Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2020/09/20-social-networkimg-sites-you-need-to.html

20+ Social Networkimg Sites You Need To know About 2020

আপনি হয়তো প্রতিনিয়ত অনেক ওয়েবসাইট ভিজিট করে থাকেন। কিন্ত আপনি কি জানেন যে এই ছাড়া পৃথিবীতে সব চেয়ে বেশি দেখা কোন সব ওয়েবসাইট গুলি। আর এই তথ্য বিষয়টি খুজতে পরীক্ষা করেছিলো একটি তথ্য প্রযুক্তি দল। আর আমরা সেই রিপোর্টের ভিত্তিতে বেছে নিয়েছি সেরা ৫০ টি ওয়েবসাইট। আর যেগুলার ভিউ ১৬ হাজার ৭০০ কোটি মাসিক ভিউ। যা আপনি কোন দিন কল্পনা করেন নাই। ২০২০ সালে সেই সব সেরা ওয়েবসাইট নিয়ে আমরা আলোচনা করবো। চলুন তাহলে এক নজরে দেখে নেয়া যাক ; 

1-Google
এই বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই যে গুগুল সর্বাধিক সার্চ ইঞ্জিন। তবে এই বছর ২০২০ সালে এটি ইন্টারনেট এর সবচেয়ে জনপ্রিয় সেরা ওয়েবসাইট হিসেবে ১ নম্বর স্থানে রয়েছে। একটি প্রতিবেদনে জানা গেছে যে গুগুল প্রতি এক সেকেন্ডে ৪০ হাজার এরও বেশি ওয়ার্ড সার্চ করা হয়ে থাকে। যা প্রতি বছর ১.২ ট্রিলিয়ন অনুসন্ধান করে থাকে। আপনি যে বিষয়ে জানতে চান তা শুধু লিখে সার্চ করুন দেখবেন ১ সেকেন্ড এরও কম সময়ে সেটি আপনার সামনে হাজির হবে। গুগুল এখন আরও অনেক কিছু তৈরি করেছে। যেমন গুগুল ডক্স, গুগুল ক্যালেন্ডার, গুগুল ড্রাইভ ইত্তাদি আরও অনেক কিছু সহ বিভিন্ন সেবা প্রদান করে থাকে গুগুল। 

2-Facebook 
আপনি স্মার্টফোন ব্যবহার করেন আর নাইবা করেন তবুও আপনি ফেসবুক এর নাম এক বার হলেও শুনেছেন। ফেসবুক ছাড়া বিশ্বের সবচেয়ে বৃহত্তম সামাজিক যোগাযোগ নেটওয়ার্ক। এই ওয়েবসাইটটি সর্বাধিক ব্যবহার কারী ওয়েবসাইট। ফেসবুক এর ব্যবহারকারী প্রথমে সম্ভবত ১ বিলিয়ন অ্যাকাউন্ট ছিলো। এই ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে আপনি আপনার বন্ধুবান্ধব , আত্মীয়স্বজন আরও অনেক এর সাথে যোগাযোগ করতে পারবেন। 

সেই সাথে আপনি আপনার প্রোডাক্ট অনলাইনে বিক্রি করার জন্য ফেসবুক আপ্লিকেশন ব্যাবহার করতে পারেন এবং আপনি এখানে অর্থ দিয়ে আপনার প্রোডাক্ট কে সবার সামনে তুলে ধরতে পারেন বা বিজ্ঞাপন আকারে তুলে আপনার ব্যাবসা ব্র্যান্ড ও পণ্যগুলি বাজারজাত বা প্রচার করতে পারেন। 

সম্প্রতি দেখা গেছে ফেসবুক এর ব্যবহারকারী ৮৭ মিলিওন এরও বেশি মানুষের ডাটা আক্কেস করার মাধ্যমে তারা মিলিওন ব্যবহার কারীর আস্থা হারিয়েছে। এটি আস্থার এক বিশাল প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছে যা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যবহারকারীর অশান্তির সৃষ্টি করেছে। এতবেশি যে এখন ডেলেট ফেসবুক চলছে যে লোকেরা এখন ফেসবুক থেকে নিজেকে সরিয়ে নিচ্ছে। যার পরিবর্তে লোকেরা এখন অনন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বা বিভিন্ন ওয়েবসাইট ব্যবহার করছে। তবে আপনি যদি আপনার কোন পুরনো বন্ধুদের কে খুঁজে পেতে চান তাহলে আপনি এই ফেসবুক ব্যবহার করতে পারেন। 

3- WhatsApp
এই ওয়েবসাইটটি ২০১৪ সালে ফেসবুক দারা অধিগ্রহণ করা সত্তেও বর্তমানে এই তাৎক্ষনিক বার্তা প্লাটফ্রমটি এখন এটি স্বাধীনসত্তা হিসেবে বিদ্যামান। এই ওয়েবসাইটটি ফেসবুক এর অনেক পরে এসেছিলো। তবে বাক্তি বা গোষ্ঠীর সাথে তাৎক্ষনিক যোগাযোগ এর ভাগ করে নেয়ার সুবিধা দিয়ে থাকায় বিশ্ব জুড়ে কয়েক মিলিওন ব্যবহারকারী রয়েছে এই ওয়েবসাইট এর। এই ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে আপনি কল, মেসেজ, টেক্সট, ভয়েস ইত্তাদি কাজ সম্পূর্ণ করতে পারেবন। 

4-WeChat
এই ওয়েবসাইটট মেসেজ এবং কলিংয়ের জন্য অল-এন-ওয়ান অ্যাপ্লিকেশান। এটির কার্যকলাপ দেখতে প্রায় হোয়াটসঅ্যাপ এর মতো। যদি আপনার কোন পছন্দের কোন লোক থাকে তাহলে আপনি আপনার পছন্দের লোকের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। একটি প্রতিবেদনে জানা গেছে যে বর্তমান সময়ে হোয়াটসঅ্যাপ এর চেয়ে WeChat এর সংখ্যা খুব দুরত বেড়েই চলছে। 

5-QQ
টেনসেন্ট কিউকিউ QQ হলো তাৎক্ষনিক বার্তা চ্যাট এটি সামাজিক যোগাযোগ মিডিয়া প্লাটফ্রম। এটি প্রথমে চিনে চালু হওয়ার পরে এটি পরবর্তীতে আন্তজার্তিক হয়ে উঠেছে। বর্তমানে এটি ৮০ টি এরও বেশি চালু আছে বা ৮০ টি এরও বেশি ব্যবহার কারী রয়েছে। 

6-Tumblr
২০১৩ সালে এই ওয়েবসাইটটি ইয়াহু এর মালিকাধীন হয়ে এটি সোশ্যাল মিডিয়া এবং মাইক্রো ব্লগিং প্লাটফ্রম হিসেবে কাজ করে যা আপনার পছন্দমতো জিনিস অনুসন্ধান করতে বা অনুসরণ করে ব্যবহার করা জেতে পারে। আপনি চাইলে এই ওয়েবসাইটটি মাল্টিমিডিয়া সহ সল্প ফ্রম ব্লগ পোস্ট করতে পারেন। আর এই ওয়েবসাইট এর সকল কিছু আপনি নিজে নিজে কাস্টোমাইজ করতে পারবেন। এই ওয়েবসাইট এর মাসিক ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৫৫৫ মিলিয়ন এরও বেশি। 

7- Youtube 
নানা রকম বিনোদন মুলক ভিডিও সহ সকল ধরনের ভিডিও আপনি এই ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে আপনি পেয়ে যাবেন। প্রতিবছর যে হারে ভিডিও বাড়ছে আর সেই জন্য ইউটিউব এই বছর তাদের ওয়েবসাইটে আরও দুটি ফিচার জুক্ত করেছে। ইউটিউবে একদিনে প্রায় ৫ বিলিয়ন এর বেশি ভিডিও দেখা হয়। আর একটি প্রতিবেদনে জানা গেছে যে ইউটিউব প্রতিদিন ৩০ মিলিইয়ন এরও বেশি ভিজিটর বা তাদের ওয়েবসাইটে বেশি দর্শক পায়। গড়ে প্রতি মিনিটে ইউটিউবে ৩০০ মিনিটের বেশি আপলোড করা হয়ে থাকে। আমরা আশা করি আর মাত্র কয়েক দিন এর মধ্যে সেরা তিন নাম্বারে ইউটিউব কে দেখতে পারব। 

আপনি যদি চান ইউটিউব থেকে টাকা বা অর্থ ইঙ্কাম করবেন তাহলে আপনাকে সর্ব প্রথম একটি ইউটিউব চ্যানেল ক্রিয়েট করতে হবে। তার পর বিভিন্ন ধরনের ভিডিও যেমন, ব্লগ, টেক, বিনোদন ইত্তাদি বিষয়ে যেকোন ধরনের ভিডিও আপলোড করে। ইউটিউব থেকে অ্যাডসেন্স নিয়ে আপনার ওয়েবসাইটে সেটআপ করে। মাসের পর মাস টাকা ইঙ্কাম করতে পারবেন। তো দেরি না করে এখন একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলে নিন। 

8-QZone
QQ এবঙ্গ WeChat এর মতো Tencent এর দারা তৈরি QZone একটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম পরিসেবা। এটি আপনাকে পিকচার, ভিডিও, ব্লগ লিখতে, গান শুনতে, ডায়েরি রক্ষণাবেক্ষণ সহ আরও নানা রকম সুবিধা দিয়ে থাকবে। আপনি চাইলে এই ওয়েবসাইট এর বিভিন্ন কিছু কাস্টোমাইজ করতে পারবেন। এটি একটি জনপ্রিয় ওয়েবসাইট। আপনি চাইলে এটি আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারে ব্যবহার করতে পারবেন। 

9-Amazon
Amazon ওয়েবসাইটটি ২০১৯ সালের এক স্থান নিচে বর্তমানে এক শীর্ষ তিনটি ওয়েবসাইট এর তালিকায় এটি একটি ওয়েবসাইট। এই অনলাইন শপিং ওয়েবসাইটটি সারাবিশ্বে আধিপত্য বিস্তার করতেছে। Amazon.Com থেকে ভিজিটররা তাদের পছন্দ মতো বিভিন্ন ধরনের প্রোডাক্ট কিনে যেমন বই, পোশাক, ঘরের আসবাবপত্র, মোবাইল, বাইক, কার, মুদি সহ আরও অনেক পণ্য কিনতে পারবেন এই ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে। আর যদি আপনি এই ওয়েবসাইট এর একজন প্রধান সদস্য পদ হয়ে থাকেন তাহলে আপনি কোন প্রোডাক্ট অর্ডার করার দুদিনের মধ্যে আপনার ঘরের সামনে পেয়ে যাবেন। তাই এই Amazon ওয়েবসাইটটি বেশ জনপ্রিয়। 

10- Yahoo 
এই ওয়েবসাইটটি বেশ জনপ্রিয় এবং বেশ শক্তিশালী ওয়েবসাইট Yahoo.com। ইয়াহু একটি দীর্ঘ সময়ের জন্য সার্চ ইঞ্জিন সহ বেশ জনপ্রিয় ছিলো এবং এটি অনলাইনে সর্বাধিক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট গুলির মধ্যে এটি একটি। এই ওয়েবসাইট এর মডেলটি কিছুটা পরিবর্তন হয়েছে। এই ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে আপনি অনেক অনেক কিছু সার্চ করে দেখতে পারবেন বা জানতে পারবেন। 

11-Reddit
Reddit দাবি করেছে যে এটি তাদের ইন্টারনেট এর প্রথম পৃষ্ঠা। এটি সামজিক যোগাযোগ এর জন্য এই Reddit ওয়েবসাইটটি তৈরি করা হয়েছে। এটি সকল বয়ছের সবাই ব্যবহার করতে পারবেন। যার ফলে এটি খুব তারাতারি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। Reddit ব্যবহারকারীরা তাদের পছন্দ মতো মিমস এবং গ্রাফিক গুলি অনন্যা ব্যবহার কারীদের দেখানোর জন্য আপলোড করতে পারেন। এরপর প্রতিটি পৃষ্ঠায় ভোট দেয়া হয় এবং এর জনপ্রিয়তা অনুসারে তাকে স্থান দেয়া হয়। এটি বেশ জনপ্রিয় ওয়েবসাইট। আপনার যদি কোন ওয়েবসাইট থাকে তাহলে আপনি এখানে সেটি শেয়ার করে আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর বারিয়ে নিতে পারেন। 

12-Wikipedia
wikipedia.org এই ওয়েবসাইটটি বেশ জনপ্রিয় ওয়েবসাইট। এই ওয়েবসাইটে আপনি বিভিন্ন ঐতিহাসিক ঘটনা, অবস্থান ইত্তাদি আরও অনেক বিষয় নিয়ে অনেক কিছু জানতে পারবেন এই ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে। অনেক এই তাদের মৌলিক প্রশ্ন গুলির উত্তর এবং প্রাথমিক গবেষণার জন্য wikipedia ব্যবহার করে থাকেন। wikipedia ওয়েবসাইটে প্রতি সেকেন্ড ১.৮ টি বা এর বেশি পোস্ট বা সম্পাদনা প্রকাশ করা হয়ে থাকে। যা আমরা প্রতিনিয়ত পরে থাকি আর সেখান থেকে জ্ঞান অর্জন করে থাকি। আর এগুলি সারা বিশ্বের সম্পাদকরা এগুলি সম্পাদনা করে থাকে। এই Wikipedia ওয়েবসাইট প্রতিদিন প্রায় ১৩.৮৯ মিলিয়ন এর বেশি ভিজিটর ভিজিট করে থাকে। আর এটি এটিকে ২০২০ সালের জনপ্রিয় ওয়েবসাইট হিসাবে তৈরি করে থাকে। 

13-Netflix
Netflix ওয়েবসাইটটি বেশ জনপ্রিয়। আজকাল এই প্লাটফ্রমটি ছাড়া বিশ্বে ১৪৮ মিলিয়ন ব্যবহারকারীকে নিয়ে এটি গর্ববোধ করে। কেবল চীন, উত্তর কোরিয়া, এবং ক্রিমিয়া আক্কেসকে অস্বীকার করেছে। এটি আন্তজারতিক ভাবে দেশিয় লাভকে ছাড়িয়ে গিয়েছে। ২০১৫ সাল থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে বাইরে নতুন সাইন আপের সংখ্যা চার গুন পর্যন্ত বেড়ে গিয়েছে। এই ওয়েবসাইটটি ছাড়া বিশ্বে খুব দুরত জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। 

14-Linkedin
ওয়েবে সর্বাধিক নেটওয়ার্ক বা সক্রিয় পেশাদার নেটওয়ার্ক সাইট গুলির মধ্যে এটি একটি। মাইক্রোসফট এর সহায়ক সংস্থা Linkedin এর ২০২০ তালিকার জন্য ফ্রেসসাইটস হিসেবে ১৪ তম স্থান অর্জন করেছে। আপনার বিভিন্ন ওয়েবসাইট এর পোস্ট যেমন ব্লগ এর পোস্ট গুলি শেয়ার করার জন্য এটি ব্যবহার করা হয়। এছাড়া আরও অনন্যা পুনঃসুচনা বা নিবন্ধ গুলি পোস্ট করার জন্য লোকেরা Linkedin ব্যবহার করেন। বিভিন্ন কোম্পানির চাকরি বিজ্ঞপ্তি হিসেবে বিভিন্ন নিয়োগের সরঞ্জাম হিসেবে এটি ব্যবহার হয়। ২০১৯ সালের হিসেবে ১৩০ টি দেশে ৬৩০ মিলিয়ন নিবন্ধন কৃত ব্যবহার কারী রয়েছে। আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের পরে ভারত , চীন , ব্রাজিল এবং যুক্তরাজ্য এর ব্যাপক ব্যবহার রয়েছে। 

15-Instagram
অন্যতম জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ ওয়েবসাইট ইন্সটাগ্রাম Instagram। এটি ফেসবুক এর একটি সহায়ক সংস্থা। Instagram এ আপনি আপনার ছবি এবং ভিডিও শেয়ার করতে পারেন এবং মন্তব্য করতে পারবেন। এই ওয়েবসাইটটি ২০১০ সালে চালু করা হয়েছিলো এবং তার ২ মাস এর মধ্যে ২০ মিলিয়ন ব্যবহার কারী অর্জন করেছিলো। বর্তমান সময়ে এই ওয়েবসাইট এর ব্যবহারকারী রয়েছে ১ বিলিয়ন। ৫০০ মিলিয়ন মানুষ প্রতিদিন এই ওয়েবসাইটটি ভিজিট করে থাকে। ২০১০-২০২০ পর্যন্ত ডাউনলোড এর মধ্যে এই Instagram অ্যাপ্লিকেশান টি ছিলো চতুর্থ। এটি বর্তমানে ৩২ টি ভাষায় ব্যবহার করা যাবে। 

16-Twitter
এই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটি আপনাকে সংক্ষিপ্ত আকারে পোস্ট করার অনুমতি দেয়। যা সীমত সংখ্যক যেমন ২৮০ ওয়ার্ড। আর এর জন্য একে টুইট বলা হয়ে থাকে। আপনার বার্তা বিশ্বের মানুষের কাছে পোঁছে দেয়ার জন্য এটি ব্যবহার করা জেতে পারে। অনলাইনে আপনার পণ্য বেচাকেনা বা প্রচার করার জন্য এই অ্যাপ্লিকেশানটি ব্যবহার করা জেতে পারে। কিভাবে আপনি টুইটার অ্যাকাউন্ট খুলবেন তা নিয়ে আমরা পরবর্তীতে একটি আর্টিকেল প্রকাশ করবো। এই ওয়েবসাইট এর প্রতি মাসে ভিজিটর ৩২০ মিলিয়ন এর বেশি হয়ে থাক। 

17-Baidu-Tieba
চীনের বাইদু দারা তৈরি একটি অনুসন্ধান ইঞ্জিন সংস্থা Baidu -Tieba একটি সামাজিক ফোরাম নেটওয়ার্ক তৈরি করে। যা আন্তজার্তিক পোস্টবার হিসেবে পরিচিত। 

18-Skype
মাইক্রোসফট এর মালিকানাধীন স্কাইপ Skype সর্বাধিক জনপ্রিয় যোগাযোগ ভিত্তিক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। এটি আপনাকে ভয়েস কল , ভিডিও কল (ওয়েবক্যাম ব্যবহার ) করে বার্তা প্রেরনের মাধ্যমে আপনি আপনার পরিচিত মানুষের সাথে যোগাযোগ করতে পারবেন। এটির দারা আপনি গ্রুপ কনফারেন্স কল করতে পারবেন। এটির সবেচেয়ে ভালো বিষয় হলো Skype থেকে Skype কল সম্পূর্ণ ফ্রি তে করা জায় যা ইন্টারনেট এর মাধ্যমে বিশ্বের যে কোন প্রান্তের মানুষের সাথে যোগাযোগ করতে পারবেন। 

19-Viber
এই ওয়েবসাইটটি বর্তমান সময়ে মানুষের মাঝে বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। এটি ৩০ টির বেশি ভাষা ব্যবহার করে ব্যবহার করা যাবে। এই বহুভাষী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটি মেসেজ এবং ভয়েস বার্তা প্রেরন এর ব্যবহার করতে পারবেন। 

20-Line
line বিশ্বব্যাপী উপলভ্য সামাজিক যোগাযোগ নেটওয়ার্ক মাধ্যম। যা আপনাকে ফটো , ভিডিও , মেসেজ , ভয়েস বার্তা এবঙ্গ ফাইল শেয়ার করার জন্য এটি ব্যবহার করতে পারবেন।এছাড়া এটি আপনি দিনের যে কোন সময় ভিডিও এবং অডিও কল করতে পারবেন সেই অনুমতি প্রদান করে।

21-Snapchat
এটি ফটো মেসেজিং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ওয়েবসাইট। যার মাধ্যমে আপনি ছবি শেয়ার করে বন্ধুদের সাথে যোগাযোগ করতে পারবেন বা চ্যাট করতে পারবেন। এছাড়া আপনি এটির মাধ্যমে বিশ্বে ঘটে যাওয়া live দেখতে পারবেন। 

22-Pinterest
Pinterest এটি একটি খুব জনপ্রিয় ওয়েবসাইট। এটির মাধ্যমে আপনার ওয়েবসাইট এর ভিজিটর বারিয়ে নিতে পারেন খুব অল্প সময়ে। আপনার ওয়েবসাইট এর কোন পোস্ট কপি করে তা এখানে কপি করে নিয়ে এসে লিঙ্ক দিয়ে পোস্ট করার পর কেউ যদি সেই লিঙ্কে প্রবেশ করে তাহলে সে ছড়াছড়ি আপনার ওয়েবসাইটে প্রবেশ করবে। তাহলে বুঝলেন তো কিভাবে আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর বাড়িয়ে নিতে পারেন এই Pinterest সামাজিক যোগাযোগ ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে। 

23-Telegram
এই ওয়েবসাইটটি দেখতে এবং এর কার্যকলাপ প্রায় হোয়াটসঅ্যাপ এর মতো। এই অ্যাপ্লিকেশানটি আপনি ৮ টির বেশি ভাষা দিয়ে ব্যবহার করতে পারবেন। এই ওয়েবসাইট Telegram এর মাধ্যমে আপনি জেসব বার্তা প্রেরন করবেন তার সুরক্ষা দিতে আরও বেশি মনোনিবেশ করে। সুতরাং এটি ব্যবহার করা আপনার জন্য খুব ভালো বা আপনার বার্তা গুলিকে অনেক নিরাপত্তা প্রদান করে। 

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

সর্বশেষ আপডেটেড অফার পেতে চান?

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া