Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2021/10/Benefits-of-eating-guava.html

পেয়ারা খাওয়ার উপকারিতা | পেয়ারার গুনাগুন ও উপকারিতা

পেয়ারা খাওয়ার উপকারিতা | পেয়ারার গুনাগুন ও উপকারিতা  — বর্তমান সময় বর্ষা মৌসুমের একটি সুস্বাদু ফল পেয়ারা। তবে এখন এটি প্রতিনিয়ত সারা বছরই বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। পেয়ারাতে অন্যান্য ফলের থেকে পুষ্টিগুণ অনেক বেশী হয়ে থাকে। আমরা আজকে আমাদের আর্টিকেলে পেয়ারা খাওয়ার উপকারিতা গুলো সম্পর্কে আলোচনা করবো।

পেয়ারা খাওয়ার উপকারিতা

পেয়ারা সাধারণত একটি বিশেষ পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ ফল। এটি আমাদের শরীরে নানা উপকার সাধন করে থাকে। অন্যান্য ফলের তুলনায় একটি বিশেষ পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ হয়ে থাকে পেয়ারা। বিশেষ করে আমাদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য যেটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে থাকে সেটি হলো ভিটামিন সি। পেয়ারাতে এক বিশেষ পরিমাণ ভিটামিন সি পাওয়া যায়।

পেয়ারাতে যে পরিমাণ ভিটামিন সি' রয়েছে আমলকি বাদে অন্য কোনো ফলে এতবেশি পরিমাণে ভিটামিন সি পাওয়া যায়না। ভিটামিন সি'র একটি অন্যতম উৎস জনিত ফল হয়ে থাকে এই পেয়ারা। বিভিন্ন ধরনের সাইট্রাস ফল যেমন কমলালেবুর তুলনায় পাঁচ গুণ বেশি ভিটামিন সি রয়েছে। তাছাড়া এখানে যথেষ্ট পরিমাণ বিটা-ক্যারোটিন রয়েছে।

সেইসঙ্গে এটিতে আরো নানা ধরনের ভিটামিন রয়েছে সেগুলো হলো: ক্যালসিয়াম, ফসফরাস, পটাশিয়াম, ফলিক অ্যাসিড, নিকোটনিক এসিড ইত্যাদি। পেয়ারাতে সাধারণত যথেষ্ট পরিমাণ ভিটামিন বি কমপ্লেক্স পাওয়া যায়। যা আমাদের শরীরের জন্য বিশেষ উপকার সাধন করে থাকে। আমাদের দেহকে সুস্থ-সবল রাখতে প্রতিদিন নিয়মিত ভাবে একটি পেয়ারা খাওয়া বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ হয়ে থাকে।

পেয়ারা সাধারণত বর্তমান সময়ে একটি জনপ্রিয় ফল হয়ে গিয়েছে। আমরা অনেকেই আছি যারা এই ফলটি খেতে ভালোবাসি। তবে এই পেয়ারা খাওয়ার উপকারিতা গুলো আমাদের জেনে রাখা উচিত। পেয়ারা খাওয়ার উপকারিতা গুলো নিচে আলোচনা করা হলো:

১। পেয়ারা খেলে আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়

পেয়ারা খেলে আমাদের শরীরে বিভিন্ন উপকার হয়ে থাকে। তার মধ্যে একটি গুরুত্বপূর্ণ উপকার হচ্ছে আমাদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি হওয়া। সাধারণত রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা আমাদের শরীরে যেকোনো রোগ-বালাইয়ের সাথে যুদ্ধ করতে শক্তি প্রদান করে থাকে। এটি ভিটামিন-সি ছাড়াও রয়েছে এন্টিঅক্সিডেন্ট নামক একটি বিশেষ উপাদান দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে তোলে।

২। পেয়ারা খেলে উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ হয় এবং হার্ট সুস্থ থাকে

পেয়ারা আমাদের শরীরে বিভিন্ন উপকার সাধন করে থাকে। এর মধ্যে একটি গুরুত্বপূর্ণ উপকার সাধন হচ্ছে যে পেয়ারা খেলে উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ হয় এবং আপনার হার্ট কে সুস্থ রাখতে এটি যথেষ্ট ভূমিকা রাখে। তবে একটি গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে প্রতিদিন নিয়মিত ভাবে পেয়ারা খেলে আপনার শরীরে রক্তচাপ ও রক্তে লিপিডের মাত্রা অনেক কমে আসবে।

পেয়ারাতে যে পরিমাণ পটাশিয়াম রয়েছে তা হৃদস্পন্দন ও উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। এমনকি এই পেয়ারা পাতার রস রক্তের ক্ষতিকর এল ডি এল কোলেস্টেরল মাত্রা কমিয়ে উপকারী এইচডিএল কোলেস্টেরল মাত্রা দ্রুত বাড়িয়ে তোলে যার ফলে হার্ট ভালো থাকতে বিশেষ কাজ করে।

৩। পেয়ারা খেলে ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণে চলে আসে

বর্তমান সময়ে ডায়াবেটিস রোগীর সংখ্যা অসংখ্য হারে বেড়ে চলছে। আর এই ডায়াবেটিসকে নিয়ন্ত্রণ করতে পেয়ারা বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। সাধারণত রোগব্যাধি সম্পর্কিত অনেক গবেষণা থেকে প্রমাণিত হয়ে আসছে যে, পেয়ারা ব্লাড সুগার কে যথেষ্ট ভাবে কন্ট্রোল করে থাকে। ডায়াবেটিস রোগীদের ইনসুলিন রেসিস্ট্যান্ট হিসেবে কাজ করে থাকে।

যেসব রোগীদের টাইপ ২ ধরনের ডায়াবেটিস রয়েছে, তাদের জন্য অত্যন্ত উপকারী বলে জানিয়েছে টেস্টটিউব গবেষণা প্রতিষ্ঠানরা। তবে আরেকটি গবেষণায় উঠে এসেছে যে, পেয়ারাতে পেয়ারার পাতা ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য বেশি উপকারী হয়ে থাকে। এক ধরনের পেয়ারা পাতার চা রক্তের চিনির স্পাইক প্রতিরোধ করে থাকে। আর টি পেয়ারা পাতার চা সাধারণত ইনসুলিন প্রতিরোধের এবং রক্তে শর্করার মাত্রা কমিয়ে আনতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

৪। পেয়ারা ঠান্ডাজনিত যেকোনো সমস্যা দূর করে থাকে

পেয়ারা খাওয়ার মাধ্যমে আমাদের শরীরে বিভিন্ন উপকার সাধন হয়ে থাকে। এসব উপকার সাধন এর মধ্যে ঠান্ডা জনিত সমস্যা দূর করা একটি বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ। বিশেষ করে যেসব ঠান্ডাজনিত সমস্যা হয় তারমধ্যে ব্রংকাইটিস অন্যতম আর এই ব্রংকাইটিস সারিয়ে তুলতে পেয়ারা মুখ্য ভূমিকা পালন করে থাকে। এই ফলটিতে প্রচুর পরিমাণে আয়রন ভিটামিন সি থাকে এটি ঠাণ্ডা জনিত বিভিন্ন সমস্যা থেকে দ্রুত মুক্তি দিতে বিশেষ কাজ করে থাকে।

৫। পেয়ারা খেলে শরীরের পেশী এবং স্নায়ু শিথিল থাকে

সাধারণত পেয়ারা একটি ম্যাঙ্গানিজ ফল হয়ে থাকে। পেয়ারাতে যথেষ্ট পরিমাণ ম্যাগনেসিয়াম থাকায় আমাদের স্নায়ু বিগ আরাম প্রদান করে থাকে। এটি আমাদের শরীরের পেশী গুলো কে এবং স্নায়ুকে শিথিল রাখতে যথেষ্ট ভূমিকা পালন করে। আপনি যদি কোনো কঠিন কাজ করার পরে একটি পেয়ারা খান তাহলে আপনার দেহের পেশী শিথিল সহ একটি চমৎকার শক্তির সঞ্চার করতে পারে।

৬। পেয়ারা খেলে পাকস্থলী ভালো থাকে

আপনি যদি প্রতিদিন নিয়মিত একটি করে পেয়ারা খান তাহলে আপনার পাকস্থলী যথেষ্ট ভালো থাকবে বলে আশা করা যায়। কেননা পেয়ারা পাকস্থলীর বিভিন্ন ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ বা পেটের গোলযোগ এর সবচেয়ে কার্যকরী একটি ফল হয়ে থাকে। এই ফোনটিতে প্রচুর পরিমাণে থাকে অ্যাস্ট্রিনজেন্ট ও অ্যান্টি-মাইক্রোবিয়াল উপাদান যা পাকস্থলীর স্বাস্থ্য ভালো রাখতে বিশেষ কাজ করে থাকে। তাছাড়া এটি আপনার হজম শক্তি বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। পাকস্থলীর বিভিন্ন রোগ সারাতে এটি কার্যকরী একটি ফল হয়ে থাকে।

৭। পেয়ারা দৃষ্টিশক্তি বৃদ্ধি করে তোলে

সাধারণত বর্তমান সময়ে আমাদের দৃষ্টি জনিত সমস্যা অনেকেরই হয়ে থাকে। তবে আপনার পেয়ারা খাওয়ার মাধ্যমে দৃষ্টি জনিত সমস্যা দূর হবে। পেয়ারাতে থাকা পর্যাপ্ত পরিমাণ ভিটামিন এ দৃষ্টিশক্তি দ্রুত বাড়িয়ে তোলে। এটি শুধু দৃষ্টি শক্তি অবক্ষয় রোধ করে না বরং চোখের দৃষ্টি বিশেষভাবে উন্নত করে তোলে।

আপনার চোখে যদি ছানি পড়া সহ বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা দেয় তাহলে সেসব সমস্যা কমিয়ে দিতে পেয়ারা মুখ্য ভূমিকা পালন করে থাকে। যদিও পেয়ারা গাজরের মত ভিটামিন এ সমৃদ্ধ নয় তবুও পেয়ারা একটি বিশেষ পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ ফল হয় যার দৃষ্টিশক্তির বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে।

৮। ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে পেয়ারা সাহায্যে করে থাকে

আপনি যদি প্রতিদিন নিয়মিত একটি করে পেয়ারা খেতে পারেন তাহলে আপনার উপরে আলোচিত যাবতীয় উপকার সাধন করার মাধ্যমে আরে এক টি গুরুত্বপূর্ণ উপকার করে থাকবে এটি ক্যান্সারের ঝুঁকি কমিয়ে রাখতে সাহায্য করবে। পেয়ারাতে থাকা লাইকোপিন, ভিটামিন সি, কোয়ারসেটিন এর মতো অনেকগুলো বিভিন্ন ধরনের অ্যান্টি অক্সিডেন্ট উপদান থাকায় আমাদের শরীরে ক্যান্সারের কোষ বৃদ্ধি করতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

বিভিন্ন ধরনের ক্যান্সারের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে তোলা ছাড়াও এটি প্রস্টেট ক্যান্সার এবং স্তন ক্যান্সার নামক বিশেষ রোগ বিরুদ্ধে প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে তোলে থাকে। তাই আপনার নিয়মিত একটি পেয়ারা খাওয়া ক্যান্সারের জন্য গুরুত্বপূর্ণ হয়ে থাকে।

পরিশেষে

আমাদের শরীরে বিভিন্ন রোগবালাই থেকে দ্রুত সুস্থ করে তুলতে পেয়ারা বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ হয়ে থাকে। এটি আমাদের শরীরকে যথেষ্ট সুস্থতা প্রদান করে থাকে। সাধারণত সুস্থ-সবল শরীরে আমরা সকলেই আশা করে থাকি। কিন্তু নানা কারণবশত, আমাদের এই আশাটি প্রতিহত হয়ে থাকে। তবে কিছু নিয়ম অনুসরণ করলে আপনি সুস্থ সবল থাকতে পারবেন।

আর আপনার শরীরকে সুস্থ রাখতে এবং বিশেষ উপকার সাধন করতে পেয়ারা মুখ্য ভূমিকা পালন করে। উপরের আলোচিত উপকারিতাগুলো পেয়ারার সেরা উপকার হয়ে থাকে। আপনি যদি প্রতিদিন নিয়মিত করে একটি পেয়ারা খেতে পারেন তাহলে আপনি সুস্থ সবল শরীর পাবেন বলে আশা করা যায়।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া