Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2022/07/kivabe-freelancing-suru-korbo.html

কিভাবে একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হওয়া যায়

কিভাবে একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হওয়া যায় — আজকের বিশ্বে এটি ব্যাপকভাবে আলোচিত ফ্রিল্যান্সিং শব্দটি নিয়ে। বলতে গেলে, ছাত্রছাত্রী থেকে শুরু করে সকল রকমের মানুষ চান, কিভাবে একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হওয়া যায়। এমনকি একজন চাকরিজীবীর এই কাজের পাশাপাশি অবসর সময়ে কীভাবে একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হওয়া যায় তা জানার ইচ্ছা ও আকাঙ্খা থাকে। 

কিভাবে একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হওয়া যায়

প্রিয় পাঠক, তাই আজকের এই পোস্টের আলোচ্য বিষয়বস্তু হলো কিভাবে একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হওয়া যায় তা অনুসরণ করে সম্পূর্ণ গাইড লাইন ধারাবাহিক ভাবে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে। এবং এই সাথে কিভাবে একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হওয়ার ১০ টি উপায়সমূহ সম্পর্কে আলোচনার বিষয়বস্তু থাকবে। 

সূচীপত্রঃ কিভাবে একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হওয়া যায়

আপনি কি একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হতে চান?

আপনার হাতের থাকা স্মার্টফোন বা কম্পিউটার এবং ইন্টারনেট এর সাহায্যে জানতে পেরেছেন নিজের ঘরে বসে অনলাইনের মাধ্যমে ইনকাম করা যায়। আপনি জানেন পৃথিবীতে ফ্রিল্যান্সিং বলতে কিছু একটা আছে। 

সেহেতু আপনার মাথায় চিন্তা হচ্ছে, আপনার পক্ষে কি একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হওয়া সম্ভব। আমি গ্যারান্টি দিচ্ছি আপনি একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হয়ে উঠবেন। আপনি যদি আপনার লক্ষ্য একনিষ্ট আঁকড়ে ধরে রাখতে পারেন। 

তাই আপনি যদি একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হতে চান, তাহলে আপনাকে ধৈর্য সহকারে কঠোর পরিশ্রম করতে হবে এবং আপনার কাজের অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা গুলো প্রতিনিয়ত অনুশীলন করতে হবে। নিজেকে কখনই দুর্বল হতে দেবেন না, এবং কখনো হাল ছেড়ে দেওয়া যাবে না।

আরো পড়ুনঃ ফ্রিল্যান্সিং কি? ফ্রিল্যান্সার হওয়ার যোগ্যতা

পছন্দের ক্যাটাগরি নির্বাচন করা

আপনি জানতে পেরেছেন একজন সফল ফ্রিল্যান্সারের মাসিক আয় 50 হাজার থেকে ১ লক্ষ টাকার উর্ধে। আপনার প্রাথমিক স্তর হিসাবে রিসার্চ করতে হবে, ফ্রিল্যান্সিংয়ের কোন কাজের ক্যাটাগরি নিয়ে আপনি আপনার সাফল্যের পথ চলা শুরু করতে চান। তাই আপনার পছন্দের একটা কাজের ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন। সেই কাজের মাধ্যমে আপনি উৎফুল্ল আনন্দিত উপভোগ করবেন। 

কাজের একটি নির্দিষ্ট বিভাগ নির্বাচন করার পর দ্বিতীয় ধাপ আপনি চাইলে ইউটিউব থেকে ভিডিও দেখতে পারেন এবং কিছু প্রাথমিক (বেসিক) ধারণা পেতে পারেন। তারপর আপনি চাইলে পেইড টাকা দিয়ে একটি বিশ্বাসযোগ্য ভালো প্রতিষ্ঠান থেকে আপনার নির্বাচন করা কাজের সম্পূর্ণ কোর্সটি সেই প্রতিষ্ঠান থাকে শিখতে পারেন। এবং সম্পূর্ণ কোর্সটি শেষ করার পর প্রতিনিয়ত সেই কাজগুলো অনুশীলন বা প্রাকটিস করা।

আপনি এখন চিন্তায় পড়তে পারেন, যে ফ্রিল্যান্সিং এর কাজ সমূহ কি কি? তাই আপনার সাহায্যের জন্য নিচে ফ্রিল্যান্সিং এর কাজের ক্যাটাগরি গুলো দেওয়া হলো। বিশেষ করে ফ্রিল্যান্সিংয়ে প্রতিটা কাজের চাহিদা অনেক বেশি তাই আপনি একটা নির্দিষ্ট কাজে দক্ষ হলে, সে কাজ থেকে আপনি অনায়াসে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। 1. Digital Marketing 2. SEO (Search Engine Optimization) 3. Graphics Design 4. Web Design & Web Development 5. Android Apps Development 6. Android Apps Design

সময় নিয়ে কাজ শিখুন

ফ্রিল্যান্সিং সেক্টরে আপনার নির্বাচন করা কাজটি ধৈর্য সহকারে অঘাত সময় নিয়ে কাজ শেখার প্রবল ইচ্ছা থাকতে হবে। একটা অভ্যাসে পরিণত করতে হবে যা আপনার প্রতিদিন হাতে থাকা সময়টি সঠিকভাবে ব্যবহার করার অভ্যাস করুন। কেননা একটা অভ্যাসই পারবে আপনাকে কাজের প্রতি দক্ষতা অর্জন করতে। এভাবে সঠিক সময়ে কাজ শেখার অভ্যাস হয়ে গেলে আপনি এতে পরিপূর্ণ কাজ শেখার পাশাপাশি আনন্দ ও উপভোগ করতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ ফ্রি ডিজিটাল মার্কেটিং কোর্স ইন বাংলাদেশ

কাজের পোর্টফোলিও তৈরি করুন

আমি ধরে নিলাম আপনি সবকিছু মেনে কাজটি সম্পূর্ণভাবে আয়ত্ত করেছেন। সুতরাং যে কাজটি করতে হবে তা হলো, আপনি যে কাজগুলি খুব সুন্দরভাবে আয়ত্ত করেছেন তার একটি প্রফেশনাল পোর্টফোলিও তৈরি করা। আপনি চাইলে, আপনার নিজস্ব ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে পোর্টফোলিও খুব সুন্দর ও ধারাবাহিক ভাবে সাজাতে পারেন। 

একটি পোর্টফোলিও তৈরি করা এত গুরুত্বপূর্ণ যে, কাজ পাওয়ার জন্য ক্লায়েন্টকে পোর্টফোলিও দেখতে হয়। এবং পোর্টফোলিও দেখার এক মুহূর্তের মধ্যে ক্লাইন্ট এর ভালো লাগে তাহলে কাজ পেতে বেশি পরিশ্রম করতে হয় না। 

মার্কেটপ্লেস নিয়ে অধ্যয়ন করুন

যদিও এই সময়ের মধ্যে আপনার কাজের দক্ষ থাকে তাহলে নিজের ভালো কাজগুলো অবশ্যই নিজেকেই প্রচার করতে হবে। মূলত এই প্রচার গুলো ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে করা হয়। মার্কেটপ্লেস বলতে, পরিপূর্ব কাজ শেখার পর কাজের দক্ষ গুলো ফুটিয়ে তোলা বা কাজ করে ইনকাম করার মাধ্যম হলো ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস। তাই আপনাকে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস গুলো নিয়ে পড়াশুনা অধ্যায়ন করা উচিত। এখন জেনে নেওয়া হোক, ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস গুলো কি কি? 1. Upwork 2. Fiverr 3. Freelancer.com 4. People Per Hour 5. Guru 6. Belancer 7. Craiglist 

সততার সাথে কাজ করুন

ফ্রিল্যান্সিং কাজের যাত্রা শুরু হওয়ার পর আপনি সততার সাথে কাজ চালিয়ে গেলে একদিন আপনি ফ্রিল্যান্সিং সেক্টরে অবশ্যই সফল হবেন। সততা সাথে কাজ করলে অন্তরের প্রশান্তি লাভের সাথে সাথে কাজ করার মধ্যে একটা আনন্দ চলে আসবে। যার ফলে কাজ করার চাহিদা অনেক বেশি বৃদ্ধি পায়। 

শেষ কথা - কিভাবে একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হওয়া যায়

আশা করি, এই পোস্টের মাধ্যমে " কিভাবে একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হওয়া যায় " এই সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে পেরেছেন এবং অনেক বেশি উপকৃত হয়েছেন। পরিশেষে একটা কথাই বলবো, সঠিক নির্দেশিকা অনুসরণ করলে অবশ্যই একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হওয়ার সুন্দর পথ চলার যাত্রা শুরু হবে। এতোক্ষণ ধরে কিভাবে একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হওয়া যায় লেখাটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

0 Comments

* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.??