সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০২৪ ইসলামিক ফাউন্ডেশন

সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০২৪ ইসলামিক ফাউন্ডেশন: রমজান মাস মুসলিমদের জন্য একটি বিশেষ এবং পবিত্র মাস। এই মাসে, মুসলিমরা ভোর থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত রোজা রাখে। রোজা শুরু করার জন্য সেহরি এবং রোজা ভাঙার জন্য ইফতারের সময় জানা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

সেহরি হলো রোজার শুরুতে ভোরবেলায় খাওয়া খাবার। সেহরির সময় সাধারণত সূর্যোদয়ের এক ঘন্টা পূর্বে শুরু হয় এবং সুবহে সাদিকের (ভোরের আলো ফোটার) আগে শেষ হয়।

ইফতার হলো সূর্যাস্তের পর রোজা ভাঙার সময়। ইফতারের সময় সূর্যাস্তের সাথে সাথে শুরু হয় এবং মাগরিবের আযানের পর শেষ হয়।

বাংলাদেশে সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি প্রতি বছর ইসলামিক ফাউন্ডেশন কর্তৃক প্রকাশ করা হয়। এই সময়সূচি দেশের বিভিন্ন স্থানের জন্য আলাদাভাবে নির্ধারণ করা হয়।

রমজান মাসের চাঁদ দেখা সাপেক্ষে এ বছর রোজা শুরু হতে পারে ১২ মার্চ বা ১৩ মার্চ। সে হিসাবে ১২ মার্চ ধরে ঢাকার সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০২৪ নির্ধারণ করেছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন। গত ৫ ফেব্রুয়ারি ইসলামিক ফাউন্ডেশন ১৪৪৫ হিজরির রমজান মাসের সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি চূড়ান্ত করে। সময়সূচি অনুযায়ী, ১২ মার্চ প্রথম রোজার সেহরির শেষ সময় ভোর ৪টা ৫১ মিনিট ও ইফতারির সময় ৬টা ১০ মিনিট।

ইসলামিক ফাউন্ডেশন আরো জানায়, দূরত্ব অনুযায়ী ঢাকার সময়ের সঙ্গে সর্বোচ্চ ৯ মিনিট যোগ করে অথবা ৯ মিনিট বিয়োগ করে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষ সেহরি ও ইফতার করবেন।

সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০২৪ ইসলামিক ফাউন্ডেশন

(toc) #title=(এক নজরে সম্পূর্ণ লেখা পড়ুন)

সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০২৪ ইসলামিক ফাউন্ডেশন

ইসলামিক ফাউন্ডেশন জানায়, প্রথম রোজা চাঁদ দেখার ওপর নির্ভরশীল। ১২ মার্চ প্রথম রমজানে ঢাকায় সেহরির শেষ সময় ভোর ৪টা ৫১ মিনিট ও ইফতারির সময় ৬টা ১০ মিনিট। তবে দূরত্ব অনুযায়ী ঢাকার সময়ের সঙ্গে সর্বোচ্চ ৯ মিনিট পর্যন্ত যোগ করে ও ৯ মিনিট পর্যন্ত বিয়োগ করে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষ সেহরি ও ইফতার করবে ইসলামিক ফাউন্ডেশন। * চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল।

সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০২৪ ইসলামিক ফাউন্ডেশন
সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০২৪ ইসলামিক ফাউন্ডেশন
সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০২৪ ইসলামিক ফাউন্ডেশন

দেশের অন্যান্য বিভাগ ও জেলার সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয় থেকে প্রকাশ করা হবে।

আরো পড়ুন: ঈদের নতুন জামার ডিজাইন ২০২৪

সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০২৪

রমজান মাসের চাঁদ দেখা গেছে চাঁদ দেখা অনুযায়ী এই বছরের রমজান মাসের ক্যালেন্ডার প্রকাশ করেছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ। প্রকাশিত ক্যালেন্ডার অনুযায়ী আজকের ইফতারের শেষ সময় ২০২৪ ঢাকা আমার ওয়েবসাইটে প্রকাশ করলাম। এখানে প্রকাশিত সময়সূচি অনুযায়ী আপনারা ২০২৪ সালের রমজান মাসের রোজার সেহরি ও ইফতার পালন করবেন।

২০২৪ সালের রোজার সেহরি ও ইফতারের সময়সূচী আমাদের পোস্টে তুলে ধরা হল। পোস্টে প্রদত্ত প্রথম ছকে সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০২৪ শুধুমাত্র ঢাকা জেলার জন্য প্রযোজ্য। বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলার সাথে ঢাকা জেলার সময়ের কিছুটা পার্থক্য আছে। ঢাকার সময়ের সাথে কিছু সময় যোগ বা বিয়োগ করে অন্যান্য কতিপয় জেলার সেহরি ও ইফতারের সময়সূচী পাওয়া যেতে পারে। যা আমরা উপরের অংশে উল্লেখ করেছি।

রহমতের ১০ দিন

রোজা তারিখ বার সেহরি ইফতার
০১ ১২ মার্চ মঙ্গলবার ৪:৫১ মি. ৬:১০ মি.
 ০২ ১৩ মার্চ বুধবার ৪:৫০ মি. ৬:১০ মি.
 ০৩ ১৪ মার্চ বৃহস্পতিবার ৪:৪৯ মি. ৬:১১ মি.
 ০৪ ১৫ মার্চ শুক্রবার ৪:৪৮ মি. ৬:১১ মি.
 ০৫ ১৬ মার্চ শনিবার ৪:৪৭ মি. ৬:১২ মি.
 ০৬ ১৭ মার্চ রবিবার ৪:৪৬ মি. ৬:১২ মি.
 ০৭ ১৮ মার্চ সোমবার ৪:৪৫ মি. ৬:১২ মি.
 ০৮ ১৯ মার্চ মঙ্গলবার ৪:৪৪ মি. ৬:১৩ মি.
 ০৯ ২০ মার্চ বুধবার ৪:৪৩ মি. ৬:১৩ মি.
 ১০ ২১ মার্চ বৃহস্পতিবার ৪:৪২ মি. ৬:১৩ মি.

মাগফিরাতের ১০ দিন

রোজা তারিখ বার সেহরি ইফতার
১১ ২২ মার্চ শুক্রবার ৪:৪১ মি. ৬:১৪ মি.
১২ ২৩ মার্চ শনিবার ৪:৪০ মি. ৬:১৪ মি.
১৩ ২৪ মার্চ রবিবার ৪:৩৯ মি. ৬:১৪ মি.
১৪ ২৫ মার্চ সোমবার ৪:৩৮ মি. ৬:১৫ মি.
১৫ ২৬ মার্চ মঙ্গলবার ৪:৩৬ মি. ৬:১৫ মি.
১৬ ২৭ মার্চ বুধবার ৪:৩৫ মি. ৬:১৬ মি.
১৭ ২৮ মার্চ বৃহস্পতিবার ৪:৩৪ মি. ৬:১৬ মি.
১৮ ২৯ মার্চ শুক্রবার ৪:৩৩ মি. ৬:১৭ মি.
১৯ ৩০ মার্চ শনিবার ৪:৩১ মি. ৬:১৭ মি.
২০ ৩১ মার্চ রবিবার ৪:৩০ মি. ৬:১৮ মি.

নাজাতের ১০ দিন

রোজা তারিখ বার সেহরি ইফতার
২১ ০১ এপ্রিল সোমবার ৪:২৯ মি. ৬:১৮ মি.
২২ ০২ এপ্রিল মঙ্গলবার ৪:২৮ মি. ৬:১৯ মি.
২৩ ০৩ এপ্রিল বুধবার ৪:২৭ মি. ৬:১৯ মি.
২৪ ০৪ এপ্রিল বৃহস্পতিবার ৪:২৬ মি. ৬:১৩ মি.
২৫ ০৫ এপ্রিল শুক্রবার ৪:২৪ মি. ৬:২০ মি.
২৬ ০৬ এপ্রিল শনিবার ৪:২৪ মি. ৬:২০ মি.
২৭ ০৭ এপ্রিল রবিবার ৪:২৩ মি. ৬:২১ মি.
২৮ ০৮ এপ্রিল সোমবার ৪:২২ মি. ৬:২১ মি.
২৯ ০৯ এপ্রিল মঙ্গলবার ৪:২১ মি. ৬:২১ মি.
৩০ ১০ এপ্রিল বুধবার ৪:২০ মি. ৬:২২ মি.

* চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল।

রোজার নিয়ত

বাংলায় উচ্চারণ: নাওয়াইতু আন আছুমা গদাম মিন শাহরি রমাদ্বানাল মুবারকি ফারদ্বল্লাকা ইয়া আল্লাহু ফাতাক্বব্বাল মিন্নী ইন্নাকা আংতাস সামীউল আলীম।

অর্থ: আয় আল্লাহ পাক! আপনার সন্তুষ্টির জন্য আগামীকালের রমাদ্বান শরীফ-এর ফরয রোযা রাখার নিয়ত করছি। আমার তরফ থেকে আপনি তা কবুল করুন। নিশ্চয়ই আপনি সর্বশ্রোতা, সর্বজ্ঞাত।

মাসআলা: কেউ যদি ছুবহি ছাদিক্বের পূর্বে নিয়ত করতে ভুলে যায় তাহলে তাকে দ্বিপ্রহরের পূর্বে নিয়ত করতে হবে। তখন এভাবে নিয়ত করবে:

ইফতারের দোয়া

বাংলায় উচ্চারণ: আল্লাহুম্মা সুমতু লাকা, ওয়া তাওআক্কালতু আ‘লা রিঝক্বিকা, ওয়া আফতারতু বিরাহমাতিকা ইয়া আরহামার রহিমীন।

অর্থ: আয় আল্লাহ পাক! আমি আপনারই সন্তুষ্টির জন্য রোযা রেখেছি এবং আপনারই দেয়া রিযিক্ব দ্বারা ইফতার করছি।

আরো পড়ুন: রমজান ২০২৪ কত তারিখে: রমজান মাসের ক্যালেন্ডার ২০২৪

খতমে তারাবীহ’র নির্দেশনা

আমরা জানি রমজান মাসে তারাবির সালাত আদায় করতে হয়। বেশ কয়েকশ বছর ধরে বিশ্বব্যাপী একই নিয়মে তারাবীহ সালাত আদায় করা হচ্ছে। তবে লক্ষ্য করা গেছে যে, এখনো কিছু কিছু মসজিদে নিজেদের মত করে খতমে তারাবীহ’র সালাত আদায় করা হয়।

বিভিন্ন মসজিদে একই নিয়মে পবিত্র কুরআনের নির্দ্দিষ্ট অংশ পাঠ করা না হলে ভ্রমনকারী, রোজার মাসে যারা স্কুল, কলেজ, কর্মস্থল থেকে ছুটিতে এক জায়গা থেকে অন্যত্র গমন করেন তারা অনেক সময় ধারাবাহিক ভাবে কুরআনের খতম থেকে বঞ্চিত হন এবং কুরআন খতমের সওয়াব থেকেও বঞ্চিত হন। এই সমস্যা সমাধানে ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ সারাদেশে একই নিয়মে খতমে তারাবীহ পড়ার নির্দেশনা প্রদান করেছে।

নির্দেশনা অনুযায়ী মাহে রমজানের প্রথম ৬ দিন প্রতি তারাবীহতে পবিত্র কুরআনের দেড় পারা করে ৯ পারা পড়তে হবে এবং পরবর্তি ২১ দিন প্রতিদিন এক পারা করে ২১ পারা পড়তে হবে। এতে ২৭তম তারাবীহ’তে পবিত্র কুরআন খতম সম্পন্ন হবে।

দেশের সকল মসজিদে একই নিয়মে কুরআন পাঠ করা হলে দেশে যে কোন স্থানে গমনকারীগনও কুরআন খতম ও তার সওয়াব থেকে বঞ্চিত হবেন না।

খতমে তারাবীহ’র নির্দেশনা

পরিশেষে

আজকে আমরা সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০২৪ ইসলামিক ফাউন্ডেশন সম্পর্কে আলোচনা করলাম। আপনি অবশ্যই রমজান মাসের প্রতিটি রোজা রাখবেন। কেননা একটি বছর পরে একটি মাস আসে রমজানের। আর হ্যাঁ ধর্মপ্রাণ ভাই ও বোনেরা আমাদের এই লেখাটি যদি আপনার কাছে ভালো লেগে থাকে তবে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে পারেন।

পোষ্ট ক্যাটাগরি:

এখানে আপনার মতামত দিন

0মন্তব্যসমূহ

আপনার মন্তব্য লিখুন (0)