Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2020/02/blog-post_25.html

এন্ড্রয়েড স্মার্টফোনের সেরা ১০টি অ্যাপস দেখে নিন ২০২০

বর্তমান সময় এ আমরা আধুনিক যুগ এ বসবাস করছি। আর এই সময় এন্ড্রয়েড ফোন ছাড়া আমরা অনেক অনেক কাজ আছে যা কল্পনা করতে পারি না। আর এই স্মার্টফোনে দরকার গুরুপ্তপূর্ণ অ্যাপ। তাই আমরা আপনাকে আজ দেখিয়ে দেব আপনাদের প্রয়োজনীয় ১০টি দারুন অ্যাপ। চলুন তাইলে স্মার্টফোনের জন্য পারফেক্ট ১০ টি অ্যাপ এর সাথে পরিচিত জেনে নেওয়া যাক; 

ওয়েদার অ্যাপ (WEATHER APP ) 
এন্ড্রয়েড স্মার্টফোনের জন্য এই ওয়েদার অ্যাপ(WEATHER APP)টি খুব গুরপ্তপূর্ণ। আমাদের সবার জন্য WEATHER APP টি অনেক সুবিধা দিয়ে থাকে। কেননা এই অ্যাপ আমাদের শুধু আবহাওয়া বিষয়ে তথ্য (INFORMATION) দিয়ে থাকে। এই অ্যাপে আবহাওয়ার পূর্বাভাস, প্রতিঘন্টার আবহাওয়া পূর্বাভাস আপডেট দিয়ে থাকে। এই অ্যাপ এ আপনি পাবেন আবহাওয়ার মানচিত্র, স্থানীয় আবহাওয়ার খবর পাওয়া যাবে।

তাছাড়া আপনি এই অ্যাপ এর মাধ্যমে মূহুরতের মাঝে পেয়ে থাকবেন তাপমাত্রা, তুষারপাত, ঝর, বাতাস, আদ্রতা, মেঘ, তরঙ্গ ইত্যাদি সম্পর্কে জানতে পারবেন তাৎক্ষণিক ভাবে। আপনার বর্তমান অবস্থানে আবহাওয়ার পরিস্থিতি এই ওয়েদার অ্যাপ (WEATHER APP) এর মাধ্যমে জানতে পারবেন। স্মার্টফোনে এর এই অ্যাপ টি সেলসিয়াস, ফারেনহাইট, বর্তমান তাপমাত্রা সময় এবং সেই শহরের অঞ্চলের সময় অনুযায়ী সূর্যোদয় ও সূর্যাস্তের সময় বলে দিতে পারবে। 

আবহাওয়া অ্যাপ টি আবহাওয়ার আপডেট ছাড়াও, বায়ুমণ্ডলীয় চাপ আদ্রতা, বৃষ্টিপাত, শিশিরপাত, বাতাসের গতি এবং দিক নির্দেশনা মুলক তথ্য আমরা এই অ্যাপ টির মাধ্যমে জানতে পারব। ওয়েদার অ্যাপ (WEATHER APP ) এর ফিচার সমূহ;

এই অ্যাপ এর মাধ্যমে আপনি তাপমাত্রা, বাতাস, আদ্রতা, শিশিরপাত, বৃষ্টিপাত, ঝর সম্পর্কে তথ্য পেয়ে থাকবেন। আর যার ফলে আপনি সতর্কতা অবলম্বন করতে পারবেন। এই ওয়েদার অ্যাপ WEATHER APP টির আর ও একটি সুবিধা হল আপনি প্রতি ঘন্টার আবহাওয়া পূর্বাভাস দিয়ে থাকে, এখানে আর পাবেন ৭ দিন থেকে ১০ এর মতো আবহাওয়া তথ্য পেয়ে থাকবেন। এই অ্যাপ এ আপনি সব দেশ এর আবহাওয়া খবর পেয়ে থাকবেন। 

এই অ্যাপ টি ব্যবহার করার জন্য বড় বড় শহরে আপনাকে ফোনের জিপিএস চালু করতে হবে না। ওয়েদার অ্যাপ (WEATHER APP ) টি ঝড়ের সতর্কতা এবং বিজ্ঞপ্তি আর টর্নেডো এবং বৃষ্টি সতর্কতা আপনাকে অ্যালাম এর মাধ্যমে বা নোটিফিকেশন এর মাধ্যমে আপনাকে এই অ্যাপ টি জানিয়ে দিবে।
 
গুগল ড্রাইভ (GOOGLE DRIVE) 
স্মার্টফোনের জন্য গুগল ড্রাইভ (GOOGLE DRIVE) অ্যাপটি খুব প্রয়োজনীয়। এই অ্যাপ টি ব্যবহার করার কোন রকম বিকল্প নেই। এই অ্যাপ টি আমাদের কে স্টোরেজ সুবিধা দিয়ে থাকে। এই অ্যাপ টি আমরা ফোনে মেগাবাইট তুলে ব্যবহার করতে পারি। এই গুগল ড্রাইভ (GOOGLE DRIVE) এ আপনি আপনার প্রয়োজনীয় কিছু যেমন, ছবি, ভিডিও, ডকুমেন্টস, ফাইল, অ্যাপ ইতাদি যেকোন ডিজিটাল ফাইল আপনি এখান এ স্টোরেজ করে রাখতে পারবেন বা ফোল্ডার এ আপলোড করে রাখতে পারবেন।

আবার প্রয়োজন অনুযায়ী আপনি সেসব দরকারী ফাইল ডাউনলোড করে নিতে পারবেন গুগল ড্রাইভ থেকে। এই গুগল ড্রাইভ (GOOGLE DRIVE) আপনার এসব প্রয়োজনীয় ছবি বা ফাইল এখান এ রাখার কারনে সেসব থাকে নিরাপদে। কেননা গুগল ড্রাইভ (GOOGLE DRIVE) আপনার এসব ফাইল কখন ও হারিয়ে যাবে না। আর আপনার ফোন বা পিসি নস্ট হয়ে গেলেও আপনি এসব ফাইল ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। 

গুগল ড্রাইভ এ আপনি পেয়ে থাকবেন ১৫ জিবি এর মতো স্টোরেজ। গুগল ড্রাইভ অফলাইন বা অনলাইন এ ব্যবহার করতে পারবেন। গুগল ড্রাইভ (GOOGLE DRIVE) অনলাইন স্টোরেজ থাকার কারনে আপনার স্মার্ট ফোনের অনেক জায়গা বাচিয়ে নিতে পারবেন। তাই বলা যায় এই অ্যাপ টি স্মার্টফোন এর জন্য খুব গুরুপ্তপূর্ণ অ্যাপ।
 
গুগল ম্যাপ (GOOGLE MAP)
গুগল ম্যাপটি GOOGLE MAP তৈরি করেন গুগল এর নির্মাতা গন। এটি একটি ওয়েভ ভিত্তিক মানচিত্র সুবিধা। এই গুগল ম্যাপ এর মাধ্যমে স্যাটেলাইট মানচিত্র, রাস্তার মানচিত্র, গাড়ি, সাইকেল পথ ইত্যাদি সম্পর্কে লোকেশন জানিয়ে আমাদের সাহায্য করে। এই গুগল ম্যাপ এর মাধ্যমে পৃথিবীর সব লোকেশন খুজে বের করা যায়। গুগল রাস্তার দৃশ্য দেখতে খুব ভালো সাহায্য করে। রাস্তার যানবাহন গুলি লোকেশন জিপিএস এর মাধ্যমে খেজে বের করে গুগল ম্যাপ। তাই আমার কাছে মনে হয়েছে গুগল ম্যাপ স্মার্টফোন এর জন্য সেরা অ্যাপ। 

গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট (GOOGLE ASSISTANT) 
গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট (GOOGLE ASSISTANT) নানা কাজে ব্যবহার করা হয়। স্মার্টফোনে গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট বাক্তিগত সহায়ক হিসাবে দারুন জনপ্রিয়। এই গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট শুধু স্মার্টফোনে নয় স্পিকার,স্মার্ট টিভি ইত্যাদি তে ব্যবহার করা হয়। এটি নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করতে পারে। কাউকে ফোন করতে চাইলে নিদিষ্ট নাম্বার এ কল করতে পারে। আপনি যদি কোন গান শুনতে চান তাইলে গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট কে নির্দেশ দিলেই আপনি গান শুনতে পারবেন। 

এই অ্যাপ টি আপনি প্লে স্টোর বা অ্যাপল স্টোর থেকে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। তবে এটি ইন্সটল করা এন্ড্রয়েড স্মার্ট ফোনে এবং আইফোন এ আলাদা ভাবে ইন্সটল করতে হয়। আর এই অ্যাপ টি স্মার্ট ফোন এর জন্য খুব প্রয়োজন বলে আমি মনে করি। 
লাস্টপাস পাসওয়ার্ড ম্যানাজার (LAST PASS PASSWORD MANAGER) 

যারা নতুন ইন্টারনেট ব্যবহার করেন তাদের জন্য এই লাস্টপাস পাসওয়াড ম্যানেজার (LASTPAST PASSWORD MANAGER)  খুব প্রয়োজন। কারন নতুন ইন্টারনেট বাবহারকারীরা অনেক অ্যাকাউন্ট এ লগ ইন করে থাকেন যেমন, ফেসবুক, টুইটার, ইয়াহু, ইত্যাদি বিভিন্ন সাইট এ বিভিন্ন পাসওয়ার্ড ব্যবহার করেন। আর অনেক এ পাসওয়ার্ড ভুলে যায়। কিন্ত আপনারা যদি এই অ্যাপ টি লাস্টপাস পাসওয়ার্ড ম্যানেজার ব্যবহার করেন তাহলে আপনি আপনার সব পাসওয়ার্ড এখান এ জমা রাখতে পারবেন। 

যার ফলে আপনি আপনার পাসওয়ার্ড ভুলে গেলেও কোন সমস্যা হবে না। লাস্টপাস পাসওয়ার্ড ম্যানেজার এ লগ ইন সেভ থাকার কারনে আপনি সহজেই অনন্য অ্যাকাউন্ট এ প্রবেশ করতে পারবেন। তার জন্য অবশ্যই আপনাকে এই লাস্টপাস পাসওয়াড ম্যানেজার (Lastpass Password Manager ) টি লগ ইন করে নিতে হবে। তাই আমার মতে এই অ্যাপস এন্ড্রয়েড স্মার্ট ফোনের এর জন্য খুবই প্রয়োজনীয় অ্যাপস বলে আমি মনে করি। 
নোভা লাঞ্চার (NOVA LAUNCHER) 

আমরা সবাই চাই নিজের স্মার্টফোন টিকে ইচ্ছা মতো সাজিয়ে নিতে। স্মার্টফোন কে আরেক রকম লুক দিতে। আর সেই সুবিধা দিচ্ছে এই নোভা লাঞ্চার ( NOVA LAUNCHER )। নোভা লাঞ্চার (Nova Launcher) একটি শক্তিশালী এবং মার্জিত সম্পূর্ণ লাঞ্চার যা আপনাকে আপনার ফোনের হোম, স্কিন, আইকন এবং নানা রকম ফোল্ডার গুলিকে নিজের মতো করে কাস্টমাইজ করতে দেই। 

নোভা লাঞ্চার (Nova Launcher) এর নানা রকম বৈশিষ্ট্য রয়েছে যেমন গ্রাফিক গুন। এই গ্রাফিক টা ফোন কে দারুন আকর্ষণীয় করে তুলে। নোভা লাঞ্চার এর নানা রকম নান্দনিক বিষয় কাস্টমাইজ করা ছারাও আপনাকে দিবে আপনার ফোনে যে ডিভাইস ব্যবহার করেছেন সেগুলি আপনি কাস্টমাইজ করতে পারবেন। আবার এই অ্যাপস টিকে আপনি অনন্য ডিভাইস এ আমদানি করতে পারবেন। 

এর দারা আপনার সেটিংস এর পুরো ব্যাকআপ নিতে পারবেন এই অ্যাপস টির মাধ্যমে। তাই বলতে পারি আপনি যদি ফোনের লাঞ্চার অনেক সুন্দর ভালো রাখতে চান তাইলে এই অ্যাপস টি আপনার জন্য। 

ইংলিশ বাংলা ডিকশনারী ( ENGLISH BANGLA DICTONARY) 

আপনাদের কে প্রায় বিভিন্ন ইংলিশ থেকে বাংলা অর্থ বের করতে হয়। তেমনি বাংলা শব্দের ও ইংলিশ বের করতে হয়। আর আপনি এই অ্যাপস এর মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই বের করতে পারবেন নানা রকম শব্দের অর্থ । আপনি যে word টি ব্যবহার করেন সেই ওয়ার্ড টি লিখে সার্চ করবেন। আর মুহূর্তের মাঝে উত্তর খুজে পাবেন । আমরা এই অ্যাপস টির মাধ্যমে খুব সহজেই অর্থ বের করতে পারি। 

সুতরাং আমি বলতে পারি এই অ্যাপস টি আমাদের জন্য খুব প্রয়োজনীয়। এটি স্মার্টফোনের জন্য সেরা অ্যাপস। আপনি আপনার প্রয়জনে এই অ্যাপস টি ব্যবহার করবেন।


পিক্স আর্ট ফটো স্টুডিও (PICS ART PHOTO STUDIO) 
পিক্স আর্ট ফটো স্টুডিও (Pics Art Photo Studio) এটি একটি ইমেজ এডিটিং অ্যাপস। আমরা অনেক সময় নানা রকম মুহূর্ত গুলা ক্যামেরা বন্ধি করে রাখতে চাই। কিন্ত অনেক কারনে আমাদের স্মার্ট ফোনে এর ক্যামেরা সে রকম ভালো হয় না। কিন্ত আপনি যদি পিক্স আর্ট ফটো স্টুডিও (Pics Art Photo Studio) এই অ্যাপস টি ব্যবহার করেন তাহলে আপনি ওই ছবি গুলাকে অনেক সুন্দর ভালো লুক দিতে পারবেন। 
এই অ্যাপস এ নানা রকম ফিচার রয়েছে। এবং নানা রকম কালার অ্যাড করে আপনি আপনার ছবি টিকে আর উজ্জ্বল করতে পারবেন। এই অ্যাপস টি ব্যবহার করে আপনার নরমাল পিকচার কে খুব সুন্দর প্রফেসনাল মানের করে তুলতে পারবেন। এমন কি এই অ্যাপস এর মাঝে সোশ্যাল মিডিয়াতে পিকচার গুলা শেয়ার করার জন্য ফিচার দেয়া আছে। শুধু আপনি একটা বাটন ক্লিক করে আপনি আপনার ফেসবুকে,ইন্সটাগ্রাম, টুইটার এর মতো অ্যাকাউন্ট এ শেয়ার করে দিতে পারবেন। 

Unified Remote Apps 
এই অ্যাপস ব্যবহার করে আপনি আপনার স্মার্টফোন কে রিমোট এ পরিণত করতে পারবেন। এবং এই UNIFIED REMOTE APPS টি আপনি আপনার পিসি বা ল্যাপটপ এর সাথে কানেক্ট করে নিতে পারবেন। কম্পিউটার এর যে বেসিক বিষয় গুলা আছে তা আপনি এই অ্যাপস এর মাধ্যমে করে নিতে পারবেন। যেমন নানা রকম মিউজিক প্লেয়ার ওপেন করা এবং বন্ধ করা। 

এমন কি আপনার পিসি বা ল্যাপটপ কে এই অ্যাপস টির মাধ্যমে অফ করে নিতে পারবেন। আপনার স্মার্ট ফোনের ওয়াইফাই বা ব্লথুথ ব্যবহার করে আপনি এই কাজ গুলি করতে পারবেন। তো আমি এই অ্যাপস টি ব্যবহার করে অনেক অপকৃত হয়েছি। সুতরাং আপনি যদি চান আপনার কম্পিউটার বা ল্যাপটপ আপনি দূর থেকে কন্ট্রোল করতে চান তাহলে এই UNIFIED REMOTE অ্যাপস টি ব্যবহার করতে পারেন। 

এভার নোট (EVER NOTE)
এই অ্যাপস টির মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন প্রকার বা বিভিন্ন বিষয় এই এভার নোট (EVER NOTE ) অ্যাপস এর মাধ্যমে নোট করে রাখতে পারবেন। আমরা অনেক সময় বিভিন্ন বিষয় ভুলে যায়। যেমন আপনি বাজারে গেছেন আপনাকে অনেক আইটেম আনতে হবে কিন্ত আপনি ভুলে গেছেন। আবার অফিস এ অনেক কাজ আছে কিন্ত অনন্যা কাজের চাপে সেই কাজ টি ভুলে গেছেন। তো আপনি এই অ্যাপস টি ব্যবহার কররে প্রতিদিন এর কাজ প্রতিদিন নোট করে রাখতে পারেন। 

তো এই অ্যাপস টি ব্যবহার করে আপনি সব কাজ গুলো কাজ নোট করে রাখতে পারবেন। এতে করে আপনি একটা একটা কাজ কমপ্লিট করে একটা একটা কাজ মার্ক করে রাখবেন। আর এই প্রতিদিন এর কাজ সুন্দর ভাবে হয়ে থাকবে। তাই আপনি নিজেকে অরগানইস রাখতে এই অ্যাপস টি ব্যবহার করতে পারেন। 
তো আমার কাছে এই ছিল স্মার্ট ফোনের সেরা ১০ টি অ্যাপস। আপনার কোন অ্যাপসটি ভালো লেগেছে তা আমাদের কমেন্ট বক্স এ কমেন্ট করে জানাবেন। আর হ্যাঁ ভালো লাইক ,কমেন্ট এবং শেয়ার করে অনন্য জন কে দেখার সুযোগ করে দিন। আমাদের পেজ এ নিত্তনতুন পোস্ট পেতে পেজ এর সাথে থাকুন। আজ আর নই আশা করি ভালো থাকবেন। 

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

সর্বশেষ আপডেটেড অফার পেতে চান?

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া