জন্মদিনের কেক বানানোর রেসিপি

আমরা সকলেই চাই প্রিয় মানুষের জন্মদিনে নিজের হাতে কেক বানিয়ে তাকে সারপ্রাইজ দিতে। কিন্তু অনেকেই কেক বানানো ঝামেলার কাজ বলে মনে করে থাকেন। তাই রিস্ক না নিয়ে দোকানে অথবা হোমমেড পেইজে কেক অর্ডার দিয়ে থাকেন।

জন্মদিনের কেক বানানোর রেসিপি

(toc) #title=(সুচিপত্র)

কিন্তু নিজের হাতে কেক আর দোকানের কেকের মধ্যে অনেক পার্থক্য। নিজের হাতে ভালোবেসে নিজের প্রিয় মানুষের জন্য কেক বানালে আপনার পছন্দের মানুষ যতটা খুশি হবে, দোকান থেকে অর্ডার করা কেক পেয়ে সে ততটা খুশি হবে না।

তাই নিজের পছন্দের মানুষকে খুশি করার জন্য আপনি যদি জন্মদিনের কেক বানানোর রেসিপি খুজে থাকেন। তাহলে আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন। আমরা আমাদের আজকের আর্টিকেলে জন্মদিনের কেক বানানোর রেসিপি সম্পর্কে জানতে চলেছি।

অনেকের বাসায় ওভেন নেই। তাই তারা জন্মদিনের কেক বানাতে পারেনা। কিন্তু চিন্তার কোন কারণ নেই আমরা আজকে আপনাদের জন্য এমন এক সহজ পদ্ধতিতে জন্মদিনের কেক বানানোর রেসিপি শেয়ার করব। এতে করে আপনি ওভেন ছাড়াও চুলায় খুব সহজেই জন্মদিনের কেক বানাতে পারবেন। চলুন দেরি না করে জেনে নেওয়া যাক জন্মদিনের কেক বানানোর রেসিপি।

চুলায় সহজ পদ্ধতিতে জন্মদিনের কেক বানানোর রেসিপি

চুলায় সহজ পদ্ধতিতে জন্মদিনের কেক বানানোর রেসিপি

অনেকেই আছেন যাদের বাসায় ওভেন নেই। তারা অনেক চিন্তায় থাকেন, তাদের কেক পারফেক্ট হবে কিনা? কিন্তু চিন্তার কোন কারণ নেই ওভেন ছাড়াও খুব সহজ পদ্ধতিতে চুলায় জন্মদিনের পারফেক্ট কেক তৈরি সম্ভব। আপনারা যদি আমার রেসিপি স্টেপ বাই স্টেপ ফলো করেন। তাহলে আপনারা ওভেন ছাড়াও চুলায় খুব সহজেই জন্মদিনের কেক তৈরি করতে পারবেন।

উপকরণ ও পরিমাণ

  • ময়দা - দুই কাপ
  • ডিম - ৪ টি
  • চিনি - পরিমাণ মতো (আপনি কম মিষ্টি পছন্দ করলে চিনির পরিমাণ কম দিবেন, বেশি মিষ্টি পছন্দ করলে চিনির পরিমাণ একটু বেশি দিবেন)।
  • বেকিং সোডা - ১/২ চা চামচ। 
  • বেকিং পাউডার - এক চা চামচ।
  • গুড়া দুধ - ৪ চা চামচ। 
  • বাটার - ২০০ গ্রাম।
  • ভ্যানিলা এসেন্স - ১ চা চামচ।

প্রস্তুত প্রণালী

  1. প্রথমে ডিমের সাদা অংশকে ভালো করে বিট করে নিতে হবে। (যতক্ষণ না পর্যন্ত ফোম ক্রিয়েট হয়)।
  2. তারপর সাদা অংশের মধ্যে একটি করে কুসুম দিতে হবে এবং খুব ভালো করে বিট করে নিতে হবে।
  3.  এরপর চিনি, ভ্যানিলা এসেন্স এবং বাটার মিশিয়ে খুব ভালোভাবে বিট করে নিতে হবে (মনে রাখতে হবে বিট করা বা ফাটানো যত ভালো হবে আপনার কেক তত ভালো হবে)।
  4.  এরপর অন্য একটি পাত্রে ময়দা, গুড়া দুধ, বেকিং পাউডার, বেকিং সোডা একসাথে খুব ভালোভাবে চালুনি দিয়ে চেলে নিতে হবে।
  5.  এরপর ময়দা, গুড়া দুধ, বেকিং পাউডার ও বেকিং সোডাকে বিট করে রাখা বাটার ও ডিমের সাথে খুব ভালোভাবে মিশিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করে নিতে হবে। (মিশ্রণ বানানোর সময় খুব ভালোভাবে খেয়াল করতে হবে যেন মিশ্রণটি খুব বেশি ঘন অথবা খুব বেশি পাতলা না হয়)।
  6.  এরপর কেক বানানোর জন্য একটি পাত্র অথবা সসপ্যান নিতে হবে। সসপ্যানটিকে আগেই চুলায় দিয়ে কিছুটা গরম করে নিতে হবে। 
  7.  এরপর গোল আকৃতির অথবা কেক এর আকৃতির গ্রিস পেপার কেটে কেটে নিতে হবে। পেপারটি সসপ্যান এর উপর বসিয়ে কিছুটা তেল ব্রাশ করে নিতে হবে। (সাসপ্যানের উপর গিরিশ পেপার দেওয়ার কারণ হলো এতে কেক সাসপ্যানের সাথে লেগে যাবে না)।
  8.  এরপর কেক বানানোর জন্য যে মিশ্রণটি তৈরি করে রেখেছিলেন সেই মিশ্রণটি সসপ্যান এর উপর ঢেলে দিতে হবে।
  9.  এরপর রাইস কুকারের এর ভিতরে একটি স্ট্যান্ড বসিয়ে সাসপেনটিকে বসিয়ে দিতে হবে এবং রাইস কুকারের ভিতরে পরিমাণমতো পানি দিয়ে, রাইস কুকারের ঢাকনা বন্ধ করে দিতে হবে এবং এইভাবে প্রায় ৪০/৪৫ মিনিট তাপে রান্না করতে হবে।
  10.  ৪০/৪৫ মিনিট পর একটি কাঠি কেকের মধ্যে ঢুকিয়ে দিতে হবে। যদি কাঠিটি পরিষ্কার হয়ে বের হয় তাহলে বুঝতে হবে আপনার কেক রেডি। আর যদি কাঠির গায়ে কেকের মিশ্রণ লেগে থাকে। তাহলে বুঝতে হবে কেকটি পুরোপুরি হয়নি আরো কিছুক্ষণ তাপে রান্না করতে হবে।
  11.  কেকটি হয়ে গেলে নামানোর পরে এক ঘন্টা নর্মাল টেম্পারেচারে রেখে ঠান্ডা করতে হবে।

ওভেনে জন্মদিনের কেক বানানোর রেসিপি

উপকরণ ও পরিমাণ

  • ময়দা - দুই কাপ
  • ডিম - ৪ টি
  • চিনি - পরিমাণ মতো ( আপনি কম মিষ্টি পছন্দ করলে চিনির পরিমাণ কম দিবেন, বেশি মিষ্টি পছন্দ করলে চিনির পরিমাণ একটু বেশি দিবেন)।
  • বেকিং সোডা - ১/২ চা চামচ। 
  • বেকিং পাউডার - এক চা চামচ।
  • কোকো পাউডার- ৪ চা চামচ।

প্রস্তুত প্রণালী

  • ময়দা, বেকিং পাউডার ও কোকো পাউডার একসাথে চেলে আলাদা করে রাখুন। 
  •  একটি পাত্রে ডিমের সাদা অংশ ভালো করে ফেটিয়ে ফেনা করুন। 
  •  ফেনা হয়ে গেলে অল্প অল্প করে চিনি দিন। সব চিনি মিশে গেলে একটি একটি করে ডিমের কুসুম এড করে দিন।
  •  এবার বিটার রেখে দিয়ে একটি চামচ দিয়ে ময়দার মিশ্রণ নিয়ে হালকা হাতে মিশিয়ে নিন।
  •  এবার একটি পাউন্ড কেক প্যানে মাখন বা তেল দিয়ে ব্রাশ করুন, উপরে ময়দা বা কোকো পাউডার ছিটিয়ে ১৫০ ডিগ্রীতে প্রিহিটেড ওভেনে ৪০ মিনিট বেক করুন।
  •  কেকের মধ্যে একটি কাঠি ঢুকিয়ে দেখুন কাঠিটি পরিষ্কার হয়ে আসছে কি না।
  •  কাটিটি পরিষ্কার হয়ে না আসলে আরো কিছুক্ষণ বেক করে নিন। 
  •  কেক হয়ে গেলে ঠান্ডা করে চার থেকে পাঁচ ঘণ্টা ফ্রিজে রেখে দিন।

তারপরে এটি বের করে নিন এবং একটি ধারালো ছুরি দিয়ে মাঝ বরাবর বা আড়াআড়িভাবে কেটে নিন। একটি আলাদা প্লেটে রাখুন এবং চেরি সিরাপ দিয়ে ব্রাশ করুন এবং প্রতিটি স্তরে প্রথমে সুগার সিরাপ দিয়ে এরপর হুইপড ক্রিম বা বাটারক্রিম দিয়ে কেকের একটি স্লাইস এর উপর অপর একটি স্লাইস রাখুন। (ব্ল্যাক ফরেস্ট সাধারণত হুইপ ক্রিম ব্যবহার করে)। এবার কেকের উপরে চকোলেট মিরর গ্লেজ ঢেলে পরিবেশন করুন।

আরো পড়ুনঃ ১০ হাজার টাকায় ২৫ টি ব্যবসার আইডিয়া এবং রিস্ক ফ্রি ব্যবসা

কেক বানানোর রেসিপি

কেকের ক্রিম বানানোর রেসিপি

কেকের ক্রিম বানানোর রেসিপি

জন্মদিনের কেকের মধ্যে সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ হলো কেকের ক্রিম। কেকের ক্রিম ছাড়া কেক সুন্দরভাবে সাজানো যায় না। চলুন কেকের ক্রিম বানানোর রেসিপি জেনে নেওয়া যাক।

উপকরণ ও পরিমাণ

  • বাটার -৪০০ গ্রাম
  • আইসিং সুগার - ৫০ গ্রাম
  • কনডেন্সড মিল্ক- ১/২ টিন
  • ভ্যানিলা এসেন্স - ১/২ চা চামচ
  • ফুড কালার - এক চিমটি

প্রস্তুত প্রণালী

  1. প্রথমে বাটার খুব ভালোভাবে গলিয়ে নিতে হবে। 
  2.  এরপর গলিয়ে রাখা বাটার এর মধ্যে আইসিং সুগার, কনডেন্সড মিল্ক, ভ্যানিলা এসেন্স দিয়ে খুব ভালোভাবে বিট করে নিতে হবে।
  3.  এরপর মিশ্রনটিকে অন্য একটি পাত্রে নিয়ে পছন্দ অনুযায়ী ফুড কালার মিশিয়ে। কেকের উপর পছন্দ মত ডিজাইন করে পরিবেশন করুন।

সুগার সিরাপ বানানোর নিয়ম

সুগার সিরাপ বানানোর নিয়ম

আমরা সকলেই জানি তৈরির পর কেকটাকে ২/৩ টি ভাগে ভাগ করতে হয়। কেকে ক্রিম দেওয়ার আগে প্রতিটা স্লাইসে সুগার সিরাপ দিলে কেক অনেকটা সফট হয়। তাই সুগার সিরাপ কেকের একটি গুরুত্বপূর্ণ পার্ট। চলুন সুগার সিরাপ বানানোর নিয়ম দেখে নেই।

প্রথমে চুলায় একটি প্যান বসিয়ে এতে পরিমাণ মতো চিনি এড করুন। চিনির সাথে কিছুটা পানি মিশিয়ে দুই তিন মিনিট জ্বাল করুন। তারপর দেখবেন মিশ্রণটি কালার চেঞ্জ হয়ে আসছে এবং ঘন হয়ে আসছে। ব্যাস তৈরি হয়ে যাবে সুগার সিরাপ।

আরো পড়ুনঃ কিস্তিতে দেনমোহর পরিশোধের নিয়ম

লেখকের শেষকথা

আমরা আমাদের আজকের আর্টিকেলে জন্মদিনের কেক বানানোর রেসিপি সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা করেছি। কেক বানানো অনেক ধৈর্যের একটি কাজ। তাই অনেকেই ধৈর্য নিয়ে এই কাজটি সঠিকভাবে করতে পারে না। আবার অনেকের কেক বানানোর সময় নষ্ট হয়ে যায়।

কিন্তু আমাদের আজকের জন্মদিনের কেক বানানোর রেসিপি স্টেপ বাই স্টেপ ফলো করলে কেক বানানো আপনাদের জন্য অনেকটা সহজ হয়ে যাবে। তাই খুব সহজে জন্মদিনের কেক বানানোর রেসিপি চাইলে আমাদের রেসিপিটি ফলো করতে পারেন।

আশা করি আমাদের আজকের আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়লে কেক বানানোর সময় ঝামেলা অনেকটাই এড়াতে পারবেন। তাই আমাদের আজকের আর্টিকেলটি প্রথম থেকে মনোযোগ সহকারে পড়লে আপনারা উপকৃত হবেন।

পোষ্ট ক্যাটাগরি:

এখানে আপনার মতামত দিন

0মন্তব্যসমূহ

আপনার মন্তব্য লিখুন (0)