নবীদের নামের তালিকা অর্থসহ

হাসিবুর
By -
0

নবীদের নামের তালিকা অর্থসহ – হযরত আদম (আঃ) থেকে শুরু করে পৃথিবীতে অসংখ্য নবী এসেছেন। পবিত্র কুরআন শরিফে ২৬ জন নবীর কথা উল্লেখ্য করা হয়েছে। আমাদের আজকের আর্টিকেলে আমরা জানবো পবিত্র কুরআন শরিফে উল্লেখিত ২৬ জন নবীর নাম অর্থসহ।

আমরা অনেকেই জানিনা কুরআন শরিফে কোন ২৬ জন নবীর নামের কথা বলা হয়েছে ও তাদের নামের অর্থ গুলো কি। নবীদের নামের তালিকা অর্থসহ সম্পর্কে বিস্তারিত জানার জন্য সম্পুর্ণ আর্টিকেলটি পড়ে ফেলুন।

(toc) #title=(সুচিপত্র)

নবীদের নামের তালিকা অর্থসহ

নবী কাকে বলে

নবীদের নামের তালিকা অর্থসহ জানার পূর্বে আমাদের জানা উচিত নবী কাকে বলে সে সম্পর্কে। নবী একটি আরবী শব্দ। নবী শব্দের বাংলা অর্থ হলো – অদৃশ্যের সংবাদদাতা, গায়েব ইত্যাদি।

যাদের উপর আসমানী কিতাব আবর্তীর্ণ হয়নি বরং পরবর্তী রাসূলের উপর যে কিতাব আবর্তীর্ণ করা হয়েছে সে কিতাব এর দাওয়াত পৌছে দিয়েছেন তাকে নবী বলা হয়।

যাদের উপর আসমানী কিতাব আবর্তীর্ণ করা হয়েছে তাদের নবী ও রাসূল বলা হয়। সকল নবী রাসূল নয়, শুধু মাত্র আসমানী কিতাব যারা পেয়ছেন তাদেরকে রাসূল বলা হয়।

আরো পড়ুনঃ সাহাবীদের নাম অর্থসহ - সাহাবীদের নামের তালিকা অর্থসহ

নবীদের নামের তালিকা অর্থসহ

আজকের আর্টিকেলের বিষয়টি ছিল নবীদের নামের তালিকা অর্থসহ যা নিচে আলোচনা করা হয়েছে। বিশ্বে অসংখ্য নবী প্রেরিত হয়েছেন কিন্তু পবিত্র কুরআন শরিফে মাত্র ২৬ জন নবীর নাম উল্লেখ্য আছে। মহান আল্লাহ তায়ালা বিভিন্ন গোত্রের মধ্যে বার বার নবী প্রেরন করেছেন। প্রতিজন নবী ছিলেন অত্যান্ত নিপুণ গুনের অধিকারী। চলুন আমরা ২৬ জন নবীর নামের তালিকা অর্থসহ জেনে নেইঃ

১। হযরত আদম (আঃ) – পৃথিবীর প্রথম মানুষ ও প্রথম আল্লাহর প্রেরিত নবী হলো হযরত আদম (আঃ)। আদম শব্দের অর্থ হলো মাটির মানুষপ্রথম মানুষ, মাটির সৃষ্টি। মহান আল্লাহ তায়ালা মাটি দ্বারা আদম (আঃ) কে সৃষ্টি করেন।

২। হযরত নুহ (আঃ) – পবিত্র কুরআন শরিফে অসংখ্য বার নুহ (আঃ) এর নাম বর্ণিত আছে। নুহ নামের অর্থ বিশ্রাম থেকে মুক্তি। নূহ (আঃ) প্রথম রাসূল ও নবী। লকবঃ নবীউল্লাহ/আল্লাহর নবী। এই নামটি নবী ও রাসূলগণের নামের অন্তর্ভুক্ত।

৩। হযরত ইসমাঈল (আঃ) - ইসমাঈল(আঃ) নবীর নামের অর্থ হলো উৎসর্গকৃত, ভাগ্যবান, মনোযোগী, উদার, সক্রিয়, উপযুক্ত, আধুনিক, আনন্দদায়ক, গুরুত্ব, স্বাভাবিক, বন্ধুত্বপূর্ণ এবং এই নামটি নবী ও রাসূলগণের নাম এর অন্তর্ভুক্ত।

