ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড নিন খুব সহজে একদম বিনামুল্যে

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড - আসসালামু আলাইকুম। টেকনিক্যাল কেয়ার বিডি এর নতুন আরো একটি পোস্টে আপনাকে স্বাগতম। আমি হাসিবুর আছি আপনাদের সাথে, আশা করি সকলেই অনেক ভালো আছেন। বন্ধুরা আজকে আমরা ব্রাক ব্যাংক থেকে একদম বিনামুল্যে আর খুব সহজেই একটি ভিসা কার্ডের জন্য আবেদন করবো।

Brac Bank বাংলাদেশের একটি বিশ্বস্ত ব্যাংক প্রতিষ্ঠান। এটি বাংলাদেশে ২০০১ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে এবং বর্তমান সময় পযন্ত বাংলাদেশে সফলভাবেই ব্যাংকিং সেবা প্রদান করে আসছে। আশা করি আমাদের প্রজন্ম সময় পযন্ত আমরা সবসময় ব্রাক ব্যাংক মোবাইল ব্যাংকিং সেরা পেতেই থাকবো। বর্তমানে ব্রাক ব্যাংকের সভাপতি ঈশরাক জাহান।

Brac Bank ব্যাংকিং সেবা মূলত একটি আর্থিক সেবা, যা নিদিষ্ট মেয়াদে অর্থ প্রদানের মাধ্যমে ব্যবসায়িক এবং ব্যক্তিগত গ্রাহকদের সহায়তা করে থাকে। Brac Bank বর্তমানে বাংলাদেশে বিভিন্ন ব্যাংকিং সেবা প্রদান করে। ব্রাক ব্যাংকের জনপ্রিয় কিছু ব্যাংকিং সেবা হলোঃ

  • বিল পরিশোধ
  • লোন প্রদান
  • কার্ড প্রদান
  • ট্রান্সফার সেবা
  • ইনভেস্টমেন্ট ম্যানেজমেন্ট ইত্যাদি।

এছাড়াও ব্রাক ব্যাংক তাদের সেরা খাতকে আরো বেশি জনপ্রিয় করার লক্ষে ব্যবসায়িক গ্রাহকদের জন্য বিশেষভাবে ব্যবসায়িক ঋণ প্রদান করে। ব্যবসায়িক এসব ঋণ প্রদান করে ব্যবসায়িদের শর্ত প্রদানের মাধ্যমে লেনদেনের ধারাবাহিকতা বজায় রাখে। গ্রাহকদের তাদের এই সেবাগুলো আরো সহজে হাতের নাগালে পাওয়ার জন্য ডিজিটাল ইন্টারনেট ব্যাংকিং সুবিধা এবং মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে তাদের হিসাব, লোন এবং অন্যান্য ব্যাংকিং কার্যক্রম সহজেই পরিচালনা করতে পারেন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

(toc) #title=(এক নজরে সম্পূর্ণ লেখা পড়ুন)

Brac Bank কি কি কার্ড প্রদান করে?

আজকে যেহেতু আমরা একদম ফ্রিতে এবং ঝামেলা ছাড়াই একটি ভিসা কার্ড নিবো সেহেতু আমরা আলাদা কোনো বিষয় নিলে আলোচনা করবো না। আজকে আমরা শুধুমাত্র ভিসা কার্ড নিয়েই কিছু আলোচনা করবো। সেই সাথে কিভাবে একটি ভিসা কার্ড পাবেন তা বিস্তারিত আলোচনা করবো।

Brac Bank বাংলাদেশের একটি অর্থনৈতিক সমস্যার সহজ সমাধান ব্যাংক যা তাদের গ্রাহকদের লেনদেন সুবিধার লক্ষে বিভিন্ন কার্ড প্রদান করে থাকে। নিম্নলিখিত কার্ডগুলি Brac Bank থেকে আবেদন করার মাধ্যমে খুব সহজেই পাওয়া যায়।

  • ডেবিট কার্ড
  • ক্রেডিট কার্ড
  • প্রিপেইড কার্ড

অন্যান্য সকল বড়ো বড়ো ব্যকংকের মতোই ব্রাক ব্যাংক তাদের গ্রাহকদের লেনদেন সুবিধার দিকে খেয়াল রেখে প্রতিষতানিক নিয়মেই ৩ ধরনেট কার্ড প্রদান করে থাকে। এই কার্ডগুলো দিয়ে গ্রাহকগণ নিদিষ্ট পলিসি অনুযায়ে নিয়মিত তাদের লেনদেন গুলো সম্পুর্ন করতে পারবেন। তো চলুন এবার জেনে নেই ব্রাক ব্যাংক থেকে পাওয়া এই ৩ ধরবের কার্ড কোনটি কি কাজে ব্যবহার করা হয়।

১. ডেবিট কার্ড: Brac Bank তাদের গ্রাহকদের নিয়মিত লেনদেন আরো বেশি সহজ করতে প্রতিষ্ঠানিক ভাবেই ডেবিট কার্ড প্রদান করে থাকে, যা গ্রাহকরা তাদের ব্যবসায়িক এবং ব্যক্তিগত প্রয়োজনে ব্যবহার করতে পারেন। এই কার্ডগুলো গ্রাহকদের নিজিস্ব চাহিদা, ইচ্ছ অথবা প্রয়োজনে ব্যবহার করার সুযোগ থাকে। ডেবিট কার্ড ব্যবহার করে গ্রাহকরা অনলাইন শপিং, এটিএম থেকে নগদ অর্থ উত্তোলন, বিল পরিশোধ, ব্যালেন্স ট্রান্সফার সহ যাবতীয় সকল কাজ করতে পারেন।

২. ক্রেডিট কার্ড: Brac Bank তাদের গ্রাহকদের অর্থ লেনকদেন আরো বেশি সহজ করে তুলতে ক্রেডিট কার্ড প্রদান করে থাকে। এই কার্ডগুলি দিয়ে গ্রাহকগন লেনদেনের উপর ভিত্তি করে বিভিন্ন ক্রেডিট পাওয়া এবং সর্বোচ্চ লেনদেনকারি পুরুস্কারে ভূষিত হয়। গ্রাহকরা ব্রাক ব্যাংক থেকে পাওয়া ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে অনলাইনে বিভিন্ন কেনাকাটা, অনলাইন সকল স্থানে লেনদেন, বিল পরিশোধ, ব্যালেন্স ট্রান্সফার লেনদেনের যাবতীয় সকল কাজ করতে পারেন। এটিই মূলত ভিসা কার্ড নামে পরিচিত।

৩. প্রিপেইড কার্ড: Brac Bank তাদের নিয়মিত সকল গ্রাহকদের লেনিদেন সুবিধার জন্য প্রিপেইড কার্ড প্রদান করে। প্রিপেইড কার্ড ব্রাক ব্যাংকের সকল গ্রাহকদের বিনামূল্যে প্রদান করা হয়। এই প্রিপেইড কার্ড দিয়ে গ্রাহকদের বিভিন্ন ওয়েবসাইটে কেনাকাটা, বিল পরিশোধ, এটিএম থেকে নগদ অর্থ উত্তোলন এবং প্রয়োজন অনুসারে অন্যন্য যাবতীয় প্রায় সকল লেনদেন সম্পুর্ন করতে পারে।

আরো পড়ুন: বিকাশ সিম হারিয়ে গেলে করণীয়

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ডের সুবিধাগুলো কি?

দেশের অন্যান্য সকল ভিসা কার্ড প্রদানকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর মতোই ব্রাক ব্যাংক Visa Card আপনি আপনার প্রয়োজনীয় সকল কাজেই ব্যবহার করতে পারবে। এছাড়াও অনলাইনে কেনাকাটার জন্য মার্কেটপ্লেসে জনপ্রিয় একটি ভিসা কার্ড হিসাবেও পরিচিত। ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড এটি বিশ্বব্যাপী নিরাপদে অর্থ লেনেদের জনপ্রিয় একটি মাধ্যম। ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ডের সুবিধাগুলো হলোঃ

  • সহজ ব্যবহার
  • গ্রাহকদের সুরক্ষা নিশ্চিত
  • বিশ্বব্যাপী গ্রহনযোগ্য
  • অনলাইন মার্কেটে পেমেন্ট সুবিধা
  • ফ্রিল্যান্সিং অর্থ উত্তোলন
  • সকল ওয়েবসাইটে গ্রহনযোগ্য
  • EMI এক্সচেঞ্জ সুবিধা
  • বিকাশ দিয়েই ডলার লোড সুবিধা ইত্যাদি।

ব্রাক ব্যাংকের জনপ্রিয় এই ভিসা কার্ড নিলে আপনি খুব সহজেই বিকাশ দিয়ে আপনার কার্ডে ডলার লোড করতে পারবেন। যে আপনি আপনার ইচ্ছা মতো প্রয়োজনে বিভিন্ন দেশের কেনাকাটা অথবা বিভিন্ন ওয়েবসাইটে পেমেন্ট করার জন্য ব্যবহার করতে পারবেব। ভিসা কার্ড নেওয়ার এই সমস্থ প্রসেসগুলোর জন্য আপনাকে কোনো বার্তি অর্থ প্রদান করতে হবে না। ব্রাক ব্যাংকের ভিসা কার্ড একদম ফ্রিতেই নিতে পারবেন।

এছাড়াও আপনি যদি কার্ডের ব্যবহার জন্য চেক বই চান তাহলে আপনাকে চেক বইয়ের খরচ হিসাবে ২৪০ টাকা প্রদান করত্র হবে। সেই সাথে আপনার চেক বই সংগ্রহ করার জন্য নিকটস্থ ব্রাক ব্যাংক সংস্থায় যোগাযোগের মাধ্যমে আপনার চেক বই সংগ্রহ করতে হবে।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড এর জন্য আবেদন করার নিয়ম

তো বন্ধুরা চলুন এবার দেখে নেই কিভাবে আপনারা একদম ফ্রিতেই একটি ভিসা কার্ড নেওয়ার জন্য আবেদন করবেন।

১. কাজটি শুরু করার আগে প্রথমেই আমরা প্লে-ষ্টোর থেকে Brac Bank Astha অ্যাপটি আমাদের ফোনে ইন্সটল করে নিবো।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

২. অ্যাপটি ওপেন করার পর Open A Bank Account অপশনে ক্লিক করবেন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

৩. তারপর অ্যাপটি আপনাদের ক্রোম ব্রাউজারে নিয়ে আসবে আর কিচ্ছুক্ষন লোডিং হবে। আপনারা অপেক্ষা করবেন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

৪. এবার আপনারা নিচ থেকে Apply অপশনে ক্লিক করবেন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

৫. তারপর আপনারা কিসের অধিনে আর কি কারণে ব্যাংক একাউন্ট খুলতে চান সেটি সিলেক্ট করে Next অপশনে ক্লিক করবেন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

৬. এবার আপনার 01 সহ আপনাদের ফোন নাম্বারটি দিয়ে নিচের Submit অপশনে ক্লিক করবেন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

৭. আপনারা একটু আগে যে নাম্বারটি দিলেন সেই নাম্বারের ম্যাসেজে একটি কোড আসবে। কোডটি নিচের ঘড়ে দিয়ে Submit অপশনে ক্লিক করবেন। কোডটি প্রথম বারে না আসলে রিসেন্ট কোড অপশনে ক্লিক করবেন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

৮. এবার আপনাদের Brac Bank একাউন্ট খোলার জন্য প্রথমেই ভোটার আইডি কার্ড ভেরিফাই করতে হবে। একাউন্ট ভেরিফাই করার জন্য প্রথম ঘড়ে আপনার NID কার্ডের সামনের ছবি এবং পরের ঘড়ে আপনার NID কার্ডের পিছনের ছবি দিয়ে নিচের Upload অপশনে ক্লিক করুন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

৯. তারপর আপনাদের লাইভ ফেস ভেরিফাই করতে হবে। লাইভ ফটো ভেরিফাই করার জন্য রিটেক ফটো অপশনে ক্লিক করে আপনাদের মুখের একটি সুন্দর ছবি তুলে Upload অপশনে ক্লিক করুন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

১০. এবার ভেরিফাইয়ের জন্য কিছুক্ষন লোডিং হবে আপনারা অপেক্ষা করুন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

১১. তারপর আপনারা যদি ফ্রিতেই Visa Card নিতে চান তাহলে আমার মতো করে ফাকা ঘড়গুলো পূরন করুন অথবা আপনাদের ইচ্ছামতো পূরন করতে পারেন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

১২. এবার আপনাদের পারসোনা ইনফরমেশন দিয়ে নিচের ঘড়গুলো পূরন করুন। আমার নিজের প্রাইভেসির জন্য আমি ইমেজটি ব্লাড় করে দিয়েছি। এবার আপনারা Next অপশনে ক্লিক করুন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

১৩. তারপর ডেবিট কার্ড নেওয়ার ঘড়ে Yes করে দিবেন। বাকি অপশনগুলো নিজের ইচ্ছামতো সঠিক তথ্য দিয়ে পূরন করবেন। তারপর Next অপশনে ক্লিক করুন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

১৪. এবার আপনাদের সকল তথ্য ঠিক থাকলে Brac Bank একটি সফল একাউন্ট খোলার জন্য একাউন্টে নোমিনি ইউজার যুক্ত করতে বলবে। আপনারা আপনাদের ইচ্ছামতো নোমিনি ইনফরমেশন দিয়ে Next অপশনে ক্লিক করুন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

১৫. তারপর আপনাদের Successful একটি ম্যাসেজ পাঠাবে। আর সেখানে আপনাদের একাউন্ট ডিটেইলস ট্রাকিং নাম্বার দেওয়া থাকবে।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

১৬. আপনারা আপনাদের যাবতীয় তথ্যগুলো Gmail অথবা নাম্বারেও মেছেজের মাধ্যমে আপডেট পেতে থাকবেন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

১৭. তো বন্ধুরা, এতোক্ষন আমরা আমাদের Visa Card নেওয়ার যাবতীয় কাজগুলো সঠিকভাবে করলাম। এবার আমাদের Brac Bank Astha অ্যাপ সেটয়াপ করতে হবে নয়তো আমরা আমাদের Visa Card জন্য আবেদন করতে পারবো না। তো এর জন্য আমরা Sing Up For Astha অপশনে ক্লিক করবো।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

১৮. এবার আমরা Agree অপশনে ক্লিক করে নিচের Next অপশনে ক্লিক করবো।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

১৯. তারপর আমরা Account অপশন বাছাই করবো আর নিচ থেকে Continue অপশনে ক্লিক করবো।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

২০. এবার আপনারা উপরের ঘড়ে একটু আগেই যে একাউন্ট নাম্বার পেলেন সেই একাউন্ট নাম্বারটি দিয়ে দিন। আর নিচের ঘড়ে আপনাদের একাউন্ট খোলা ফোন নাম্বার টি দিয়ে দিন। তারপর Validate অপশনে ক্লিক করুন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

২১. আপনাদের ফোনে একাউন্ট ভেরিফাই করার জন্য একটি কোড আসবে। আপনারা কোডটি কিসের মাধ্যমে নিতে চান সেই মাধ্যম অথবা অপশনটি সিলেক্ট করে দিয়ে Next অপশনে ক্লিক করবেন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

২২. এবার আপনাদের ফোনে আসা ভেরিফাই কোডটি দিয়ে নিচের ভেরিফাই অপশনে ক্লিক করবেন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

২৩. তারপর আপনাদের একাউন্ট সেটয়াপ করার জন্য নিচের Set User ID And Password অপশনে ক্লিক করবেন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

২৪. এবার আপনাদের ইচ্ছামতো ইউজার নাম আর পার্সওয়াড দিয়ে নিচের Submit অপশনে ক্লিক করবেন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

২৫. তারপর দেখবেন একটি Success নোটিফিকেশন শো করবে৷ এবার আপনারা নিচে থেকে Log In অপশনে ক্লিক করবেন। আর আপনাদের একাউন্টে Log in করে নিবেন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

২৬. এবার আপনারা আপনাদের একাউন্ট থেকে Credit Card অপশনে ক্লিক করবেন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড নিন খুজ সহজে একদম বিনামুল্যে

২৭. তারপর আবারো (+Credit Card) অপশনে ক্লিক করবেন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

২৮. এবার আপনারা Visa Platinum Card কার্ডটির এপ্লাই অপশনে ক্লিক করে এপ্লাই করবেন। আপনারা চাইলে ডিটেইলস অপশনে ক্লিক করে সমস্থা ডিটেইলস গুলো পড়ে নিতে পারবেন।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

২৯. তারপর আপনাদের Application Submit Successful একটি নোটিফিকেশন শো করাবে এবং সেখানে আপনাদের একটি Application Id দেওয়া হবে। সেটি আপনারা সংরক্ষণ করে রাখবেন। পরে কাজে লাগবে।

ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড

আরো পড়ুন: কারেন্সি সোয়াপ কি? কারেন্সি সোয়াপ কাকে বলে

পরিশেষে

বন্ধুরা, এভাবেই আপনারা খুব সহজে Brac Bank থেকে একদম বিনামুল্যে একটি স্টুডেন্ট Visa Card নিতে পারবেন। যা দিয়ে আপনারা অনলাইনে অথবা দেশের বাহিরে সমস্থ স্থানে লেনদেন সম্পুর্ন করতে পারবেন। এবার কয়েকদিন অপেক্ষা করলেই আপনাদের দেওয়া নিদিষ্ট ঠিকানায় আপনাদের Visa Card চিঠি আকারে চলে আসবে।

তো বন্ধুরা এই ছিল আমাদের আজকের পোস্ট, কিভাবে খুজ সহজে ব্রাক ব্যাংক ভিসা কার্ড নিবেন একদম বিনামুল্যে। আশা করি পোস্ট টি আপনাদের একটু হলেও হেল্পফুল হবে। আজকের মতো এখানেই বিদায় নিচ্ছি, দেখা হবে পরবর্তী পোস্টে নতুন কোন বিষয় নিয়ে। ততক্ষণ অবধি সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন এবং (ওয়েবসাইট নাম) এর সাথেই থাকবেন।

এখানে আপনার মতামত দিন

0মন্তব্যসমূহ

আপনার মন্তব্য লিখুন (0)