ই ক্যাপ 400 এর উপকারিতা | e cap 400 er upokarita

হাসিবুর
By -
0

ই ক্যাপ 400 এর উপকারিতা, এটি খাওয়ার নিয়ম এবং দাম ও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সম্পর্কে আলোচনা করব আমরা আমাদের আজকের এই নিবন্ধনটিতে। ই-ক্যাপ ওষুধের সাথে আমরা সবাই কমবেশি পরিচিত। তবুও আরো বিস্তারিত জানার জন্য অনেকেই ই ক্যাপ 400 এর উপকারিতা ও অপকারিতা সম্পর্কে জানার আগ্রহ প্রকাশ করেন।

তাই আজকে আমরা ই ক্যাপ 400 এর উপকারিতা, পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া, সেবন বিধি এবং দাম সম্পর্কে A টু Z আলোচনা করব। তাহলে আসুন জেনে নেওয়া যাক ই ক্যাপ 400 আমাদের কি কি উপকারে আসে এবং আমরা এটিকে আর কি কি ভাবে ব্যবহার করতে পারি ইত্যাদি সম্পর্কে বিস্তারিত।

(toc) #title=(সুচিপত্র)

ই ক্যাপ 400 এর উপকারিতা

ই ক্যাপ 400 কি | ই ক্যাপ 400 এর উপকারিতা

ই ক্যাপ ৪০০ হচ্ছে ভিটামিন ই সাপ্লিমেন্ট, এটি মূলত একটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, যা আমাদের শরীরের ভিটামিন ই এর অভাব পূরণে কার্যকরী ভূমিকা রাখে। যাদের শরীরে ভিটামিন ই এর ঘাটতি রয়েছে তাদের জন্য অত্যন্ত উপকারী ভিটামিন ই ক্যাপ 400 আই ইউ ঔষধটি। 

ই ক্যাপ 400 খাওয়ার কারণ | ই ক্যাপ কেন খায়?

ই ক্যাপ শরীরে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট পূরণ করে পাশাপাশি ভিটামিন ই এর অভাব দূরীকরণে বিশেষ সহায়ক ভূমিকা রাখে। এছাড়াও হিমলাইটিক অ্যানিমিয়া এবং মাথার তালুতে রক্ত সরবরাহ বাড়াতেও ই ক্যাপ এর কোন তুলনা নেই।

মূলত এর পুষ্টি উপাদান বা উপকারিতার কথা চিন্তা করেই বিভিন্ন সমস্যার উপরোধক হিসেবে চিকিৎসকরা ই ক্যাপ 400 ওষুধটি খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

অতএব এর উপর ভিত্তি করে বলা যায় ই ক্যাপ 400 অর্থাৎ ভিটামিন ই ক্যাপসুল শরীরের ভিটামিন ই এর চাহিদা পূরণ করার পাশাপাশি শারীরিক আরো বেশ কিছু সমস্যা দূরীকরণে বিশেষ ভূমিকা রাখে বিধায় এটি খাওয়া হয়।

আরো পড়ুনঃ ই ক্যাপ খাওয়ার উপকারিতা ও অপকারিতা

ই ক্যাপ 400 এর কার্যকারিতা | ই ক্যাপ 400 এর উপকারিতা

ভিটামিন ই ক্যাপসুল হিসেবে তিন ধরনের ক্যাপসুল পাওয়া যায়। মূলত ই ক্যাপসুল এর ধরন তিনটি। সেগুলো হলোঃ

  • ই ক্যাপ ২০০
  • ই ক্যাপ 400
  • ই ক্যাপ ৬০০

তবে এই তিনটির মধ্যে ই ক্যাপ 400 এর কার্যকারিতা বা উপকারিতা সবথেকে বেশি। কেননা এটি খাওয়ার ফলে ভিটামিন ই এর চাহিদা সম্পূর্ণভাবে মিটে যায়। কেউ যদি নিয়মিত ভিটামিন ই ক্যাপ 400 খেয়ে থাকে তাহলে তার শরীরে ভিটামিন ই এর অভাবজনিত সব ধরনের রোগ নির্মূল হয়ে যায়।

তাই নিয়মিত পরিণত খাবার গ্রহণের পাশাপাশি আপনি যদি ভিটামিন ই এর অভাব পূরণ করার জন্য ভিটামিন ই ক্যাপসুল খেয়ে থাকেন তাহলে কার্যকারিতা হিসেবে আপনার শরীরে এটি ভিটামিন ই এর চাহিদা পূরণ করবে এবং বেশ কিছু রোগ থেকে পরিত্রাণ দেবে।

তবে হ্যাঁ এর কার্যকারিতা সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা দেবার জন্য জেনে নিন ভিটামিন ই ক্যাপ 400 ওষুধটি মূলত কি কি করতে সক্ষমঃ

  • চুলের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে
  • ভিটামিন ই এর অভাব পূরণে
  • চুল পড়া রোধ করনে
  • মাথার তালুতে রক্ত সরবরাহ বাড়াতে
  • চুলের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে
  • চুলের গোরা মজবুত রাখতে
  • মাথার চামড়ায় তেলের ব্যালেন্স রক্ষা করতে
  • ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে
  • বেশি এবং হাড়ের দুর্বলতা দূর করতে
  • লোমের রক্ত চলাচল ঠিক রাখতে
  • লি*ঙ্গের রক্ত চলাচল বৃদ্ধি করে লি*ঙ্গকে শক্ত রাখতে
  • রক্ত জমাট বাধা প্রতিরোধ সহ প্রভৃতি কাজে

এছাড়াও আলঝেইমার রোগ, নার্ভের ক্ষতি, ক্যারাটেকটমি, কেমোথেরাপির কারণে আর্থাইটিস এর ব্যথা দূরীকরণেও ভিটামিন-ই বিশেষ কার্যকরী ভূমিকা রাখে। অতএব এক কথায়, ভিটামিন ই 400 আই ইউ ঔষধটি খাবার ফলে একের অধিক উপকারিতা পাওয়া যায়।

ভিটামিন ই 400 এর অপকারিতা

ভিটামিন ই ক্যাপসুল এর উপকারিতা কি সে সম্পর্কে জানার পর অনেকেরই মনে প্রশ্ন জাগে, ভিটামিন ই 400 এর কি কোন অপকারিতা অর্থাৎ ক্ষতিকর দিক বা পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া রয়েছে?

সঠিক উত্তর হলো হ্যাঁ। মূলত প্রত্যেকটি ওষুধের উপকারিতার পাশাপাশি কিছু না কিছু অপকারিতাও থেকে থাকে। কিছু অপকারিতা গুলো স্থায়িত্বতা বজায় রাখে আর কিছু সাময়িক সময়ের জন্য। সাধারণত ই ক্যাপ খাওয়ার ফলে সঙ্গে সঙ্গে অপকারিতা হিসেবে কোন কিছু প্রকাশ পায় না।

তবে মাত্রাতিরিক্ত ই ক্যাপ 400 খাওয়ার ফলে কিছু সমস্যা দেখা দিতেই পারে। যেমনঃ

  • বমি
  • মাথা ব্যথা
  • ক্লান্তি অনুভব
  • শরীরে বিভিন্ন চুলকানি জাতীয় সমস্যা

তাই চিকিৎসকের পরামর্শ না নিয়ে দীর্ঘ একটানা মাসের পর মাস বছরের পর বছর ই ক্যাপ ৪০০ ক্যাপসুল ওষুধটি খাওয়া একদমই উচিত নয়। এক্ষেত্রে অবশ্যই বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ গ্রহণ করবেন এবং আপনার সমস্যার পরিসীমা নির্ণয় করার পরবর্তীতে সঠিক নিয়ম মেনে মাত্রা অনুযায়ী ঔষধ সেবন করবেন। তা নাহলে

  • চোখে ঝাপসা দেখা
  • নাক দিয়ে রক্ত পড়া অথবা
  • ডায়রিয়ার মত জটিল সমস্যা গুলো দেখা দিতে পারে আপনার মাঝে।

অতএব, বিপদজনক বিপদে পড়ার পূর্বে ওষুধ সেবন করুন সতর্ক থাকুন।

আরো পড়ুনঃ ভিটামিন ই ক্যাপসুল কোনটা ভালো

ই ক্যাপ 400 খাওয়ার নিয়ম

ই ক্যাপ 400 এর উপকারিতা অপকারিতা না হয় জানলাম। কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে ই ক্যাপ কিভাবে বা কোন নিয়মে খেতে হবে!

ই ক্যাপ সাধারণত দিনে একটা থেকে দুইটা খাওয়া যায়। তবে আপনি যদি ভিটামিন ই 400 ক্যাপসুল ওষুধটি খেয়ে থাকেন তাহলে নিয়ম হল সন্ধ্যায় হালকা নাস্তা খাওয়ার পর খাওয়া। 

ভিটামিন ই ক্যাপ 400 এর দাম

ভিটামিন ই ক্যাপ ৪০০ এর প্রতি পিসের দাম মাত্র ৬.৫০ টাকা। যেটা আপনি নিকটস্থ যেকোনো ফার্মেসির দোকান থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন। চাইলে অনলাইনেও অর্ডার করতে পারেন। কেননা বিভিন্ন ওষুধ কোম্পানি সেই সাথে বাংলাদেশের বিভিন্ন মেডিসিন ওয়েভ পোর্টাল অনলাইনে সকল ধরনের ঔষধ বিক্রি করে থাকে।

তো সুপ্রিয় পাঠক বন্ধুরা, ভিটামিন ই ক্যাপ 400 এর উপকারিতা, ই ক্যাপ 400 এর অপকারিতা, ই ক্যাপ 400 খাওয়ার নিয়ম দাম এবং আনুষঙ্গিক বিষয় সম্পর্কে আলোচনার ইতি টানছি এখানেই। সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন আল্লাহ হাফেজ।

ব্লগ ক্যাটাগরি:

এখানে আপনার মতামত জানান

0মন্তব্যসমূহ

আপনার মন্তব্য লিখুন (0)

#buttons=(ঠিক আছে, ধন্যবাদ) #days=(20)

টেকনিক্যাল কেয়ার বিডি তে আপনাকে স্বাগতম. ❤️
Ok, Go it!