অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম

অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম- প্রিয় পাঠক আজকের এই পোস্টে আমরা অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে আলোচনা করব। আশা করি আপনি অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম জানার জন্য আমাদের এই পোষ্ট ওপেন করেছেন। তাহলে সঠিক জায়গায় এসেছেন আজকের এই পোস্টে আমরা অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে আপনাদের জানাবো।

অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম

সূচিপত্রঃ অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম

আপনি যদি অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে জানতে চান তাহলে সম্পূর্ণ পোস্ট জুড়ে আমাদের সঙ্গে থাকুন। তাহলে চলুন দেরী না করে অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে জেনে নেই।

ভূমিকাঃ অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম

এখনকার যুগে আমরা সবাই টাকা যেন সাবধানে থাকে সেই জন্য সে গুলোকে জমা করে ব্যাংকে রাখি। অনেক সময় ব্যাংক থেকে আমাদের টাকা উঠানোর প্রয়োজন হয় তখন আমরা চেক এর সাহায্যে টাকা উত্তোলন করে থাকি। কিন্তু আমাদের মধ্যে অনেকেই আছে যারা অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে জানেনা।

আরো পড়ুনঃ ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

আজকের আর্টিকেলটি তাদের উদ্দেশ্যে। যারা অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে জানতে চাই। তাহলে চলুন অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে আলোচনা শুরু করা যাক।

চেক কাকে বলে

প্রিয় পাঠক এই পোস্টে আমরা অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে আলোচনা করছি। আপনি আমাদের এই পোস্ট করছেন তার মানে আপনি অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে জানেন না। তাহলে সঠিক জায়গায় এসেছেন আজকে আমরা অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করব। তার আগে অবশ্যই আপনাকে চেক কাকে বলে এর সম্পর্কে জানতে হবে।

শেখ হলো এক ধরনের হস্তান্তরযোগ্য ঋণের দলিল। ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলনের জন্য অথবা ব্যাংকের মাধ্যমে কাউকে টাকা প্রদানের জন্য আমানত কারি শেখের ব্যবহার করে থাকে। মূলত এক ধরনের আর্থিক নীতি বা ডকুমেন্ট। যেখানে কোন ধরনের ক্যাশ টাকা অস্তিত্ব থাকে না।

আজকের এই পোস্টে আমরা অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে আলোচনা করছি। আপনারা যারা অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে জানেন না তারা আমাদের এই পোস্ট সম্পূর্ণ শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়ুন। তাহলে আপনি অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জানতে পারবেন। তাহলে চলুন মূল আলোচনা শুরু করা যাক।

অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম

বন্ধুরা আপনারা ইতিমধ্যে চেক কাকে বলে এ সম্পর্কে জেনেছেন। এখন আমরা আমাদের আলোচনার মূল বিষয় অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে আলোচনা করব। আপনারা মনোযোগ সহকারে সম্পন্ন পোস্ট দেখলে অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জানতে পারবেন। তাহলে চলুন অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে জেনে নিন

সাধারণত যারা নতুন তারা অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার ক্ষেত্রে ভুল করে থাকে। তাদের জন্য আজকের এই পোস্ট খুবই উপকারী হবে যদি তারা সম্পুর্ন পোস্ট মনোযোগ সহকারে পড়ে তাহলে অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জানতে পারবে। এতে করে অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার সময় আর কোনো ধরনের ভুল হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে না।

অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম- ধাপ ১

অগ্রণী ব্যাংক চেকের ওপরে বাম পাশে দেখবেন তারিখ লেখা আছে। এখানে আপনি যেদিন এর টাকা উত্তোলন করবেন সেই দিনের তারিখ দিতে হবে। মনে করেন আপনি আগামীকাল টাকা উত্তোলন করবেন কিন্তু আজকে চেক পূরণ করছেন এবং তারিখের জায়গায় আছে চেক দিয়েছেন তাহলে তারিখ গ্রহণযোগ্য হবে না। আপনাকে আপনি যেদিন টাকা উত্তোলন করবেন সেই দিনের তারিখ দিতে হবে।

অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম- ধাপ ২

তারপরে দেখবেন প্রদান করুন নামে একটি ফাঁকা জায়গায় রয়েছে। এখানে কি লিখতে হবে এটা অনেকেই বুঝতে পারেনা। ভালোমতো জেনে রাখুন প্রদান করুন এখানে আপনাকে বসাতে হবে যে আপনার টাকা তুলতে যাবে তার নাম। অর্থাৎ যদি আপনি ব্যাংকে গিয়ে টাকা তুলতে চান তাহলে এখানে নিজ বসাতে হবে। যদি আপনার আত্মীয়-স্বজন ছেলে মেয়ে কেউ টাকা তুলতে যায় তাহলে তাদের নাম বসাতে হবে।

অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম- ধাপ ৩

এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ এখানে আপনাকে খুবই সতর্কতার সাথে পূরণ করতে হবে। কারণ অনেকেই এই অংশটা ভুল করে থাকে। এই অংশে দেখবেন টাকা লিখা আছে। ওই টাকা লেখা অংশে আপনি কত টাকা উত্তোলন করতে চান সেটি বসাতে হবে। কিন্তু আপনি এটা মনে রাখেন যে এখানে কোনো রকম সংখ্যা বসানো যাবে না।

মনে করেন আপনি  এিশ হাজার টাকা উত্তোলন করতে চান। এক্ষেত্রে আপনাকে এখানে লিখতে হবে" এিশ হাজার টাকা মাত্র"।

আরো পড়ুনঃ বিনা জামানতে ঋণ দেয় কোন ব্যাংক

অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম- ধাপ ৪

এরপর আপনি দেখতে পাবেন টাকা লিখার আরো একটি বক্স রয়েছে। যেটা সুন্দর করে একটি বক্স তৈরি করা হয়েছে। উপরে আপনি ইতিমধ্যে বানান করে আপনার টাকার পরিমান লিখেছেন এখন আপনাকে সংখ্যায় আপনার টাকার পরিমাণ লিখতে হবে যেমন- ৩০০০০/-

অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম- ধাপ ৫

এরপর পাশে দেখবেন যে হিসাব ধারণকারীর স্বাক্ষর নামে একটি জায়গা আছে। যদি আপনার নামে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থাকে তাহলে আপনাকে হিসাবধারী বলা হয়। সে ক্ষেত্রে আপনাকে ঐখানে একটা স্বাক্ষর করে দিতে হবে। এক্ষেত্রে আপনাকে অ্যাকাউন্ট খোলার সময় যে স্বাক্ষর করেছিলেন ওইভাবে করতে হবে।

অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম- ধাপ ৬

এরপরে আপনাকে কিছু অতিরিক্ত স্বাক্ষর দিতে হবে যা আপনার চেক এর পেছনে দিতে হবে। সবকিছু মিলিয়ে মোট তিনটি স্বাক্ষর প্রদান করতে হবে। এরপরেও যদি আপনার কোন সমস্যা থাকে তাহলে ব্যাংকের কর্মকর্তাদের কাছ থেকে আপনি সাহায্য নিতে পারেন। তারা আপনাকে এক্ষেত্রে সাহায্য করতে পারে।

শেষ কথাঃ অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম

প্রিয় পাঠক আপনারা যারা অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে জানতে চেয়েছিলেন তাদের জন্য উপরে এ সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হয়েছে। আপনার যদি চেক সম্পর্কে কোন ধারনা থাকে তাহলে আমাদের এই পোস্টটি সম্পূর্ণ মনোযোগ সহকারে পড়ুন। তাহলে আপনি অগ্রণী ব্যাংক চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে জানতে পারবেন তার সাথে সকল ধরনের চেক লেখার নিয়ম সম্পর্কে একটা ধারণা পাবেন।

আরো পড়ুনঃ বিদেশে যাওয়ার জন্য কোন ব্যাংক লোন দেয়

আশাকরি আমাদের এই পোস্ট থেকে আপনি উপকৃত হয়েছেন। এরকম পোষ্ট পড়তে আমাদের ওয়েবসাইটের সঙ্গে থাকুন। নিয়মিত আপনাদের সাথে এরকম পোস্ট শেয়ার করা হবে।

পোষ্ট ক্যাটাগরি: