Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2021/10/top-10-companies-in-bangladesh-2021.html

বাংলাদেশের সেরা ১০ কোম্পানি ২০২১

বাংলাদেশের সেরা ১০ কোম্পানি ২০২১ — আমাদের বাংলাদেশ হলো সারা বিশ্বের মধ্যে অষ্টম বৃহত্তম দেশ। আমাদের দেশ আয়তনের দিক থেকে কিন্তু ছোট নয়। প্রতিনিয়ত জনসংখ্যা বেড়েই যাচ্ছে এবং এই বিশাল পরিমান জনসংখ্যাকে জনসম্পদে পরিণিত করার জন্য কাজ করে যাচ্ছে বিভিন্ন জাতীয় সংস্থা এবং সাথে বেসরকারি কর্মসংস্থাগুলাে। অধিক জনসংখ্যা হওয়ায় বেশিরভাগ জনগনকে কাজ দেওয়া সম্ভব হয়না বিভিন্ন সরকারি সংস্থাগুলােতে। এতে করে এই বেকারত্ব দূর করতে অবদান রেখেছে বিভিন্ন নাম করা বেসরকারি কোম্পানিগুলাে। 

বাংলাদেশের সেরা ১০ কোম্পানি ২০২১

এতে করে অনেকেই কাজ পাচ্ছে তাদের কর্মসংস্থান করতে পারছে। আর এখন এই বেসরকারি কোম্পানিগুলা শুধু দেশের মধ্যেই প্রসার করে নেই, ইতিমধ্যে বিদেশে এই কোম্পানিগুলাে নাম করে বেড়াচ্ছে দেশের জনগণের চাহিদা মিটিয়ে। বিদেশের এমন দেশ আছে যেগুলা বাংলাদেশী কোম্পানিগুলোর উপর নির্ভরশীল তাদের প্রোডাক্টগুলো তারা নিয়ে থাকে। 

এছাড়া এখন বাংলাদেশ অর্থনীতিতে দিন দিন দ্রুত গতিতে আগাচ্ছে। মাথাপিছুর আয়ের ক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে সারা দেশের সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশ ও তাল মিলাতে সক্ষম হচ্ছে। বেসরকারি কোম্পানি গুলা এতে অবদান রাখছে। এছাড়াও দেশে যদি ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান বৃদ্ধি পাই এতে করে জনগণের কাজ পেতে সুবিধা হবে, বেকারত্ব দূর হবে। 

যখন জনগণের চাহিদা পূরণ হবে তখন তারা আমদানির উপর থেকে নির্ভরশীল কম হবে, রপ্তানি হার আস্তে আস্তে বৃদ্ধি হবে। এভাবেই দেখা যাবে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন বেড়ে যাবে। এরকম ভাবেই গড়ে উঠছে বিভিন্ন ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান। আজকে আমরা জানবো বাংলাদেশের সেরা ১০ কোম্পানি ২০২১ যারা তাদের কাজের জন্য এগিয়ে যাচ্ছে। 

বসুন্ধরা গ্রুপ

এটা একটা নামকরা বেসরকারি প্রতিষ্ঠান। এই বসুন্ধরা গ্রুপ প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৮৭ সালে "দেশ ও মানুষের জন্য" এই স্লোগান নিয়ে। সময়ের ধারায় দেখা যাই এই ছোট প্রতিষ্ঠানটি আস্তে আস্তে বাংলাদেশের বৃহত্তম কোম্পানিতে পরিণিত হয়েছে। এখানে বিভিন্ন রকম সেক্টর আছে যেগুলা বসুন্ধরা গ্রুপের অধীনে সেগুলা হলোঃ বসুন্ধরা টিস্যু, সিমেন্ট, পেপার মিলস, এলপি গ্যাস। 

এছাড়াও বিভিন্ন মিডিয়া, খেলাধুলা, খাবার সহ বিভিন্ন খাতে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে। বসুন্ধরা গ্রুপে কাজ করছে প্রায় ৫৬,০০০ বা তার থেকেও বেশি কর্মী। এর সম্পদের পরিমাণ প্রায় ৫০ হাজার কোটি টাকা মতো। বসুন্ধরা গ্রুপের অধীনে বাংলাদেশ প্রতিদিন, কালের কণ্ঠ, বাংলানিউজ ২৪ ডট কম নাম বিভিন্ন সংবাদ চ্যানেল রয়েছে। বসুন্ধরা গ্রুপ বাংলাদেশের শীর্ষের তালিকায় সেরা কোম্পানি হিসেবে আছে। 

যমুনা গ্রুপ

যমুনা গ্রুপ বাংলাদেশের মধ্যে বৃহত্তম একটি কোম্পানি। নুরুল ইসলাম বাবুল ১৯৪৭ সালে এই গ্রুপের প্রতিষ্ঠা করেন। যমুনা গ্রুপের রয়েছে সর্ববৃহৎ একটি শপিং মল সেটা হলো যমুনা ফিউচার পার্ক। যেটা দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে সব থেকে বড় শপিং মল, এটা ৪,১০০,০০ বর্গফুট আয়তনের যা কিনা সবচেয়ে বড় শপিং মল হিসেবে পরিচিত। 

যমুনা গ্রুপের উল্লেখযোগ্য কোম্পানি গুলার মধ্যে রয়েছে যমুনা টেলিভিশন, যমুনা সিটি, শামীম স্পিনিং মিলস লিমিটেড, যমুনা ইলেক্ট্রনিক্স সহ গার্মেন্টস প্রতিষ্ঠানের মালিক। যমুনা গ্রুপের মোট সম্পদের পরিমাণ ১৩০ কোটি ডলার। এই কোম্পানিটি বিভিন্ন শিল্পে পিণ্ডীভূত যেমনঃ চামড়া, বস্ত্র, ইলেক্ট্রনিক্স, মিডিয়া, প্রিন্ট, বেভারেজ ইত্যাদি। 

বেক্সিমকো গ্রুপ

বাংলাদেশের মধ্যে সেরা কোম্পানি হলো বেক্সিমকো গ্রুপ। এই কোম্পানি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৭০ দশকের দিকে। এটা মূলত শেয়ার বাজার বিনিয়োগ, ব্যাংকিং, অর্থনীতি, ফার্মাসিটিকিউল, গণমাধ্যম, আইটি সব বিভাগেই আছে এই গ্রুপ। বেক্সিমকো গ্রুপে কর্মী নিয়োজিত আছে ৬৫,০০০ হাজার জন। এছাড়া ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশন ও বেক্সিমকো গ্রুপের অন্যতম টেলিভিশন চ্যানেল। 

আকিজ গ্রুপ

এই আকিজ গ্রুপ হলো বাংলাদেশের মধ্যে অন্যতম পিণ্ডীভূত ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। এই গ্রুপের প্রতিষ্ঠা হয় ১৯৪০ সালে। এটি শিল্পপতি আকিজ উদ্দিন কর্তৃক। এই গ্রুপ অন্যান্য শাখায় প্রবেশের পূর্বে ছিল শুধু পাট শিল্প। এটাই কাজ করে মোট ৭০,০০০ কর্মী মতো এই গ্রুপে কাজে নিয়োজিত আছে। এই প্রতিষ্ঠান গুলা অন্য সেক্টরেও যেমনঃ টেক্সটাইল, তামাক, ফুড, প্রিন্ট, ঔষুধ সহ বিভিন্ন পরিচালনা করে আসছে। 

মেঘনা গ্রুপ

মেঘনা গ্রুপ হলো বাংলাদেশের অন্যতম একটা একটা প্রতিষ্ঠান। এখানে কাজ করে প্রায় ৩২,০০০ কর্মীর মতো। এই গ্রুপ কাগজ, বিমা, সিমেন্ট, তেল, দুধ, চিনি ইত্যাদি বিভিন্ন খাতে মেঘনা গ্রুপ সেবা দিয়ে আসছে। 

স্কয়ার গ্রুপ

এই গ্রুপটি বাংলাদেশের মধ্যে নামকরা ওষুধ কোম্পানি হিসেবে পরিচিত। এইখানে ওষুধগুলা বাইরের দেশেও খুব জনপ্রিয়। বাংলাদেশের বাইরেও যায় ওষুধ। ১৯৫৮ সালে স্কয়ার কোম্পানির পরিচালনা হয়েছিল। মাছরাঙ্গা টেলিভিশন স্কয়ার কোম্পানির। এটি পোশাক, ওষুধ, মিডিয়া ইত্যাদি খাতে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে। 

প্রাণ -আর এফএল গ্রুপ

প্রাণ আর এফ এল গ্রুপ হলো বাংলাদেশের অন্যতম খাদ্য সামগ্রী উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান। আর এফ এল জিনিস কে চিনে না, সবাই এই কোম্পানি জিনিস কিনে এবং বহুল পরিচিত একটি নাম। এটার পথযাত্রা শুরু হয়েছিল ১৯৮১ সালের দিকে। খাদ্য ও প্লাস্টিক খাতে এই প্রাণ সর্বাধিক বহু পণ্য উৎপাদিত হয়েছে। এছাড়াও রপ্তানি করেছে ১৪১ দেশের বেশি এই প্রাণ কোম্পানি। রপ্তানি খাতে মূল্যবান বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনে ভূমিকা রাখায় দেশে সর্বোচ রাষ্ট্রীয় পদক পায় “শ্রেষ্ঠ জাতীয় রপ্তানি ট্রফি” পায় প্রাণ এক্সপোটার্স লিমিটেড। এছাড়া আর এফ এল এর প্লাস্টিক পণ্য বহু পরিমানে জনপ্রিয়। 

আবুল খায়ের গ্রুপ

এই আবুল খায়ের গ্রুপ বাংলাদেশের বৃহৎ শিল্প প্রতিষ্ঠান গুলার মধ্যে একটি। ১৯৫৩ সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছিলো। আবুল খায়ের টিন নাম প্রচলিত এটি। এই গ্রুপ টিন, স্টিল, সিরামিক, তামাক এই খাতগুলার পাশাপাশি আরো অনেক খাতে ব্যবসা পরিচালনা করেছে। 

এসিআই লিমিটেড

এই হলো একটা বাংলাদেশের অন্যতম শিল্প প্রতিষ্ঠান। ১৯৯২ সালে এই গ্রুপের পযাত্রা শুরু হয়। এছাড়া এটি হচ্ছে সার, কীটনাশক, ভোগপণ্য, খাদ্যপণ্য, ইলেক্ট্রনিক্স, মোটরসাইকেল, বাণিজ্যিক যান বিভিন্ন খাতে সেবা দিয়ে আসছে। এছাড়া এসি আই প্রায় ১০ হাজারের মতো কর্মীর কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করেছে। 

পারটেক্স গ্রুপ

এই গ্রুপের বিভিন্ন পণ্য রয়েছে যা পরিচিত খুব। এটির যাত্রা শুরু হয়েছিল ১৯৫৯ সালে। এই পারটেক্স গ্রুপ কাজ করে ৫৫,০০০ কর্মীর মতো। এই গ্রুপ ড্যানিশ কনডেন্স মিল্ক, ড্যানিশ ফুড লিমিটেড, ফার্নিচার, টিস্যু, পাট, পাওয়ার, কাগজ, কৃষি, আসবাবপত্র, টেক্সটাইল বিভিন্ন খাতে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে। 

এই ছিল বাংলাদেশের সেরা ১০ কোম্পানি ২০২১ গুলোর নাম এবং তাদের সম্পর্কে বিস্তারিত কথা। আরো অনেক কোম্পানি আছে কিন্তু তাদের মধ্যে এই কোম্পানিগুলা খুবই নামকরা এবং এখানে অনেক ভালো কাজ হয়।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া