Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2022/02/visa-check-korbo-kivabe.html

ভিসা চেক করার নিয়ম

ভিসা চেক করার নিয়ম — বাংলাদেশ থেকে বাইরের দেশগুলোতে জনশক্তি রপ্তানির মাধ্যমে অনেক বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করা হচ্ছে। বর্তমানে বিভিন্ন দেশে কর্মী হিসেবে কাজ করার জন্য ওয়ার্ক পারমিট ভিসার অনেক বেশি সংখ্যক চাহিদা রয়েছে আমাদের দেশে। এতে অনেক বেকার লোকেরা বিভিন্ন দেশের বিভিন্ন ধরনের কাজ করার মাধ্যমে নিজেরা স্বাবলম্বী হচ্ছে এবং দেশের জন্য বিদেশি মুদ্রা অর্জন করতে সফল হচ্ছে। 

ভিসা চেক করার নিয়ম

বাংলাদেশ জনশক্তি রপ্তানি করে বিভিন্ন দেশে নিজেদের পরিচয় ফুটিয়ে তুলছে ও কঠোর পরিশ্রম করে নিজেদের অবস্থান আরও শক্ত করছে। এছাড়া বিভিন্ন দেশে ভ্রমণ, চিকিৎসা নেয়ার জন্য অথবা ডিগ্রি ও পিএইচডি করার জন্য ভিসা খুব প্রয়োজনীয়। ভিসা হচ্ছে অন্য দেশে বৈধভাবে থাকা, খাওয়া, কাজ করা ও সকল সুবিধা ভোগ করার পারমিট। 

ভিসার বৈধতা না থাকলে এ সকল সুযোগ সুবিধা অবৈধ রূপে গণ্য হবে এর জন্য নগদ ও জেল জরিমানা হতে পারে। অন্যান্য দেশে যাতায়াতের জন্য অবশ্যই ভিসা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ভিসা ছাড়া সেখানে অবস্থান করা অবৈধ। প্রিয় পাঠক চলুন তাহলে জেনে ভিসা চেক করার নিয়ম সম্পর্কেঃ

আরো পড়ুনঃ গ্রামে লাভজনক ব্যবসা - গ্রামে বিজনেস আইডিয়া

ভিসা কি

ভিসা হচ্ছে এক ধরনের ট্রাভেল পারমিট। পাসপোর্টের পাতায় স্টিকার বা লেখার মাধ্যমে ভিসা অনুমতি দেয়া হয়ে থাকে। ভিসা হচ্ছে এক দেশ থেকে অন্য দেশে যাতায়াত এর জন্য কিছু বৈধ প্রমাণপত্র। ভিসা বিভিন্ন মেয়াদের ও বিভিন্ন ধরনের হয়ে থাকে। যাতায়াতের কারণের উপর নির্ভর করে এর মেয়াদ কতদিন পর্যন্ত স্থায়ী হবে এবং কোন ক্যাটাগরির আওতাভুক্ত হবে। 

ভিসা অনেক ধরনের হয়ে থাকে যেমনঃ ট্রানজিট ভিসা, ট্রাভেল ভিসা, মেডিকেল ভিসা, স্টুডেন্ট ভিসা, ওয়ার্ক পারমিট ভিসা, ধর্মীয় কর্মী ভিসা, গৃহকর্মীর ভিসা, ব্যাবসায়িক ভিসা, সাংবাদিক ভিসা, কূটনৈতিক ভিসা, অ্যারাইভাল ভিসা ইত্যাদি। এছাড়া বিভিন্ন দেশ ভেদে ভিসার নিয়ম ও খরচ ভিন্ন ধরনের হয়ে থাকে। 

আবার কোনো কোনো দেশে প্রবেশের জন্য ভিসার প্রয়োজন ও পড়েনা, এটা সে দেশের সরকার কর্তৃক নির্ধারিত থাকে যে তারা কোন দেশের নাগরিকদের ভিসা ছাড়া প্রবেশের অগ্রাধিকার দিবেন। বাংলাদেশের নাগরিকদের জন্য ৪১ টি দেশে যাতায়াতের জন্য ভিসা আবেদনের দরকার হবেনা। বিভিন্ন দেশের দূতাবাসের মাধ্যমে ভিসা আবেদন করা হয়। সেই দেশে গুলোর দূতাবাসের কনসুল্যার শাখা থেকে ভিসা আবেদনে মঞ্জুর করা হয়ে থাকে।

মালয়েশিয়ান ভিসা চেক করার নিয়ম

ইমিগ্রেশন ডিপার্টমেন্ট অফ মালয়েশিয়া লিখে সার্চ করে মালয়েশিয়ান গভমেন্টের ওয়েবসাইটে যেতে হবে। মালয়েসিয়ান ভিসা চেক করার ওয়েবসাইট এখানে ক্লিক করে ভিজিট করুন। এরপর এখানে দুইভাবে ভিসা চেক করা যাবে ইমপ্লয়ার আইডি কার্ড নাম্বার দিয়ে এবং কোম্পানি রেজিস্ট্রেশন নাম্বার দিয়ে। এরপর কোম্পানি রেজিস্ট্রেশন নাম্বার লেখা স্থানে কোম্পানি রেজিস্ট্রেশন নাম্বার দিয়ে সার্চ বাটনে ক্লিক করতে হবে। 

এই কোম্পানি থেকে যতগুলো ভিসা তৈরি করা হয়েছে তার সব লিস্ট এখানে দেখা যাবে। এমপ্লয় নেম বা মেইড নেম থেকে ভিসা আবেদনকারীর নাম খুঁজে বের করার পর স্ট্যাটাস অপশন দেখতে হবে। স্ট্যাটাস অপশনে যদি প্রিন্ট লেখা থাকে তাহলে বুঝতে হবে ভিসা আবেদনটি সম্পন্ন হয়ে গেছে এবং ভিসা সংগ্রহ করা যাবে।

আরো পড়ুনঃ টিন সার্টিফিকেট কি - টিন সার্টিফিকেট কিভাবে করবো

সৌদি আরবের ভিসা চেক করার নিয়ম

সৌদি অনলাইন ভিসা ওয়েবসাইট লিংক এখানে ক্লিক করে ভিজিট করুন। এই লিঙ্কে ক্লিক করে ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পর পেজে দুটি অপশন পাওয়া যাবে ইন্ডিভিজুয়াল এবং সেক্টর এন্ড অরগানাইজেশন। ইন্ডিভিজুয়াল অপশনটিতে ক্লিক করতে হবে। এছাড়া স্ক্রিনে যদি পপ আপ দেখা যায় তবে তা কেটে দিতে হবে। ইন্ডিভিজুয়াল পেইজে ফাইন্ড অ্যাপ্লিকেশন ডাটাতে ক্লিক করতে হবে। 

এই পেইজে আসার পর পেজের উপরের দিকে ভিসা সার্ভিস প্ল্যাটফর্ম লেখা দেখা যাবে এবং নিচের ফাইন্ড অ্যাপ্লিকেশন ডেটা নামে ফরম পাওয়া যাবে। এই ফরমে পাসপোর্ট নাম্বার, জাতীয়তা, ভিসা ইস্যুইং অথরিটি এবং পাশে থাকা ইমেজ কোড সঠিকভাবে বসিয়ে সার্চ অপশনে ক্লিক করতে হবে। সবকিছু ঠিকমতো থাকলে ভিসার সকল তথ্য স্ক্রিনে দেখা যাবে। আর ভিসাতে যদি স্পন্সরের নাম না পাওয়া যায় তাহলে বুঝতে হবে ভিসা আবেদন এখনো সম্পন্ন হয়নি।

দুবাই ভিসা চেক করার নিয়ম

দুবাই ভিসা ওয়েবসাইট লিংক এখানে ক্লিক করে ভিজিট করুন। এই লিংকে ক্লিক করলে পরে দেখা যাবে দুটো অপশন দেয়া আছে, সার্চ বাই এবং সিলেক্ট দা টাইপ। সার্চ বাই থেকে পাসপোর্ট ইনফর্মেশন ও সিলেক্ট দা টাইপ থেকে ভিসা সিলেক্ট করতে হবে। এবার পাসপোর্ট নাম্বারের জায়গায় পাসপোর্ট নাম্বার দিতে হবে, পাসপোর্ট এক্সপায়ারি ডেটের জায়গায় পাসপোর্টের মেয়াদ উত্তীর্ণের তারিখ দিতে হবে, ন্যাশনালিটি দেওয়ার পর I am not a robot ক্যাপচা দিতে হবে। এরপর সার্চ বাটনে ক্লিক করে ভিসা তথ্য ঠিক থাকলে সব বৃত্তান্ত স্ক্রিনে দেখা যাবে। যদি প্রয়োজন পড়ে তাহলে এটির পিডিএফ প্রিন্ট করে নেয়া যাবে।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?