কোন ভিটামিনের অভাবে দাঁতের মাড়ি ফুলে যায়

ভিটামিন আমাদের সুস্বাস্থ্য বজায় রাখতে সাহায্য করে। আমাদের শরীরে ভিটামিনের অভাব হলে নানা রোগ দেখা দেয়। আমাদের আজকের এই পোস্টের মাধ্যমে, আপনি জানতে পারবেন কোন ভিটামিনের অভাবে দাঁতের মাড়ি ফুলে যায় এবং কিভাবে আপনি আপনার শরীরে পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন সংরক্ষণ করতে পারেন। আজকের তথ্যগুলো আপনার জন্য উপযোগী হবে।

পৃথিবীর প্রতিটি মানুষই তাদের শরীরকে সুস্থ ও সুন্দর করে তুলতে চায়। ভিটামিন আমাদের শরীরে গুরুত্বপূর্ণ কাজ করে। মানবদেহে বিভিন্ন ধরনের ভিটামিনের প্রয়োজন হয়। এই ভিটামিন আমাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এবং বিভিন্ন ধরনের রোগ থেকে শরীরকে রক্ষা করে। আমাদের শরীরের শক্তি বৃদ্ধি এবং হাড়ের ক্ষয় রোধ এবং ত্বকের সৌন্দর্য বজায় রাখতেও ভিটামিন গুরুত্বপূর্ণ।

শরীরের সুস্থতায় ভিটামিনের অবদান সবচেয়ে বেশি এবং বিভিন্ন রোগ থেকে শরীরকে রক্ষা করতে ভিটামিন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। আমাদের শরীরে বিভিন্ন ভিটামিনের অভাবে বিভিন্ন শারীরিক জটিলতা সৃষ্টি করে এবং সংক্রামক রোগ সহজেই শরীরে আক্রমণ করে। ভিটামিনের অভাবে দাঁতের মাড়ি ফুলে যায়। চলুন জেনে নেওয়া যাক কোন ভিটামিনের অভাবে দাঁতের মাড়ি ফুলে যায় সে সম্পর্কে বিস্তারিতঃ

(toc) #title=(সুচিপত্র)

কোন ভিটামিনের অভাবে দাঁতের মাড়ি ফুলে যায়

কোন ভিটামিনের অভাবে দাঁতের মাড়ি ফুলে যায়

ভিটামিন-কে, ভিটামিন এ, ভিটামিন সি, ভিটামিন বি, ভিটামিন ডি এর অভাবে দাঁতের মাড়ি ফুলে যায়। এছাড়া অন্যান্য ভিটামিন, ভিটামিন এ, ভিটামিন সি, ভিটামিন বি, ভিটামিন ডি এর অভাবে আমরা মাড়িতে অনেক সমস্যা দেখতে পাই, নিচে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

দাঁত ও মাড়ির ভালো যত্ন নেওয়াই দাঁত ও মাড়ি সুস্থ রাখার একমাত্র উপায় নয়। যত্ন নেওয়ার পাশাপাশি আমাদের দাঁত ও মাড়ি সুস্থ রাখতে পর্যাপ্ত ভিটামিন সমৃদ্ধ খাবার খেতে হবে। দাঁতের জন্য ভিটামিনের ভূমিকা অপরিহার্য।

ভিটামিন আমাদের দাঁত এবং মাড়ির স্বাস্থ্যের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। দাঁতের জন্য ভিটামিন-এ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। ভিটামিন-এ আমাদের দাঁত এবং মাড়ি সুস্থ রাখতে বিশাল ভূমিকা পালন করে।

ভিটামিন-বি আমাদের ত্বক এবং স্বাস্থ্যের জন্য একটি বড় ভূমিকা পালন করে। সাধারণত, মুখের ঘা জিহ্বার ঘা থেকে রক্ষা করে। ভিটামিন-সি আমাদের মাড়ির স্বাস্থ্যে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। ভিটামিন-সি এর অভাবে আমাদের মাড়ি থেকে রক্তপাত হতে পারে। সাধারণত টক ফল যেমন আমলকি, পেয়ারা, লেবু, কমলা ইত্যাদিতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন-সি থাকে। ভিটামিন সি আমাদের দাঁত এবং মাড়ি স্বাস্থ্যের জন্য খুবই কার্যকর।

ভিটামিন ডি আমাদের দাঁতকে শক্তিশালী করে। ভিটামিন-কে আমাদের দাঁত ও মাড়ির স্বাস্থ্যে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। ভিটামিন-কে সাধারণত আমাদের শরীরকে রক্ত জমাট বাঁধতে সাহায্য করে। ভিটামিন-কে এর অভাবে আমাদের মাড়ি ফুলে যেতে পারে, মাড়ি থেকে রক্তপাত হতে পারে। সবুজ শাকসবজি চর্বিহীন মাংস মাছ ভিটামিন-কে সমৃদ্ধ।

এখন যেহেতু আমরা জানি যে ভিটামিন সমৃদ্ধ খাবার আমাদের দাঁত ও মাড়িকে সুস্থ রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে, আমরা এখন দাঁতের মানসম্মত যত্নের সাথে এই পাঁচ ধরনের ভিটামিন সমৃদ্ধ খাবার গ্রহণ করব। যা আমাদের দাঁত এবং মাড়ি সুস্থ রাখতে সাহায্য করবে।

আরো পড়ুনঃ পায়খানা ক্লিয়ার করার ট্যাবলেট এর নাম

মাড়ির ক্ষয় রোধ করার ঘরোয়া প্রতিকার

দাঁতের গোড়া ক্ষয়ে যাচ্ছে এবং দাঁত বের হচ্ছে। দাঁত ক্ষয়ে যাচ্ছে এবং অনেক নিচে চলে যাচ্ছে। যে কোনো ঠান্ডা বা মিষ্টি খাবার খেলে দাঁত শিরশিরানী অনুভব করছেন। নিশ্চয়ই আমরা অনেকেই এই ধরনের ক্ষয় নিয়ে চিন্তিত, এই ধরনের ক্ষয় নিয়ে চিন্তার কোনো কারণ নেই, কারণ এখন চিকিৎসার মাধ্যমে এই ধরনের ক্ষয় প্রতিরোধ করা সম্ভব।

এই ধরনের দাঁতের ক্ষয় বা মাড়ি থেকে দাঁতের গোড়া বের হওয়ার প্রধান কারণ হল আমরা যখন ব্রাশ করি তখন আমরা দাঁতের উপর ব্রাশটি ঘষে অনেক সময় ব্যয় করি এবং খুব জোরে জোরে ব্রাশ করি। জোরে জোরে ব্রাশ করার ফলে আমাদের দাঁতের উপরের এনামেল ধীরে ধীরে ক্ষয়ে যায় এবং আমরা যদি জোরে জোরে দাঁত ব্রাশ করতে থাকি তাহলে দাঁত ক্ষয়ের কারণে দাঁতের গোড়া বেরিয়ে আসে।

প্রচুর পরিমাণে অ্যাসিটিক খাবার যেমন কমলা লেবু, কোমল পানীয়তে অ্যাসিটিক পরিমাণ অনেক বেশি তাই এই ধরনের খাবার বেশি পরিমাণে খেলে দাঁতের সমস্যা হতে পারে। অতএব, এই খাবারগুলি খেতে চাই তবে আমরা একটি পদ্ধতি ব্যবহার করতে পারি। এছাড়াও, খাওয়ার পর ব্রাশ করতে পারি, তবে আমাদের দাঁত ক্ষয় হওয়ার কোনো প্রবণতা থাকবে না।

আমরা যদি দেখি আমাদের দাঁতের রং সাদা থেকে হলুদ হতে শুরু করেছে। তখন আমরা চিন্তিত হয়ে পড়ি এবং দাঁত সাদা করার জন্য টুথ হোয়াইটেনিং বা ব্লিচিং এর ব্যবহার করে থাকি এবং বারবার ব্লিচিং করার মাধ্যমে আমাদের দাঁত ক্ষয় হতে পারে।

দাঁতের ক্ষয়ের কারণ প্রতিকার করে, আমরা যদি ক্ষয় দূর করি তবে দাঁতের ক্ষয় থেকে আমরা মুক্তি পাব। আর যদি এমন হয় যে, আপনার দাঁত ক্ষয় হয়ে গেছে তবে এটি নিয়ে চিন্তা না করে, আপনার নিকটস্থ ডেন্টাল সার্জনের কাছে যান এবং আক্রান্ত স্থানে একটি ছোট ফিলিং করিয়ে নিন যাতে এই ছোট ক্ষয় পরবর্তীতে কোন বড় ক্ষয় সৃষ্টি করতে না পারে।

কিন্তু একবার যদি আপনার দাঁত নড়ে যায় তাহলে সেই দাঁত ফেলে দেওয়া ছাড়া আপনারা হাতে আর কোনো উপায় থাকবে না। তাই দাঁতের ক্ষয় ছোট হোক বা বড় হোক দ্রুত নিকটস্থ ডেন্টিস্টদের কাছে গিয়ে দাঁত ফিলিং করিয়ে নিন। তাহলে আশা করি দাঁতের ক্ষয় থেকে আপনি মুক্ত থাকতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ দাঁতের ব্যথা কমানোর ঘরোয়া উপায়

বহুল জিজ্ঞাসিত প্রশ্নের উত্তর

দাঁতের মাড়ি ফুলে গেলে করণীয় কি?

সরিষার তেলে কিছু লবণ মিশিয়ে মাড়িতে লাগান। আপনি দিনে ৩-৪ বার এটি বারবার ব্যবহার করেন তবে আপনি শীঘ্রই সংক্রমণ থেকে মুক্তি পাবেন।

দাঁতের মাড়ি ব্যথায় করণীয় কি?

মাড়ির ব্যথার জন্য উপকারী খাবার ভাত, আলু ভর্তা, স্যুপ, মাছ, অ্যাভোকাডো, মটরশুটি, ছোলা, তোফু, পাস্তা, ওটমিল, ডিম, পনির এবং ভালোভাবে রান্না করা সবজি খাওয়া উপকারী। দাঁতের 'আইএমএইচও'র পর ব্যথা কমাতে আইসক্রিম খাওয়া যেতে পারে।

কোন ভিটামিনের অভাবে দাঁতের মাড়ি ফুলে যায়?

ভিটামিন-সি-এর অভাব মাড়ি ফুলে যাওয়ার প্রধান কারণ।

দাঁতের গোড়া দিয়ে পুঁজ পড়লে করণীয় কি?

দিনে অন্তত দুবার খাবারের পরে, সকালে খাবারের পরে এবং রাতে খাবারের পরে দাঁত ব্রাশ করুন, মশলাদার খাবার, মাংস এবং মিষ্টি এড়িয়ে চলুন। দাঁতের ভেতরে কোনো খাবার আটকে থাকলে দ্রুত বের করে ফেলুন।

কোন ভিটামিনের অভাবে দাঁতের মাড়ি ফুলে যায় নিয়ে শেষ কথা

আজকের পোস্টে আমরা কোন ভিটামিনের অভাবে দাঁতের মাড়ি ফুলে যায় এবং দাঁতের মাড়ি ফুলে গেলে করণীয় কি সে সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। স্বাস্থ্যকর খাবার এবং ভিটামিন যুক্ত খাবার যেগুলো দাঁতের জন্য উপকারী আমাদের সেই ধরনের খাবার খেতে হবে। সুস্থ সবল দাঁত পেতে আমাদের কি করনীয় সেই সম্পর্কে আমরা আলোচনা করার চেষ্টা করেছি। আশা করি আজকের আলোচনা আপনাদের জন্য কার্যকর হবে।

পোষ্ট ক্যাটাগরি: