ঈদুল আযহা ২০২৩ কত তারিখে - কুরবানির ঈদ ২০২৩ কত তারিখে

ঈদুল আযহা ২০২৩ কত তারিখে - কুরবানির ঈদ ২০২৩ কত তারিখে - বছর ঘুরে আবারও আসছে পবিত্র ঈদুল আযহা। মুসলমানদের কাছে দ্বিতীয় আনন্দের উৎসব হলো ঈদুল আযহা। ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের জন্য অনেক আনন্দের দিন।

সম্মানিত পাঠকবৃন্দ, যদি আপনি কুরবানির ঈদ ২০২৩ কত তারিখে এই ব্যাপারে জানতে চান তবে আজকের এই পোস্টটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়ুন। কেননা আজকের পোস্টটিতে আমি আপনাদের সাথে ঈদুল আযহা ২০২৩ কত তারিখে বাংলাদেশে তা বিস্তারতভাবে আলোচনা করব। তবে চলুন জেনে নেই ঈদুল আযহা ২০২৩ কত তারিখে - কুরবানির ঈদ ২০২৩ কত তারিখে।

ঈদুল আযহা নিয়ে কিছু কথা

ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের কাছে ঈদের দিন অনেক আনন্দের। মুসলিম সমাজে দুটি ঈদের কথা উল্লেখ আছে ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আজহা। ঈদুল আযহা হলো দ্বিতীয় আনন্দের উৎসব। ঈদ উল আযহা বা ঈদুল আদহা অর্থ হলো ত্যাগের উৎসব। ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় দুটো ধর্মীয় উৎসবের দ্বিতীয়টি হলো ঈদুল আযহা।

আমরা অনেকেই এই উৎসবটি কুরবানির ঈদ নামেও চিনে থাকি। এই দিনটিতে মুসলমানেরা ফজরের নামাযের পর ঈদগাহে গিয়ে দুই রাকাত ঈদুল আযহার নামাজ আদায় করে এবং নামাজ শেষে স্ব-স্ব আর্থিক সামর্থ্য অনুযায়ী গরু, ছাগল, ভেড়া, মহিষ ও উট হালাল প্রাণী আল্লাহর নামে কোরবানি করে। ইসলামি চান্দ্র পঞ্জিকা অনুযায়ী জ্বিলহজ্জের ১০ তারিখে ঈদুল আযহা অনুষ্ঠিত হয়। এটাই হলো কুরবানি ঈদ সম্পর্কে কিছু তথ্য।

ঈদুল আযহার ইতিহাস - কুরবানির ঈদের ইতিহাস

ইসলাম ধর্মের বিভিন্ন বর্ণনা অনুযায়ী, মহান আল্লাহ-তায়ালা হযরত ইব্রাহীম (আ.)-কে স্বপ্ন দেখালেন তার সবচেয়ে প্রিয় বস্তুটি কুরবানি করার নির্দেশ দিলেন। তুমি তোমার প্রিয় বস্তু আল্লাহর নামে কোরবানি কর। ইব্রাহিম (আ.) স্বপ্নের আদেশ পেয়ে প্রথমে ১০ উট কুরবানি দিলেন এরপর পূনরায় সে একই স্বপ্ন দেখলেন। এরপর সে ১০০ টি উট কুরবানি দিলেন। এরপরও সে পূনরায় একই স্বপ্ন দেখলেন। এরপর এই মুহূর্তে তিনি ভাবলেন, আমার কাছে প্রিয় পুত্র ইসমাইল ছাড়া আর কোনো প্রিয় বস্তু নেই।

তখন তিনি শিশু পুত্র ইসমাইল-কে নিয়ে যান কুরবানির উদ্দেশ্য। এসময় শয়তান আল্লাহর নির্দেশ পালন করা থেকে বিরত করার জন্য ইব্রাহীম ও তার পরিবারকে প্রলুব্ধ করেছিল, এবং ইব্রাহীম শয়তানকে পাথর ছুঁড়ে মেরেছিলেন।

এরপর যখন ইব্রাহীম আরাফাত পর্বতের উপর তার পুত্রকে কোরবানি দেয়ার জন্য ইসমাইলের গলায় ছুরি চালানোর চেষ্টা করেন, তখন তিনি অনেক বিস্মিত হয়ে দেখেন যে তার পুত্রের পরিবর্তে একটি প্রাণী কোরবানি হয়েছে এবং তার পুত্রের কোনো ধরনের ক্ষতি হয়নি। মুলত এরপর থেকেই কুরবানির প্রচলন শুরু হয়। আশা করি আপনারা কুরবানি ইতিহাস সম্পর্কে কিছুটা ধারণা পেলেন।

