Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2021/04/laptop-vs-desktop-which-is-better-in-2021.html

ল্যাপটপ নাকি ডেস্কটপ কোনটি কিনবেন | ডেক্সটপ ও ল্যাপটপ এর মধ্যে পার্থক্য

কম্পিউটার নাকি ডেক্সটপ কোনটা ভালো — ডেস্কটপ কম্পিউটার এর চেয়ে সহজে বহনযোগ্য হওয়ার কারনে এবং কাজ অথবা ব্যক্তিগত ক্ষেত্রে ল্যাপটপকেই বেশিরভাগ লোক প্রাধান্য বেশি দিয়ে থাকে। তবে হ্যাঁ ডেস্কটপ নাকি ল্যাপটপ কোনটি আপনার জন্য সেরা হবে অথবা কোনটা কিনলে আপনার জন্য ভালো হবে।

ল্যাপটপ নাকি ডেস্কটপ কোনটি কিনবেন

কম্পিউটার কেনার সময় ল্যাপটপ নাকি ডেস্কটপ কিনবো এই সমস্যায় পড়েন বেশিরভাগ মানুষ। কালের পরিবর্তনে ডেস্কটপ এর আকার আগের চেয়ে অনেক ছোট হলেও এটি কিন্ত সহজে বহনযোগ্য করা সবসময় সম্ভবপর হয়না অন্যদিকে ল্যাপটপ সহজেই বহনযোগ্য। ল্যাপটপ এবং ডেক্সটপ একেকজন এর কাছে একেকটা ভালো লাগে। যার ফলে অনেকেই দৈনন্দিন জীবনের প্রয়োজনীয় ডিভাইসটি কিনতে গিয়ে সমস্যায় পড়েন বুঝতে পারেন না যে কোনটি কেনা উত্তম হবে।

কম্পিউটার ক্রয় করার সময় আমাদেরকে যেসব জিনিসের প্রতি খেয়াল রাখতে হবে তার মধ্যে ডেক্সটপ ও ল্যাপটপ থেকে যেকোন একটি ডিভাইস ক্রয় করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তবে হ্যাঁ কম্পিউটার হিসেবে ল্যাপটপ এর যেমন কিছু সুবিধা-অসুবিধা রয়েছে ঠিক তেমনই ডেস্কটপেরও কিছু ভালো-মন্দ দিক আছে।

আপনি চাইলে দুইটা কম্পিউটারই ক্রয় করে ব্যাবহার করতে পারেন। তবে যদি আপনার বাজেট স্বল্পতার কারনে যেকোন একটি ডিভাইস কিনতে হয় ও আপনি দ্বিধায় থাকেন তাহলে আমাদের আজকের আর্টিকেলটি আপনার জন্যেই। আমাদের এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়ে আপনি আজ সহজেই সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন যে ল্যাপটপ নাকি ডেস্কটপ কোনটি আপনার জন্যে ভালো হবে।

ল্যাপটপ ও ডেক্সটপ মধ্যে পার্থক্য

ডেস্কটপ কম্পিউটার বাসা-বাড়ি অথবা অফিসের টেবিল বা ডেস্কের ওপর থাকবে। ডেক্সটপ কম্পিউটারে বিভিন্ন অংশ থাকে। যেমন; Monitor, CPU, Key-Board, Mouse ও UPS। অপরদিকে ল্যাপটপ কম্পিউটারে বা নোটবুক খুব সহজেই বহন করা যায়। ল্যাপটপকে একের ভেতর সব হিসেবে বলা হয়। ল্যাপটপে Built-in screen, Key-Board, Mouse কাজের জন্য টাচ প্যানেল অর্থাৎ ট্র্যাকপ্যাড এবং ইউএসবি USB পোর্ট থাকে।

আরও পড়ুনঃ উইন্ডোজ ১০ প্রো vs উইন্ডোজ ১০ হোম এডিশন কোনটি ব্যাবহার করা উচিৎ

কেন ল্যাপটপ কিনবেন

ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য ল্যাপটপ কেনা হবে সবচেয়ে ভালো কাজ। কেননা ছাত্র-ছাত্রীদের প্রতিদিন ক্লাসে অংশগ্রহণ করার জন্য বাসার বাইরে স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়ার প্রয়োজন হয়। আর এই ক্ষেত্রে ল্যাপটপ ছাত্র-ছাত্রীদের শিখন প্রক্রিয়ায় অনেক সহায়তা করবে। রাস্তাঘাটে চলার সময় ল্যাপটপ হাত থেকে পড়ে গিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হবার সম্ভাবনা বা ভয় থাকে। তবে বর্তমান সময়ে বাজারে বিল্ড কোয়ালিটির দিক থেকে বেশ শক্তপোক্ত ল্যাপটপ পাওয়া যাচ্ছে। যে ল্যাপটপ গুলো হাত থেকে পড়ে গেলেও কোন ক্ষতিগ্রস্ত হবে না।

মূলত সাধারণ কাজ করার জন্য যেমন- পড়াশুনা, ওয়ার্ডের কাজ, ভিডিও দেখা, সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারের জন্য ল্যাপটপ ইউজ করা হয়ে থাকে। আর যদি আপনি কিংবা আপনার পরিবারের কেউ সারা দিন ইন্টারনেটে বিভিন্ন কাজে ব্রাউজ করতে চান তাহলে ল্যাপটপে সম্পূর্ণ চার্জ দেয়া একটা ল্যাপটপ আপনাকে সেই সুবিধাটি প্রদান করবে। তবে বর্তমান সময়ে অনেক উন্নত মানের ল্যাপটপ বাজারে আনছে ল্যাপটপ নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো। এই সকল ল্যাপটপ ব্যবহার করে গেমিং, গ্রাফিক্স ডিজাইন, ভিডিও এডিটিং, ফটো এডিটিং, লাইভ স্ট্রিমিংসহ বিভিন্ন ধরনের কাজ করা সম্ভব হয়। তবে হ্যাঁ এই ধরনের ল্যাপটপ এর বাজারমূল্য আমাদের অনেকের বাজেটের নাগালের বাইরে।

আরও পড়ুনঃ প্রসেসর কি | প্রসেসর কি কোনটা দরকার

কেন ডেস্কটপ কিনবেন

আপনি যদি অনেক কাজ করার জন্য কম্পিউটার খুঁজে থাকেন তাহলে ডেস্কটপ কম্পিউটার আপনার জন্য বেষ্ট চয়েস। ডেস্কটপ এর মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই অনেক বড় বড় ফাইল সংরক্ষণ করে রাখতে পারবেন। সেই সাথে আপনি আপনার পছন্দের গেমগুলিও অনেক ভালো গ্রাফিক্সে খেলতে পারবেন নিমিষেই। তাছাড়াও আপনি আপনার প্রয়োজন অনুসারে ডেস্কটপ আপগ্রেড করার সুযোগ পারবেন।

আপনি চাইলেই ডেস্কটপে প্রয়োজন অনুসারে র‌্যাম, ভালো গ্রাফিক্স কার্ড, প্রসেসর, হার্ড ডিস্ক, এসএসডি কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন। যেটা করার ফলে আপনার কম্পিউটার এর কর্মক্ষমতা আরও বাড়িয়ে তুলবে। এছাড়াও ডেস্কটপ চালাতে কোনো রকম ব্যাটারির প্রয়োজন পড়ে না। তাই আপনি নিশ্চিন্তে চার্জ দেবার চিন্তা ছাড়াই দীর্ঘ সময় এটি ব্যবহার করতে পারবেন। তবে হ্যাঁ আপনি চাইলেই কিন্ত আপনার ডেস্কটপ কম্পিউটার সহজে এক যায়গা থেকে অন্য যায়গায় বহন করতে পারবেন না।

ডেস্কটপেরও All-in-one পিসি সুবিধাও আছে। এতে করে মনিটরের সাথেই কম্পিউটারের অন্যান্য অংশ সংযুক্ত করে দেয়া থাকে। যার ফলে এই সকল কম্পিউটার সহজেই বহন করা যায়। তবে এই ডেক্সটপ গুলো অনেক ব্যয়বহুল মূল্যের এছাড়াও আপনি চাইলেই এই ডেক্সটপ কম্পিউটার গুলো আপগ্রেড করতে পারবেন না। কিন্তু প্রাথমিকভাবে এই ডেক্সটপ গুলো আপনাকে স্বল্প খরচেই সব ধরনের সুবিধা প্রদান করবে।

আরও পড়ুনঃ ল্যাপটপ স্লো হওয়ার কারণ ও ল্যাপটপ ফাস্ট করার উপায়

ল্যাপটপ নাকি ডেক্সটপ কোনটি বিবেচনায় নিতে হবে

যদি কোনো ল্যাপটপ এবং ডেক্সটপের কনফিগারেশন একই রকম হয় তবে সেই ক্ষেত্রে ল্যাপটপের মূল্য বেশি হবে এটাই স্বাভাবিক। তবে দাম যত বেশিই হোক না কেন ল্যাপটপ এর যেসকল প্রতিবন্ধকতার কথা উল্লেখ করা হয়েছে সেগুলো সকল ক্ষেত্রেই উপস্থিত রয়েছে। তবে দৈনন্দিন কাজের পাশাপাশি গেমিং ও বিনোদনের জন্য এখনো অনেকেই ভালো কনফিগারেশনের ল্যাপটপ ক্রয় করে থাকেন।

অপরদিকে কনফিগারেশনের দিক থেকে একটা ভালো ডেস্কটপ কম্পিউটার কেনার জন্য আপনাকে অনেক বেশি টাকা খরচ করার প্রয়োজন হবে না। তবে ডেস্কটপ পিসি আপগ্রেড করা সময়সাপেক্ষ এবং ব্যয়বহুল।

আপনার যদি পুরাতন ডেস্কটপের কার্যক্ষমতা কমে যায় তাহলে আপনাকে সেইটার হার্ডওয়্যার পরিবর্তন করা প্রয়োজন হবে। মূলত কম্পিউটারের প্রসেসর, হার্ড ডিস্ক ড্রাইভ, র‌্যাম ও গ্রাফিক্স পরিবর্তন করার প্রয়োজন হয়। শুধুমাত্র কম্পিউটারের প্রসেসর পরিবর্তন করলেই কিন্ত ডেক্সটপ কম্পিউটারের কার্যক্ষমতা বাড়বে না। প্রসেসরের কার্যক্ষমতা সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ র‌্যাম, গ্রাফিক্স ও হার্ড ডিস্ক ড্রাইভ আপগ্রেড করার প্রয়োজন হবে। কিন্তু এই সকল সুবিধা আপনি ল্যাপটপে পাবেন না। ল্যাপটপে শুধুমাত্র সর্বোচ্চ র‌্যাম RAM বাড়ানো যায় এবং এসএসডি SSD Card স্টোরেজ সংযুক্ত করা সম্ভব হয়।

আরও পড়ুনঃ উইন্ডোজে স্লো ইন্টারনেট ফাস্ট করার উপায়

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

সর্বশেষ আপডেটেড অফার পেতে চান?

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া