Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2021/07/what-is-incognito-mode.html

Incognito mode কি? কিভাবে Incognito mode ব্যবহার করবেন

ইনকগনিটো মোড কি? গুগল ক্রোম ব্রাউজারে কিভাবে ইনকগনিটো মোড ব্যবহার করবেন? — আজকের এই আর্টিকেলে আমরা বিস্তারিত জানবো যে, Incognito mode কি? কেন আমরা incognito mode ব্যবহার করবো, Incognito mode ব্যাবহারে সুবিধা ও অসুবিধা কি সেই সম্পর্কে। Google Chrome ব্রাউজারে Incognito mode কিভাবে ব্যবহার করবেন। 

Incognito mode কি? কিভাবে Incognito mode ব্যবহার করবেন

আপনি জেনে রাখবেন যে যখনই আপনি গুগল অথবা ইউটিউবে কোনো কিছু সার্চ করেন, আপনার স্মার্টফোন বা কম্পিউটারের ব্রাউজার সেগুলো রেকর্ড করে। আর পরবর্তীতে আপনি গুগল অথবা ইউটিউবে যান। তারপরে আপনি সেগুলোর সার্চ হিস্টোরি দেখতে পান। যাহোক, গুগলের এই প্রক্রিয়াকে বলা হয়ে থাকে সেভিংস কুকিজ। যা আপনার অভিজ্ঞতা আরো বেশি উন্নত করার জন্যে গুগল ইউজ করে থাকে। 

তোহ এই Incognito mode কি? গুগল ক্রোম ব্রাউজারে কিভাবে Incognito mode ব্যবহার করবেন? অনেক আছেন যারা আগে থেকেই জানেন যে Incognito mode কি। কিন্তু আমার মনে হয় যে বর্তমানে অনেক মানুষ আছেন যারা ইন্টারনেট ব্যবহার করে কিন্তু তারা জানেন না যে Incognito mode কি? Incognito mode কিভাবে ব্যবহার করে। Incognito mode ব্যবহার করার সুবিধা ও অসুবিধা কি।

ব্রাউজারের Incognito mode একটি খবই গুরুত্বপূর্ণ জিনিস যারা Incognito mode পূর্বে ব্যবহার করছে তারা জানেন যে মোবাইলে ব্রাউজারে Incognito mode আমাদের জন্য কতটা কাজের। 

Incognito mode কি

আপনি ইনকগনিটো মোডকে গোপনীয়তা মোড বা ব্যক্তিগত সার্চ হিসেবেও কল করতে পারেন। গোপণীয়তা মোড আপনার সার্চ হিস্ট্রিগুলো এবং ক্যাশ ফাইলগুলোকে সংরক্ষণ করেনা। আর আপনি এই ট্যাব বন্ধ করার সঙ্গে সঙ্গে সবকিছু স্বয়ংক্রিয়ভাবে রিমুভ হয়ে যায়। Incognito mode ব্যবহার করে আপনি যেকোনো ইন্টারনেট ক্রিয়াকলাপ ব্যবহার করছেন সেগুলো সাধারণ ব্রাউজারে দৃশ্যমান নয়। এটি হচ্ছে আপনি যখনই সেই ব্রাউজারটি খুলবেন তখন সেটা সব সময় নতুন সার্চে থাকবে।

আরও পড়ুনঃ কম্পিউটার ভাইরাস মুক্ত রাখার উপায়

Incognito mode ব্যাবহারের সুবিধা

১। আপনি আপনার মোবাইলে ওয়েব ব্রাউজার তো ব্যবহার করেন। আপনি আপনার স্মার্টফোনে কিংবা কম্পিউটারে যেকোনো ব্রাউজার ব্যবহার করেন না কেন সমস্ত ব্রাউজারে এই Incognito mode এর সুবিধে রয়েছে। 

2।Incognito mode ব্যবহার করে যদি আপনি ইন্টারনেটে কোনো ওয়েবসাইট ব্যবহার করেন তাহলে আপনার ওয়েবসাইট খোলার হিস্ট্রি গুলো আপনার মোবাইল ব্রাউজারে সেভ হবেনা। 

৩। Incognito mode ব্যবহার করার কারণে আপনাকে অন্যান্য কোনো ধরনের থার্ডপাটি ওয়েবসাইট ট্র্যাকিং করবার পাবেনা।

৪। Incognito mode বন্ধ করে দিলেই সকল কিছু কিছু সঙ্গে সঙ্গে রিমুভ হয়ে যাবে যা কিছু আপনি Incognito mode এ ব্যবহার করেছেন। যেমন ধরুন- আপনার ইন্টারনেট ব্যবহারের হিস্ট্রি এবং ইন্টারনেটের কুকিস। 

৫। Incognito mode যদি আপনি কোন অ্যাকাউন্ট লগিন করেন যেমন- ইন্টারনেট ব্যাংকিং, ফেসবুক অ্যাকাউন্ট, জিমেইল ইত্যাদি। Incognito mode বন্ধ করে দিলেই সকল একাউন্ট অটোমেটিক ভাবে লগ আউট হয়ে যাবে। 

৬। যদি আপনি কখনো কারো স্মার্টফোনে অথবা কোনো ক্যাফেতে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট, ইন্টারনেট ব্যাংকিং, জিমেইল আইডি ইত্যাদি গুরুত্বপূর্ণ অ্যাকাউন্ট গুলো লগ ইন করেন তাহলে মনে রাখবেন। সে সমস্ত জায়গায় সবসময় ওয়েব ব্রাউজার গুলোতে Incognito Mode ওপেন করে এই সকল গুরুত্বপূর্ণ অ্যাকাউন্ট গুলো ব্যবহার করবেন।

আশা করি এখন আপনি বুঝতে পারছেন যে Incognito mode কি? এবং আপনাকে Incognito Mode কিভাবে সাহায্য করে নিরাপদে ইন্টারনেট ব্রাউজ করতে। চলুন এবার দেখে নেই আপনি কিভাবে আপনার স্মার্টফোন কিংবা কম্পিউটার ব্রাউজারে Incognito mode ব্যবহার করবেন। 

আরও পড়ুনঃ এটিএম কার্ড, ডেবিট কার্ড ও ক্রেডিট কার্ড কি

মোবাইলফোন / স্মার্টফোনে কিভাবে Incognito mode ব্যবহার করবেন

আপনি বর্তমানে মোবাইল ফোনের সকল ব্রাউজার গুলোর মধ্যে Incognito mode এই ফিচারসটি ব্যবহার করতে পারবেন। এই পোস্টে আমি গুগল ক্রোম ব্রাউজারের Incognito mode ওপেন কিভাবে করবেন সেটা দেখাবো। প্রায় সকল ব্রাউজারে Incognito mode খোলার সেটিংস একই। 

১। গুগল ক্রোম ব্রাউজারে Incognito mode ব্যবহার করার জন্য সর্ব প্রথম আপনার স্মার্টফোনে গুগল ক্রোম ব্রাউজারটিকে ওপেন করুন। 

২। গুগল ক্রোম ব্রাউজারটি ওপেন করার পরে ডানদিকে উপরে দেখুন থ্রি ডট আছে আপনি সেই থ্রি ডট অপশনে ক্লিক করুন। 

Incognito mode কি? কিভাবে Incognito mode ব্যবহার করবেন

৩। থ্রি ডট অপশনে ক্লিক করার পরে আপনি দেখতে পারবেন যে নিচে ২ নম্বরে New Incognito Tab অপশনটি আছে সেখানে ক্লিক করুন। 

Incognito mode কি? কিভাবে Incognito mode ব্যবহার করবেন

New Incognito Tab ক্লিক করার সঙ্গে সঙ্গে আপনার সামনে একটি কালো রঙের নতুন ট্যাব চলে আসবে আর সেই কালো রঙের ট্যাবটিই হচ্ছে মূলত Incognito Mode। আপনি সেই ট্যাব থেকে গুগল ডটকম ওপেন করে অথবা যে কোনো ওয়েবসাইটের নাম লিখে সেই ট্যাব দিয়ে খুলুন। আর এতে আপনার কোন কিছুই স্মার্টফোনে সেভ হবেনা। 

যদি আপনি এই Incognito tab টি বন্ধ করতে চান তাহলে আপনি একটি ক্লিক করেই Incognito Tab টি বন্ধ করতে পারবেন উপরে দেয়া এই ❌ ক্রসে ক্লিক করে। 

আরও পড়ুনঃ কম্পিউটার হ্যাং হলে করনীয় | কীভাবে হ্যাং হওয়া কম্পিউটার ঠিক করবেন

Incognito mode কম্পিউটারে কিভাবে ব্যবহার করবেন

১। কম্পিউটারে Incognito mode ব্যবহার করার জন্যে আপনি গুগল ক্রোম ব্রাউজারটিকে ওপেন করুন।

২। তারপর উপরে ডানদিকে দেয়া থ্রিডট মেন্যুতে ক্লিক করুন আর সেখানে Incognito Mode উইন্ডোতে ক্লিক করুন।

৩। আপনি কী-বোর্ডে এক সাথে Ctrl + Shift + N কি প্রেস করে Incognito mode উইন্ডোটি ওপেন করতে পারবেন।

Incognito mode কি? কিভাবে Incognito mode ব্যবহার করবেন

এবার আপনার সামনে গুগল ক্রোম ব্রাউজারে Incognito mode ওপেন হয়ে গেছে। এখন আপনি সেই Incognito mode এর মাঝে যে সকল একাউন্ট ব্যাবহার করবেন সেগুলো আপনার ল্যাপটপ কম্পিউটার বা ডেক্সটপ কম্পিউটারের ব্রাউজার হিস্ট্রিতে সেভ থাকবে না।

শেষ কথা

আমাদের আজকের এই আর্টিকেল আপনার কাছে কেমন লেগেছে, আজকে আমরা আলোচনা করছিলাম যে, Incognito mode কি? Incognito mode ব্যাবহারের সুবিধা, Incognito mode কিভাবে ব্যবহার করবেন? আশা করি আপনি এই পোস্টটি অবশ্যই বুঝতে পারছেন ও পছন্দ করেছেন। কেননা আজ আমি আপনাকে সহজ ভাষাতে সঠিক ও আপডেট তথ্য জানিয়েছি, যা আপনার জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয় ও গুরুত্বপূর্ণ।

যদি এই Incognito mode কি? Incognito mode ব্যাবহারের সুবিধা, Incognito mode কিভাবে ব্যবহার করবেন? আর্টিকেলটি আপনার কাছে ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই আপনার বন্ধু বান্ধবদের সাথে  শেয়ার করুন। আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত পড়ার জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ!

আরও পড়ুনঃ এফিলিয়েট মার্কেটিং কি | এফিলিয়েট মার্কেটিং কিভাবে শুরু করবেন

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া