আরো পড়ুনঃ ঈদের দিনের সুন্নত কাজগুলো কী কী

ঈদুল আযহা ২০২৩ কত তারিখে - ২০২৩ সালের কোরবানির ঈদ কবে

আপনারা অনেকেই জানতে চান ঈদুল আযহা ২০২৩ কত তারিখে এই ব্যপারে। তাদের জন্য আজকের এই পোস্টটি খুবই উপকারী। কেননা আজকের এই পোস্টটি পড়ে আপনারা জানতে পারবেন কুরবানির ঈদ ২০২৩ কত তারিখে হবে। নিচে এবছর ঈদুল আযহা কবে হবে তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

পবিত্র ঈদুল আযহা অনুষ্ঠিত হয় ১০ই জ্বিলহজ্জ। আর জ্বিলহজ্জ মাস অনুযায়ী, এবছর ১০ জ্বিলহজ্জ হচ্ছে জুন মাসের ২৮ তারিখ। এই তারিখ অনুযায়ী সৌদি আরবে ঈদ অনুষ্ঠিত হবে। যদিও এটা সম্পূর্ণ নির্ভর করছে চাঁদ দেখার উপর। যেহেতু আগে থেকে আরব ও মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে ঈদ পালন করা হয়। তাই ২৯ শে জুন তারিখে বাংলাদেশে ঈদুল আযহা পালন করা হবে। (চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল)।

ঈদুল আযহা ২০২৩ কত তারিখে - কুরবানির ঈদ ২০২৩ কত তারিখে

এবছর কুরবানির ঈদ কবে হবে এই ব্যাপারে অনেক মুসলিম ভাই ও বোনেরা জানতে চান। এই জন্য কুরবানি ঈদ কত তারিখে হবে বাংলাদেশে নিয়ে গুগলে সার্চ করে থাকেন। যদি আপনি ঈদুল আযহা কত তারিখে হবে এই ব্যাপারে জানতে চান তবে চলুন জেনে নেই।

সাধারণত জ্বিলহজ্জ মাসের ১০ তারিখে অনুষ্ঠিত হয় পবিত্র ঈদুল আযহা। জ্বিলহজ্জ মাস অনুযায়ী, এবছর ১০ জ্বিলহজ্জ হচ্ছে জুন মাসের ২৮ তারিখ। এই তারিখ অনুযায়ী সৌদি আরবে ঈদ অনুষ্ঠিত হবে। যদিও এটা সম্পূর্ণ নির্ভর করছে চাঁদ দেখার উপর। যেহেতু আগে থেকে আরব ও মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে ঈদ পালন করা হয়। তাই ২৯ শে জুন তারিখে বাংলাদেশে ঈদুল আযহা পালন করা হবে। (চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল)। নিচে ১৪৪৪ সালের আরবি ক্যালেন্ডার দেখুন।

কুরবানির ঈদ ২০২৩ কত তারিখে

উপরের ১৪৪৪ সালের আরবি ক্যালেন্ডার থেকে সহজেই জেনে নিতে পারবেন ঈদুল আযহা ২০২৩ কত তারিখে হবে।

আরো পড়ুনঃ ঈদের মেহেদি ডিজাইন ২০২৩

জিলহজ মাসের রোজা ও আরাফাতের রোজা

আরবি জ্বিলহজ্জ মাসের ৯ তারিখ হলো পবিত্র আরাফাতের দিন। যারা হজ করতে পবিত্র মক্ষা শরিফে আসেন তারা এই দিন আরাফাতের ময়দানে আসেন আল্লাহ-তায়ালার কাছে দোয়া করত। এখানে আল্লাহ-তায়ালার নিকট দোয়া করলে সেই মুসলিমদের দোয়া কবুল করেন।

হাজী মুসলমানরা আরাফাতের ময়দানের দিয়ে সারা দুনিয়ায় মুসলমানদের জন্য দোয়া করে সকল মুসলমান তাদের সাথে শরিক হয় রোজা রেখে। হাদিস অনুযায়ী, এক লোককে নবীজি (স.) জিজ্ঞাসা করলেন জিলহজ মাসের ৯ তারিখে আরাফাতের দিন আমরা যে রোজা রাখি তা কেন গুরুত্বপূর্ণ?

নবীজি উত্তরে বলেন, যদি কেউ রোজা রাখে আরাফাতের দিন তার দুই বছরের গুনাহ মাফ হয়ে যায় সেখানে একটা বছর আগের বছর এবং আরেকটি বছর হল পরের বছর। আশা করি জিলহজ মাসের রোজা ও আরাফাতের রোজা সম্পর্কে ধারণা পেলেন।

পশু জবাই করার দোয়া

কুরবানি পশুর জবাই করার দোয়া জেনে রাখা প্রয়োজন। কেননা হালাল পশু জবাই করার আগে দোয়া পড়া জরুরী। নিচে কুরবানির পশু জবাই করার দোয়া উল্লেখ করা হলোঃ

আরবীঃ اَللَّهُمَّ إِنِّي وَجَّهْتُ وَجْهِيَ لِلَّذِي فَطَرَ السَّمَاوَاتِ وَالْأَرْضَ عَلَى مِلَّةِ اِبْرَاهِيْمَ حَنِيفًا وَمَا أَنَا مِنَ الْمُشْرِكِينَ - إِنَّ صَلَاتِي وَنُسُكِي وَمَحْيَايَ وَمَمَاتِي لِلَّهِ رَبِّ الْعَالَمِينَ - لَا شَرِيكَ لَهُ وَبِذَٰلِكَ أُمِرْتُ وَأَنَا مِنَ الْمُسْلِمِينَ - بِسْمِ اللهِ اَللهُ اِكِبَر - اَللَّهُمَّ مِنْكَ وَ لَكَ

বাংলা উচ্চারণ- ইন্নি ওয়াঝঝাহতু ওয়াঝহিয়া লিল্লাজি ফাতারাস সামাওয়াতি ওয়াল আরদা আলা মিল্লাতি ইবরাহিমা হানিফাও ওয়া মা আনা মিনাল মুশরিকিন। ইন্না সালাতি ওয়া নুসুকি ওয়া মাহইয়ায়া ওয়া মামাতি লিল্লাহি রাব্বিল আলামিন। লা শারিকা লাহু ওয়া বি-জালিকা উমিরতু ওয়া আনা মিনাল মুসলিমিন। বিসমিল্লাহি আল্লাহু আকবার, আল্লাহুম্মা মিনকা ও লাকা।

কুরবানি পশু জবাই করার আগে আমাদের অবশ্যই দোয়া পড়ে তারপর কুরবানি করতে হবে। উপরে পশু জবাই করার আরবী ও বাংলা উচ্চারণ দেওয়া হয়েছে। আপনারা পড়ে মুখস্থ করতে পারেন।

আরো পড়ুনঃ কুরবানী কার উপর ওয়াজিব

কুরবানির ঈদ কবে হবে বাংলাদেশে ২০২৩

জিলহজ্জ মাসের ১০ তারিখে ঈদুল আযহা অর্থাৎ কুরবানির ঈদ অনুষ্ঠিত হয়। যেহেতু এবছর ১০ জ্বিলহজ্জ হচ্ছে জুন মাসের ২৮ তারিখ। তাই এই তারিখ অনুযায়ী সৌদি আরবে ঈদ অনুষ্ঠিত হবে। যদিও এটা সম্পূর্ণ নির্ভর করছে চাঁদ দেখার উপর। যেহেতু আগে থেকে আরব ও মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে ঈদ পালন করা হয়। তাই ২৯ শে জুন তারিখে বাংলাদেশে ঈদুল আযহা পালন করা হবে। (চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল)।

ঈদুল আযহা ২০২৩ কত তারিখে সৌদি আরব

আরবি জিলহজ্জ মাস অনুযায়ী, এবছর সৌদি আরবে জুন মাসের ২৮ তারিখে পবিত্র ঈদুল আযহা অর্থাৎ কুরবানির ঈদ অনুষ্ঠিত হবে। যদি ২৮ জুন সৌদি আরবে ঈদুল আযহা অনুষ্ঠিত হয় তবে ২৯ শে জুন তারিখে বাংলাদেশে ঈদুল আযহা অনুষ্ঠিত হবে

শেষ কথাঃ ঈদুল আযহা ২০২৩ কত তারিখে - কুরবানির ঈদ ২০২৩ কত তারিখে

ঈদুল আযহা ২০২৩ কত তারিখে এই ব্যাপারে মুসলমান ভাই-বোনেদের জেনে রাখা প্রয়োজন। সম্মানিত পাঠকবৃন্দ, আজকে আমি আপনাদের সাথে ঈদুল আযহা ২০২৩ কত তারিখে - কুরবানির ঈদ ২০২৩ কত তারিখে হবে এই ব্যাপারে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। যদি এই পোস্টটি আপনার কাছে তথ্যবহুল মনে হয় তবে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে পারেন। ধন্যবাদ। সবাই ভালো থাকবেন। ঈদ মোবারক।

পোষ্ট ক্যাটাগরি: