Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2020/02/blog-post_22.html

২০২০ সালের সেরা ১০ স্মাটফোন দেখে নিন

অতিতে সময় আমরা ছোট স্কিন এর ডিসপ্লে ফোনে ইন্টারনেট চালাইতাম। কিন্ত প্রযুক্তির আধুনিকরন এর ফলে নতুন স্মার্টফোন (Smart Phone) এর আগমন হয়ছে। আর এই নতুন কিছু স্মার্টফোন তাদের নতুন নতুন প্রযুক্তি বা ফিচার দিয়ে বাজার এ রেকর্ড করে নিয়েছে। আমরা অনেক অনুসন্ধান ব্যায় করার পরে জানতে পেরেছে, ২০২০ সালের সেরা বা সবচেয়ে ভালো ১০ স্মার্টফোন (Smart Phone)

বর্তমান ২০২০ সালে সেরা ১০ স্মার্টফোন বা মোবাইল গুলো যেমন;
 ১. অ্যাপল আইফোন ১১ প্রো (Apple IPhone 11 Pro )
. স্যামসাং গ্যালাক্সি এস১০ প্লাস (Samsung Galaxy S10 Plus 
. ওয়ানপ্লাস ৭টি প্রো(OnePlus 7t Pro)  
.গুগল পিক্সেল ৪ (Google Pixel 4) 
.স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ১০ (Samsung Galaxy Note 10)
. হুয়াওয়ে পি৩০ প্রো (Huawei P30 Pro)
৭. সাওমি৯টি প্রো (Xaiomi Mi 9t pro)
৮.রেডমি নোট ৮ (Redmi note 8)
. সাওমি এমআই ১০( Xiaomi Mi 10)
১০. অ্যাপেল আইফোন ১১ (Apple IPhone 11) 

অ্যাপল আইফোন ১১ প্রো (Apple IPhone 11 pro ) 
স্মার্টফোন কোম্পানির মধ্যে অন্যতম একটি কোম্পানি হচ্ছে অ্যাপেল। যুক্তরাষ্ট্রের কুপাটিনোর স্টিভ জব থিয়েটারে আইফোন ১১ (IPhone 11) উন্মেচন করেছেন এর নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অ্যাপল। সেই সময় তিনটি সিরিজ বের করা হয়; আইফোন ১১,আইফোন ১১ প্রো, আইফোন ১১ প্রো মাক্স। আইফোন ১১ প্রো (Iphone 11 Pro) ফোন টি আইফোন এক্সএস এর পরের মডেল। এই ফোন টিতে রয়েছে দারুন সব নতুন ফিচার। যা বাজারে অনেক ভালো সারা ফেলেছে। 

এই IPHONE 11 PRO তে থাকছে ৩ টি ক্যামেরা যার প্রত্যেকটি হচ্ছে ১২ মেগাপিক্সেল সেন্সর এর। এই ক্যামেরা গুলো দিয়ে অন্ধকারে ভালো ছবি তুলা যাবে। ফোনের ডিসপ্লে ৫.৮ ইঞ্ছি। এতে থাকছে A13 বাউনিক চিপ্সেট। আইফোন ১১ প্র (IPHONE 11 PRO) ব্যাটারি অনেক শক্তিশালী। যা আগের ফোন এক্সএস এর থেকে প্রায় ৪ ঘন্টা বেশি সময় ধরে কাজ করতে পারবে। যা নিচ্চিত বলে জানিয়েছেন অ্যাপল নির্মাতারা। 

এই স্মার্টফোন আপনি ব্লাক, মিডনাইট সবুজ এবং সিলভার বা গোল্ডেন কালার নিয়ে বাজারে পাওয়া যাবে। এই স্মার্ট ফোন টিতে ফাস্ট চার্জার এর সুবিধা রয়েছে। আইফোন ১১ প্র বাজারে ৯৯৯৯০ টাকা থেকে পাওয়া যাবে। এই আইফোন এর রম ৬৪ জিবি থেকে ২৫৬ জিবি স্টোরেজ পাওয়া যাবে। 

স্যামসাং গ্যালাক্সি এস১০ প্লাস ( Samsung Galaxy S10 Plus ) 

আইফোন ১১ প্র এর পরে দ্বিতীয় স্মার্টফোন স্যামসাং এস১০ প্লাস রয়েছে। তা বলতে আর বাধা প্রকাশ করব না। কেননা এই স্মার্টফোন টি তে রয়েছে অনেক নতুন ফিচার। যা বাবহারকারিদের আকৃষ্ট করে দিয়েছে। স্যামসাং এস ১০ (Samsung galaxy S10 plus) এ রয়েছে ভেজালহিন এইচডিআর ১০+ ফিচার রয়েছে। যা সেনেমাটিক ইনফিনিটি ব্যবহার করার সুবিধা দিবে। এই ফোন টিকে অনেকেই পরবর্তী প্রজন্মের স্কিন প্রযুক্তি বলা হয়েছে। 

দক্ষিন কোরিয়ান স্মার্টফোন বা মোবাইল ফোন নির্মাতা কোম্পানি স্যামসাং এই ফোনটি স্যামসাং গ্যালাক্সি এস১০ প্লাস ফোনটি অন্মেচন করেন। এই ফোনে স্কিন এ ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর ব্যবহার করা হয়েছে। ফোনটিতে ৬.১ ইঞ্চি ডিসপ্লে এবং ডিসপ্লে কে সুরক্ষা দেয়ার জন্য গরিলা ৬ গ্লাস ব্যবহার করা হয়েছে। এই ফোনে আর আছে ওয়ারলেস শেয়ারিং প্রযুক্তি,যা ওয়ারলেস কানেক্ট থাকা সম্পূর্ণ ফোন থেকে চার্জ শেয়ার করতে বা আদান প্রদান করতে পারবে। 

চিপসেট 

এই ফোনে এর স্যামসাং এর নিজস্ব তৈরি প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। এক্সিনস ৯৮২০ আর বাহিরের দেশ আমেরিকা এবং চিন এর জন্য স্নাপড্রাগন ৮৫৫ প্রসেসরবাবহার করেছে। র‍্যাম ও স্টোরেজ(RAM AND STORAGE) এই স্মার্টফোন দুটি পর্যায়ে বাজারে পাওয়া যাবে। 
  •  ৮ জিবি র‍্যাম এবং ১২৮ জিবি ফোন মেমোরি 
  •  ৮ জিবি র‍্যাম এবং ৫১২ জিবি ফোন মেমোরি

ক্যামেরা 

এই স্মার্টফোন টিতে ব্যাবহার করা হয়েছে তিনটি ক্যামেরা। ক্যামেরা টে ওয়াল্ড লেস ব্যাবহার করা হয়েছে। অন্য দূটি ক্যামেরা তে ১০ মেগাপিক্সেল ব্যাবহার করা হয়েছে। এই ক্যামেরা দিয়ে শ্লোও মোশন ভিডিও কোড়া যাবে। সব মিলিয়ে এই স্মার্ট ফোনটিতে ভালো ছবি তূলতে পারবেন। এই স্মার্ট ফোনে বেট্যারি ৩০০০ হাজার ৪০০ মিলি অ্যাম্পিয়ার বেট্যারি ব্যাবহার করা হয়েছে। এই SAMSUNG GALAXY S10 PLUS আপনি বাজারে ৮৯০০০ হাজার ৯০০ টাকা থেকে কিনতে পারবেন। 
ওয়ানপ্লাস ৭টি প্রো (OnePlus 7t Pro )
ওয়ানপ্লাস ৭টি প্রো (OnePlus 7t Pro ) ফোন টি বাজারে আসার পর বেশ ভালো চমক দেখিয়েছে। কেননা এই স্মার্ট ফোন যোগ করা হয়েছিল দারুণ সব ফিচার। এই ফোন এ রয়েছে ৬.৫৫ আমূলেড এলইডি ডিসপ্লে। এটিতে ম্যাক্স ভিও পপ আপ ক্যামেরা ব্যাবহার করা হয়েছে। এই ফোনে অপটিক্যাল ঈণ ডিসপ্লে সেন্সর ব্যাবহার করা হয়েছে। আরও ব্যাবহার করা হয়েছে সামনে মোটরযুক্ত ক্যামেরা। এটি কোয়ালকোম শ্নাপড্রাগন ৮৫৫ চিপ্সেট দারা চালিত। এই ওয়ান প্লাস ফোন ফাস্ট চার্জি এর সুবিধা আছে। এই ফোনে ৮ জিবি  র‍্যাম এবং ফোন মেমোরি ১২৮ বা ২৫৬ জিবি। এই ফোন টির ওজন ২০৬ গ্রাম। ফোনটির সুরক্ষার জন্য গরিলা গ্লাস ৬ ব্যাবহার করা হয়েছে। 

গুগল পিক্সেল ৪ (GOOGLE PIXEL 4) 
গুগল পিক্সেল ৪ (google pixel 4) ফোনে রয়েছে আর এক দারুন ফিচার। কেননা এই ফোনে ব্যবহার করা হয়েছে ৫.৭ এইচডি ডিসপ্লে। এই ফোন এ বেশ কিছু সেন্সর ব্যবহার করা হয়েছে। যা আপনি ডিসপ্লে এর অপর এ টাচ না করেই ফোনের কল রিসিভ করতে পারবেন। এই ফোনে ১০ গুন দূত গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট ব্যবহার করা হয়েছে। যার ফলে আপনি আগের থেকে অনেক বেশি তারাতারি কাজ করতে পারবেন।

এই ফোনে এ আপনি পাবেন ৬ জিবি র‍্যাম সহ ৬৪অথবা ১২৮ জিবি ফোন মেমোরি। কিন্ত আপনি এই স্মার্ট ফোনে পাবেন না মেমোরি রাখা স্লট। এর ব্যাটারি ২৮০০ এমএইচ। এই মোবাইল ফোন আপনি নানা রকম কালার এ পেয়ে থাকবেন যেমন; কালো, সাদা এবং কমলা রঙ্গে বাজারে পাবেন।

স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ১০ ( Samsung Galaxy Note 10 )

স্যামসাং কোম্পানির এই স্মার্ট ফোনটি প্রথমে লঞ্চ হয় নিউ ইয়কে। এই Samsung Galaxy note 10  ফোনে রয়েছে ৬.৩ ইঞ্চি ডিসপ্লে। আর ও আছে গরিলা গ্লাস। ডিসপ্লে এর নিচে আছে ফিঙ্গার প্রিন্ট ডিসপ্লে। এই ফোনে ব্যবহার করা যাবে ২ টি সিম কার্ড। আর আছে এন্ড্রয়েড ৯.০ ভার্সন। এই ফোনে এ আছে ৮ জিবি র‍্যাম ২৫৬ জিবি রম। এই ফোনে ব্যাটারি ক্যাপাচি ৩৫০০ এমএইচ। আর যারা গেম খেলতে পছন্দ করেন তিনারা কানেক্ট করে নিতে পারবেন কম্পিউটার এর সাথে। ফোনে রয়েছে তিনটি ক্যামেরা। 
হুয়াওয়ে পি ৩০ প্রো ( Huawei P30 Pro ) 
হুয়াওয়ে কোম্পানি এর হুয়াওয়ে পি ৩০ প্রো(Huawei P30 Pro) ক্যামেরা এর জন্য বিশ্বব্যাপী ছাড়া জাগিয়েছিল। দুর্দান্ত ছবি এবং ফটোগ্রাফির জন্য ফোনে এর কোন সন্দেহ নেই। রাংকিংয়ে ফোন টি সবার উপরে বা শীর্ষে জায়গা করে নিয়েছে।

আইফোন ১১ ( IPhone 11 ) 
আইফোন ১১ ( IPhone 11)  এ নতুন ফিচার যুক্ত করা হয়েছে। এই ফোনের ডিসপ্লে থাকবে ৬.১ ইঞ্চি। এই ফোনে এর কালার বাজারে পাওয়া যাবে ছয় রংয়ের। এই ফোন এ ক্যামেরা কে অনেক গুরুপ্ত দেয়েছে অ্যাপল কোম্পানি। কেননা এই ফোন দিয়া ছবি তুলার পর তা জুম করার পর তা ফেটে যাবে না বলে দাবি কত্পক্ষের। এখানে এই ফোনে পাওয়া যাবে ডুয়েল ক্যামেরা। দুটো ক্যামেরা ১২ মেগাপিক্সেল এর। এই ফোন দিয়ে ছবি তুলতে বিশেষ সুবিধা পাওয়া যায় যেমন রাতের বেলা বা কম আলো তে ছবি তুলতে নাইট মুড অটোমেটিকেলি চালু হবে। ভালো সেলফি তোলার জন্য আছে ১২ মেগাপিক্সেল এর ফন্ট ক্যামেরা। এই ফোনে ভিডিও ছাড়া স্লো মোশন ভিডিও করা যাবে। 

রেডমি নোট ৮ ( Redmi Note 8 )
এই রেডমি নোট ৮ ফোনে আছে ৪৮ মেগাপিক্সেল এর ক্যামেরা। আর ও পাবেন সেলফি ক্যামেরা ১৩ মেগাপিক্সেল। আর প্রসেসর আছে কয়াল্কম স্নাপড্রাগন ৬৬৫। 

তো এই ছিল আমার কাছে ২০২০ সালের সেরা ১০ টি স্মার্টফোন। আপনার কোনটি ভালো লেগেছে কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানিয়ে দিন। আর পোস্ট টি শেয়ার করে অনন্য জন কে দেখার সুযোগ করের দিন। 

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

1 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

সর্বশেষ আপডেটেড অফার পেতে চান?

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া