পাসপোর্ট রিনিউ করার নিয়মাবলী 2023

পাসপোর্ট রিনিউ করার নিয়মাবলী 2023 - কখনো কখনো আমাদের পাসপোর্ট রিনিউ করার প্রয়োজন পড়ে। আবার মেয়াদ শেষ হয়ে গেলেও পাসপোর্ট রিনিউ করতেই হয়। কিন্তু আমাদের মাঝে আমরা এমন অনেকেই আছি যারা পাসপোর্ট রিনিউ করার সঠিক নিয়ম জানি না।

অনেকেই এটা ভেবে ভ্যাবাচ্যাকা খেয়ে যায়, পাসপোর্ট রিনিউ করতে কোথায় কোথায় যেতে হবে না জানি কত প্রকারের কাগজ সংগ্রহ করতে হবে!

পাসপোর্ট রিনিউ করার নিয়মাবলী 2023

সুচিপত্রঃ পাসপোর্ট রিনিউ করার নিয়মাবলী 2023

সুপ্রিয় পাঠক বন্ধুরা, পাসপোর্ট রিনিউ করার নিয়মাবলী 2023 বা নতুন নিয়মে পাসপোর্ট রিনিউ করার নিয়ম সম্পর্কিত আজকের আর্টিকেলের সবাইকে স্বাগতম জানাচ্ছি। 

আজ আমরা আমাদের এই লেখায় আপনাদেরকে জানিয়ে দেব পাসপোর্ট রিনিউ করার নিয়ম সহ আরো বিস্তারিত প্রয়োজনীয় বিষয়াবলী সম্পর্কে। তাই অবশ্যই মনোযোগ সহকারে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সম্পূর্ণ পড়ুন আমাদের আজকের লেখাটি।

পাসপোর্ট রিনিউ করার নিয়মাবলী 2023 - পাসপোর্ট রিনিউ করার পদ্ধতি

বাংলাদেশ এখন সময়ের সাথে সাথে এগিয়ে চলেছে। আর তাইতো বর্তমানে বাংলাদেশের প্রত্যেকটি জেলায় পাসপোর্ট অফিস গুলোতে পাসপোর্ট কার্যক্রম চালু হয়েছে ইতোমধ্যে। তাই আপনি চাইলে পাসপোর্ট রিনিউ করতে পারবেন খুব সহজেই শুধুমাত্র পাসপোর্ট রিনিউ করার ফরম পূরণ করার মাধ্যমে। 

তবে পাসপোর্ট রিনিউ করার জন্য অবশ্যই আপনাকে একটি নিয়ম অনুসরণ করতে হবে। সেগুলো হলোঃ

প্রথমতঃ পাসপোর্ট রিনিউ করার জন্য আবেদন করতে হবে অনলাইনে। তবে আপনি চাইলে অফলাইনেও পাসপোর্ট রিনিউ করার জন্য আবেদন করতে পারবেন সেক্ষেত্রে আপনাকে পাসপোর্ট রিনিউ করার ফরম পূরণ করে তা জমা দিতে হবে।

দ্বিতীয়তঃ অফলাইন এবং অনলাইন দুই মাধ্যমেই আপনাকে পাসপোর্ট রিনিউ ফি প্রদান করতে হবে।

তৃতীয়তঃ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দিয়ে আপনাকে প্রদান করতে হবে।

চতুর্থতঃ বায়োমেট্রিকস তথ্য প্রদান এবং পাসপোর্ট ডেলিভারি স্লিপ সংগ্রহ করতে হবে। ব্যস পরবর্তীতে নির্ধারিত তারিখে পাসপোর্ট সংগ্রহ করতে হবে আপনাকে। 

অনেকেই আবার কখনো কখনো এটাও জানার আগ্রহ প্রকাশ করেন বিদেশ থেকে পাসপোর্ট কিভাবে রিনিউ করবেন? 

