উপায়ের মাধ্যমে আয় করতে আপনাকে কোনো রকম ঝামেলাতে পড়তে হবেনা। আপনি যদি একটু ভালো করে এই ৫টি সেরা উপায় ফলো করে থাকেন তাহলে যথাসম্ভব আপনিও গুগল থেকে টাকা আয় করতে পারবেন। আমাদের লেখা আর্টিকেলটি যদি আপনার ভালো লেগে থাকে তাহলে দয়া করে অবশ্যই আপনার পছন্দমত একটি ওয়েবসাইটে এই আর্টিকেলটি একবার শেয়ার করবেন। আপনাদের করা একটি শেয়ার আমাদেরকে পরবর্তীতে আরো ভালো আর্টিকেল লিখতে উৎসাহিত করবে ধন্যবাদ।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া