Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2021/09/The-benefits-of-dates-in-skin-care.html

ত্বক রূপচর্চায় খেজুরের উপকারিতা | ত্বকের যত্নে খেজুরের উপকারিতা

ত্বক রূপচর্চায় খেজুরের এর উপকারিতা | ত্বকের যত্নে খেজুরের উপকারিতা — আমাদের প্রতিদিন অন্তত দিনে ২ বার করে খেজুর খাওয়া উচিত। এতে করে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি, ওজন নিয়ন্ত্রণ, মস্তিষ্কের সুস্থতা রাখার চেয়েও এটা আরো অনেক কাজ করে। খেজুরে আরো অনেক স্বাস্থ্যসম্মত গুণ রয়েছে। এতে আছে ভিটামিন আর আয়রন যা ত্বক এবং চুল বিভিন্ন ক্ষেত্রে দাগ দূর করে থাকে। ত্বকের সমস্যা সমাধানের জন্য এটি একটা ভালো উপাদান। খেজুরে রয়েছে প্রচুর পরিমানে কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিনের সঙ্গে রয়েছে ৩ ধরণের এন্টি-অক্সিডেন্ট। 

ত্বকের যত্নে খেজুরের উপকারিতা

সেগুলা হচ্ছে ফ্ল্যাভোনয়েডস, ক্যারোটেনয়েডস ও ফেনলিক অ্যাসিড। এগুলা সব ত্বকের জন্য কার্যকরী। এটি প্রাকৃতিক ভাবে স্কিনকে ব্রাইটেনিং করতে সাহায্য করে। এই আন্টি-অক্সিডেন্ট উপাদান হিসেবে কাজ করে স্কিনে। ত্বকের বুড়িয়ে যাওয়ার রোধে অনেক ফলদায়ক। খেজুরে থাকা ফাইটোহরমোন এটি ত্বকের বলিরেখা দূর করে। খেজুর ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পাশাপাশি বড় রকমের সমস্যা সারিয়ে তুলতে সাহায্য করে। এটি প্রোটিন এন্টিঅক্সিডেন্ট ব্রণের ইনফেকশন প্রতিরোধ করে। 

আরও পড়ুনঃ হজম শক্তি বৃদ্ধির উপায়

খেজুরের বীজ থেকে তৈরী তেল ত্বক এবং চুল এর উপকার করে। এটি ভালো কাজ করে স্কিনে। এটি ত্বকের নিমিষেই যেকোনো অক্সিডেটিভ স্ট্রেস ড্যামেজ সারিয়ে তুলতে পারে। মশ্চরাইজার, এন্টি এজিং ক্রিম, মাস্ক, ফেসওয়াশ, সিরাম সব কিছুতেই এখন খেজুরের এক্সট্র্যাক্ট ব্যবহার করা হচ্ছে। কিন্তু আমাদের দেশে খেজুরের কোনো স্কিন কেয়ার প্রোডাক্ট পাওয়া যায় না,যদিও পাওয়া যায় তাও খুব দাম বেশি। কিন্তু খেজুর পাওয়া যায় সারা বছরএই। তাই ঘরুয়া ভাবে খেজুর দিয়ে স্কিন এর রূপচর্চা করা যায়। তো চলুন জেনে নেই ত্বক রূপচর্চায় খেজুরের এর উপকারিতা সম্পর্কেঃ 

ত্বকের নমনীয়তা বাড়াতে খেজুর - খেজুরে আছে ভিটামিন-সি যা ত্বকের নমনীয়তা বাড়াতে সাহায্য করে। কয়েকটা খেজুর ব্লেন্ড করে এক চামচ হলুদের গুঁড়া, চন্দন গুঁড়া, সামান্য দুধ মিশিয়ে পেস্ট করে নিন। এটি ত্বকে লাগিয়ে কিছুক্ষণ রেখে পানি দিয়ে মুখ দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

ত্বক ফাটা দাগ দূর করতে - এলোভেরা জেলের সঙ্গে খেজুর মিশিয়ে পেস্ট করে মুখে লাগিয়ে নিন। এটা ত্বকের ফাটা দাগ দূর করতে সাহায্য করবে।

চুল ঘন করতে - চুল ঘন করতে খেজুর তেল নিয়মিত ব্যবহার করতে হবে।

একনির ট্রিটমেন্ট - পাঁচটি খেজুর পেস্ট করে সাথে এক টেবিল চামচ কমলা, এক টেবিল চামচ লেবুর রস মিশিয়ে স্কিনে লাগিয়ে রাখুন এটি ব্রণের মাস্ক হিসেবে কাজ করে।

ক্লিনজার - প্রাকৃতিক ক্লিনজার হিসেবে খেজুর ব্যবহার করা যাবে। পাঁচটি খেজুর পেস্ট করে সাথে এক টেবিল চামচ টক দই মিশিয়ে মাসাজ করুন ২ মিনিট মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে রাখুন ১০ মিনিট। এরপর মুখ পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

মশ্চরাইজিং মাস্ক - ত্বকের আদ্রতা ধরে রাখে ত্বক বুড়িয়ে যাওয়া থেকে খেজুরের মেলা ভার। খেজুর দিয়ে খুব সহজেই বানিয়ে ফেলুন মশ্চরাইজিং মাস্ক। কিছু খেজুর আধা কাপ দুধে ভিজিয়ে রাখুন, এরপর এটাকে বলুন করে পেস্ট করে নিন পেস্টের সাথে এক ফোটা অলিভ অয়েল, কোকোনাট অয়েল মিশিয়ে নিন। এক চামচ টক দই, দুই চামচ মধু, এক চামচ হলুদের গুঁড়া। এটি মুখে লাগিয়ে ২০ মিন মুখে লাগিয়ে রাখুন এরপর ধুয়ে ফেলুন। এটি সপ্তাহে দুইদিন ব্যবহারে ত্বক মসৃন, স্বাস্থ্যোজ্জ্বল থাকবে।

এইসব উপায়গুলো স্কিনে প্রয়োগ করে থাকেন তাহলে আপনাদের ত্বক ভালো, সুন্দর, স্বাস্থ্যোজ্জ্বল থাকবে। তাই খেজুরের উপকারিতার কোনো জুড়ি নেই। নিয়মিত খেজুর দিয়ে রূপচর্চা, খাবার অভ্যাস করুন এতে শরীর স্বাস্থ্য ভালো থাকবে।

আরও পড়ুনঃ মাংস খেয়ে পেট ফাঁপা, বদহজম ও কোষ্ঠকাঠিন্য হলে করণীয়

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া