মূলত পাসপোর্ট নবায়ন অথবা রিনিউ করতে হলে সেই দেশে অবস্থানরত বাংলাদেশের হাইকমিশন বা এম্বাসিতে একটি ফরম পূরণ করে জমা প্রদানের মাধ্যমে আপনি পাসপোর্ট রিনিউ করতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার নিয়ম

পাসপোর্ট রিনিউ করতে কত টাকা লাগে - পাসপোর্ট রিনিউ ফি ২০২৩

আপনি যদি পাসপোর্ট রিনিউ করতে চান সেক্ষেত্রে আপনাকে একটি নির্দিষ্ট এমাউন্ট প্রদান করতে হবে। মূলত পাসপোর্ট রিনিউ করতে পাঁচ বছর মেয়াদে ৪৮ পাতার পাসপোর্ট ফি-৪,০২৫ টাকা এবং ৬৪ পাতার জন্য পাসপোর্ট ফি ৬,৩২৫ টাকা। 

অপর দিকে আপনি যদি ১০ বছর মেয়াদে ৪৮ পাতার পাসপোর্ট রিনিউ করতে চান সেক্ষেত্রে ৫,৭৫০ টাকা ফি এবং ৬৪ পাতার জন্য ৮,০৫০ টাকা। আর আপনি পাসপোর্ট রিনিউ করার জন্য অফলাইন অথবা অনলাইন যে মাধ্যমই বেছে নিয়ে থাকেন না কেন আপনাকে অবশ্যই এই পরিমাণ ফি প্রদান করতে হবে।

পাসপোর্ট রিনিউ জরিমানা

পাসপোর্ট রিনিউ করা হয় মূলত পাসপোর্ট এর মেয়াদ চলে যাওয়ার পূর্বে। কেননা পাসপোর্ট রিনিউ না করলে সেটার কোনই মূল্য থাকেনা। আর তাই সচরাচর আমরা আমাদের প্রয়োজনে পাসপোর্ট রিনিউ করে থাকি। কিন্তু যখন মেয়াদোত্তীর্ণ পাসপোর্ট রিনিউ করা হয় সেক্ষেত্রে পাসপোর্ট রিনিউ জরিমানা দিতে হয় অফিসকে। 

প্রতিবছরে ৩৪৫ টাকা করে প্রদান করার নিয়ম ছিল এতদিন পর্যন্ত। তবে হ্যাঁ সম্প্রতি একটি রিপোর্টে জানা গেছে, পাসপোর্ট অধিদপ্তরের নতুন ঘোষণা অনুযায়ী অতিরিক্ত এই ফি গ্রহণ করা হবে না। তাই পাসপোর্ট রিনিউ করার জন্য জরিমানা দেওয়ার কোনই প্রয়োজন নেই।

আরো পড়ুনঃ সরকারিভাবে কোন কোন দেশে যাওয়া যায়

পাসপোর্ট রিনিউ ফি প্রদানের মাধ্যম

পাসপোর্ট ফি প্রদানের জন্য আপনি কোন মাধ্যমে অবলম্বন করবেন? অর্থাৎ আপনি যদি অনলাইনের মাধ্যমে পাসপোর্ট রিনিউ করার জন্য আবেদন না করেন সেক্ষেত্রে আপনি কি হাতে টাকা পরিশোধ করবেন? না একদমই না। মূলত পাসপোর্ট এর ফি পাসপোর্ট অফিসের নির্ধারিত কিছু ব্যাংকে পরিশোধ করতে পারবেন আপনি। আর সেই সকল ব্যাংক হলো:

১। ট্রাস্ট ব্যাংক

২। সোনালী ব্যাংক

৩। ঢাকা ব্যাংক

৪। ব্যাংক এশিয়া

৫। প্রিমিয়ার ব্যাংক

৬। ওয়ান ব্যাংক

আপনি মূলত সরাসরি টাকা দিতে পারবেন না এই কারণে, কারণ পাসপোর্ট রিনিউ করার জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস সমূহের মধ্যে আপনার ফি প্রদানের স্লিপটি অবশ্যই থাকতে হবে। 

অনলাইনে আপনি সাধারণত ভিসা কার্ড, মাস্টার কার্ড, বিকাশ, ডান্স বাংলা মোবাইল ব্যাংকিং এবং ইউ ক্যাশের মাধ্যমে ফি প্রদান করতে পারবেন।

পাসপোর্ট রিনিউ ফরম

পাসপোর্ট রিনিউ করার নিয়মাবলী 2023

অনলাইনে পাসপোর্ট রিনিউ করার নিয়ম

আপনি যদি অনলাইনে পাসপোর্ট রিনিউ করতে চান সেক্ষেত্রে আপনাকে যা যা করতে হবে।

১। www.epassport.gov.bd ওয়েবসাইটে ভিজিট করতে হবে। 

২। ক্লিক করতে হবে Apply Online for e‑Passport / Re‑Issue এখানে।

৩। উল্লেখ করতে হবে জেলার নাম। সেই সাথে কোন দেশ থেকে পাসপোর্ট রিনিউ বা রি-ইস্যু করবেন সেই দেশের নাম।

৪। প্রদান করতে হবে আপনার ব্যক্তিগত ইনফরমেশন। 

৫। অ্যাকাউন্ট তৈরি করার জন্য ব্যবহৃত ইমেইল একাউন্ট ভেরিফিকেশন করতে হবে আপনাকে। 

ব্যাস আপনার অ্যাকাউন্ট ক্রিয়েট হয়ে গেলে আপনি আপনার একাউন্টে পুনরায় লগইন করে কল করতে থাকুন। এরপর লক্ষ্য করলে নিচের দিকে একটি অপশন দেখতে পারবেন যেখানে এপ্লাই ফর এ নিউ পাসওয়ার্ড লেখা থাকবে। মূলত সেখানে ক্লিক করে পরবর্তী ধাপগুলো স্টেপ বাই স্টেপ এগিয়ে যাওয়ার মাধ্যমে আপনি অনলাইনে এই পাসপোর্ট রিনিউ করতে পারবেন।

পাসপোর্ট রিনিউ করার নিয়মাবলী ভিডিওতে দেখুন

পাসপোর্ট রিনিউ করার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

আপনি যদি পাসপোর্ট রিনিউ করতে চান সেক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই কিছু ডকুমেন্ট সংগ্রহ করতে হবে। অর্থাৎ পাসপোর্ট রিনিউ করার জন্য যে সকল কাগজপত্র অবশ্যই থাকতে হবে সেগুলো হলো:

১। পূর্ববর্তী পাসপোর্ট

২। জাতীয় পরিচয়পত্র অথবা জন্ম নিবন্ধন সনদ।

৩। নাগরিক সনদপত্র

৪। পেশা প্রমাণের ডকুমেন্টস

৫। অনলাইনে পাসপোর্ট আবেদন ফরম

৬। পাসপোর্ট ফি প্রদানের স্লিপ এবং

৭। পাসপোর্ট রি ইস্যু ফরম 

শেষ কথাঃ পাসপোর্ট রিনিউ করার নিয়মাবলী 2023 নিয়ে

তো সুপ্রিয় পাঠক বন্ধুরা, পাসপোর্ট রিনিউ করার নিয়মাবলী 2023 বা পাসপোর্ট রিনিউ করার নিয়ম ২০২৩ সংক্রান্ত লেখাটি আমরা এখানেই শেষ করছি।

আশা করি আমাদের দেওয়া নিয়মাবলী অনুসরণ করলে অফলাইন অথবা অনলাইন যেকোনো মাধ্যমে আপনি পাসপোর্ট রিনিউ করার জন্য আবেদন করতে পারবেন। তবুও যদি কোন প্রশ্ন থেকে থাকে আমাদের কমেন্ট করে জানান এবং নিয়মিত গুরুত্বপূর্ণ পোষ্টের নোটিফিকেশন পেতে আমাদের সাথে থাকুন। আল্লাহ হাফেজ।

পোষ্ট ক্যাটাগরি: