ইসলামী ব্যাংক হোম লোন পদ্ধতি

ইসলামী ব্যাংক হোম লোন পদ্ধতি - ইসলামি ব্যাংক হোম লোন অথবা ইসলামি ব্যাংক হাউজ লোন সাধারণত বাড়ি তৈরি করার জন্য দিয়ে থাকে। যারা বাড়ি তৈরি অথবা পুরাতন বাড়ি নতুন করে সংস্কার করবেন ভাবছেন তারা চাইলে ইসলামি ব্যাংক থেকে লোন নিয়ে করতে পারেন।

নতুন বাড়ি তৈরির জন্য ইসলামি ব্যাংক থেকে প্রায় ৩০ লাখ টাকার মতো লোন সুবিধা গ্রহন করা যায়। কিন্তু যদি পুরাতন বাড়ি সংস্কার এর জন্য লোন গ্রহন করতে চান তবে ১০ লাখ টাকা মতো সহজে লোন নিতে পারবেন।

আমাদের আজকের আর্টিকেলে জানাবো, ইসলামি ব্যাংক হোম লোন পদ্ধতি সম্পর্কে। যারা ইসলামি ব্যাংক থেকে হোম লোন নিতে চান তারা আর্টিকেলটি পড়ুন। ইসলামী ব্যাংক লোন কিভাবে নিবেন, কি কি থাকতে হবে ইসলামী ব্যাংক হোম লোন পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত আজকের আর্টিকেলে থাকছে।

(toc) #title=(সুচিপত্র)

ইসলামী ব্যাংক হোম লোন পদ্ধতি

ইসলামি ব্যাংক হোম লোন পদ্ধতি

মধ্যবিত্ত মানুষের মধ্যে একার পক্ষে একটা বাড়ি বানানো প্রায় অসম্ভব বলা যায়। লোন ছাড়া বাড়ি তৈরি করেন এমন মানুষ বোধহয় কমই আছেন। বাড়ি করার জন্য ইসলামি ব্যাংক থেকে আপনি চাইলেই লোন নিতে পারবেন। বাড়ি করার জন্য ইসলামি ব্যাংক থেকে লোন নেয়ার জন্য অবশ্যই আপনাকে ব্যাংকের সকল শর্ত গুলো পূরণ করতে হবে। চলুন দেখে নেয়া যাক ইসলামি ব্যাংক হোম লোনের শর্ত গুলো -

১। আয়ের উৎস

আপনি যেহেতু লোন নিতে চাচ্ছেন তার মানে হলো আপনি যে কোনো পেশায় কর্মরত আছেন। যেটার আয়ের মাধ্যমে আপনি লোন পরিশোধ করবেন। বাড়ি তৈরির লোনের আবেদন করার ক্ষেত্রে আপনার আয়ের উৎস সম্পর্কে ব্যাংকে প্রমান দিতে হবে। ব্যাংক স্টেটমেন্ট সহ আপনি যে পেশায় নিয়োজিত সেটার সকল কাগজপত্র দিতে হবে। এরপরে ব্যাংক সিদ্ধান্ত নিবে, আপনি লোন নিলে সেটা পরবর্তীতে পরিশোধ করতে পারবেন কি না। এজন্য আপনার বেতন অনুযায়ী লোনের পরিমান নির্ধারিত হবে।

আরো পড়ুনঃ মোহরানা ও কাবিন এর মধ্যে পার্থক্য

২। পূর্বে কোথাও ঋণ ছিল কি না

যদি পূর্বে আপনার লোন নেয়া থাকে আর সেটা পরিশোধ এখনো করতে না পারেন তাহলে লোন পাওয়ার সম্ভাবনা একদম কম থাকবে। পূর্বে যদি খুব ছোট ঋণ থাকে তবে পাওয়ার সম্ভাবনা আছে। বাড়ি তৈরির জন্য লোন নেয়ার পূর্বে অবশ্যই পূর্বের ঋণ সম্পূর্ণ পরিশোধ করে হাউজ লোনের জন্য আবেদন করতে হবে। তাছাড়া হাউজ লোন পাওয়ার সম্ভাবনা একদম কম।

৩। আপনার বয়স

যে কোনো লোনের জন্য বয়স অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। আপনার বয়স যদি বেশি হয় সেক্ষেত্রে চাকরির মেয়াদ ও কমতে থাকে। যদি লোন পরিশোধের পূর্বেই আপনার চাকরি বা যেকোনো আয়ের উৎস কমে যায় তাহলে লোন পরিশোধে ব্যার্থ হবার সম্ভাবনা থাকে। বাড়ি তৈরির জন্য লোনের ক্ষেত্রে ১৮ বছর থেকে ৩৫ বছরের মধ্যে হলে সবচেয়ে ভালো হয়। এই বয়সের জন্য যেকোনো লোন পাওয়া একদম সহজ হয়ে যায়।

৪। আপনার পূর্ব ব্যাংকিং অভিজ্ঞতা

আপনি যদি পূর্বে কোনো ব্যাংক থেকে লোন গ্রহণ করেন সেটার বিস্তারিত ব্যাংক তল্লাসি করবে। যদি পূর্বে কোনো ব্যাংকে লোন গ্রহণের পর পরিশোধ করতে সমস্যা হয় তবে আপনাকে নতুন ভাবে লোন প্রদান করবে না।

৫। ব্যাক্তিগত যাচাই

আপনার এলাকায় আপনার সম্পর্কে মানুষের ধারণা, আপনি কোন মাধ্যমে টাকা আয় করছেন, আপনার সেভিংস আছে কি না, মানুষ আপনার সম্পর্কে কি বলে, আপনার কর্মস্থল ইত্যাদি সম্পর্কে ব্যাংক যাচাই বাছাই করবে।

আরো পড়ুনঃ গ্রামীণ ব্যাংকের সুযোগ সুবিধা

ইসলামি ব্যাংক হোম লোনের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র

ইসলামি ব্যাংক হোম লোনের জন্য আবেদন করার জন্য আপনার বেশ কিছু ডকুমেন্টস প্রদান করতে হবে। যা নিচে দিয়ে দিলাম - 

১। আপনার আয়ের উৎস প্রমান।

২। গত ৬ মাসের ব্যাংক স্টেটমেন্ট। 

৩। পূর্বে লোন থাকলে সেটা পরিশোধ করার প্রমান।

৪। যে পেশায় নিয়োজিত সেটার প্রমান।

৫। গ্যারান্টার এর সকল তথ্য।

৬। আপনার ব্যাক্তিগত তথ্য যেমন- জাতীয় পরিচয় পত্র।

এ ছাড়াও ইসলামি ব্যাংকে হোম লোন পাওয়ার জন্য আপনার নিজস্ব জমি থাকতে হবে। জমির ক্ষেত্রে যে সকল কাগজপত্র লাগবে।

আরো পড়ুনঃ কারেন্সি সোয়াপ কি? কারেন্সি সোয়াপ কাকে বলে

১। মালিকানাধিন প্লটের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

  • জমির মূল মালিকানা দলিল বা বায়া দলিল।
  • সিএস, এস এ, আর এস, বিএস খতিয়ানের জাবেদা নকল।
  • জেলা অথবা সাব রেজিস্টার অফিস থেকে ইস্যুকৃত ১২ বছরের NEC.
  • ডিসি আর, খাজনার রশিদ।
  • নামজারী খতিয়ান।

২। সরকারি প্লটের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

  • দখল হস্তান্তর এর কাগজ।
  • মূল লীজ দলিল ও বায়া দলিল।
  • প্লটের বরাদ্দ কাগজ পত্র।
  • লীজ দাতা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক বন্ধক অনুমতি এর কাগজ।
  • হস্তান্তর অনুমতি পত্র
  • নামজারী কাগজ।
  • ডি সি আর।
  • খাজনা দেয়ার রশিদ।

কত টাকা হোম লোন পাওয়া যায়

কত টাকা আপনাকে হোম লোন প্রদান করবে এটা সম্পূর্ন নির্ভর করে ব্যাংক এর উপর। ইন্টারনেট এর সুত্র অনুযায়ী নিম্নে দেয়া লোন এর পরিমান পেতে পারেন -

১। নতুন বাড়ি তৈরি করার ক্ষেত্রে ৬০% / ১০ লাখ টাকা লোন সুবিধা প্রদান করবে।

২। ফ্লাট ক্রয়ের ক্ষেত্রে ৫০% ও সর্বোচ্চ ৭.৭ লাখ টাকা। 

৩। পুরাতন বাড়ি সংস্কার এর ক্ষেত্রে ৬০% প্রদান করবে।

৪। ব্যাংক কর্তৃপক্ষ সর্বোচ্চ ১৫ বছরের জন্য হোম লোন সুবিধা দিবে।

৫। সর্বোচ্চ ৬৫ বছরের মধ্যে চাকরিজিবি, ব্যবসায়ী ও জমির মালিকগন এই লোন সুবিধা গ্রহন করতে পারবে।

ইসলামি ব্যাংক হোম লোন আবেদন

ইসলামি ব্যাংক হোম লোন পাওয়ার জন্য ব্যাংকে সকল ডকুমেন্টস দিয়ে আবেদন করতে হবে। এর জন্য আপনার আসে পাশের যে কোনো ইসলামি ব্যাংকের ব্রাঞ্চে যেতে হবে।

ইসলামী ব্যাংক হোম লোন ইন্টারেস্ট রেটঃ ইসলামি ব্যাংক হোম লোনের জন্য ৯% ইন্টারেস্ট রাখে।

ইসলামী ব্যাংক হোম লোন পদ্ধতি নিয়ে শেষ কথা

ইসলামি ব্যাংক হোম লোন পদ্ধতি আর্টিকেলে আমরা হোম লোন সম্পর্কে বিস্তারিত জানালাম। বাড়ি করা প্রায় সব গৃহহীন মানুষের স্বপ্ন। আপনার আয়ের উৎস যদি ভালো থাকে ও নিজের জমি থাকে ইসলামি ব্যাংক থেকে লোন নিয়ে বাড়ি করে নিতে পারেন। ধন্যবাদ আর্টিকেল টি পড়ার জন্য।

পোষ্ট ক্যাটাগরি: