কিভাবে পাবেন আইপিডিসি পার্সোনাল লোন ও আইপিডিসি ব্যবসায়িক লোন

দৈনিন্দন জীবনে ব্যবসায়িক, ব্যক্তিগত‌ কিংবা সাংসারিক প্রয়োজন মেটানোর উদ্দেশ্যে যেকোনো মুহূর্তে আপনার লোনের প্রয়োজন হতে পারে।‌‌ আপনার স্বপ্ন পূরণের লক্ষ্যে কিছু আর্থিক প্রতিষ্ঠান পার্সোনাল এবং ব্যবসায়িক লোন দিয়ে থাকেন। এমনই একটি বেসরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠানের নাম হল আইপিডিসি

প্রিয় পাঠকবৃন্দ, আপনি কি ইতিমধ্যে আইপিডিসি সম্পর্কে অবগত কিন্তু, সিদ্ধান্ত হীনতায় ভুগছেন কিভাবে পাবেন আইপিডিসি পার্সোনাল লোনআইপিডিসি ব্যবসায়িক লোন? তাহলে দুশ্চিন্তার কোন কারণ নেই, আপনি সঠিক আর্টিকেলে এসেছেন!

আজকের আর্টিকেলের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে কিভাবে পাবেন আইপিডিসি পার্সোনাল লোন ও আইপিডিসি ব্যবসায়িক লোন সেই সম্পর্কে যাবতীয় সঠিক তথ্যের মাধ্যমে বিষয়গুলো আলোচনা সাপেক্ষে আপনাকে আর্থিকভাবে স্বনির্ভর করে স্বপ্নপূরণের পথে অগ্রসর করা! পাশাপাশি আরো দেখতে পারেন বিনা জামানতে ঋণ দেয় কোন ব্যাংক

আইপিডিসি পার্সোনাল লোন

(toc) #title=(এক নজরে সম্পূর্ণ লেখা পড়ুন)

আইপিডিসি কি?

আইপিডিসি ফাইনান্স (IPDC Finance) বাংলাদেশের সর্বপ্রথম একটি বেসরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠান। পথযাত্রা শুরু ১৯৮১ সাল হলেও, বাংলাদেশের নারী, যুব সম্প্রদায় এবং যেকোন শ্রেণীর লক্ষ লক্ষ মানুষের স্বপ্নপূরণের উদ্দেশ্যে আর্থিকভাবে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে আসছে আইপিডিসি।

১৯৮১ সালে ৫টি শেয়ার হোল্ডার নিয়ে তাদের পথযাত্রা শুরু হয়। পরবর্তীতে ১৯৯৫ সালে বাংলাদেশ ব্যাংক আইপিডিসিকে স্বীকৃতি দিয়ে থাকে আর্থিক প্রতিষ্ঠান (Financial Institution) হিসাবে।‌

আইপিডিসির সহযোগিতার হাত ধরে গড়ে উঠেছে বেসরকারি অনেক বড় বড় প্রতিষ্ঠান যার মধ্যে অ্যাপোলো হাসপাতাল ঢাকা, কলাস্টিকা স্কুল, ফ্যান্টাসি কিংডম থিম পার্ক উল্লেখযোগ্য। সর্বশেষ ২০১৫ সালে সবচাইতে বড় শেয়ারহোল্ডার হিসেবে জায়গা করে নেয় আইপিডিসি। আরও জানুন কোন ব্যাংকে টাকা রাখলে লাভ বেশি

আইপিডিসি পার্সোনাল লোন কি?

কিভাবে পাবেন আইপিডিসি পার্সোনাল লোন ও আইপিডিসি ব্যবসায়িক লোন জানার পূর্বে আপনার জানা প্রয়োজন পার্সোনাল লোন‌ আসলে কি?

আইপিডিসি পার্সোনাল লোন

নিজের যে‌ কোন ব্যক্তিগত খরচ বা কাজের জন্য কোন জায়গা থেকে আর্থিকভাবে লোন নেওয়ার প্রয়োজন হতে পারে।‌ কিছু আর্থিক প্রতিষ্ঠান আপনাকে এ ধরনের লোন দিয়ে থাকেন মূলত এ ধরনের লোনকে পার্সোনাল লোন বলা হয়।

এমনই একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান যা কিনা আপনার আর্থিক প্রয়োজন মেটানোর জন্য লোন দিয়ে থাকেন নাম আইপিডিসি (IPDC)। স্বপ্ন পূরণের লক্ষ্যে আর্থিকভাবে আপনাকে স্বনির্ভর করার জন্য কাজ করে থাকে আইপিডিসি।

আইপিডিসি ব্যবসায়িক লোন কি?

কিভাবে পাবেন আইপিডিসি পার্সোনাল লোন ও আইপিডিসি ব্যবসায়িক লোন জানার পূর্বে পার্সোনাল লোন‌ কি জানার পাশাপাশি আইপিডিসি ব্যবসায়ী লোন কি তা জানা জরুরী।

আইপিডিসি ব্যবসায়িক লোন

ছোট কিংবা বড় যেকোনো ধরনের ব্যবসার জন্য আপনি ব্যবসায়ী লোন নিতে পারেন আইপিডিসি ব্যাংক থেকে। যদি আপনার সব ডকুমেন্টের কাগজপত্র ঠিক থাকে এবং আপনি যদি একজন ভাল মাপের ব্যবসায়ী হোন তাহলে আপনি নিশ্চিত থাকুন ব্যবসায়িক লোন নিয়ে। এছাড়াও জানতে পারেন বিদেশ যাওয়ার জন্য কোন ব্যাংক লোন দেয়

কিভাবে পাবেন আইপিডিসি পার্সোনাল লোন ও আইপিডিসি ব্যবসায়িক লোন?

ইতিমধ্যে আমরা জেনেছি যে, নিজের ব্যক্তিগত যেকোনো কাজের জন্য যখন আমরা কোন জায়গায় থেকে লোন করতে চাই সেই লোনকে পার্সোনাল লোন বলা হয়।

কিন্তু আপনি কি জানেন, আইপিডিসি পার্সোনাল লোন নেওয়ার জন্য আপনার যোগ্যতা এবং লোনের পরিশোধের মত দক্ষতা আছে কিনা তার সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া প্রয়োজন।

আইপিডিসি পার্সোনাল লোন নেওয়ার নিয়ম

তাই পার্সোনাল লোন নেওয়ার পূর্বে চলুন জেনে নেওয়া যাক, আইপিডিসি পার্সোনাল লোনের যোগ্যতা সম্পর্কে।

যে সকল যোগ্যতা থাকলে আপনি আইপিডিসি পার্সোনাল লোনের জন্য আবেদন করতে পারবেন তা হল :-

  • পেশা- বেতনভুক্ত কর্মচারী
  • বয়স- সর্বনিম্ন ২১ বছর এবং সর্বোচ্চ ৬৫ বছর অথবা অবসরপ্রাপ্ত হলে আবেদন করতে পারবেন
  • আয়- সর্বনিম্ন মাসিক আয় ৩০ হাজার টাকা 
  • অভিজ্ঞতা- সর্বনিম্ন কাজের অভিজ্ঞতা ১বছর।‌

এই ৪টি যোগ্যতা থাকলে আপনি নিশ্চিন্তে আবেদন করে পার্সোনাল লোন পেতে পারেন্। যোগ্যতার পাশাপাশি পার্সোনাল লোন পাওয়ার জন্য যে সকল ডকুমেন্ট প্রয়োজন।

যেসব ডকুমেন্ট লাগবে

ফর্মঃ এপ্লিকেশন ফর্ম সঠিকভাবে পূরণকৃত এবং যথোপযুক্ত সাইন সম্মলিত। (ব্যক্তিগত লোনের আবেদন পত্র ডাউনলোড এর মাধ্যমে সরাসরি অনলাইনে ফর্ম পূরণ করতে পারবেন।)

পরিচিতি ডকুমেন্ট

  • জাতীয় পরিচয়পত্র অথবা পাসপোর্টের ফটোকপি
  • পাসপোর্ট সাইজ ছবি 
  • ইউটিলিটি বিলের কপি (গ্যাস বিল, টেলিফোন বিল, ওয়াসা বিল)

আয় সংক্রান্ত ডকুমেন্ট

  • বেতন / ইনকাম স্ক্রিপ্ট 
  • ব্যাংক স্টেটমেন্ট (এক বছরের )
  • অন্যান্য ইনকাম সংক্রান্ত ডকুমেন্ট (যদি থাকে)
  • ই-টিন কপি।

আইপিডিসি ব্যবসায়িক লোন নেওয়ার নিয়ম

ব্যবসায়িক লোনের আবেদনের জন্য আপনার যে সকল যোগ্যতা ও ডকুমেন্ট লাগবে চলুন তা সম্পর্কে জানা যাক।

আপনার পরিচয়, ব্যবসার নাম, ব্যবসা সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য, ব্যবসার এক্সপেরিয়েন্স ইত্যাদি যাবতীয় তথ্যের মাধ্যমে আইপিডিসি ব্যাংক থেকে ব্যবসায়িক লোন পেতে পারেন।

আইপিডিসি সাধারণত তিন থেকে পাঁচ লাখ টাকা সর্বোচ্চ ঋণ দিয়ে থাকেন। যার মেয়াদ - (১২ থেকে ৬০ মাস) হয়। আপনি মাসিক, ত্রি-মাসিক (৩‌মাস), অর্থ-বাতসরিক (৬ মাস), স্ট্রাকচার্ড পেমেন্টের মাধ্যমে ঋণ পরিশোধ করতে পারেন।

আইপিডিসি ব্যবসায়িক লোন আবেদনের যোগ্যতা?

আইপিডিসি ব্যবসায়িক লোনে আবেদনের জন্য আপনার ব্যবসা অবশ্যই ন্যূনতম তিন বছর যাবত সচল এবং সফল ব্যবসা হতে হবে।

আইপিডিসি ব্যবসায়িক লোন এর জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

  • প্রাথমিক প্রয়োজনীয় দলিল
  • নূন্যতম তিন বছরের ট্রেড লাইসেন্স
  • অংশীদারি ব্যবসার ক্ষেত্রে সাব-রেজিস্টার কর্তৃক নিবন্ধিত নোটারিকৃত পার্টনারশীপ দলিল • মেমোরেণ্ডাম/আর্টিকেল্স অফ অ্যাসোসিয়েশন এবং প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানির জন্য ইনকর্পোরেশন সার্টিফিকেট।
  • মালিক/অংশিদার/পরিচালকগণের জাতীয় পরিচয়পত্র/পাসপোর্ট/ওয়ার্ড কমিশনার/ইউপি চেয়ারম্যান সার্টিফিকেট
  • মালিক/অংশিদার/পরিচালকগণের ২ কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি
  • বিগত ১২ মাসের লেনদেন সহকারে ব্যাংক স্টেটমেন্ট
  • অন্যান্য

আইপিডিসি পার্সোনাল লোন এবং আইপিডিসি ব্যবসায়িক লোন সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে আজই যোগাযোগ করুন ১৬৫১৯ নম্বরে।

আইডিএলসি শাখা তালিকা?

২০১৮ সালের শেষ সূত্র অনুযায়ী, আইটিএলসি তিনটি ৩০ টি শাখা রয়েছে। পুরো দেশব্যাপী ৩০টি শাখা ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে আসুন তা সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক:

  • ইমামগঞ্জ 
  • উত্তরা 
  • এলিফ্যান্ট রোড 
  • সাভার 
  • সিলেট 
  • হবিগঞ্জ
  • কেরানীগঞ্জ 
  • কুমিল্লা 
  • কুষ্টিয়া 
  • খুলনা 
  • গাজীপুর 
  • গুলশান
  • চট্টগ্রাম 
  • টঙ্গী 
  • যশোর
  • চৌমুহনী
  • দিলকুশা 
  • ধানমন্ডি 
  • নাটোর 
  • নারায়ণগঞ্জ আইপি
  • নরসিংদী 
  • ফরিদপুর 
  • বগুড়া 
  • ভুলতা 
  • মিরপুর 
  • ময়মনসিংহ 
  • রংপুর 
  • নন্দনকানন 
  • রাজশাহী 
  • বরিশাল।

আপনি বাংলাদেশের যে প্রান্তে থাকুক না কেন খুব সহজেই আইএলডিসি শাখাতে লেনদেন করতে পারেন।

এসএমই লোন কি?

বাণিজ্যিক ব্যবহারের জন্য নতুন বা রিকন্ডিশন যানবাহন কিনতে ছোট বা মাঝারি ব্যবসায়ীদের লোন প্রয়োজন হয়ে থাকে। বাণিজ্যিক যানবাহনভিত্তিক ব্যবসা করার জন্য লোন ভিত্তিক কিস্তি প্রদান করাকে এসএমআই লোন বলা হয়।

আইডিএলসি এসএমই লোনের সুবিধা?

ব্যবসায়ী উদ্যোক্তাদের অগ্রযাত্রার পথ প্রতিষ্ঠা‌ করার জন্য আর্থিকভাবে আইডিএলসি এসএমই লোন দিয়ে থাকেন। আপনার ব্যবসা প্রতিষ্ঠার জন্য আইডিএলসি এসএমই লোন খুবই গুরুত্বপূর্ণ কারণ -

  • আইডিএলসি সহজ ও দ্রুত লোন নিশ্চিত করে।
  • ২৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত লোন নিশ্চিত করে।
  • অন্য আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে লোন নিলেও আপনার সুবিধার্থে ipdc লোনের সেবা প্রদান করে।
  • ব্যবসার ধরন অনুযায়ী মাসিক কিস্তিতে কিস্তি নির্ধারণের সুবিধা নিশ্চিত করে।
  • প্রত্যেক গ্রাহকের জন্য নিবেদিত রিলেশনশিপ ম্যানেজার রয়েছে।

প্রায়শই জিজ্ঞাসিত প্রশ্ন (Frequently Asked Questions)

পার্সোনাল লোন কিভাবে নেয়?

আপনার ব্যক্তিগত বা সংসারী যে কোন প্রয়োজন মেটানোর জন্য আইপিডিসি পার্সোনাল লোন দিয়ে থাকে। পার্সোনাল আবেদনের জন্য যোগ্যতার পাশাপাশি প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট থাকলে নিশ্চিত করা সম্ভাবনা পার্সোনাল লোন।

আইডিএলসিএস এম আই লোন?

ক্ষুদ্র, মাঝারি ব্যবসায়ীদের আগামীতে উদ্যোগী করার জন্য আইডিএলসি এমআই লোন দিয়ে থাকে। সবচাইতে সহজ ও দ্রুততম লোনের সেবা নিশ্চিত করে আইডিএলসি।

পরিশেষে

আজকে আর্টিকেলটিতে কিভাবে পাবেন আইপিডিসি পার্সোনাল লোন এবং আইপিডিসি ব্যবসায়িক লোন সম্পর্কে যাবতীয় সকল সঠিক ও বিস্তারিত সকল তথ্য তুলে ধরেছি। এছাড়া লোন সংক্রান্ত যাবতীয় আরো সকল তথ্য সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ও আপডেট পেতে টোকা দিন আমাদের কমেন্ট বক্সে এবং আর্টিকেলটি ভালো লাগলে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন।

এখানে আপনার মতামত দিন

0মন্তব্যসমূহ

আপনার মন্তব্য লিখুন (0)