সেরা ১০ টি ছবি এডিট করার ওয়েবসাইট

আজকাল, আমরা যারা স্মার্টফোন ব্যবহার করি তারা সবাই ছবি তুলতে পছন্দ করি। ছবি তোলার পরে আপনাকে অবশ্যই আপনার ফটোগুলি এডিট করতে হবে। আর আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা মোবাইল বা ক্যামেরা দিয়ে ছবি তুলে সুন্দর ও আকর্ষণীয় করে তুলতে পারেন না।

কারণ তাদের ভালো এডিটর নেই। আজকাল ফটো এডিট করার জন্য কম্পিউটার বা মোবাইল অ্যাপের প্রয়োজন হয় না। কারণ বর্তমান সময়ে আপনি অনলাইনে অসংখ্য ফটো এডিটর ওয়েবসাইট পাবেন। এই ওয়েবসাইটগুলি ব্যবহার করে আপনি দ্রুত যেকোনো নিস্তেজ ছবিকে আকর্ষণীয় করে তুলতে পারেন। ফটোগুলি এডিট করে, আপনি পেশাদার পদ্ধতিতে ফটো তৈরি করতে পারেন।

আজকের আর্টিকেলে আমরা আপনাদের জানাতে চলেছি সেরা ১০ টি ছবি এডিট করার ওয়েবসাইট সম্পর্কে। চলুন দেরি না করে জেনে নেওয়া যাক সেরা ১০ টি ছবি এডিট করার ওয়েবসাইট কি কি।

(toc) #title=(সুচিপত্র)

ছবি এডিট করার ওয়েবসাইট

ছবি এডিট করার সেরা ১০ টি ওয়েবসাইট

১। ক্যানভা ডটকম - Canva.com

ছবি এডিট করার ওয়েবসাইট

বর্তমানে অনলাইনে সবচেয়ে জনপ্রিয় ফটো এডিটর ওয়েবসাইটগুলির মধ্যে একটি হল Canva.com। এই ওয়েবসাইট ব্যবহার করে আপনি সহজেই যেকোনো ছবি এডিট করতে পারবেন। সবচেয়ে মজার বিষয় হল আপনি সাইটে ফটো এডিটিং ছাড়াও ওয়েবসাইট এবং ইউটিউবের জন্য জনপ্রিয় থাম্বনেল তৈরি করতে পারেন।

এছাড়াও, আপনি বিনামূল্যে আপনার পছন্দ মত বিভিন্ন ধরনের লোগো ডিজাইন করতে পারেন। আর আপনি যদি ক্যানভা ওয়েবসাইটটি প্রিমিয়াম উপায়ে ব্যবহার করতে চান, তাহলে আপনি এক বছরের জন্য ১০০ টাকার কম খরচ করে আপনার ইমেলে ক্যানভা যুক্ত করতে পারেন।

সব মিলিয়ে এটি সবচেয়ে জনপ্রিয় ফটো এডিটিং ওয়েবসাইট হিসেবে কাজ করতে পারে এবং আপনি যদি খুব ভালো মানের ফটো এডিট করতে চান তবে আপনি এটি ব্যবহার শুরু করতে পারেন। আপনি https://www.canva.com ওয়েবসাইটে গিয়ে আপনার জিমেইলের সাথে সরাসরি সংযোগ করতে পারেন এবং তারপর থেকে আপনি প্রয়োজনীয় সমস্ত ফটো এডিট করতে পারেন।

আরো পড়ুনঃ কার্টুন ভিডিও বানানোর সফটওয়্যার - কার্টুন ভিডিও তৈরি করুন মোবাইল দিয়ে

২। ফোটর ডটকম - Fotor.com

ওয়েবসাইট

এটি একটি জনপ্রিয় ফটো এডিটর অনলাইন টুল যা আপনি যেকোনো নিস্তেজ ফটোকে আকর্ষণীয় করতে ব্যবহার করতে পারেন। আমরা আমাদের কাজের জন্য বিভিন্ন ধরণের ফটো এডিট করতে এই ওয়েবসাইটটি ব্যবহার করি। আপনি এই অনলাইন ওয়েবসাইটের বিভিন্ন বৈশিষ্ট্য সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ব্যবহার করতে পারেন।

এখানে আপনি সমস্ত বৈশিষ্ট্য যেমন লাইট, ইমেজ কালার, ইফেক্ট ইত্যাদি এবং আরও অনেক ধরনের টেমপ্লেট পাবেন। যার সবগুলোই বিনামূল্যে ব্যবহার করা যাবে। তাছাড়া, আপনি অনেক জনপ্রিয় ছবি তৈরি করতে পারেন, বিশেষ করে ইউটিউব, ব্লগ ইত্যাদি সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মের জন্য থাম্বনেইল।

তাই আপনি যদি সেই ওয়েবসাইটে ফটো এডিটর হিসেবে কাজ করতে চান, তাহলে এই ওয়েবসাইটটি ব্যবহার করতে পারেন। আপনার সুবিধার জন্য আমরা এখানে একটি লিঙ্ক শেয়ার করেছি। আপনি লিঙ্কটি প্রবেশ করে সরাসরি অনলাইন ফটো এডিটর ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে পারেন। ওয়েবসাইট লিঙ্ক: https://www.fotor.com

৩। ফটোক্যাট.নেট - photocat.net

সেরা ১০ টি ছবি এডিট করার ওয়েবসাইট

এটি ফটো এডিটিং এর জন্য একটি অনলাইন টুল বা ওয়েবসাইট হিসাবে খুবই জনপ্রিয়। এর মাধ্যমে আপনি অনেক ফটো এডিটিং ফিচার পাবেন। সাইট থেকে যেকোনো ছবি এডিট করার পর সরাসরি বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করতে পারবেন।

যা দেখতে খুবই আকর্ষণীয় লাগবে। এই ওয়েবসাইট ব্যবহার করে, যে কেউ সহজেই ফটো এডিট করতে পারে। তাই আপনি যদি ফটো এডিটর হিসেবে কাজ করতে চান তাহলে এই ওয়েবসাইটটি বিনামূল্যে ব্যবহার করতে পারেন। ওয়েবসাইট লিংক: www.photocat.net

৪। Befunky.com

ছবি এডিট করার ওয়েবসাইট

ফটো এডিটিং ছাড়াও আপনি এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে গ্রাফিক ডিজাইনের কাজও করতে পারেন। ফটো এডিটিং এর জন্য আপনি এই ওয়েবসাইটে অনেক ধরনের ফিচার টুল পাবেন। সেগুলো হলো- ফটো সিকোয়েন্স, রিসাইজ, লাইট, কলেজ মেকার ইত্যাদি। এছাড়া অনেক ধরনের আধুনিক এডিটিং টুল রয়েছে। 

আপনি চাইলে সাধারণভাবে বিনামূল্যে ফটো এডিটিং করতে পারেন। এই ওয়েবসাইটে ফটো এডিটিং ছাড়াও, আপনি YouTube লোগো, ব্যানার, কার্ড ইত্যাদি তৈরি করতে পারেন। তাই আপনি যদি এই ওয়েবসাইটে কাজ করতে চান। সরাসরি আপনাকে অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। আপনি এই লিঙ্কে ক্লিক করে সরাসরি ওয়েবসাইটে যেতে পারেন। ওয়েবসাইট লিংক www.befunky.com.

৫। Pixlr.com

সেরা ১০ টি ছবি এডিট করার ওয়েবসাইট

আপনি চাইলে সরাসরি অনলাইন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ফটো এডিটিং করতে পারেন। তাহলে আপনার জন্য একটি জনপ্রিয় ওয়েবসাইট হল Pixlr.com। আপনি এই ওয়েবসাইটে দুই ধরনের ফটো এডিটিং টুল পাবেন। উদাহরণস্বরূপ, Pixlr X এবং Pixlr E এই দুটি টুল ব্যবহার করে সহজেই একটি নিস্তেজ ছবিকে আকর্ষণীয় করে তুলতে পারে।

আপনি বিনামূল্যে ব্যবহার করতে পারেন এমন অনেক ফটো এডিটিং বৈশিষ্ট্য আছে। আর আপনি যদি পেইড ভাবে কাজ করবেন তাহলে অনেক টুলস পাবেন। এটি ব্যবহার করে, আপনি অনেক সুন্দর ছবি এডিটিং করতে পারেন এবং আপনি যদি এই ওয়েবসাইটে ফটো এডিটিং করতে আগ্রহী হন তবে বিস্তারিত তথ্য দেখতে নীচে দেওয়া ওয়েবসাইট লিঙ্কে ক্লিক করুন। ওয়েবসাইট লিংক: www.pixlr.com

আরো পড়ুনঃ বাংলাদেশের জনপ্রিয় ওয়েবসাইট

৬। Kapwing

সেরা ১০ টি ছবি এডিট করার ওয়েবসাইট

বর্তমান সময়ে মিমস অনেক বেশি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। মিমসগুলো এমন ভাবে এডিট করা হয়। যে এগুলো দেখলেই আপনি হাসতে বাধ্য হবেন। আপনি যদি খুব সহজে মিমস এডিট করা শিখতে চান তাহলে আপনার জন্য সবচেয়ে ভালো ওয়েবসাইট হলো Kapwing

এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই মিমস এডিট করতে পারবেন। ওয়েবসাইটে ঢুকলেই আপনি জনপ্রিয় সব মিনসের টেমপ্লেট পাবেন। এছাড়াও আপনি আপনার গ্যালারি থেকে ছবি নিয়েও মিমস এডিট করতে পারবেন।

এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে শুধু ছবি দিয়ে নয় ভিডিও এর মাধ্যমেও মিমস এডিট করা যায়। সহজ ভাষায় বলতে গেলে মিন্স এডিট করতে যেসব টুলস দরকার হয় আপনি এই ওয়েবসাইটের সবগুলোই পাবেন।

৭। Removing BG

১০ টি ছবি এডিট করার ওয়েবসাইট

অনেক সময় আমরা যখন ছবি তুলি আমাদের ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড ভালো আসে না এবং বিভিন্ন কাজের প্রয়োজনে আমাদের ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড পরিবর্তন করতে হয়। এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই আপনার ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড পরিবর্তন করতে পারবেন।

আমরা সকলেই জানি ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড পরিবর্তন করতে অনেকটা সময় লেগে যায়। কিন্তু এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনি এক সেকেন্ডের মাধ্যমেই আপনার ছবি ব্যাকগ্রাউন্ড পরিবর্তন করে ফেলতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ ১০ টি সোশ্যাল মিডিয়ার নাম

৮। Logo maker

যারা বিভন্ন প্রতিষ্ঠান চালান। তাদের সকলেরই নিজস্ব লোগো দরকার হয়। এই লোগো তৈরি করতে গ্রাফিক্স ডিজাইনের দরকার হয়ে থাকে। কিন্তু সবাইতো গ্রাফিক্স ডিজাইনের কাজ পারে না। আপনি যদি গ্রাফিক ডিজাইনের কাজ না করে থাকেন।

তাহলে আপনি এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে নিজের কোম্পানির ধরন অনুযায়ী খুব সহজেই লোগো তৈরি করে ফেলতে পারবেন এবং সম্পূর্ণ বিনামূল্যে তৈরি করতে পারবেন।

৯। ওয়াটার মার্ক

অনেক সময় আমাদের নিজেদের আর্ট করা ছবি অথবা নিজেদের লেখা আর্টিকেল অনেকেই নিজের বলে দাবি করে। আপনি যদি আপনার লেখায় বা আপনার আর্ট করা ছবিতে ওয়াটার মার্ক এড করেন তাহলে আপনার আট করা ছবি বা আপনার লেখা আর্টিকেল কেউ নিজের বলে দাবি করতে পারবে না। এবং করলেও ওয়াটার মার্কের কারণে সকলেই বুঝে যাবে।

আপনি এই ওয়েবসাইট ব্যবহার করে খুব সহজে ওয়াটার মার্ক যুক্ত করতে পারেন। আপনি যদি কোন ছবিতে ক্যাপশন ব্যবহার করতে চান। তাহলে খুব সহজেই এই সাইটের মাধ্যমে আপনি ছবিতে ক্যাপশন অ্যাড করতে পারবেন।

বহুল জিজ্ঞাসিত প্রশ্নের উত্তর

প্রশ্নঃ ফটো এডিট এর জন্য সবচেয়ে জনপ্রিয় ওয়েবসাইট কোনটি?

উত্তরঃ ক্যানভা

প্রশ্নঃ স্ক্রিনশট গুরু এর কাজ কি?

উত্তরঃ আপনি যদি কোন ওয়েবসাইটের স্ক্রিনশট নিতে চান তাহলে এই সাইটের মাধ্যমে নিতে পারেন। আপনি যে ওয়েবসাইট বা ওয়েব পেজের স্ক্রিনশট নিতে চান সেই ওয়েবসাইট বা ওয়েব পেজের লিংক দিয়ে দিলেই স্ক্রিনশট হয়ে যাবে।

প্রশ্নঃ Photo monia এর কাজ কি?

উত্তরঃ এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনি ছবিতে কালার প্রেম করতে পারবেন এবং ছবির যেকোন স্টাইল করতে পারবেন।

উপসংহার

বর্তমানে অনলাইনে ফটো এডিটিং করার জন্য অনেক ধরনের অ্যাপ, সফটওয়্যার, ওয়েবসাইট টুল রয়েছে। যারা অনলাইনে ব্লগিং করেন তাদের জন্য অনলাইন ফটো ওয়েবসাইট খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আর এজন্য আমাদের অনলাইন ফটো এডিটর টুল ব্যবহার করতে হবে।

অনলাইনে অনেক ফটো এডিটর আছে যেগুলো আপনি বিনামূল্যে ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়া যেকোনো ঝামেলা ছাড়াই যে কেউ এই অনলাইন ফটো এডিটর ওয়েবসাইটগুলো ব্যবহার করতে পারবেন।

পোষ্ট ক্যাটাগরি:

এখানে আপনার মতামত দিন

0মন্তব্যসমূহ

আপনার মন্তব্য লিখুন (0)