৪। হযরত লুত (আঃ) – লুত নামের অর্থ হল ভাগ্যবান এবং এই নামটি নবী ও রাসূলগণের নামের অন্তর্ভুক্ত। লূত (আঃ) ইবরাহীম (আঃ)-এর ভ্রাতুষ্পুত্র।

৫। হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) – মুহাম্মদ (সাঃ) সর্বশেষ নবী ও রাসূল। মুহাম্মদ নামের অর্থ হলো প্রশংসিত। হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) নবী ও রাসূলগণের নাম এর অন্তর্ভুক্ত।

৬। হযরত ইব্রাহিম (আঃ) – ইবরাহিম নামের অর্থ হলো খালীলুল্লাহ/আল্লাহর বন্ধু, অন্তরঙ্গ বন্ধু এবং এই নামটি নবী ও রাসূলগণের নামের অন্তর্ভুক্ত।

৭। হযরত হুদ (আঃ) – হুদ নামটির অর্থ হলো – পথ প্রদর্শন, পথ নির্দেশ, নেতৃত্ব ইত্যাদি। এই নামটি নবী ও রাসূলগণের নামের অন্তর্ভুক্ত। পবিত্র কোরআনে তাঁর নাম ৭ বার এসেছে।

৮। হযরত ঈসা (আঃ) – ঈসা (আঃ) এর নামের অর্থ হলো পবিত্র, আন্তরিক ইত্যাদি। এই নামটি নবী ও রাসূলগণের নামের অন্তর্ভুক্ত।

৯। হযরত আহমাদ (আঃ) – আহমাদ নামের অর্থ হলো অধিক প্রশংসাকারী যা রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর একটি নাম।

১০। হযরত ইউসুফ (আঃ) – ইউসুফ নামটি অনেক জনপ্রিয়। এ নামটির অর্থ হলো আল্লাহর দান। ইউসুফ (আঃ) তার জীবনের ঘটনাকে “আহসানুল কাসাস” নামে অভিহিত করা হয়েছে। এই নামটি নবী ও রাসূলগণের নামের অন্তর্ভুক্ত।

১১। হযরত ইয়াকুব (আঃ) – ইয়াকুব নবীর নামের অর্থ হলো উত্তরাধিকারী, অনুসরণ ইত্যাদি। পবিত্র কুরআন শরিফে ১২ স্থানে ইয়াকুব নবীর নাম রয়েছে। এই নামটি নবী ও রাসূলগণের নামের অন্তর্ভুক্ত।

১২। হযরত জাকারিয়া (আঃ) – হজরত ইয়াহিয়া (আঃ) এর পিতা হলেন জাকারিয়া (আঃ)। জাকারিয়া নবীর নামের অর্থ হলো স্বরনকারী এবং এই নামটি নবী ও রাসূলগণের নামের অন্তর্ভুক্ত।

১৩। হযরত হারুন (আঃ) – মূসা (আঃ) এর ভাই হলেন হারুন (আঃ) এবং সুবক্তা। হারুন (আঃ) নবীর নামের অর্থ হলো পাহাড়, পর্বত এবং এই নামটি পাহাড় নবী ও রাসূলগণের নাম এর অন্তর্ভুক্ত।

১৪। হযরত ইসহাক (আঃ) – ইসহাক (আঃ) হলেন ইবরাহিম (আঃ) এর পুত্র। ইসহাক নবীর নামের অর্থ হলো হাস্যময়ী। তাঁর নাম পবিত্র কুরআনে ১৭ বার এসেছে এবং হযরত ইসহাক (আঃ) নামটি নবী ও রাসূলগণের নাম এর অন্তর্ভুক্ত।

১৫। হযরত ইউনুস (আঃ) – ইউনুস (আঃ) এর নামের অর্থ হলো সান্তনা, জোসনা, আল্লাহর উপহার এবং এই নামটি নবী ও রাসূলগণের নাম এর অন্তর্ভুক্ত।

১৬। হযরত দাউদ (আঃ) – দাউদ (আঃ) ছিলেন একজন সুকন্ঠের অধিকারি। দাউদ (আঃ) নবীর নামের অর্থ হলো প্রিয় বন্ধু, আল্লাহর বন্ধু এই নামটি নবী ও রাসূলগণের নাম এর অন্তর্ভুক্ত।

১৭। হযরত আইয়ূব (আঃ) – আইয়ূব (আঃ) নবীর নামের অর্থ হলো অভিমুখী, প্রত্যাবর্তনকারী নবী এই নামটি নবী ও রাসূলগণের নাম এর অন্তর্ভুক্ত। তিনি দীর্ঘ আঠার বছর অসুস্থাবস্থায় থেকে আল্লাহর পরীক্ষায় পাশ করেন।

১৮। হযরত শুয়াইব (আঃ) – শোয়াইব (আঃ) নবীর নামের অর্থ হলো অনুগ্রহ প্রাপ্ত। শোয়াইব (আঃ) সুপ্রসিদ্ধ বক্তা ও মূসা (আঃ)-এর শ্বশুর এবং এই নামটি নবী ও রাসূলগণের নাম এর অন্তর্ভুক্ত।

১৯। হযরত মুসা (আঃ) – মুসা (আঃ) নবীর নামের অর্থ সংরক্ষিত, রক্ষা কর্তা। মূসা (আঃ) লকবঃ কালীম উল্লাহ/ আল্লাহর সাথে কথোপকথন কারী। মসা নবী ও রাসূলগণের নাম এর অন্তর্ভুক্ত।

২০। হযরত সুলায়মান (আঃ) – সুলায়মান (আঃ) ছিলেন জ্বীন ও মানুষের বাদশা।

২১। হযরত ইলিয়াস (আঃ) – ইলিয়াস (আঃ) ছিলেন হযরত মুসা (আঃ) এর ভাই। তিনি হারুন (আঃ) নবীর বংশধর ছিলেন।

২২। হযরত সালেহ (আঃ) – সালেহ (আঃ) কে সামুদ জাতির উদ্দেশ্যে প্রেরিত করা হয়েছিল। পবিত্র কুরআন শরিফে মোট ০৮ স্থানে সালেহ (আঃ) এর নাম উল্লেখ্য করা আছে। সালেহ নামের অর্থ হলো ধার্মিক, ন্যায়নিষ্ঠ, ধর্মনিষ্ঠ, অটুট, ভালো,এবং এই নামটি নবী ও রাসূলগণের নাম এর অন্তর্ভুক্ত।

২৩। হযরত আল ইয়াসা (আঃ) – ইয়াসা (আঃ) ছিলেন একজন সৎ কর্মশীল নবীগনের মধ্যে একজন।তিনি বনী ইসরাঈলের একজন নবী ছিলেন।

২৪। হযরত দানিয়াল (আঃ) – দানিয়াল (আঃ) নিয়ে অনেকের মতভেদ রয়েছে অনেকে তাকে একজন সাহাবী মনে করেন অনেকে নবী মনে করেন। দানিয়াল (আঃ) মূসা (আঃ) মৃ- ত্যুর পর তিনি আসেন।

২৫। হযরত জারজিস (আঃ) – মুজাহিদ ও বনী ইসরাইল এর একজন নবী ছিলেন।

২৬। হযরত ইয়াহহিয়া (আঃ) – পবিত্র কুরআন শরিফে সূরা মরিয়মে ইয়াহহিয়া (আঃ) এর নাম উল্লেখ্য করা হয়েছে।

২৭। হিযক্বীল (আঃ) - পবিত্র কুরআনের একটি সূরা তাঁর নামে নামকরণ করেছেন আল্লাহ।

২৮। ইদ্রিস আলাইহিস সালাম জ্যোতি বিজ্ঞানের উদ্ভব ও শিক্ষাবিদ।

২৯। খানূক (আঃ) - বনী ইসরাঈলের নবী ছিলেন ৩০। শাময়ূন (আঃ)দাউদ (আঃ) এর পূর্বে তিনি আবির্ভূত হন ৩১। শীস (আঃ) - লকবঃ হিবাতুল্লাহ/ আল্লাহরদান ৩২। হউশা (আঃ) - লকবঃ মূসা (আঃ) এর বিশিষ্ট সহচর।

খিজির (আঃ) যার নবুয়ত সম্পর্কে মতভেদ আছে। অনেকেই তাকে নবী ও বলেন। অনেকেই আবার বলেন যে তিনি একজন নেককার বান্দা ছিলেন।

আরো পড়ুনঃ স দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম অর্থসহ

২৫ জন নবীর নাম

পবিত্র কুরআনে বর্ণিত ২৫ জন নবীর নামঃ

১। হযরত আদম (আঃ)

২। হযরত নূহ (আঃ)

৩। হযরত হূদ (আঃ)

৪। হযরত ছালেহ (আঃ)

৫। হযরত ইব্রাহীম (আঃ)

৬। হযরত ইসমাঈল (আঃ)

৭। হযরত লূত্ব (আঃ)

৮। হযরত ইসহাক্ব (আঃ)

৯। হযরত ইয়াকূব (আঃ)

১০। হযরত ইউসুফ (আঃ)

১১। হযরত আইয়ূব (আঃ)

১২। হযরত শু'আয়েব (আঃ)

১৩। হযরত মূসা (আঃ)

১৪। হযরত হারুন (আঃ)

১৫। হযরত ইউনুস (আঃ)

১৬। হযরত দাঊদ (আঃ)

১৭। হযরত সুলায়মান(আঃ)

১৮। হযরত ইলিয়াস (আঃ)

১৯। হযরত আল ইয়াসা (আঃ)

২০। হযরত যুল-কিফল (আঃ)

২১। হযরত যাকারিয়া (আঃ)

২২। হযরত ইয়াহ্ইয়া (আঃ)

২৩। হযরত ইদরীস (আঃ)

২৪। হযরত ঈসা (আঃ)

২৫। হযরত মুহাম্মদ (সাঃ)

আরো পড়ুনঃ র দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নামের তালিকা

৫০ জন নবীর নাম

মহান আল্লাহ তায়ালা পৃথিবীতে প্রসিদ্ধ মত অনুযায়ী, ১ লাখ ২৪ হাজার পয়গম্বর পাঠিয়েছেন। তন্মধ্যে ৩১৫ জন ছিলেন রাসুল এবং বাকিরা নবী। যারা রাসুল ছিলেন তিনিরাও নবীও, আর যারা নবী ছিলেন তিনিরা শুধু নবী। আমাদের আদি পিতা হজরত আদম (আ.) ছিলেন প্রথম প্রেরিত রাসুল এবং হজরত মুহাম্মদ (সা.) সর্বশেষ প্রেরিত রাসুল। কুরআন ও হাদীসে বর্ণিত নবীদের তালিকা নিম্নরূপ:

১। آدم علیہ السلام

Hazrat Adam Alaihissalam

হজরত আদম (আ.)

২। حضرت شیث علیہ السلام

Hazrat Shees Alaihissalam

হযরত শিস আলাইহিস সালাম

৩। حضرت نوح علیہ السلام

Hazrat Nuh Alaihissalam

হযরত নূহ আলাইহিস সালাম

হজরত নূহ (আ.)

৪। حضرت یعشیۙ علیہ السلام

Hazrat Yusha bin Nun

হযরত ইউশা বিন নুন

হযরত ইয়াশী (আ.)

৫। حضرت ادریس علیہ السلام

Hazrat Idris Alaihissalam

হযরত ইদ্রিস আলাইহিস সালাম

হজরত ইদ্রিস (আ.)

৬। حضرت ھود علیہ السلام

Hazrat Hud Alaihissalam

হযরত হুদ আলাইহিস সালাম

হজরত হুদ (আ.)

৭। حضرت  صالح علیہ السلام

Hazrat Saleh Alaihissalam

হযরত সালেহ আলাইহিস সালাম

হযরত সালেহ (আ.)

৮। حضرت  ابراہیم علیہ السلام

Hazrat Ibrahim Alaihissalam

হযরত ইব্রাহিম আলাইহিস সালাম

হজরত ইব্রাহিম (আ.)

৯। حضرت  لوط علیہ السلام

Hazrat Lut Alaihissalam

হযরত লুত আলাইহিস সালাম

হজরত লুত (আ.)

১০। حضرت  اسمائیل علیہ السلام

Hazrat Ismail Alaihissalam

হযরত ইসমাইল আলাইহিস সালাম

হজরত ইসমাইল (আ.)

১১। حضرت  اسحاق علیہ السلام

Hazrat Ishaq Alaihissalam

হযরত ইসহাক আলাইহিস সালাম

হজরত ইসহাক (আ.)

১২। حضرت  یعقوب علیہ السلام

Hazrat Yaqub Alaihissalam

হযরত ইয়াকুব আলাইহিস সালাম

হজরত ইয়াকুব (আ.)

১৩। حضرت یوسف علیہ السلام

Hazrat Yusuf Alaihissalam

হযরত ইউসুফ আলাইহিস সালাম

হজরত ইউসুফ (আ.)

১৪। حضرت ایوب علیہ السلام

Hazrat Ayub Alaihissalam

হযরত আইয়ুব আলাইহিস সালাম

হজরত আইয়ুব (আ.)

১৫। حضرت شعیب علیہ السلام

Hazrat Shoaib Alaihissalam

হযরত শোয়াইব আলাইহিস সালাম

হজরত শোয়াইব (আ.)।

১৬। حضرت موسیٰ علیہ السلام

Hazrat Musa Alaihissalam

হযরত মুসা আলাইহিস সালাম

হজরত মুসা (আ.)

১৭। حضرت ہارون علیہ السلام

Hazrat Haroon Alaihissalam

হযরত হারুন আলাইহিস সালাম

হজরত হারুন (আ.)

১৮।  حضرت ذوالکفل علیہ السلام

Hazrat Dhul Kifl Alaihissalam

হযরত যুল কিফল আলাইহিস সালাম

হযরত যুল-কাফিল (আ.)

১৯। حضرت داؤد علیہ السلام

Hazrat Dawood Alaihissalam

হযরত দাউদ আলাইহিস সালাম

হজরত দাউদ (আ.)

২০। حضرت سلیمان علیہ السلام

Hazrat Suleman Alaihissalam

হযরত সুলেমান আলাইহিস সালাম

হজরত সোলায়মান (আ.)

২১। Hazrat Iramya

হযরত ইরম্যা রহ

২২। حضرت الیاس علیہ السلام

Hazrat Ilyas Alaihissalam

হযরত ইলিয়াস আলাইহিস সালাম

হজরত ইলিয়াস (আ.)

২৩।  حضرت الیسع علیہ السلام

Hazrat Al-Yasa Alaihissalam

হযরত আল ইয়াসা আলাইহিস সালাম

হজরত ইলিসা (আ.)

২৪। Hazrat Kharkeel Alaihissalam

হযরত খারকীল আলাইহিস সালাম

২৫। Hazrat Ismael bin Kharkeel

হযরত ইসমাঈল বিন খারকীল রহ

২৬। Hazrat Sheya

হযরত শেয়া রহ

২৭। Hazrat Shammil

হযরত শাম্মিল রহ

২৮। حضرت لقمان علیہ السلام

Hazrat Luqman

হযরত লুকমান রা

হজরত লুকমান (আ.)

২৯। Hazrat Haiqooq

হযরত হাইকক রহ

৩০। Hazrat Armiya

হযরত আরমিয়া রহ

৩১। حضرت دانیال علیہ السلام

হযরত দানিয়াল (আ.)

৩২। Hazrat Isaiah

হযরত ঈশা আ

৩৩। حضرت عزیر علیہ السلام

Hazrat Uzair

হযরত উযাইর রা

হযরত উজাইর (আ.)

৩৪। حضرت جرجیس

Hazrat Jarjees

হযরত জারজী রহ

৩৫। حضرت خضر علیہ السلام

Hazrat Khizar

হযরত খিযর রা

হজরত খিজর (আ.)

৩৬। حضرت یونس علیہ السلام

Hazrat Yunus Alaihissalam

হযরত ইউনুস আলাইহিস সালাম

হজরত ইউনুস (আ.)

৩৭। حضرت زکریاء علیہ السلام

Hazrat Zakariya Alaihissalam

হযরত যাকারিয়া আলাইহিস সালাম

হজরত জাকারিয়া (আ.)

৩৮। حضرت یحیيٰ علیہ السلام

Hazrat Yahya Alaihi Salam

হযরত ইয়াহইয়া আলাইহি সালাম রহ

হজরত ইয়াহইয়া (আ.)

৩৯। حضرت عیسیٰ علیہ السلام

Hazrat Isa Alaihissalam

হযরত ঈসা আলাইহিস সালাম

৪০। حضرت محمد صلی اللہ علیہ وسلم

Hazrat Muhammad Sallallahu Alaihi Wasallam

হযরত মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম

হজরত মুহাম্মদ (সা.)

হজরত লুকমান সম্পর্কে দুটি আকওয়াল রয়েছে। কেউ বলেন তিনি নবী ছিলেন আবার কেউ বলেন তিনি ছিলেন হকিম। একইভাবে হজরত খিজির (আ.) সম্পর্কে দুটি আকওয়াল রয়েছে কিন্তু অধিকাংশ লোকই বলে যে তিনি আল্লাহর নবী ছিলেন।

আরো পড়ুনঃ পাকিস্তানি মেয়েদের ইসলামিক নাম

কোরআনে বর্ণিত নবীদের নাম

হজরত আদম আলাইহিস সালাম

হজরত ইদরিস আলাইহিস সালাম

হজরত নুহ আলাইহিস সালাম

হজরত ইয়াকুব আলাইহিস সালাম

হজরত ইউসুফ আলাইহিস সালাম

হজরত শোয়াইব আলাইহিস সালাম

হজরত ইসমাঈল আলাইহিস সালাম

 হজরত হুদ আলাইহিস সালাম

হজরত লুত আলাইহিস সালাম

 হজরত ইসহাক আলাইহিস সালাম

হজরত আইয়ুব আলাইহিস সালাম

হজরত মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম

হজরত ঈসা আলাইহি সালাম

হজরত ইয়াইয়া আলাইহিম সালাম

হজরত ইউনুস আলাইহিস সালাম

হজরত ইয়াসা আলাইহিস সালাম

হজরত সোলায়মান আলাইহিস সালাম

হজরত ইলিয়াস আলাইহিস সালাম

হজরত দাউদ আলাইহিস সালাম

হজরত হারুন আলাইহিস সালাম

হজরত মুসা আলাইহিস সালাম

হজরত যুলকিফল আলাইহিস সালাম

 হজরত আইয়ুব আলাইহিস সালাম

নবীর সাহাবীদের নামের তালিকা

যেসকল ব্যক্তি জীবিত অবস্থায় নবী করীম (সাঃ) হাতে পবিত্র ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন, ঈমানের সাথে নবীজির সাক্ষাৎ ও সাহাচর্য্য লাভ করেছেন, ইসলামিক পরিভাষায় সেসকল ব্যক্তিদেরকে সাহাবী বলা হয়। তাই, আপনার ছেলে শিশুর ইসলামের পূণ্যময় পুরুষদের নাম অনুকরণ করে নাম রাখতে জেনে নিন ৩১৩ জন সাহাবীদের নাম…

হযরত আবু বকর (রাঃ)

হযরত উমর ফারুক (রাঃ)

হযরত উসমান (রাঃ)

হযরত আলী মোর্তাজা (রাঃ)

হযরত আমির হামজা (রাঃ)

হযরত উসমান বিন মাজউন (রাঃ)

হযরত সাইব বিন উসমান (রাঃ)

হযরত কুদামা বিন মাজউন (রাঃ)

হযরত আব্দুল্লাহ বিন মাজউন (রাঃ)

হযরত মা’মার বিন হারেছ (রাঃ) 

হযরত যায়েদ বিন হারেছা (রাঃ)

হযরত আবু কাবশাহ সুলাইম (রাঃ)

হযরত আবু মারছাদ গানাভী (রাঃ)

হযরত মারছাদ বিন আবু মারছাদ (রাঃ)

হযরত উবাইদা বিন হারেছ (রাঃ)

হযরত তোফায়েল বিন হারেছ (রাঃ)

হযরত হুসাইন বিন হারেছ (রাঃ)

হযরত আউফ বিন উসাসা (রাঃ)

হযরত মুজায্যার বিন যিয়াদ (রাঃ)

হযরত খাব্বাব ইবনুল মুনযির (রাঃ)

হযরত উমায়ের বিন আবী ওয়াক্কাছ (রাঃ)

হযরত মিকদাদ বিন আমর (রাঃ)

হযরত নোমান বিন আসার বিন হারেস (রাঃ)

হযরত মিহজা’ মাওলা উমর ফারুক (রাঃ)

হযরত ওহাব বিন আবী সারাহ (রাঃ)

হযরত আবু হুযায়ফা (রাঃ)

হযরত ছালেম (রাঃ)

হযরত সুহইব বিন সিনান (রাঃ)

হযরত আব্দুল্লাহ বিন মাসউদ (রাঃ)

হযরত মাসউদ বিন রাবীআ (রাঃ)

হযরত যুশ শিমালাইন (রাঃ)

হযরত খাব্বাব বিন আরাত (রাঃ)

হযরত বিলাল বিন রবাহ (রাঃ)

হযরত আমের বিন ফুহায়রা (রাঃ)

হযরত ছুহাইব বিন সিনান (রাঃ)

হযরত আব্দুল্লাহ বিন জাহাশ (রাঃ)

হযরত উক্কাশা বিন মিহসান (রাঃ)

হযরত উৎবা বিন গাযওয়ান (রাঃ)

হযরত হাতেব বিন আমর (রাঃ)

হযরত মালেক বিন আমর (রাঃ)

হযরত মিদলাজ বিন আমর (রাঃ)

হযরত সুওয়ায়েদ ইবনে মাখশী (রাঃ)

হযরত জুবাআইর বিন আউওয়াম (রাঃ)

হযরত হাতেব বিন আবি বালতাআহ (রাঃ)

হযরত সাদ বিন খাওলা (রাঃ)

হযরত মুসআব বিন উমায়ের (রাঃ)

হযরত মুআত্তিব বিন আউফ (রাঃ)

হযরত মাসউদ বিন সা’দ (রাঃ)

হযরত আঃ রহমান বিন আউফ (রাঃ)

হযরত সা’দ বিন আবু উবায়দা (রাঃ)

হযরত উমায়ের বিন আবি ওয়াক্কাস (রাঃ)

হযরত মিক্কদাদ বিন আমর (রাঃ)

হযরত যায়েদ ইবনে খাত্তাব (রাঃ)

হযরত আমর বিন সুরাকা (রাঃ)

হযরত ওয়াকেদ বিন আব্দুল্লাহ (রাঃ)

হযরত খাওলা বিন আবু খাওলা (রাঃ)

হযরত শুজা’ বিন ওহাব (রাঃ)

হযরত ওতবা বিন রবীআহ (রাঃ)

হযরত ঈয়াযীদ বিন রুকাইশ (রাঃ)

হযরত আবু উবায়দা ইবনুল জাররাহ (রাঃ)

হযরত আমের বিন রবীআহ (রাঃ)

হযরত আমের বিন হারিছ (রাঃ)

হযরত আমের বিন আব্দুল্লাহ (রাঃ)

হযরত খালেদ বিন বুকাইর (রাঃ)

হযরত ইয়ায বিন গাণাম (রাঃ)

হযরত সাঈদ বিন যায়েদ (রাঃ)

হযরত আব্দুল্লাহ বিন মাখ্রাম (রাঃ)

হযরত খাব্বাব মাওলা উৎবা বিন গযওয়ান (রাঃ)

হযরত আবুস সাইব উসমান বিন মাজউন (রা;)

হযরত আমর বিন আবু সারাহ (রাঃ)

হযরত সাকাফ বিন আমর (রাঃ)

হযরত তালহা বিন উবাইদুল্লাহ (রাঃ)

হযরত আবু সালমা বিন আব্দুল আসাদ (রাঃ)

হযরত শাম্মাস বিন উসমান (রাঃ)

হযরত আকরাম বিন আবুল আকরাম (রাঃ)

হযরত আম্মার বিন ইয়াছির (রাঃ)

হযরত আবু সিনান (রাঃ)

হযরত সিনান বিন আবু সিনান (রাঃ)

হযরত মুহরিয বিন নাজলা (রাঃ)

হযরত রবীআ বিন আক্সাম (রাঃ)

নবীদের নামের তালিকা ও পরিচয়

১। হযরত আইয়ূব (আঃ) - হযরত আইয়ূব (আঃ) ছিলেন আল্লাহর একজন নবী যিনি কঠোরতা এবং কষ্টের মধ্যে ধৈর্য্যে ধারণের জন্য পরিচিত।

২। হযরত ইব্রাহিম (আঃ) – হযরত ইব্রাহিম (আঃ) মুসলিমদের জাতির পিতা, দয়ালু পিতা।

৩। হযরত লুত (আঃ) - হযরত লুত (আঃ) একজন নবী, তিনি হজরত ইব্রাহিম (আঃ) এর সাথে সম্পর্কিত ছিলেন এবং তাকে সদোমে পাঠানো হয়েছিল।

৪। মোস্তফা – নির্বাচিত, পছন্দের, আমাদের নবী (সাঃ) এর একটি নাম।

৫। মোহাম্মদ – প্রশংসিত, প্রশংসনীয়, চূড়ান্ত নবীর নাম (সাঃ)।

৬। ইলিয়াস – মৃদু, সদয়, মনোরম, বন্ধুত্বপূর্ণ। 

৭। ইসমাইল - সংরক্ষণ, অসম্পূর্ণতা, 9 শতকের একজন পণ্ডিত, ইবনে হাম্মাদ এই নামটি রেখেছিলেন।

৮। মুসা – একজন নবীর নাম।

৯। নূহ – একজন নবীর নাম।

শেষ কথা – নবীদের নামের তালিকা অর্থসহ

নবী-রাসূলগণ ছিলেন আল্লাহ তায়ালার মনোনীত এবং এই দুনিয়ার জন্যে রহমত স্বরূপ। তাই আমাদের সকলের নবী রাসুলদের জীবনী সম্বন্ধে জানা উচিত এবং নবী-রাসূলগণের জীবনধারা আমাদের জীবনে প্রয়োগ করা উচিত। তবেই এই সমাজে শান্তি-শৃঙ্খলা বৃদ্ধি পাবে এবং আমরা দুনিয়া ও আখিরাতে সফলতা লাভ করবো।

প্রতিটা মুসলমানের উচিত নবীদের জীবনি পড়া ও তাদের জীবনের উপদেশ গুলো মেনে চলা। জীবনকে সুখি ও আল্লাহর নৈকট্য লাভের সবচেয়ে বড় উপায় হলো পূর্ববর্তী নবীদের জীবনী সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করা। নবীদের নামের তালিকা অর্থসহ আর্টিকেলটি পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

আজকের এই লেখার বিষয় ছিল নবীদের নামের তালিকা অর্থসহ। এখানে উল্লেখ করা যে সকল নবী রাসূলগণের নাম সচরাচর জানা যায় মূলত সকল নবী রাসুলদের নামের তালিকা অর্থসহ দেওয়া হয়েছে।

পৃথিবীতে অনেক নবী-রাসূল আসছেন তাদের সম্পর্কে আমরা তেমন কিছু জানি না তাই তাদের নাম এখানে দেয়া সম্ভব হয়নি। যদি আপনি নবীদের নামের তালিকা অর্থসহ অথবা নবী-রাসূলদের সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চান তবে আপনি বিভিন্ন ইসলামিক বিষয়ের উপর বই কিনে পড়তে পারেন। আর বইগুলো ক্রয় করার ক্ষেত্রে অবশ্যই খেয়াল রাখবেন আপনি কোন লেখকের বই ক্রয় করছেন।

ব্লগ ক্যাটাগরি:

এখানে আপনার মতামত জানান

0মন্তব্যসমূহ

আপনার মন্তব্য লিখুন (0)

#buttons=(ঠিক আছে, ধন্যবাদ) #days=(20)

টেকনিক্যাল কেয়ার বিডি তে আপনাকে স্বাগতম. ❤️
Ok, Go it!