নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন ২০২৩

নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন ২০২৩ - বর্তমানে বাংলাদেশের সকলের ঘরে বিদ্যুৎ রয়েছে। কেননা বাংলাদেশ সরকার বাংলাদেশের প্রত্যক নাগরিকের বাড়িতে বিদ্যুৎ সেবাটির ব্যবস্থা করে দিয়েছে। সম্মানিত পাঠকবৃন্দ, আপনি কি নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন ২০২৩ এই ব্যাপারে জানতে চাচ্ছেন? তাহলে আজকের এই পোস্টটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত একবার ভালোভাবে পড়ুন।

নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন ২০২৩

বর্তমান বাংলাদেশ সরকারের ঘোষণা অনুযায়ী শতভাগ বিদ্যুতায়ন এর কার্যক্রম এগিয়ে নিতে অনলাইনে পল্লী বিদ্যুতের মিটারের জন্য আবেদন করা যাচ্ছে। অর্থাৎ আপনার বাড়িতে যদি বিদ্যুৎ সংযোগ না থাকে তবে আপনি চাইলে খুব সহজেই অনলাইনে নতুন মিটারের জন্য আবেদন করতে পারবেন। তবে চলুন জেনে নেই নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন ২০২৩ এই সম্পর্কে বিস্তারিত সকল গুরুত্বপূর্ণ তথ্য।

(toc) #title=(সুচিপত্র)

নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন নিয়ে কিছু কথা 

বর্তমান বাংলাদেশ অনেক উন্নত হচ্ছে। বহির্বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশ এখন অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছে। বাংলাদেশের বর্তমান সরকার এর ঘোষণা অনুযায়ী শতভাগ বিদ্যুতায়ন এর কার্যক্রম এগিয়ে নিতে হলে অনলাইনে পল্লী বিদ্যুতের মিটারের জন্য আবেদন করতে হবে। অর্থাৎ এখন কারও সাহায্য ছাড়াই অনলাইনে নতুন মিটারের জন্য আবেদন করা যাবে।

আবেদন প্রক্রিয়া শেষ হলে বিদ্যুত অফিস থেকে লোক এসে আপনার বাড়িতে মিটার লাগিয়ে দিয়ে যাবে। আজকের এই পোস্টে আমি আপনাদের সাথে নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন ২০২৩ নিয়ে বিস্তারিতভাবা আলোচনা করব এবং দেখিয়ে দিবো কিভাবে নতুন মিটারের জন্য আবেদন করতে হয়। তাই এই পোস্টটি আপনারা মনোযোগ সহকারে সম্পূর্ণ পড়ুন। 

আরো পড়ুনঃ অনলাইন থেকে আনলিমিটেড ইনকাম করার সহজ উপায়

নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন ২০২৩

বর্তমানে বাংলাদেশের প্রত্যকের বাড়িতে বিদ্যুতের মিটার থাকা প্রয়োজন। তাই এজন্য প্রয়োজন নতুন মিটারের জন্য আবেদন করা। আপনারা অনেকেই আছেন নতুন মিটারের জন্য আবেদন করতে চান। কিন্তু কিভাবে অনলাইনে আবেদন করতে হয় এই ব্যাপারে জানেন না।

তবে চলুন জেনে নেই নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন ২০২৩। নতুন বিদ্যুতের মিটারের জন্য বেশ কিছু শর্ত রয়েছে। আবেদন করার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র লাগবে। নিচে সকল কিছু উল্লেখ করা হলো। 

অনলাইনে নতুন মিটারের জন্য আবেদনের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র 

অনলাইনে নতুন বিদ্যুতের মিটারের আবেদন করার জন্য বেশ কিছু প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও ছবির প্রয়োজন হবে। যেসব কাগজপত্র ছাড়া আপনি কোন ভাবেই অনলাইনে নতুন মিটারের জন্য আবেদন করতে পারবেন না। তা নিচে উল্লেখ করা হলো। 

১। আবেদনকারীর নাম।

২। আবেদনকারীর ঠিকানা।

৩। আবেদনকারীর জাতীয় পরিচয় পত্র।

৪। দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি।

৫। আবেদনের প্রয়োজনীয় টাকা।

৬। ওয়ারিং রিপোর্ট।

৭। সংযোগস্থলের খারিজের স্ক্যান কপি। 

উপরোক্ত কাগজপত্র সংগ্রহ থাকলেই আপনি নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন করতে হবে। এছাড়াও যদি আরও ডকুমেন্টের প্রয়োজন হয় তবে তা সংগ্রহ করে রাখতে পারেন। 

নতুন মিটারের জন্য আবেদন করার আমাদের আগে কি কি কাজ করা প্রয়োজন? 

নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন করার জন্য অবশ্যই আপনার বেশ কিছু কাজ করা অবশ্যই প্রয়োজন। কেননা এই কাজগুলো আগে থেকেই করে রাখলে পরবর্তীতে আর কোন ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে না। তাহলে চলুন জেনে নেই নতুন মিটারের জন্যে আবেদন করার আগে আমাদের কি কি কাজ করা উচিত। 

১। প্রথমে আপনার প্রয়োজনীয় সকল কাগজপত্র, ছবি, অন্যন্য ডকুমেন্ট এক জায়গায় ভালোভাবে সংগ্রহ করে রাখতে হবে।

২। আপনার একটি সচল মোবাইল নাম্বার আবেদন করার সময় দিতে হবে। 

৩। বিদ্যুত সংযোগস্থলের ঠিকানা লাগবে । অর্থাৎ আপনি যে স্থানে মিটার নিতে চাচ্ছেন সে স্থানের সম্পূর্ণ তথ্য দিতে হবে। 

৪। সংযোগস্থল থেকে বিদ্যুৎ খুঁটির দূরত্ব কতটুকু তা জানার জন্য ভালোভাবে মাপুন। কেননা বিদ্যুৎ এর খুটি থেকে আপনার বাড়ির মিটার কতটুকু পর্যন্ত দূরত্ব তার উপর নির্ভর বিদ্যুতের তাঁর বা কেবল দেওয়া হবে। 

৫। আপনি কি কি কাজের জন্য বিদ্যুৎ ব্যবহার করবেন তার একটি নির্দিষ্ট তালিকা করে রাখতে পারেন। পরবর্তীতে আপনার অনেক কাজে আসবে। 

৬। মূলত আপনি যে কাজের জন্য নতুন মিটারের জন্য আবেদন করতা চান। সেটি আগে পরিকল্পনা রাখতে পারেন। এছাড়া উপরোক্ত কাজ গুলো করতে পারেন নতুন মিটারের জন্য আবেদন করার আগ মুহূর্তেই।

আরো পড়ুনঃ মেয়েদের জন্য অনলাইন জব

বিদ্যুৎ সংযোগের জন্য আবেদনের জন্য কি কি শর্ত রয়েছে ?

নতুন বিদ্যুৎ সংযোগের জন্য বেশ কিছু শর্ত প্রযোজ্য রয়েছে। যদি আপনি নতুন মিটারের জন্য আবেদন করতে চান তবে অবশ্যই আপনি বিদ্যুৎ জন্য আবেদনের জন্য কি কি শর্ত রয়েছে এই ব্যাপারে জেনে রাখতে পারেন। নিচে শর্তগুলো উল্লেখ করা হলো।

১। সংযোগস্থল থেকে বিদ্যুৎ খুটির দূরত্ব ১৩০ ফুটের মধ্যে থাকতে হবে। এছাড়া নতুন মিটার কোন ভাবেই দেওয়া হবে না। 

২। আপনার বিদ্যুতের ব্যবহার যদি লোড ৮০ কিলোওয়াট এরকম হয় তবে কোন সমস্যা নেই। আর যদি বিদ্যুতের লোড ৮০ কিলোওয়াট এর বেশি হয় তাহলে অবশ্যই আপনার উপর HT সংযোগের নিয়মাবলী প্রয়োগ করা হবে। 

৩। আপনার পাসপোর্ট সাইজের ছবি লাগবে। ছবি সাইজ (৩০০ *৩০০) পিক্সেল হতে হবে। ছবির সাইজ অবশ্যই ১৫০ KB হতে হবে। অন্যথায় ছবি আপ্লোড হবে না। 

৪। আপনার নিজের জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি লাগবে আবেদন করার সময়। অবশ্যই জাতীয় পরিচয়পত্রের সাইজ (৬০০ *৪৭৫) পিক্সেল হতে হবে। আর ৩০০ কিলোবাইট ছবির সাইজ হতে হবে।

৫। আপনি যে জায়গার জন্য বিদ্যুতের সংযোগ দিচ্ছেন ওই স্থানের খারিজের স্ক্যানিং কপি লাগবে। আর এটার সাইজ ৭০০ কিলোবাইটের মধ্য থাকতে হবে।

৬। অনলাইনে নতুন মিটারআবেদনের জন্য অবশ্যই আপনাকে মেম্বারশিপ ফি , আবেদন ফি এবং নিরাপত্তা ফি জমা দিতে হবে।

৭। আপনার একটি সচল মোবাইল নাম্বার লাগবে। যে নাম্বারে আপনাকে এসএমএস প্রদান করা হবে। 

৮। যদি আপনি উপরোক্ত সকল শর্তবলী মানতে পারেন। তবে খুব সহজেই নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন করা যায়।

অনলাইনে নতুন মিটারের জন্য আবেদন ২০২৩

নতুন মিটারের জন্য আবেদন করতে হলে আপনাকে অবশ্যই অনলাইনের সহয়তা নিতে হবে। কেননা বর্তমানে সকল কিছু কার্যক্রম অনলাইন ভিত্তিক হয়ে গিয়েছে। তো যাইহোক, অনলাইনে নতুন মিটারের জন্য আবেদন করার নিয়ম নিচে উল্লেখ করা হলো।

নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন করার জন্য আপনার মোবাইল অথবা ক্রোম ব্রাউজারের যেকোন একটি ব্রাউজার ওপেন করুন। এরপর rebpbs.com লিখে সার্চ। অথবা সরাসরি এই rebpbs.com লিংকে ক্লিক করুন। তারপর আপনারা নিচের ছবির মত আপনাদের সামনে একটি ওয়েবসাইট ওপেন হবে।

নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন ২০২৩

আপনার সামনে এরকম একটি পেজ ওপেন হলে এখানে আপনাকে আপনার সম্পূর্ণ সঠিক তথ্য দিয়ে পূরণ করতে হবে। উপরে আপনারা দেখতে পাচ্ছেন “লাল(*) চিহ্নিত ক্ষেত্রগুলো অবশ্যি পূরণীয়” এধরনের একটি লেখা। অর্থাৎ লাল চিহ্নিত স্থানগুলোকে আপনাকে অবশ্যই পূরণ করতে হবে। আপনি আপনার তথ্য অনুযায়ী এগুলো পূরণ করবেন। 

১। প্রথম অংশে বিদ্যুৎ অফিসের বিবরণ স্থানে সমিতির নাম ও জেনাল অফিস দিতে হবে।

২। সংযোগ এই স্থানে সংযোগের ট্যারিফ সিলেক্ট করতে হবে। অর্থাৎ একক বাসা হলে এলটি -এ (আবাসিক ) অপশনটি নির্বাচন করুন। আর বহুতল ফ্ল্যাট বাড়ির ক্ষেত্রে এমটি -এ (আবাসিক) সিলেক্ট করুন।

৩। এরপর আবেদনকারীর বিবারণ স্থানে যিনি নতুন মিটারের জন্য আবেদন করছেন তার সম্পর্কে সকল তথ্য এখানে দিতে হবে।

৪। এরপর নতুন মিটারের জন্য আবেদনকারীর স্থায়ী ঠিকানা দিতে হবে। এরপর প্রস্তাবিত ঠিকানা দিতে হবে। আপনার স্থায়ী ঠিকানা যদি একই হয় তবে টিক মার্ক দিতে পারেন প্রস্তাবিত ঠিকানায়। 

৫। তারপর প্রস্তাবিত ঠিকানায় আপনার জেলা কোথায় , ইউনিয়ন কি , পাশাপাশি জমির মালিকানার ধরন কি, মৌজা কি , খতিয়ান নাম্বার কি ইত্যাদি এ সমস্ত বিষয় পূরণ করতে হবে। 

৬। এরপরে জিওগ্রাফি তথ্য বিস্তারিতভাবে উল্লেখ করত হবে। আপনি লাল অংশের লেখাগুলো দেখলেই বুঝতে পারবেন।

৭। এরপর আপনার এই বিদ্যুৎ সংযোগের ধরণ স্থায়ী না অস্থায়ী তা দিতে হবে।

৮। এরপর পাসপোর্ট সাইজের ছবি, জাতীয় পরিচয়পত্র এবং খারিজের স্ক্যান কপি আপ্লোড করতে হবে।

৯। শেষের বক্সের মধ্য টিক চিহ্নিত করতে হবে।

১০। এরপর একটি ক্যাপচা দেখতে পাবেন। এই ক্যাপচা টি পূরণ করতে হবে।

১১। সর্বশেষ ধাপ, সংরক্ষণ করুন এখানে ক্লিক করুন।

হাউস ওয়্যারিং নিশ্চিত করতে হবে

হাউস ওয়্যারিং নিশ্চিত করার জন্য প্রথমে আপনাকে আবেদন নামক অপশন থেকে হাউস ওয়্যারিং নিশ্চিত করুন এখানে যেতে হবে।

নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন ২০২৩

এরপর আপনার ট্রাকিং নাম্বার এবং পিন নাম্বার দিতে হবে। তারপর সাবমিট বাটনেক ক্লিক করতে হবে। তারপর আপনার গ্রাউন্ড রডের ক্যাশ মেমো এখানে আপলোড করতে হবে। তারপরে আপনার বাড়ির ঠিকানা দিতে হবে। এরপর ক্যাপচা পূরণ করে সমর্পণ করুন এখানে ক্লিক করতে হবে। এভাবেই আপনার হাউস ওয়্যারিং নিশ্চিত হয়ে যাবে।

নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদনের সংযোগ ফি পরিশোধ করার নিয়ম 

অনলাইনে নতুন মিটার আবেদনের জন্য সংযোগ ফি দিতে হবে। কিভাবে সংযোগ ফি দিবেন চলুন জেনে নেই।

নতুন মিটারের সংযোগ ফি আপনি দুইভাবে দিতে পারেন।

(১) সরাসরি বিদ্যুৎ অফিসে গিয়ে।

(২) মোবাইল ব্যাংক রকেটের মাধ্যমে।

মোবাইল ব্যাংকিং রকেটের মাধ্যেমে কিভাবে নতুন মিটারের বিদ্যুৎ সংযোগ ফি পরিশোধ করবেন তা নিচের ছবি থেকে দেখে নিন।

নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন ২০২৩

এখানে সকল প্রসেস দেওয়া আছে। আপনি এই ছবিটি দেখে দেখে খুব সহজেই আপনার নতুন মিটারে বিদ্যুৎ সংযোগ ফি পরিশোধ করতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ অনলাইনে ইনকাম সাইট

শেষ কথাঃ নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন ২০২৩

বর্তমানে প্রত্যকের বাড়িতে বিদ্যুৎ সংযোগ থাকা প্রয়োজন। সুপ্রিয় পাঠক, আজকে আমি আপনাদের সাথে নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদন ২০২৩ নিয়ে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করেছি। যদি নতুন মিটার জন্য অনলাইনে আবেদনে এই বিষয়ে কিছু জানার থাকে তবে এই পোস্টের নিচে কমেন্ট করে জানাতে পারেন। এছাড়াও আজকের এই পোস্টট আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে পারেন। ধন্যবাদ। সবাই ভালো থাকবেন। আল্লাহ হাফেজ!

পোষ্ট ক্যাটাগরি:

এখানে আপনার মতামত দিন

0মন্তব্যসমূহ

আপনার মন্তব্য লিখুন (0)