Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2022/07/walton-refrigerator-price-in-bangladesh.html

ওয়ালটন ফ্রিজ প্রাইস ইন বাংলাদেশ 2022

ওয়ালটন ফ্রিজ প্রাইস ইন বাংলাদেশ - ওয়ালটন ফ্রিজ প্রাইস ইন বাংলাদেশ 2022 — বাংলাদেশে ওয়ালটন ফ্রিজের দাম, ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কেনার উপায় এবং সর্বশেষ ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য তালিকা 2022 নিয়ে আমাদের আজকের এই আলোচনা। আমাদের দৈনন্দিন জীবনে ইলেকট্রনিক্স পণ্যের ব্যবহার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। বিভিন্ন প্রয়োজনের জন্য বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স আছে। একইভাবে খাদ্য সংরক্ষণের জন্য প্রয়োজনীয় জিনিস হল ফ্রিজ বা রেফ্রিজারেটর। 

ওয়ালটন ফ্রিজ প্রাইস ইন বাংলাদেশ 2022

প্রতিটি পরিবারের জন্য একটি ফ্রিজ প্রয়োজন। বাংলাদেশের বাজারে ওয়ালটন ফ্রিজ অন্যতম জনপ্রিয়। বাংলাদেশের মার্কেটে ওয়ালটন ৮ সেফটি, ৯ সেফটি, ১০ সেফটি, ১১ সেফটি, ১২ সেফটি, ১৪ সেফটি, ১৬ সেফটি, ১৮ সেফটি ফ্রিজ বিক্রি করছে। এর মধ্যে ১৮ সিএফটি ফ্রিজ খুবই জনপ্রিয়। আজ আমরা ওয়ালটন ফ্রিজের দাম এবং কিস্তিতে কেনার পদ্ধতি নিয়ে কথা বলব।

বাংলাদেশে ফ্রিজ কিনতে অনেকেই বিদেশি ব্র্যান্ডের দিকে ঝুঁকছেন। কিন্তু বাংলাদেশেই আরও উন্নতমানের ফ্রিজ তৈরি হচ্ছে। যা দেশের বিভিন্ন স্থানে অত্যন্ত সাশ্রয়ী মূল্যে বিভিন্ন মডেলের অত্যাধুনিক ফ্রিজ পৌঁছে দিচ্ছে। আমাদের দেশীয় ব্যান্ড ওয়ালটনের পণ্য ইতোমধ্যেই বাংলাদেশের পণ্য হিসেবে দেশের প্রায় সর্বত্র পরিচিতি পেয়েছে। এর সমস্ত পণ্য দামে খুব সাশ্রয়ী মূল্যের এবং মানসম্পন্ন। বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষের আস্থা ও পছন্দের তালিকায় রয়েছে ওয়ালটনের পণ্য। আপনি যদি ফ্রিজ কিনতে আগ্রহী হন তবে আপনি আমাদের এই ওয়েবসাইটে ওয়ালটন ফ্রিজ সম্পর্কে সমস্ত তথ্য এবং মূল্য জানতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ স্মার্ট টিভি এবং এন্ড্রয়েড টিভির মধ্যে পার্থক্য

ওয়ালটন ফ্রিজের মূল্য তালিকা ২০২২

ওয়ালটন আমাদের দেশীয় ব্র্যান্ড। এর সার্বিক দিক ও গুণমান বিবেচনা করে। ওয়ালটন ফ্রিজ অন্যান্য ব্র্যান্ডের ফ্রিজের তুলনায় মানসম্মত এবং দামে সস্তা। তাই সুবিধাজনক মূল্যে আপনার বাজেটের মাঝে এবং পছন্দের ফ্রিজটি কিনতে পারবেন। এছাড়াও আপনি কোম্পানির বিভিন্ন সুবিধা পাবেন। 12 বছরের গ্যারান্টি সহ, আপনি ডিসকাউন্টে অন্যান্য বিভিন্ন সুবিধা পাবেন। ওয়ালটন ফ্রিজার এবং ফ্রিজের চার্জিং রেট 17,000 টাকা। 17,000 টাকা থেকে 56,000 টাকার মধ্যে। আপনি সহজেই আপনার পছন্দের বিভিন্ন মডেলের ফ্রিজ কিনতে পারেন।

মডেল 

ধারণক্ষমতা 

মূল্য (টাকা) 

WFD-1B6-RDXX-XX

১৩২ লিটার

১৭,৯৯০

WFD-1B6-GDEL-XX 

১৩২ লিটার 

১৭,৯৯৯

WFD-1D4-MBXX-XX

১৫৭ লিটার

১৯,৩৪০

WFD-1D4-RXXX-XX 

১৫৭ লিটার

১৯,৩৪০ 

WFD-1B6-MBXX-XX 

১৫৭ লিটার

১৯,৩৫০ 

WFB-2B3-GDEL-XX 

২২৩ লিটার

২৬,৩৫০

WFA-2D4-GDXX-XX 

২৪৪ লিটার

২৬,৯৫০

WFB-2EO-GDSH-XX 

২৫০ লিটার 

২৮,৭০০ 

WFB-2E4-GDEL-XX

২৬৭ লিটার 

৩১,৪০০

WFE-3E8-GDXX-XX 

৩৫৮ লিটার 

৩৬,৩৫০ 

WFC-3F5-GDXX-XX(ইনভার্টার) 

৩৮৫ লিটার 

৩৯,৩০০ 

WFC-3D8-GDEH-DD(ইনভার্টার)

৩৫৮ লিটার 

৩৯,৯৯০ 

WFC-3F5-GDNE-XX (ইনভার্টার) 

৩৮৫ লিটার 

৪০,৩৯০ 

WNH-3H6-GDEL-XX 

৩৮৬ লিটার 

৪৫,৯৯৯

WNH-4C0-HDXX-XX 

৪৩০ লিটার 

৪৬,৯৯০

WNJ-5H5-RXXX-XX 

৫০৯ লিটার 

৫৬,৫০০ 

আরো পড়ুনঃ স্মার্ট টিভি কেনার আগে যা জানা জরুরি

ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কেনার নিয়ম ২০২২

ওয়ালটন পণ্যের দাম যেমন সাশ্রয়ী, তেমনি ক্রেতাদের মাসিক কিস্তিতে পরিশোধ করার সুবিধা রয়েছে। আপনি যদি মনে করেন যে আপনি ওয়ালটনের একটি ফ্রিজ কিনতে আগ্রহী, আপনি আপনার বাজেট অনুযায়ী ফ্রিজটি কিনতে পারেন এবং বিভিন্ন কিস্তিতে পরিশোধ করতে পারেন।

আপনি ওয়ালটন ফ্রিজ কিনতে পারবেন ৩ মাসের কিস্তিতে, ৬ মাসের কিস্তিতে, ১২ মাসের কিস্তিতে, এমনকি সর্বোচ্চ ২৪ মাসের মধ্যে। সেক্ষেত্রে, আপনার বাজেট, পছন্দের ফ্রিজ, কিস্তি সম্পর্কে আরও জানতে আপনাকে আপনার কাছাকাছি ওয়ালটনের শোরুমে যোগাযোগ করতে হবে এবং একটি রেফ্রিজারেটর কিনতে হবে। এক মাসে কত টাকা দিতে হবে তা মাথায় রেখে বিবেচনা করুন।

কিভাবে ইএমআই সুবিধায় ওয়ালটন ফ্রিজ কিনবেন?

ই-প্লাজা, ওয়ালটনের একটি অনলাইন প্ল্যাটফর্ম, ইএমআই সুবিধা প্রদান করে। আপনি শুধুমাত্র 10,000 টাকা মূল্যের পণ্য ক্রয় করে বা ক্রেডিট কার্ডের মান থাকলে সুদমুক্ত ইএমআই পলিসির মাধ্যমে অর্থপ্রদান করার সুযোগ পাবেন। ওয়ালটন ই-প্লাজা 24টি ব্যাঙ্কের কার্ডহোল্ডারদের 0% সুদে সর্বোচ্চ 12 মাসের ইএমআই সুবিধা দেয়। তবে অবশ্যই এটি 10,000 টাকার উপরে পণ্য কেনার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। দেশের সব বিভাগীয় শহরসহ প্রায় ৬৪টি জেলার বিভিন্ন শোরুমে হোম ডেলিভারির সুবিধা রয়েছে।

0 Comments

* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.??