Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2021/05/Advantages-and-disadvantages-of-antivirus.html

এন্টিভাইরাস এর সুবিধা ও অসুবিধা

যদি কোনও ভাইরাস কম্পিউটারে প্রবেশ করে, তবে আমাদের কম্পিউটারটি হ্যাং হওয়া শুরু করে, এটি সংশোধন করার জন্য আমরা বিভিন্ন অ্যান্টিভাইরাস ব্যবহার করে থাকি। অ্যান্টিভাইরাস আমাদের কম্পিউটার থেকে ভাইরাস ডিলিট বা অপসারণ করে আমাদের ডিভাইসটিকে সুরক্ষিত রাখে এবং আমাদের ডিভাইসে ভাইরাস পরবর্তী আক্রমণ করার আগে এটি সম্পর্কে আমাদের অবহিত করে থাকে। সুতরাং আজকের এই আর্টিকেলে আমরা এন্টিভাইরাস কি, এটির ধরণ, কার্যকারিতা এবং এন্টিভাইরাস এর সুবিধা ও অসুবিধা ইত্যাদি সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

এন্টিভাইরাস এর সুবিধা ও অসুবিধা
এন্টিভাইরাস কি | অ্যান্টিভাইরাস কি

Antivirus অ্যান্টিভাইরাস এমন একটি Software সফ্টওয়্যার যা কম্পিউটারে ক্ষতিকারক ভাইরাস সনাক্ত করে এবং ধ্বংস করে, এর মাধ্যমে কম্পিউটারটি সুরক্ষা দেয় এবং দ্রুত গতিতে কাজ করে। কম্পিউটারে অনেক দরকারি ফাইল এবং তথ্য রয়েছে যা হ্যাকাররা ভাইরাসের সাহায্যে হ্যাক করতে পারে। তাই কম্পিউটারকে ভাইরাস এবং হ্যাকার থেকে সুরক্ষিত রাখতে কম্পিউটারে অ্যান্টিভাইরাস থাকা খুবই জরুরি।

অ্যান্টিভাইরাস তাৎক্ষনিক কম্পিউটার থেকে ভাইরাসটি মুছে ফেলে এবং নোটিফিকেশনের মাধ্যমে এটি সম্পর্কে আমাদের অবহিত করে। Antivirus, Online Browsing, Offline Data Transfer এটি আমাদের থেকে আসা ভাইরাসকে স্ক্যান করে এবং ডিলিট করে দেয়, যা আমাদের সিস্টেম ভাইরাসকে মুক্ত করে তোলে এবং দ্রুত কাজ শুরু করে।

অ্যান্টিভাইরাস কীভাবে কাজ করে

আমাদের সিস্টেমে Antivirus অ্যান্টিভাইরাসটির কাজ হ'ল ডেটা স্ক্যানিং, সার্ভার স্ক্যানিং, ব্যাকগ্রাউন্ড প্রসেসিং এবং অজানা অন্যান্য ফাইলগুলি স্ক্যান করা যাতে এটি খারাপ ফাইলটি সনাক্ত করতে পারে এবং আমাদের সিস্টেম থেকে চিরতরে মুছতে পারে।

যদি কোনও ধরণের ভাইরাস কম্পিউটার এবং অন্য কোনও ডিভাইসে প্রবেশের চেষ্টা করে তবে অ্যান্টিভাইরাস তাৎক্ষনাত সক্রিয় হয়ে যায় এবং সঙ্গে সঙ্গে ভাইরাসটি খুঁজে বের করে এবং ভাইরাসটিকে ডিলিট করে ফেলে এবং আপনাকে অবিলম্বে নোটিফিকেশন সম্পর্কে অবহিত করে। একটি ভালো অ্যান্টিভাইরাস হ'ল এটি সর্বদা সক্রিয় এবং নতুন এবং পুরানো ভাইরাস ডিলিট করে থাকে।

আপনি যদি নিজের ডিভাইসটি সুরক্ষিত করতে এবং আপনার তথ্য সুরক্ষিত রাখতে কিছু ভাল এন্টিভাইরাস সফ্টওয়্যার ব্যবহার করেন তবে ভাইরাস কখনই আপনার সিস্টেমে প্রবেশ করতে পারবে না বা সক্ষম হবে না। এই সমস্ত স্মার্টফোন, কম্পিউটার, ল্যাপটপগুলির জন্য অ্যান্টিভাইরাস খুব গুরুত্বপূর্ণ, কারণ আজকের যুগে লোকেরা তাদের অনেকগুলি ডকুমেন্ট এই সকল ডিভাইসে সংরক্ষণ করে রাখে।

আরও পড়ুনঃ হ্যাকিং থেকে বাঁচার উপায় | হ্যাকিং থেকে বাঁচার ৭টি উপায়

এন্টিভাইরাস এর সুবিধা | অ্যান্টিভাইরাস এর সুবিধা

কম্পিউটার এবং ল্যাপটপ নিরাপদ রাখতে অ্যান্টিভাইরাস থাকা দরকার।

  • অ্যান্টিভাইরাস ম্যালওয়্যার ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত ওয়েবসাইটগুলি ওপেন করা থেকে বাধা প্রদান করে।
  • এটি অনলাইনে অর্থ প্রদান এবং লেনদেন এবং পাসওয়ার্ডগুলো নিরাপদে রাখে।
  • কম্পিউটারে অ্যান্টিভাইরাস রয়েছে, তাই আপনি কোনও ভয় ছাড়াই আপনার সমস্ত কাজ ইন্টারনেটে করতে পারেন।
  • অ্যান্টিভাইরাসজনিত কারণে কম্পিউটারের ত্রুটি বা দুর্নীতির ভয় নেই।
  • অ্যান্টিভাইরাসটির মাধ্যমে ব্যবহারকারী সহজেই জানতে পারবেন যে তার ডিভাইসের কোন আইটেমগুলি অকেজো, যা সে মুছতে বা ডিলিট করতে পারে।

এন্টিভাইরাস এর অসুবিধা | অ্যান্টিভাইরাস এর অসুবিধা

  • নতুন ভাইরাসটি বাজারে এলে অ্যান্টিভাইরাস এর সাহায্য এটি খুঁজে পাওয়া খুব কঠিন হয়ে পড়ে।
  • আপনি যদি অ্যান্টিভাইরাস এর একটি পুরানো ভার্সন ব্যবহার করেন তবে আপনার কোনও ক্ষতি হতে পারে।
  • আপনি যদি ভাবছেন যে অ্যান্টিভাইরাস ইনস্টল করার পরে আপনি সম্পূর্ণ নিরাপদ, তবে আপনার তথ্যের জন্য আমি বলবো যে অ্যান্টিভাইরাস ব্যবহার করছেন তা নতুন ভাইরাস সনাক্ত করতে সক্ষম নয় এবং তাই আপনি অ্যান্টিভাইরাসটিতে 100% নির্ভর করতে পারেন না।

এন্টিভাইরাস এর নাম | অ্যান্টিভাইরাস এর নাম

  • Norton AntiVirus Plus
  • F-Secure Antivirus SAFE
  • Kaspersky Anti-Virus
  • Trend Micro Antivirus+ Security
  • Webroot SecureAnywhere AntiVirus
  • ESET NOD32 Antivirus
  • G-Data Antivirus
  • Comodo Windows Antivirus
  • Quick heal Antivirus
  • 360 security

আশা করি আপনি অ্যান্টিভাইরাস সম্পর্কিত সকল তথ্য পছন্দ করেছেন এবং অ্যান্টিভাইরাস সম্পর্কিত যে কোনও প্রশ্নের জন্য কমেন্ট করবেন। আপনি যদি অ্যান্টিভাইরাস সম্পর্কিত তথ্য পছন্দ করেন তবে এই আর্টিকেলটি শেয়ার করুন।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া