Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2021/07/best-free-torrent-downloader-Software.html

সেরা ৫ ফ্রি টরেন্ট অ্যাপ ২০২১

সেরা ৫ ফ্রি টরেন্ট অ্যাপ ২০২১ — আমরা সবাই কমবেশি টরেন্টের সঙ্গে পরিচিত। মিউজিক, মুভি, সফটওয়্যার, টিভি সিরিয়াল ইত্যাদি ডাউনলোড করার জন্যে অনেকেই আছেন তারা এই জনপ্রিয় মাধ্যমটি ব্যবহার করে থাকেন। অনেকেই আবার মনে করেন টরেন্ট অ্যাপের মাধ্যমে কোনো ফাইল বা ডকুমেন্ট ডাউনলোড করাটা সম্পূর্ণ অবৈধ বা বেআইনি। কিন্তু অনেকের এই ধারণা অনেকাংশেই ভুল। কারণ টরেন্ট বৈধ না অবৈধ তা সম্পূর্ণ নির্ভর করবে আপনি কি কি ডাউনলোড করছেন তার উপরে।

যদি আপনি পাইরেটেড মিউজিক, মুভি, সফটওয়্যার ইত্যাদি ডাউনলোড করার জন্যে টরেন্ট অ্যাপ ব্যবহার করেন তাহলে আপনার টরেন্ট প্রসেসিং হবে সম্পূর্ণ অবৈধ অর্থাৎ বেআইনি। যাহোক টরেন্টিং বৈধ না অবৈধ তা আমাদের আজকের আলোচ্য বিষয় নয়। যারা কম্পিউটারে টরেন্ট ডাউনলোড করেন তারা সবাই টরেন্ট ক্লাইন্ট BitTorrent অথবা uTorrent ব্যবহার করে প্রয়োজনীয় ফাইলগুলোকে ডাউনলোড করে থাকেন।

কিন্তু আপনি এখন চাইলেই আপনার স্মার্টফোন ব্যবহার করে টরেন্ট ফাইল ডাউনলোড করতে পারবেন সহজেই। গুগল প্লে স্টোর থেকে টরেন্ট ফাইল ডাউনলোড করার জন্যে বেশ কিছু অ্যাপ্লিকেশান আছে। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে এগুলোর মাঝে সেরা টরেন্ট অ্যাপ কোনটা? এই প্রশ্নের উত্তর দেয়ার জন্যেই আজকের এই আর্টিকেলে আলোচনা করার জন্য আমি আপনাদের মাঝে হাজির হলাম।

সেরা ফ্রি এন্ড্রয়েড টরেন্ট অ্যাপ ২০২১
ফ্রি টরেন্ট অ্যাপ ২০২১

uTorrent | টরেন্ট ফাইল ডাউনলোড করার অ্যাপ

আমাদের তালিকার প্রথমেই আছে জনপ্রিয় টরেন্ট ডাউনলোড অ্যাপ uTorrent। এটা টরেন্ট ফাইল ডাউনলোড অ্যাপগুলোর মাঝে অন্যতম সেরা একটি অ্যাপ। গুগল প্লে স্টোরে এই অ্যাপটি ১০০ মিলিয়নের চেয়ে বেশিবার ডাউনলোড করা হয়েছে। গুগল প্লে স্টোরে এই অ্যাপের রেটিংও বেশ ভালো।

ক্লিন & কাট ইউজার ইন্টারফেসের এই অ্যাপটিতে টরেন্ট ডাউনলোড করার জন্যে প্রয়োজনীয় সকল ফিচারস আছে। ম্যাগনেট লিংক সাপোর্টের পাশাপাশি অ্যাপটিতে আপনি একাধিক অ্যাক্টিভ টরেন্টও একসঙ্গে সেট করতে পারবেন।

তাছাড়াও অ্যাপটির মাধ্যমে আপনি একের অধিক ফাইল একসঙ্গে ডাউনলোড করতে পারবেন। এতে আছে ইন্টিগ্রেটেড মিডিয়া লাইব্রেরি ও মিডিয়া প্লেয়ার থাকার কারণে ডাউনলোডের পাশাপাশি আপনি অনলাইনেই ভিডিও ওপেন করতে পারবেন। কোনো ফাইল ডাউনলোড করার সময়ে আপনি এটি কোথায় সেভ করবেন তাও সিলেক্ট করার অপশন এখানে আছে। এই অ্যাপের ব্যাটারি সেভার ফিচারসও আছে, তবে সেটি ফ্রি ভার্সনে ব্যবহারযোগ্য নয়।

এই অ্যাপটির মাধ্যমে কোনো ফাইল ডাউনলোড করার সময়ে আপনি কতটুকু স্পিড পাচ্ছেন ও ফাইলটির সীডার্স এবং লীচার্স কত ইত্যাদি সকল তথ্যেই সহজে জানতে পাবেন। এই টরেন্ট ডাউনলোডার অ্যাপ্লিকেশানটি আপনি গুগল প্লে স্টোর থেকে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ডাউনলোড করতে পারবেন। তবে হ্যাঁ এই অ্যাপের ফ্রি ভার্সনে বিজ্ঞাপন ফ্রি ইউজার ইন্টারফেস নাই। এছাড়াও এই অ্যাপের ফ্রি ভার্সনে কিছু ফিচারস লিমিট করা আছে।

মনে রাখবেন, কোনো ফাইল ডাউনলোড করার ক্ষেত্রে সীডার্স ও লীচার্সের অনুপাত সমান হারে থাকলে যেকোনো ফাইলটি খুবই দ্রুততার সাথে ডাউনলোড করা যাবে।

আরও পড়ুনঃ ২০২১ সালের ৫টি সেরা ভিপিএন VPN

BitTorrent | টরেন্ট ফাইল ডাউনলোড করার সবথেকে জনপ্রিয় অ্যাপস হচ্ছে BitTorrent 

আজকের তালিকার ২য় স্থানে আছে BitTorrent। এই অ্যাপটি সম্পূর্ণটা প্রায় ইউটরেন্ট অ্যাপের মতই। গুগল প্লে স্টোরে এই অ্যাপের ৪.৩ রেটিং আছে পাশাপাশি ১০ মিলিয়নেরও বেশিবার ডাউনলোড করা হয়েছে। uTorrent অ্যাপের বিকল্প হিসাবে আপনি এই BitTorrent অ্যাপকে ব্যবহার করতে পারেন। সহজ সাবলীল ইউজার ইন্টারফেসের এই বিটটরেন্ট অ্যাপটিতে আছে ইন্টিগ্রেটেড মিডিয়া লাইব্রেরি।

এখানে প্রয়োজনীয় ফাইল ডাউনলোড করার পাশাপাশি অনলাইনে ভিডিও দেখার জন্য আছে মিডিয়া প্লেয়ার। মূলত এই অ্যাপে ইউটারেন্ট অ্যাপের সমস্ত ফিচারস প্যাক করা আছে। আপনি এখানে কোনো ফাইল ডাউনলোড করার পূর্বে ফাইল কোথায় সেভ করবেন তা সেট করতে পারবেন। যদি মোবাইল ডাটা ব্যবহার করে ডাউনলোড করতে না চান তবে ওয়াইফাই মোড চালু করে রাখতে পারবেন, তাছাড়াও এই অ্যাপ ব্যবহার করে আপনি অনেকগুলো ফাইল একসঙ্গে ডাউনলোড করতে পারবেন।

এই অ্যাপটি আপনি ফ্রিতে ডাউনলোড করতে পারবেন। তবে অ্যাপের ফ্রি ভার্সনে ফিচারস সংখ্যা কিছু কম এবং এতে বিজ্ঞাপন ফ্রি ইউজার ইন্টারফেস নাই। ইন-অ্যাপ-পারচেস করার মাধ্যমে অ্যাপটি প্রো ভার্সনে আপগ্রেড করতে পারবেন।

Flud | ফ্রি টরেন্ট অ্যাপ ডাউনলোড

লিস্টের ৩ নম্বরে থাকা আরেকটি ফুলি ফিচার্ড এন্ড্রয়েড টরেন্ট ক্লায়েন্ট হচ্ছে Flud। প্লে স্টোরে এই অ্যাপের ৪.৬ রেটিং থাকার পাশাপাশি ১০ মিলিয়নেরও বেশি বার ডাউনলোড করা হয়েছে। এই অ্যাপটির বিনামূল্য ভার্সনে আপনি সকল প্রয়োজনীয় ফিচারসই পেয়ে যাবেন। যা সহজেই ব্যবহারযোগ্য ইউজার ইন্টারফেসের এই অ্যাপটির মাধ্যমে আপনি কোনো ডাউনলোড লিমিটেশন ছাড়াই আপনার পছন্দের টরেন্ট ফাইলগুলো ডাউনলোড করতে পারবেন।

এই অ্যাপের ইউজার ইন্টারফেস কাস্টোমাইজ কারার অপশান থাকার ফলে আপনি লাইট এবং ডার্ক মোডে টরেন্ট ডাউনলোড করতে পাবেন। এই অ্যাপটির মাধ্যমে আপনি কোনো ফাইল ডাউনলোড কোন জায়গায় করবেন তা সেট করতে পারবেন, ফাইল ডাউনলোড করার সময় সেটা অন্য ফোল্ডারে স্থানান্তর করতে পাবেন, ওয়াইফাই মোড অন করে রাখতে পারবেন, তাছাড়াও আরও অনেক ফিচার আছে এই অ্যাপে।

Flud অ্যাপটি ম্যাগনেট লিঙ্ক সাপোর্ট করার পাশাপাশি অনেকগুলো প্রটোকলও এখানে সাপোর্ট করে। যেমনঃ DTH, UPnP, uTP, PeX ইত্যাদি। তাছাড়াও এই অ্যাপটি আইপি ফিল্টারিং, এনক্রিপশন এবং প্রক্সি সাপোর্টেড হওয়ার কারণে নিরাপদে টরেন্ট ডাউনলোড করতে পারবেন।

আর এই সকল ফিচার আপনি অ্যাপটির বিনামূল্য ভার্সনেই পেয়ে যাচ্ছেন। তবে হ্যাঁ এই অ্যাপের ফ্রি ভার্সনে কোনো বিজ্ঞাপন ফ্রি ইউজার ইন্টারফেস নাই। 

আরও পড়ুনঃ ভিপিএন কি? ভিপিএন অ্যাপস VPN Apps | ২০২১ সালের সেরা ভিপিএন

TorrDroid | ডাউনলোড করার জন্য সেরা টরেন্ট অ্যাপ

TorrDroid অ্যাপটির মাধ্যমে আপনি টরেন্ট ফাইল ডাউনলোড করতে পারবেন সহজেই। এখানে একটি বিল্ট-ইন সার্চ ইঞ্জিন আছে, যা আপনাকে বিভিন্ন টরেন্ট ফাইল সার্চ করতে সাহায্য করবে। অ্যাপটিতে দেয়া সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহার করে আপনি বিনামূল্য এবং ওপেন সোর্স কন্টেন্টগুলোকে ডাউনলোড করতে পারবেন।

গুগল প্লে স্টোরে এই অ্যাপের ভালোমানের রেটিং সহ এর পাশাপাশি ১০ মিলিয়নেরও বেশিবার ডাউনলোড করা হয়েছে। এই অ্যাপের ইউজার ইন্টারফেসও খুবই সহজ। অ্যাপটির মাধ্যমে আপনি একসঙ্গে অনেকগুলো টরেন্ট ফাইল ডাউনলোড করতে পারবেন। এতে আপনি ওয়াইফাই মোড, ডার্ক মোড, এক্সটার্নাল মেমোরি সাপোর্ট সহ প্রয়োজনীয় সব ফিচারসই প্যাক করা আছে।

এই অ্যাপটি ম্যাগনেট লিঙ্ক সাপোর্ট সহ অনেকগুলি প্রটোকলও সাপোর্টেড। যেমনঃ DHT, UPnP, LSD, NAT-PMP। অ্যাপটির মাধ্যমে আপনি ফুল স্পিডে টরেন্ট ফাইল ডাউনলোড করতে পারবেন কোনো ধরনের রেস্ট্রিকশন ছাড়াই। আর এই সকল ফিচারসের বেশির ভাগই আপনি বিনামূল্য পেয়ে যাবেন। কিন্তু অ্যাপটির বিনামূল্য ভার্সনে কোনো বিজ্ঞাপন ফ্রি ইউজার ইন্টারফেস নাই।

ZetaTorrent | সেরা ফ্রি টরেন্ট অ্যাপ ২০২১

তালিকায় থাকা আরেকটি সেরা টরেন্ট অ্যাপ হচ্ছে ZetaTorrent। এই অ্যাপটিতে আছে ইউনিক সকল ফিচার। গুগল প্লে স্টোরে এই অ্যাপটি ১ মিলিয়নের চেয়ে বেশিবার ডাউনলোড করার পাশাপাশি এতে ৪.৪ রেটিং আছে। এই অ্যাপটিতে একটি বিল্ট-ইন ব্রাউজার আছে এবং এতে একটি বিজ্ঞাপন-ব্লকারও ফিচার আছে। এই অ্যাপটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে টরেন্ট ফাইল ও ম্যাগনেট লিঙ্ক শনাক্ত করতে পারে।

এই অ্যাপে বিল্ট-ইন ব্রাউজারের পাশাপাশি একটি ফুলি ফিচার্ড ফাইল ম্যানেজার আছে, যার সাহায্য আপনি যেকোনো ফাইল ট্রান্সফার করতে পারবেন। এই অ্যাপটিতে টরেন্ট ডাউনলোড করার জন্যে প্রয়োজনীয় সব ফিচারসই প্যাক করা আছে। এতে ডার্ক মোড, ওয়াইফাই মোড, ডাউনলোড লিমিটেশন সেট করার ফিচারসহ আরও অনেক ফিচার আছে। গুগল প্লে স্টোরে এই অ্যাপটির একটি বিনামূল্য ভার্সন আছে। তবে এই অ্যাপে অন্যান্য টরেন্ট ক্লায়েন্টের মত কোনো বিজ্ঞাপন ফ্রি ইউজার ইন্টারফেস নাই এবং বিনামূল্য ভার্সনে ফিচারস সংখ্যাও কিছু কম আছে।

তোহ এই ছিল এন্ড্রয়েড স্মার্টফোনে জন্য সেরা ৫ টি টরেন্ট অ্যাপ। যদি আপনি আপনার স্মার্টফোনে টরেন্টের সাহায্য কোনো ফাইল ডাউনলোড করতে চান, তবে উপরোক্ত আলোচনা করা অ্যাপগুলো একবার ট্রাই করে দেখতে পারেন। আশা করি আপনার ভালো লাগবে।

আরও পড়ুনঃ পুরাতন ল্যাপটপ কেনার আগে করণীয়

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

সর্বশেষ আপডেটেড অফার পেতে চান?

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া