Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2022/02/eid-ul-fitr-2022-bangladesh.html

২০২২ সালের রোজার ঈদ কত তারিখে

২০২২ সালের রোজার ঈদ কত তারিখে — আপনি যদি বাংলাদেশে ২০২২ সালের রোজার ঈদ কত তারিখে হবে সেটা সম্পর্কে জানতে চান? তাহলে আমাদের আজকের এই আর্টিকেলটি আপনার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কেননা আমাদের এই আর্টিকেলটি পড়ার মাধ্যমে আপনি ২০২২ সালে ঈদুল ফিতর কত তারিখে হবে সেটা জানতে পারবেন। আমরা আমাদের এই টেকনিক্যাল কেয়ার বিডি ওয়েবসাইটে প্রতিবছর কোনো স্পেশাল ডে-এর সম্ভাব্য তারিখ প্রকাশিত করে থাকি। আমাদের দেশ হচ্ছে মুসলিম কান্ট্রি, এদেশের বেশিরভাগ মানুষই ইসলাম ধর্মের। মুসলিমদের প্রধান ২টি উৎসব হলো ঈদুল ফিতর এবং ঈদুল আজহা।

২০২২ সালের রোজার ঈদ কত তারিখে

২০২২ সালের রোজার ঈদ কত তারিখে

রমজান মাসের শেষে শুরু হয় শাওয়াল মাস এবং শাওয়াল মাসের ১ তারিখ পবিত্র ঈদুল ফিতর অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। সাধারণত চাঁদ দেখার উপরে নির্ভর করেই ঠিক করা হয়ে থাকে ঈদ কবে অনুষ্ঠিত হবে। অনেকবার ৩০ টি রোজা রাখার সুযোগ পায় ধর্মপ্রাণ মুসলমানগণ অথবা কোনোবার ২৯ টি রোজা রাখার শেষে শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখতে পাওয়া যায়।

প্রতিবছরই ঈদ কবে অনুষ্ঠিত হবে সেটা জানার জন্য ভোগান্তিতে ভুগতে হয়, চাঁদ দেখা কমিটির উপরে নির্ভর করে থাকে পুরো বাংলাদেশের মানুষ। চাঁদ দেখা কমিটি তাদের দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করতে পারেনা যেটার প্রমাণ আমরা গত ২ বছর পুর্বে তাকালেই দেখতে পারবো।

আরো পড়ুনঃ শবে বরাতের নামাজের নিয়ম

২০২২ সালের রোজার ঈদ কত তারিখে

বাংলাদেশের চাঁদ দেখা কমিটি একেকবার একেক রকম ঘোষণা প্রদান করে থাকে, রাত ৮টার সময় বলে আগামীকাল ঈদ আবার ১২ টার সময় বলে পরশু ঈদ। তাই চাঁদ দেখা কমিটির উপরে নির্ভর করে থাকাটা বোকামি, চাঁদ দেখা কমিটির উপরে নির্ভর না করে থেকে এখন থেকে আপনি নিজেই চাঁদ দেখুন। 

চাঁদ দেখা হচ্ছে আমাদের প্রিয় নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সুন্নাত। সাধারণত মক্কায় ঈদ উদযাপনের পরের দিনই আমাদের দেশে ঈদ পালন করা হয়। ২০২২ সালের ক্যালেন্ডার অনুযায়ী ২ মে মক্কাতে ঈদ পালিত হবে। সুতরাং বলা যায় আগামী ৩রা মে ২০২২ তারিখে আমাদের দেশে ঈদুল ফিতর পালিত হবে।

ঈদুল ফিতর কত তারিখে ২০২২

ঈদুল ফিতর যদিওবা সম্পূর্ণ চাঁদ দেখার উপরে নির্ভর করে তবুও সম্ভাব্য তারিখ অনুযায়ী আগামী ৩রা মে ২০২২ সালে পালিত হতে যাচ্ছে ঈদুল ফিতর। ঈদের দিনে ধনী, গরিব সবার কাছে উৎসবের দিন। সকলেই এই দিন ঈদ উৎসবে মেতে থাকে, নতুন নতুন জামা-কাপড় পরে বাচ্চাদের ঈদগাহে দেখা যায়। চারদিকে উৎসবের আমেজ লেগে যায়, সকলের ঘরে ঘরে সেমাই রান্না করা হয়। মুসলিমরা সকালে জামায়াতে ঈদের নামাজ আদায় করে থাকেন

আরো পড়ুনঃ বাংলাদেশের সেরা মসজিদ

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?