Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2022/04/how-to-earn-money-monthly-1-lakh.html

মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায়

মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায় — ছাত্র অবস্থায় প্রতি মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করা খুব কঠিন কিছু না। কোথায় কাজ করবেন? কিভাবে কাজ করবেন? ইত্যাদি বিষয় গুলো সম্পর্কে ভালো ধারণা থাকলে আপনি মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করতে পারবেন সহজেই। বেশিরভাগ মানুষ জানিনা যে, মাসে ২০ হাজার টাকা কিভাবে আয় করবো। আজকের পোষ্টে মাসের ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা দিব। 

মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায়

আরো পড়ুনঃ মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করার উপায়

পেজ সূচীপত্রঃ মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায়

মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায়

মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার জন্য অসংখ্য উপায় রয়েছে। বিশেষ করে অনলাইন ও অফলাইন ২ স্থানেই কাজ করে মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করা খুব কঠিন কিছু না। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করা একটু কঠিন। তবে আপনি চাইলে অনলাইনে কাজ করে বেশী ও ইনকাম করতে পারবেন। 

তার জন্য দরকার আপনার সঠিক ধারণা। আয় করার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে না বুঝতে পারলে আয় করা সম্ভব নয়। মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায় পোষ্টে আপনাদের সুবিধার্থে নিচে কিছু উল্লেখযোগ্য কাজের বর্ণনা দিলাম। এই কাজ গুলো করার মাধ্যমে মাসে আপনারা ২০ হাজার টাকা আয় করতে পারবেন।

১। ফ্রিল্যান্সিং করে মাসে ২০ হাজার আয় করুন

ফ্রিল্যান্সিংকে বলা হয় একটি মুক্ত পেশা। যেকোনো বয়সের, যেকোনো প্রফেশনের পাশাপাশি ফ্রিল্যান্সিং করা যায়। ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিং এর কোনো বিকল্প পথ নেই। অনেকেই হয়ত ভাবছেন, ফ্রিল্যান্সিং শুরু করবো কিন্তু আমার তো ভালো দক্ষতা নেই !

ফ্রিল্যান্সিং এ ঢুকে আপনি চাইলে ব্যাসিক পর্যায়ের কাজ গুলো সম্পন্ন করতে পারেন। আপনি যে কোনো কাজের উপর কিছুটা হলেও দক্ষ। কাজ গুলোর প্রতি ফোকাস করুন ও অন্য ফ্রিল্যান্সারদের সাথে কাজ করে দিন। এর ফলে আপনি একটি পার্সেন্টেজ পাবেন। ব্যাসিক পর্যায়ের কাজ করে মাসে ২০ হাজার টাকা আপনি খুব সহজেই আয় করতে পারবেন। মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার জন্য অধিকাংশ মানুষ ফ্রিল্যান্সিংকে বেছে নিতে পছন্দ করে।

আরো পড়ুনঃ মেয়েদের জন্য বিজনেস আইডিয়া

২। আর্টিকেল রাইটিং করে মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করুন

ঘরে বসে অধিক দক্ষতা ছাড়া আয় করার একমাত্র মাধ্যম আর্টিকেল রাইটিং। আমরা বিভিন্ন সাইটে বিভিন্ন ধরণের আর্টিকেল পড়ি। আপনি বর্তমানে যে পোষ্টটি পড়ছেন এটাকে আর্টিকেল বলা হয়। ওয়েব সাইট এর পরিমাণ বৃদ্ধি পাওয়ার পাশাপাশি আর্টিকেল এর পরিমাণ ও বৃদ্ধি পায়।

একটা ওয়েবসাইটের এডমিন কখনো হাজার হাজার আর্টিকেল লিখতে পারে না। সবসময় তারা কিছু মানুষকে বাছাই করে রাখে যারা আর্টিকেল গুলো লিখে দেয়। আর্টিকেল লিখতে পারলে আপনি মাসে ২০ হাজার খুব সহজেই আয় করতে পারবেন। আপনি ইংরেজি ভাষায় দক্ষ হলে এর চেয়েও বেশী ইনকাম করা সম্ভব। 

কোথায় আর্টিকেল লিখবেন? আর্টিকেল লিখে আয় করার জন্য প্রচুর সাইট, ফেসবুক গ্রুপ, ফেসবুক পেজ রয়েছে। যেমন, অর্ডিনারী আইটিতে আপনি আর্টিকেল রাইটিং এর চাকরির সুযোগ পাবেন। এখানে মাসে ১৫-২০ হাজার টাকা আয় করতে পারবেন। জে আইটি আর্নিং প্রগ্রাম সাইটে প্রতি আর্টিকেলে পাবলিশ এর পর ১০-১০০ টাকা পাবেন এবং প্রতি ১ হাজার ইউনিক ভিউতে ৭০০-১০০০ হাজার টাকা। 

এরকম অসংখ্য সাইট রয়েছে। যেকোনো সাইটে ভিজিট করার পর সাইট এডমিন এর সাথে কথা বলে আপনি তার জন্য আর্টিকেল সার্ভিস দিতে পারবেন। আর্টিকেলের মূল্য অনেক বেশী। একটা ইংরেজি আর্টিকেল হাজার শব্দে ৫০০-৬০০ টাকায় বিক্রি করা যায়। আপনি মাসে ৩০ টা আর্টিকেল লিখলে প্রতি মাসে ২০ হাজার টাকা খুব সহজেই আয় করতে পারবেন।

৩। অফলাইনে টিউশনি করে মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করুন

টিউশনি ছাত্র-ছাত্রীদের সবচেয়ে পছন্দের একটি বিষয়। জ্ঞান এর পরিধি বাড়াতে টিউশনির বিকল্প নেই। পাশাপাশি টিউশনি একটি সম্মানের পেশা। আপনি ভালো করে পড়াতে পারলে আপনার সুনাম ছড়িয়ে পরবে সবখানে। আপনার যে প্রতিষ্ঠানে অধ্যায়ন করে উক্ত প্রতিষ্ঠান নাম করা না হলেও আপনি টিউশনি পাবেন যদি ভালো পড়াতে পারেন। শহরে প্রতি টিউশনে ৫-৭ হাজার টাকায় পাওয়া যায়। এরুপ ৫ টা টিউশনি এর মাধ্যমে আপনি মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করতে পারবেন। 

গ্রাম পর্যায়ে প্রতি টিউশনে ৫০০ টাকা দেয়া হয়। আপনি গ্রামে ব্যাচ করে এক ব্যাচে ৩০-৪০ জনকেও পড়াতে পারবেন। টাকার পরিমাণ কম হলেও একসাথে অনেক কে পড়ানোর সুযোগ পাবেন। এভাবে শহড় কিংবা গ্রাম টিউশনি করাতে পারলে মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করা সহজ। 

আরো পড়ুনঃ টাকা ইনকাম করার সহজ উপায় বাংলাদেশে

৪। অনলাইন ক্লাস নিয়ে মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করুন

পড়ানো যে শুধু অফলাইনে সম্ভব এই ধারণা ভূল প্রমান হয়েছে করোনা কালীন সময়ে। বর্তমানে লক্ষ লক্ষ ছাত্র ছাত্রি তার প্রিয় শিক্ষকের কাছে পড়াশোনা করে। আমার বাস্তব অভিজ্ঞতা থেকে বলছি, আমাদের আশেপাশে আমার ডিপার্টমেন্ট এর কোনো শিক্ষক নেই। দূরে থাকলেও অধিক খরচের কারনে অনলাইনে কোনো এক বড় ভাইয়ের কাছে ২ বছর ধরি রেগুলার পড়ছি। আমাদের ব্যাচে প্রায় ৪০ জন পড়ে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে। 

এরকম তার ৩/৪ টি ব্যাচ রয়েছে মাসে প্রায় ১ লাখ টাকার মত ইনকাম করে শুধু অনলাইনে প্রাইভেট পড়িয়ে। আপনি যদি আশেপাশে কোনো ছাত্র ছাত্রি না পান। সেক্ষেত্রে সোশ্যাল মিডিয়া সাইট ফেসবুক ব্যাবহার করে। বিভিন্ন ডিপার্টমেন্ট এর গ্রুপে পোষ্ট করতে পারেন।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীদের অধিক যত্ন কখনো প্রতিষ্ঠান নেয় না। এজন্য দরকার হয় বিভিন্ন ভাবে প্রাইভেট পড়ার। আপনি এভাবে কিছু ছাত্র ছাত্রী পেয়ে গেলে আসতে আসতে দেখবেন অনেক পেয়ে যাবেন। ব্যাপারটা অফলাইন টিউশনির মতই কাজ করে। আপনি ভালো পড়াতে পারলে এমনিতেই ছাত্র ছাত্রী পেয়ে যাবেন। এই উপায়ের মাধ্যমে মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করতে পারবেন।

৪। ক্রয় - বিক্র‍য় করে মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করুন

অনলাইনে অথবা অফলাইনে ক্রয় - বিক্রয়ের ব্যাবসায় অনেক বেশী লাভ হয়। আপনি যে কোনো পণ্য কে ১০০ টাকায় ক্রয় করলেন উক্ত পন্য আবার ২০০ টাকায় বিক্রি করে দিলেন। এই ব্যাবসা বর্তমানে অনলাইনে অনেক বেশী জনপ্রিয়। আপনি চাইলে ক্রয় - বিক্রয় করে মাসে ২০ হাজার টাকা সহজেই আয় করতে পারবেন।

শেষ কথা

মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায় পোষ্টে ৫ টি উপায় সম্পর্কে আপনাদের ধারণা দিলাম। এই পন্থাগুলো অবলম্বন করে মাসে শুধু ২০ হাজার নয় লাখ টাকা আয় করাও সম্ভব। ব্যাপারটা হচ্ছে আপনি কতটা শ্রম দিতে পারছেন সেটার উপর নির্ভর করে।

আরো পড়ুনঃ

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?