নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম

নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম - জন্ম নিবন্ধনে ভুল আছে নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে চান?কিন্তু কিভাবে করবেন সেই নিয়মটা জানেন না। আজকের এই আর্টিকেলে আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করব নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম। আপনারা যারা নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম জানেন না তাহলে আজকের এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়ুন। তাহলে আশা করি নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম জানতে পারবেন। তাহলে চলুন দেরি না করে জেনে নিই।

নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম

পেজ সূচিপত্রঃ নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম

আপনি যদি শেষ পর্যন্ত আমাদের সঙ্গে থাকেন তাহলে নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জানতে পারবেন। তাহলে চলুন দেরি না করে নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

ভূমিকাঃ নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম

নিয়মে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম এবং কিভাবে আমরা নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন খুব সহজে সংশোধন করব। তা আজকের এই পোস্টে বিস্তারিত আলোচনা করব।আমাদের অনেকেরই জন্ম নিবন্ধন নিয়ে অনেক ভুল থাকে,বাবা-মা র নাম অথবা নিজের নামে ভুল হয়ে থাকে।

আরো পড়ুনঃ জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম

এবং তা কিভাবে সংশোধন করবেন এবং সংশোধন করতে কত টাকা লাগবে অনলাইনে কি জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করা যাবে? যদি করা যায় তাহলে কি কি পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে।আজকের এই আর্টিকেলে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে। আপনারা যারা সংশোধন করতে চান তাহলে আজকের এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়ুন।

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম

আপনি যদি আপনার জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে চান অনলাইনে। তাহলে আমাদের দেওয়ার নির্দেশনা গুলো মেনে চলুন তাহলে আপনি সংশোধন করতে পারবেন সহজেই অনলাইনে। অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার জন্য এবং আবেদন করার জন্য একটি একটি ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে www.bdris.gov.bd এই ওয়েবসাইটটিতে প্রবেশ করুন।

নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম

করার পর এরপর পোর্টালের জন্ম তথ্য সংশোধন ফর্মে প্রথমে যার জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে চান তার জন্ম নিবন্ধন নম্বর প্রবেশ করুন। এখানে প্রথমে আপনার অনলাইন নিবন্ধনের নম্বরে ১৭ ডিজিট প্রবেশ করুন এরপর জন্ম তারিখ ড্রপ ডাউন মেনু থেকে নির্বাচন করে অনুসন্ধান বাটনে ক্লিক করুন। তথ্য সঠিক থাকলে নিচে নিবন্ধিত ব্যক্তির তথ্য প্রদর্শন করবেন।

প্রদর্শিত তথ্যের পাশে থাকা নির্বাচন করুন অ্যাকশন বাটনে ক্লিক করুন এরপর আপনাকে একটি মেসেজ দেয়া হবে আপনি কি নিশ্চিত মেসেজে প্রদর্শন করবে সেখানে কনফার্ম বাটনে ক্লিক করুন।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম

তারপর আপনাকে পরবর্তী ধাপে নিয়ে যাবে। আপনার যে ইউনিয়ন বা পৌরসভা অধীনে জন্ম নিবন্ধন করা সে ঠিকানা নির্বাচন করুন। এখানে প্রথমে দেশ ড্রপডাউন মেনু থেকে যে দেশ থেকে অনলাইন জন্ম নিবন্ধন করা হয়েছে সেই দেশ নির্বাচন করুন।বাংলাদেশ নির্বাচন করলে বিভাগ অপশন থেকে বিভাগ ও ছবিতে প্রদর্শিত আবশ্যিক তথ্যগুলো নির্বাচন করুন।

সব তথ্য নির্বাচন হয়ে গেলে পরবর্তী বাটনে ক্লিক করুন সংশোধনের মূল কার্যক্রম সম্পন্ন করতে হবে আপনার জন্ম নিবন্ধনে তথ্য সংশোধনের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ এখানে আপনি তথ্য সংশোধনের জন্য প্রয়োজনীয় তথ্য এন্ট্রি করবেন কোন ভুল যেন না হয় সেইভাবে আপনার জন্ম তথ্য গুলো পূরণ করবেন।

আপনার যে তথ্যটি সংশোধন করার প্রয়োজন তা নির্বাচন করার পর সংশোধিত তথ্য বক্সটি সক্রিয় হবে এখানে আপনার সঠিক তথ্যটি প্রদান করে সংশোধনের কারণ হিসাবে ভুল লিপিবদ্ধ করা হয়েছে তা নির্বাচন করুন।

আরো পড়ুনঃ জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড

একাধিক তথ্য সংশোধনের প্রয়োজন হলে আরো তথ্য সংযোগ বা করুন বাটনে ক্লিক করে সংশোধনের প্রয়োজনও সব তথ্য দেন আপনার প্রত্যাশিত ফাইলটি নির্বাচন করে ওপেন বাটনে ক্লিক করুন আপনার নির্বাচিত ফাইলটি প্রিভিউ দেখাবে ও এর পাশে থাকা ফাইল টাইপ ড্রপডাউন মেনু থেকে আপনার সংযুক্তির ধরন নির্বাচন করে আপলোড করার জন্য স্টার্ট বাটনে ক্লিক করুন।

নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম

নিজের নাম নিজে সংশোধন করতে চাইলে আপনি যেমন নিখুঁতভাবে কাজ করতে পারবেন তেমনি কোন ভুল হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে না তাই আপনার হাতের কাছে থাকা ডেক্সটপ অথবা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন ভুল তথ্যের সংশোধন করা সম্ভব।তাই আপনার আজকে এই পোষ্টের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধনের নিজের নাম সংশোধন করার সঠিক নিয়ম জেনে নিন।

জন্ম নিবন্ধন করা সবার জন্য জরুরি জন্মের ৪৫ দিনের মধ্যেই শিশুর জন্ম নিবন্ধন করা বাধ্যতামূলক যদি না করা হয় তাহলে পরবর্তীতে বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন।বিশেষ করে নতুন বছরে সন্তানের স্কুলের ভর্তি করতে জন্ম নিবন্ধন অবশ্যই এখনো রেডি করে রাখতে হবে।অনেকে সশরীরে হাজির হয়ে জন্ম নিবন্ধনের জন্য আবেদন করেন, আবার অনেকেই ঘরে বসে অনলাইনে ফরম পূরণ করেন।

তবে জন্ম নিবন্ধন করার সময় অসতর্ক কিংবা অসচেতন থাকাই ভুল হয়ে যায় দেখা যায় কারো নামের বানান ভুল আছে। কিংবা বাবা-মায়ের বানান ঠিক নেই আবার জন্ম তারিখ মাস বা সাল ভুল আছে ইত্যাদি হতে পারে।পরবর্তীতে এই ভুল সংশোধনের জন্য আবার অনেক ঝামেলা পোহাতে হয় কোথায় গিয়ে ও কিভাবে জন্ম নিবন্ধনের ভুল সংশোধন করবেন এই দুশ্চিন্তা অনেকেই ভেঙ্গে পড়েন এ বিষয়ে তবে দুশ্চিন্তার কিছুই নেই আপনি অনলাইনের মাধ্যমেই ভুল সংশোধন করতে পারেন।

নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে কত টাকা লাগে

বাংলাদেশ সরকারের নীতিমালা অনুযায়ী জন্ম নিবন্ধন তথ্য সংশোধন পণ্য মুদ্রণের জন্য ফ্রি নির্ধারণ করেছে।জন্ম নিবন্ধন সংসদন করতে ২০০ থেকে ৩০০ টাকা লাগে। সরকারের ফি ৫০ টাকা এবং জন্ম তারিখ সংশোধনের জন্য ১০০ টাকা। তবে আপনাকে কিছু বাড়তি টাকা খরচ করতে হবে। জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের জন্য আপনাকে প্রয়োজন ও ফি পরিশোধ পদ্ধতি ব্যবহার করতে হবে আপনি যদি অনলাইনে পেমেন্ট পদ্ধতি ব্যবহার করতে চান তাহলে আপনাকে ফি আদায় বাটনে ক্লিক করতে হবে।

আরো পড়ুনঃ জন্ম নিবন্ধন সংশোধন

চালানের মাধ্যমে ফ্রি পরিশোধ করে থাকলে চালান নং,চালান জমা দেওয়ার তারিখ, চালান পরিষদের মাধ্যম ব্যাংক জেলা ব্যাংক ব্রাঞ্চ সঠিকভাবে এন্ট্রি করে সাবমিট বাটনে ক্লিক করুন। বা সফল ম্যানেজ আসলে বুঝতে হবে আবেদন পত্রটি সফলভাবে সাবমিট করা হয়েছে আবেদন দাখিল হওয়ার পর প্রিন্ট বাটনে ক্লিক করে আবেদন পত্রটি প্রিন্ট করে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নির্ধারিত তারিখের মধ্যে সংশ্লীল নিবন্ধকের কাছে দাখিল করুন।

এরপর নির্দিষ্টকালের মধ্যে সংশ্লীল কার্যালয় আপনার আবেদনটি যাচাই করে পরবর্তী কার্যক্রম গ্রহণ করবেন নিবন্ধন সঠিক হওয়ার পর আপনার অনলাইন জন্ম নিবন্ধন হাতে পেয়ে যাবেন।

শেষ কথাঃ নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম

আজকের এই আর্টিকেলে আপনাদের সাথে আলোচনা করা হয়েছে নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম। আপনারা কিভাবে নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম অথবা কিভাবে অনলাইনে নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করবেন এবং কত টাকা ফি প্রদান করতে হবে তা আজকের আর্টিকেলের জানানো হয়েছে।আপনারা যদি এই আর্টিকেলটি পড়ে উপকৃত হয়েছেন তাহলে আমাদের এই সাইটটিকে নিয়মিত ফলো করুন এতক্ষণ আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য অনেক ধন্যবাদ।

পোষ্ট ক্যাটাগরি: