মালয়েশিয়া ভিসার দাম কত - মালয়েশিয়া ভিসার দাম কত ২০২৩

মালয়েশিয়া ভিসার দাম কত – বাংলাদেশ থেকে প্রতি বছর প্রচুর পরিমাণ মানুষ মালয়েশিয়া গমন করে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায় মালয়েশিয়া কাজের ভিসার চাহিদা অনেক বেশি থাকে। মালয়েশিয়া কয়েক ধরণের ভিসা পাওয়া যায়। ভিসার ধরণ এর উপর নির্ভর করে খরচ কত হবে।

মালয়েশিয়া ভিসার দাম কত প্রাইস

প্রিয় পাঠক আমাদের আজকের আর্টিকেলে আপনাদের জানাবো মালয়েশিয়া ভিসার দাম সম্পর্কে। যারা কাজ, স্টূডেন্ট বা ভ্রমন ভিসাতে মালয়েশিয়াতে যেতে চান তাদের জন্য আর্টিকেলটি অনেক বেশি সাহায্য করবে।

(toc) #title=(সুচিপত্র)

মালয়েশিয়া ভিসার দাম কত - মালয়েশিয়া ভিসার দাম কত ২০২৩

ভিসার দাম নির্ভর করে ভিসা ক্যাটাগরি ও এজেন্সির উপর। যদি আপনি কোনো এজেন্সির মাধ্যমে কাজের ভিসা নিয়ে মালয়েশিয়া যেতে চান তাহলে খরচ বেশি হবে। বাংলাদেশ থেকে সরকারি ভিসার মাধ্যমে মালয়েশিয়াতে লোক পাঠানো হয়।

আপনি যদি সরকারি ভিসায় মালয়েশিয়াতে যেতে পারেন তাহলে খরচ অনেকটা কম হবে। আবার মেডিকেল ভিসা ও ট্যুরিস্ট ভিসা এর খরচ আলাদা হয়। যদি কোনো এজেন্সির মাধ্যমে যান তাহলে সেটা নির্ভর করবে তাদের দেয়া সুযোগ ও সুবিধার উপর। নিচে আমরা প্রতিটি ভিসার দাম দিয়ে দিলাম –

মালয়েশিয়া কাজের ভিসার দাম কত - মালয়েশিয়া ভিসার দাম কত ২০২৩

বাংলাদেশ থেকে সবচেয়ে বেশি কাজের ভিসাতে যে দেশে যায় সেটা হলো মালয়েশিয়া। মালয়েশিয়া কাজের ভিসা পাওয়ার জন্য আপনাকে নির্ধারিত কাজের উপর আবেদন করতে হবে। আপনি যদি মালয়েশিয়াতে কাজের ভিসা নিয়ে যেতে চান তাহলে কাজ এর ধরণ অনুযায়ী আপনাকে ভিসা বানাতে হবে। বর্তমানে মালয়েশিয়া কাজের ভিসা বানাতে খরচ হতে পারে ৫-৬ লাখ টাকা

 আরো পড়ুনঃ পর্তুগাল যেতে কত টাকা লাগে

মালয়েশিয়া স্টুডেন্ট ভিসার দাম কত

যদি আপনার কোনো স্কলারশীপ থাকে তাহলে ২ লাখ টাকার মধ্যে মালয়েশিয়াতে পড়তে পারবেন। কিন্তু আপনি যদি স্কলারশীপ ছাড়া মালয়েশিয়াতে পড়তে যেতে চান তবে ৬-৭ লাখ টাকা আপনার ব্যাংকে থাকতে হবে। ৩-৪ লাখ টাকার মধ্যে আপনারা মালয়েশিয়া স্টূডেন্ট ভিসা বানিয়ে নিতে পারবেন।

মালয়েশিয়া মেডিকেল ভিসার দাম কত

মালয়েশিয়া উন্নত চিকিৎসা সেবা দিতে সক্ষম একটি দেশ। বিভিন্ন দেশ থেকে প্রচুর পরিমাণ মানুষ মালয়েশিয়াতে চিকিৎসার জন্য যায়। বাংলাদেশ থেকে আপনি চাইলে মেডিকেল ভিসার মাধ্যমে মালয়েশিয়াতে চিকিৎসা করতে পারবেন।

বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে মেডিকেল ভিসায় মালয়েশিয়া যেতে ভিসা খরচ যাবে প্রায় ৪ লাখ টাকার মতো। আপনি যদি বিভিন্ন এজেন্সির সুবিধা নিয়ে যেতে চান তাহলে সেটা ৫-১০ লাখ টাকা পর্যন্ত ভিসা খরচ হবে অন্যান্য সকল খরচ মিলিয়ে।

মালয়েশিয়া ট্যুরিস্ট ভিসার দাম কত

ভ্রমণ করার জন্য সুন্দর একটি দেশ হলো মালয়েশিয়া। বাংলাদেশ থেকে প্রচুর পরিমাণে মানুষ ভ্রমণের উদ্দ্যেশ্যে মালয়েশিয়া যেতে পছন্দ করেন। ট্যুরিস্ট ভিসার দাম নির্ভর করে ভিসার মেয়াদ এর উপর।

সাধারণত আপনি যদি ০৭ দিনের ভ্রমণের ভিসাতে মালয়েশিয়া যান তাহলে খরচ কম হবে। এ ছাড়াও বিভিন্ন এজেন্সি থাকা খাওয়া ও হোটেল ভাড়া খরচ একবারে ভিসা খরচ এর মধ্যে নিয়ে নেয়।

তাই বলা যায় যে আপনি ০৩ লাখ টাকার মধ্যে মালয়েশিয়া ট্যুরিস্ট ভিসা করতে পারবেন। কিছু ক্ষেত্রে এর চেয়ে বেশি ও হতে পারে। এটা ভিসার ধরণ ও মেয়াদের উপর সম্পূর্ণ নির্ভর করে।

 আরো পড়ুনঃ ইউরোপের কোন দেশের ভিসা সহজে পাওয়া যায়

মালয়েশিয়া কোম্পানি ভিসার দাম কত

অনেকে কোম্পানি ভিসা তে মালয়েশিয়া যেতে চাচ্ছেন।। কিন্তু কোম্পানি ভিসার দাম না জানার ফলে বুঝতে পারছেন না যেতে পারবেন কি না। মালয়েশিয়া বর্তমান সময়ে একটি কোম্পানি ভিসার দাম ৫-৬ লাখ টাকার মধ্যে হয়ে থাকে। 

কোম্পানি ভিসায় যাওয়ার জন্য অনেক নিয়ম রয়েছে যেগুলো সঠিক ভাবে হলে আপনি আরো কম টাকাতেও যেতে পারবেন। নির্ভর করে কাজের মান ও ধরণ এর উপর যাচাই করে। তবে বর্তমানে ৫-৬ লাখ টাকার মধ্যে আপনি মালয়েশিয়া কোম্পানি ভিসা করতে পারবেন।

মালয়েশিয়া ফ্যাক্টরি ভিসা বেতন কত

বাংলাদেশ থেকে অনেক লোক ফ্যাক্টরি ভিসায় কাজের জন্য মালয়েশিয়া যায়। কিন্তু নতুন যারা ভাবছে যে, ফ্যাক্টরি ভিসায় মালয়েশিয়া যাবেন তাদের জানা দরকার বেতন সম্পর্কে। 

আপনি যদি ফ্যাক্টরি ভিসায় মালয়েশিয়া যান তাহলে আপনার বেতন হবে ৫০-৮০ হাজার টাকার মতো। ফ্যাক্টরি ভিসায় কোনো প্রকার ওভার টাইম করার সুযোগ দেয়া হয় না। কোনো কোনো ক্ষেত্রে এর চেয়ে বেশি বেতন ও হতে পারে।

মালয়েশিয়া কোন ভিসা ভালো

বর্তমান সময়ে যদি আপনি মালয়েশিয়া যেতে চান তবে ওয়ার্ক পারমিট ভিসা সবচেয়ে ভালো হবে। প্রতি বছর সরকারি ভাবে প্রচুর পরিমাণে লোক নেয়া হয়। মালয়েশিয়া তে কাজের চাহিদা ও অনেক বেশি থাকে। ওয়ার্ক পারমিট ভিসার খরচ ও বেশি হয় না। আপনার কাছে যদি মোটামুটি ৪-৫ লাখ টাকা থাকে তাহলে সহজেই আপনি ওয়ার্ক পারমিট ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন।

মালয়েশিয়া বেতন কত ২০২৩

মালয়েশিয়া তে কাজের ধরণের উপর বেতন প্রদান করা হয়। সাধারণত সবচেয়ে কম বেতন হলেও ৩০ হাজার টাকার বেশি বেতন প্রদান করা হয়। এ ছাড়াও বিশেষ কাজের উপর বেতন আলাদা আলাদা হয় যেমন - 

ফ্যাক্টরি কাজের বেতন: মালয়েশিয়া ফ্যাক্টরি কাজের বেতন ৪০-৮০ হাজার টাকার মত হয়ে থাকে। 

কৃষি কাজের বেতন: মালয়েশিয়া তে কৃষি কাজের উপর গেলে আপনি দক্ষতা অনুযায়ী ৩০-৭০ হাজার টাকা বেতন পেতে পারেন।

ইলেক্ট্রিক কাজের বেতন: মালয়েশিয়া তে ইলেক্ট্রিক কাজের জন্য যদি যান আপনার বেতন হবে ৪০ হাজার -১০০০০ লাখ টাকা পর্যন্ত।

এ ছাড়াও হোটেলে, ক্লিনার ইত্যাদি কাজে কাজের দক্ষতা অনুযায়ী বেতন প্রদান করে থাকে। দক্ষতা অনুযায়ী উপরের স্তরে কাজ করতে পারলে ২ লাখ টাকা ও বেতন পাওয়া সম্ভব।

 আরো পড়ুনঃ বাংলাদেশের জন্য কোন কোন দেশের ভিসা খোলা আছে

মালয়েশিয়া কোন কাজের চাহিদা বেশি

অনেকেই জানতে চান আসলে মালয়েশিয়াতে কোন কাজের চাহিদা সবচেয়ে বেশি। সময় অনুযায়ী কাজের চাহিদা বাড়ে বা কমে। আজকে যে কাজের চাহিদা আছে দুদিন পরে সেটা নাও থাকতে পারে।

তবে আপনি যদি মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য একটি চাহিদাসম্মত কাজ শিখতে চান তাহলে নিচের কাজ গুলো শিখতে পারেন। এ সকল কাজ গুলোর চাহিদা সবসময় থাকে - 

  • কৃষি কাজ
  • ড্রাইভিং এর কাজ
  • ক্লিনার এর কাজ
  • ফ্যাক্টরি এর কাজ
  •  ইলেক্ট্রনিক কাজ

এ সকল কাজে প্রচুর পরিমাণে চাহিদা দেখা যায়। বিশেষ করে হোটেল এর কাজ গুলো বেশি দেখা যায়। মালয়েশিয়া একটি কৃষি নির্ভর দেশ।

মালয়েশিয়াতে প্রচুর পরিমাণে পামওয়েল তেলের চাষ করা হয়। তাই বলা যায় সবচেয়ে বেশি কাজের চাহিদা কৃষি কাজের উপর হয়ে থাকে। মালয়েশিয়া তে চাহিদা সম্মত কাজের জন্য আবেদন করলে কৃষি কাজের উপর করতে পারেন।

মালয়েশিয়া যেতে কত টাকা লাগে

মালয়েশিয়া যেতে কত টাকা লাগবে নির্ভর করে ভিসার ধরণ এর উপর। সাধারণত আপনি যে কোনো ধরণের ভিসা তে যাওয়ার জন্য ৪-৮ লাখ টাকা খরচ হবে।

মালয়েশিয়া কাজের ভিসায় যেতে কত টাকা লাগে

মালয়েশিয়া তে কাজের জন্য যদি যেতে চান তাহলে সরকারি ভাবে আপনি ৩-৪ লাখ টাকার মধ্যে যেতে পারবেন। আর যদি দালাল এর মাধ্যমে যেতে চান তবে ৫-৭ লাখ টাকার মতো খরচ হবে।

বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়া যেতে কত টাকা লাগবে

বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়া কাজের ভিসায় ৩-৬ লাখ, মেডিকেল ভিসায় ২-৩ লাখ, ট্যুরিস্ট ভিসায় ১-৩ লাখ টাকা লাগবে যদি আপনি বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়া যেতে চান।

শেষ কথা – মালয়েশিয়া ভিসার দাম কত

মালয়েশিয়া ভিসার দাম সবসময় একরকম থাকবে না। ভিসার দাম দিন দিন বাড়ে ও কমে প্রয়োজন ভেদে বেশি খরচ হতে পারে এখানে দেয়া খরচ এর চেয়ে।

পোষ্ট ক্যাটাগরি:

এখানে আপনার মতামত দিন

0মন্তব্যসমূহ

আপনার মন্তব্য লিখুন (0)