ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কেনার নিয়ম ২০২৪

ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কেনার নিয়ম - এই গরমে প্রত্যকের বাড়িতে একটি ফ্রিজ থাকা প্রয়োজন। কেননা খাবার সংরক্ষণ করার জন্য একটি ভালোমানের ফ্রিজের প্রয়োজন হয়। বাজারে বিভিন্ন কোম্পানীর ভালো ভালো ফ্রিজ রয়েছে। তবে বাংলাদেশের বহুল জনপ্রিয় ইলেক্ট্রনিক প্রস্তুতকারী কোম্পানী ওয়ালটন কম টাকায় ভালোমানের ফ্রিজ দিচ্ছে তাও আবার কিস্তিতে কেনার সুযোগ দিচ্ছে।

ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কেনার নিয়ম ২০২৪

সম্মানিত পাঠকবৃন্দ, যদি আপনি এই মুহূর্তে ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কিনতে চান তবে আজকের এই পোস্টটি আপনি মনোযোগ সহকারে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ুন। কারণ আজকে আমি আপনাদের সাথে ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কেনার নিয়ম ২০২৪ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব। তবে চলুন জেনে নেই ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কেনার নিয়ম সম্পর্কে।

(toc) #title=(এক নজরে সম্পূর্ণ লেখা পড়ুন)

ওয়ালটন ফ্রিজ নিয়ে সংক্ষিপ্ত কিছু কথা

বাংলাদেশের বহুল জনপ্রিয় ইলেক্ট্রনিক প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন বাজারে বেশ ভালো ভালো ফ্রিজ নিয়ে আসছে। এছাড়াও অন্যন্য নামীদামী ব্রান্ডের ও ফ্রিজ বাজারে কিনতে পাওয়া যায়। তবে ওয়ালটনের ফ্রিজগুলো কিস্তিতে কিনতে পাওয়া যায়। তাই এর দিন দিন চাহিদা বেড়েই চলেছে। আপনি যদি এই মুহূর্তে একটি ওয়ালটনের ফ্রিজ কিস্তিতে কিনতে চান তবে কিনতে পারেন। ওয়ালটনের ফ্রিজ কিস্তিতে কিনতে কি কি ডকুমেন্ট লাগবে তা জানতে পারবেন আজকের এই পোস্টটিতে। তাই আপনি এই পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ুন।

কিস্তিতে ওয়ালটন ফ্রিজের দাম

ওয়ালটনের ফ্রিজগুলো দেশীয় পণ্য হওয়ায় কাস্টমারের কাছে ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। তাই ওয়ালটন কোম্পনী কাস্টমারদের বিভিন্ন সময় ডিস্কাউন্টের অফার দিয়ে থাকে। একজন কাস্টমার ইন্সট্রলমেন্ট, ক্যাশ টাকা বা তিন মাসের মধ্যে টাকা দিয়ে ফ্রিজ কয় করতে পারবেন। যদি আপনি তিন মাসের মধ্যে টাকা দিয়ে ফ্রিজ ক্রয় করেন তবে নগদ টাকায় ক্রয় করার সুবিধা পাবেন।

এছাড়াও আপনি চাইলে কোন প্যাকেজের কিস্তিতে ওয়ালটন ফ্রিজ কিনতে পারবেন। আপনি ঠিক কোন প্যাকেজের কিস্তিতে ফ্রিজ ক্রয় করবেন এটা সম্পূর্ণ নির্ভর করবে কিস্তিতে ওয়ালটন ফ্রিজের দাম। মাসিক কিস্তিতে ফ্রিজ কেনার জন্য ৩, ৬, ১২ এবং ২৪ মাসের কিস্তিতে ফ্রিজ ক্রয় করা যাবে।

সাধারণত মাসিক কিস্তিতে ফ্রিজ কিনলে মূল টাকার ৮ থেকে ১২% টাকা অতিরিক্ত পরিশোধ করতে হয়। ওয়ালটনের ফ্রিজের দাম যদি আপনি জেনে না থাকেন তবে এখানে ক্লিক করে ওয়ালটন ফ্রিজের দাম জেনে নিতে পারেন।

আরো পড়ুন: ওয়ালটন গিজারের দাম ২০২৪ - ওয়ালটন গিজার ব্যবহারের নিয়ম

কিস্তিতে ওয়ালটন ফ্রিজ কেনার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

ওয়ালটনের যেকোন পণ্য নগদ টাকার পাশাপাশি কিস্তিতেও কেনা যায়। তবে ওয়ালটনের যেকোন পণ্য কিস্তিতে কিনতে চাইলে বেশ কিছু ফরমালিটিস মেনে চলতে হয়। বিশেষ করে প্রয়োজনীয় বেশ কিছু ডকুমেন্ট বা কাগজপত্রের প্রয়োজন হয়। যেসব কাগজপত্র ছাড়া আপনি কোনভাবেই ওয়ালটনের ফ্রিজ কিনতে পারবেন না তা নিচে উল্লেখ করা হলো। প্রথমত, আপনাকে একটি ফর্ম পূরণ করতে হবে।

  • যে ব্যক্তি পণ্য কিনবে তার পাসপোর্ট সাইজের দুই ছবি।
  • জাতীয় পরিচয়পত্রের (ন্যাশনাল আইডি কার্ড) ফটোকপি। 
  • পরিচিত দুইজন জামিনদার। 
  • জামিনদারের ভোটার আইডি কার্ডের এক ফটোকপি ও পাসপোর্ট সাইজের ছবি।

ওয়ালটনের কিস্তিতে কিনতে চাইলে সাধারণত উপরের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র লাগতে পারে। এছাড়াও আপনি যে শোরুম থেকে কিস্তিতে ওয়ালটনের ফ্রিজ কিনবেন সেখানকার ম্যানেজারে সাথে কথা বললে আরও বিস্তারিত সকল তথ্য জানতে পারবেন।

এরপর জামিনদারকে একটি ফর্ম ফিলআপ করতে হবে। এরপর ঐ ব্যক্তি তার পছন্দের ফ্রিজটি কিস্তিতে কিনতে পারবেন। এছাড়াও আপনি যদি কোন ধরনের তথ্য জানতে চান তবে, সরাসরি Walton Company’s যেকোন শোরুমে যোগাযোগ করতে পারেন।

কিস্তিতে ওয়ালটন ফ্রিজ কেনার শর্তগুলো কি কি

কিস্তিতে ওয়ালটন ফ্রিজ কেনার জন্য বেশ কিছু শর্ত রয়েছে। বিভিন্ন কোম্পানী বিভিন্ন ধরনের শর্ত দিয়ে থাকে। তাই আপনি যদি ওয়ালটনের ফ্রিজ কিস্তিতে কিনতে চান তবে অবশ্যই ওয়ালটনের দেওয়া শর্তগুলো মানতে হবে। নিচে ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কেনার জন্য যে শর্ত প্রযোজ্য তা নিচে উল্লেখ করা হলো।

  • প্রতি মাসের কিস্তি প্রতি মাসের ১ থেকে ১০ তারিখের মধ্য পরিশোধ করতে হবে।
  • যদি ক্রেতা কোন কারণে কিস্তি দিতে ব্যর্থ হয় তবে জামিনদারের তা পরিশোধ করতে হবে।
  • পণ্য ক্রয় করার পরের মাস থেকে রেগুলার কিস্তি প্রদান করতে হবে।
  • কিস্তি চলাকালীন অবস্থায় ওয়ালটনের নতুন কোন পন্য কিস্তিতে ক্রয় করতে পারবে না।

উপরে ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কেনার শরতাবলী দেওয়া হয়েছে। তাই যদি আপনি এই মুহূর্তে ওয়ালটনের ফ্রিজ কিস্তিতে কিনতে চান। তবে আপনাকে অবশ্যই উপরের দেওয়া শর্তগুলো মেনে তারপর ওয়ালটনের শোরুম থেকে কিস্তিতে ফ্রিজ কিনতে হবে।

আরো পড়ুনঃ ফ্রিজের গন্ধ দূর করার উপায়

ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কেনার নিয়ম ২০২৪

যদি আপনি এই মুহূর্তে ওয়ালটন ফ্রিজ কেনার চিন্তা করে থাকেন। তবে আজকের পোস্টের এই অংশটুকু আপনি মনোযোগ সহকারে পড়তে পারেন। কেননা আজকের এই পোস্টের এই অংশে আমি ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কেনার নিয়ম ২০২৪ বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করব। কিস্তিতে ওয়ালটনের ফ্রিজ কেনার কিছু নিয়ম-কানুন রয়েছে।

যদি আপনি কিস্তিতে ওয়ালটন ফ্রিজ কিনতে চান তবে এই নিয়ম কানুনগুলি অব্যশই মেনে ফ্রিজ ক্রয় করতে হবে। যদি আপনি ফ্রিজ কিনতে চান তবে ৩, ৬, ১২ এবং ২৪ মাসের কিস্তিতে ফ্রিজ কিনতে পারবেন। যদি আপনি ৩ মাসের কিস্তিতে ফ্রিজ কেনেন তবে অতিরিক্ত কোন টাকা দিতে হবে না।

আর যদি আপনি ওয়ালটনের ফ্রিজগুলো ৬ মাস কিংবা ১২ মাসের জন্য কিস্তিতে ক্রয় করেন। তবে ৮ থেকে ১২ % টাকা মূল টাকার অতিরিক্ত পরিশোধ করতে হবে। এছাড়াও ক্রেতারা ডাউন পেমেন্টের মাধ্যমে পন্য ক্রয় করার সুযোগ রয়েছে। সাধারণত ডাউন পেমেন্টগুলো ২০% থেকে শুরু হয়ে থাকে।

আরো পড়ুন: গরম ও ঠান্ডা পানির ফিল্টার দাম

কিস্তিতে ওয়ালটনের ফ্রিজ কিনতে কোথায় যেতে হবে

যদি আপনি এই মুহূর্তে ওয়ালটনের ফ্রিজ কিস্তিতে কেনার চিন্তা করে থাকেন। তবে কিস্তিতে ওয়ালটনের ফ্রিজ কিনতে হলে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে ওয়ালটনের যেকোন আউটলেটে গেলেই কিস্তির মাধ্যেমে আপনি ফ্রিজ কিনতে পারবেন। আপনি যে ফ্রিজ-টি কিনবেন তার বর্তমান দামের উপর নির্ভর করে ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কেনা যাবে। আশা করি আপনি বুঝতে পেরেছেন কিস্তিতে ওয়ালটনের ফ্রিজ কিনতে কোথায় যেতে হবে এই বিষয়ে।

ওয়ালটন ফ্রিজ ১৬ সেফটি দাম ২০২৪

ওয়ালটনের একটি কোয়ালিটি সম্পন্ন ফ্রিজ হলো ওয়ালটন ফ্রিজ ১৬ সেফটি। এই মডেলের ফ্রিজটিতে অনেক ধরনের কালার রয়েছে এখান থেকে আপনি আপনার মতো পছন্দ করতে পারেন। আপনারা অনেকে জানতে চেয়েছেন ওয়ালটন ফ্রিজ ১৬ সেফটি দাম কত? এই বিষয়ে জানতে ওয়ালটন ফ্রিজ ১৬ সেফটি দাম ৪৪৩২০ টাকার মত। তবে যদি আপনি কিস্তিতে ক্রয় করেন তবে ওয়ালটন ফ্রিজের দাম হবে ৪৭৮৬৫ থেকে ৪৯৬৪০ টাকার মত।

ওয়ালটন ফ্রিজ ১৩ সেফটি দাম ২০২৪

ওয়ালটনের আরও একটি কোয়ালিটি সম্পন্ন ফ্রিজ হচ্ছে ওয়ালটন ফ্রিজ ১৩ সেফটি। এই মডেলের ফ্রিজগুলোতেও আপনি বিভিন্ন কালারের ফ্রিজ দেখতে পাবেন। এখানে আপনি আপনার পছন্দমত কিনতে পারেন। ওয়ালটন ফ্রিজ ১৩ সেফটি দাম কত? এই ব্যাপারে যদি জানতে চান। তবে ২৪ থেকে ২৫ হাজার টাকার মধ্যে হবে। যদি আপনি কিস্তিতে এই ফ্রিজগুলো ক্রয় করেন তবে মাসিক কিস্তিতে ফ্রিজগুলো কিনতে পারবেন।

শেষকথা

বাজারের অন্যন্য ব্রান্ডের ফ্রিজগুলোরর তুলনায় ওয়ালটন বেশ ভালোমানের ফ্রিজ কাস্টমারদের প্রভাইড করছে। ওয়ালটনের ফ্রিজগুলো দামে ও কোয়ালিটিতে অনেক ভালো। সুপ্রিয় পাঠকবৃন্দ, আজকে আমি আপনাদের সাথে ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কেনার নিয়ম ২০২৪ নিয়ে আলোচনা করেছি।

আপনারা যারা এই গরমে একটি ফ্রিজ কেনার কথা ভাবছেন খাবার সংরক্ষণ করার জন্য তারা চাইলে ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কিনতে পারবেন। যদি আজকের এই পোস্টটি আপনাদের কাছে তথ্যবহুল মনে হয় তবে আপনি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে পারেন। ধন্যবাদ।

পোষ্ট ক্যাটাগরি: