ইউরোপের কোন দেশে যেতে কত টাকা লাগে

ইউরোপের কোন দেশে যেতে কত টাকা লাগে - ইউরোপের কোন দেশে যেতে কত টাকা লাগে এ সম্পর্কে জানতে চান? তাহলে সঠিক জায়গায় এসেছেন। কেননা আজকে আমরা আলোচনা করব ইউরোপের কোন দেশে যেতে কত টাকা লাগে এই সম্পর্কে। তাহলে আর দেরি না করে ইউরোপের কোন দেশে যেতে কত টাকা লাগে এ সম্পর্কে জেনে নিন।

ইউরোপের কোন দেশে যেতে কত টাকা লাগে

ইউরোপের কোন দেশে যেতে কত টাকা লাগে এ সম্পর্কে আপনাদের জন্য নিচে বিস্তারিতভাবে ধাপে ধাপে আলোচনা করা হয়েছে। যেগুলো পড়ার মাধ্যমে আপনারা খুব সহজেই জানতে পারবেন ইউরোপের কোন দেশে যেতে কত টাকা লাগে তা সম্পর্কে। তাই আর বিলম্ব না করে চলুন ইউরোপের কোন দেশে যেতে কত টাকা লাগে এ সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

(toc) #title=(সুচিপত্র)

ইউরোপের কোন দেশে যেতে কত টাকা লাগে

আপনাদের মধ্যে অনেকে স্বপ্ন দেখে থাকেন ইউরোপের মতো দেশে যাওয়ার। তবে অনেকেই জানে না ইউরোপের কোন দেশে যেতে কত টাকা লাগে এ সম্পর্কে। উন্নত বিশ্বের প্রধান দেশগুলোর মধ্যে ইউরোপীয় দেশগুলো অন্যতম। তবে স্বাভাবিকভাবেই উন্নত সেই দেশগুলোতে সহজে ভিসা পাওয়া যায় না এবং ভিসার খরচ খুব বেশি হয়ে থাকে। তাই ইউরোপে যাওয়ার স্বপ্ন থাকলে অবশ্যই জানতে হয় ইউরোপের কোন দেশে যেতে কত টাকা লাগে।

ইউরোপের দেশগুলোতে কাজের বিভিন্ন রকম সুবিধা থাকে এবং তার সাথে বিভিন্ন ক্যাটাগরির কাজ থাকে। যার কারণে সকলে পছন্দমত কাজ করতে পারে এবং অন্যান্য দেশের তুলনায় বেশি টাকা ইনকাম করতে পারে। ইউরোপের কোন দেশে যেতে কত টাকা লাগে এ সম্পর্কে জানতে আর্টিকেলটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

আরো পড়ুনঃ কুয়েত কোন কাজের চাহিদা বেশি

ইউরোপের কোন দেশে যেতে কত টাকা লাগে

বর্তমানে বিশ্বে ইউরোপ দেশগুলোতে যেতে সবচেয়ে বেশি খরচ হয়। এর মূল কারণ এখানকার জীবন যাত্রার মান উন্নত। তাছাড়া এখানকার টাকার মান বেশি থাকায় যেতে খরচ বেশি হয়। আর এজন্য আপনাদের মধ্যে অনেকেই আগ্রহ প্রকাশ করে থাকে ইউরোপের কোন দেশে যেতে কত টাকা লাগে এ সম্পর্কে জানার জন্য। অন্যান্য দেশের তুলনায় ইউরোপের দেশগুলোতে চাকরির বেতন বেশি হয়ে থাকে।

যার ফলে আপনি অল্প দিনেই আপনার টাকা উঠাতে পারবেন। ইউরোপের দেশগুলো হল - আমেরিকা, ইতালি, পোল্যান্ড, রোমানিয়া, পর্তুগাল ইত্যাদি। প্রতিটা দেশের ভিন্ন ভিন্ন সুবিধার কারণে ভিন্ন ভিন্ন রকম টাকা খরচ হয়ে থাকে। আর এ দেশগুলো যাওয়ার জন্য আপনাদের কি রকম খরচ হবে সে সম্পর্কে নিচে তুলে ধরব।

ইতালি যেতে কত টাকা লাগে

আপনি যদি বাংলাদেশ থেকে ইতালি যেতে চান, সে ক্ষেত্রে আপনার সব মিলিয়ে খরচ পড়বে ৯ লাখ থেকে ১০ লাখ টাকা। তবে যদি আপনার কোন আত্মীয় ইতালি থেকে থাকে সেক্ষেত্রে আপনার খরচের পরিমাণ কিছুটা কমতে পারে। আর আপনার আত্মীয় ইতালি থাকলে ভিসা পেতে আপনার তেমন কোন সমস্যা হবে না। তখন সে আপনার ভিসা আবেদন থেকে শুরু করে, ভিসা প্রসেসিং সবকিছু সে নিজেই করে দেবে। আর যদি না থাকে সেক্ষেত্রে আপনাকে দালালে শরণাপন্ন হতে হবে।

পোল্যান্ড যেতে কত টাকা লাগে

পোল্যান্ড অন্যতম প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের দেশ। বর্তমানে পোল্যান্ড সরকার কাজের ভিসা চালু করেছে। আর তারা বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক নিচ্ছে। তাই আপনি চাইলে কাজের ভিসায় পোল্যান্ড যেতে পারেন। আবার আপনি বেড়ানোর উদ্দেশ্যে অথবা পড়াশোনার জন্য পোল্যান্ড যেতে পারেন। আপনি যদি ওয়ার্ক পারমিট ভিসায় পোল্যান্ড যেতে চান সেক্ষেত্রে আপনার সব মিলিয়ে খরচ পড়বে ৮ লক্ষ টাকার মতো। আর যদি আপনি বেড়ানোর উদ্দেশ্যে যেতে চান সে ক্ষেত্রে আপনার খরচ পড়বে ৪ লক্ষ টাকার মতো।

রোমানিয়া যেতে কত টাকা লাগে

ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে রোমানিয়া অন্যতম। আমাদের দেশ থেকে প্রতিবছর হাজার হাজার মানুষ রোমানিয়া যাচ্ছে কাজের উদ্দেশ্যে। কেননা রোমানিয়ায় কাজের বেতন অনেক বেশি হয়ে থাকে। রোমানিয়ায় কাজের বেতন ৫০ হাজার থেকে শুরু করে ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে। আপনি যদি ড্রাইভিং ভিসা অথবা রেস্টুরেন্ট ভিসাতে রোমানিয়া যেতে চান তাহলে আপনার বেতন পড়বে প্রায় ১ লক্ষ টাকার মতো।

আর আপনার যদি ভালো কম্পিউটার জানা থাকে সেক্ষেত্রে আপনার বেতন পড়বে ২ লক্ষ টাকার মতো। রোমানিয়ায় সবচেয়ে বেতন বেশি ইলেকট্রিক্যাল কাজে। আপনি যদি একজন ভালো মানের ইলেকট্রিশিয়ান হয়ে থাকেন সে ক্ষেত্রে আপনি ২ লক্ষ টাকার মতো বেতন পাবেন। আমাদের দেশে অনেক ইলেকট্রিশিয়ান রয়েছে। তারা চাইলে রোমানিয়ায় কাজের ভিসায় যেতে পারেন। রোমানিয়া যেতে সব মিলিয়ে আপনার খরচ পড়বে ৭ লক্ষ থেকে ৮ লক্ষ টাকা।

আরো পড়ুনঃ রোমানিয়া কোন কাজের চাহিদা বেশি

ইংল্যান্ড যেতে কত টাকা লাগে

বাংলাদেশের সিলেটের বেশিরভাগ মানুষ ইংল্যান্ডে বসবাস করে থাকে। ইংল্যান্ড যেতে চাইলে তাই আপনার পরিচিত লোকের প্রয়োজন হবে। ইংল্যান্ড বা লন্ডনে যদি আপনার পরিচয় কেউ থাকে সেক্ষেত্রে আপনার ভিসা পেতে কোন সমস্যা হবে না। তারা সেখান থেকে ভিসা আবেদন করে এবং ভিসা প্রসেসিং করে দেবে। আর আপনি তিন মাসের মধ্যে সেখানে যেতে পারবেন।

তখন আপনার খরচ পড়বে সর্বোচ্চ ৫ লক্ষ টাকার মতো। যদি আপনার পরিচিত কেউ না থাকে সে ক্ষেত্রে আপনাকে ভিজিট ভিসা বা স্টুডেন্ট ভিসাতে ইংল্যান্ড যেতে হবে। সেক্ষেত্রে আপনার খরচ পড়বে ৪ লক্ষ টাকার মতো। তাই ইংল্যান্ড যেতে চাইলে সিলেটের পরিচিত কোন ব্যক্তির সাথে যোগাযোগ করুন। সে যদি আপনাকে নিতে চায় তাহলে তিন মাসের মধ্যে নিতে পারবে।

আমেরিকা যেতে কত টাকা লাগে

আমাদের দেশ থেকে আমেরিকা কাজের ভিসায় শ্রমিক নিয়োগ দেয় না। তাই কাজের ভিসাতে আমেরিকায় যেতে চাইলে আপনাকে অন্য কোন দেশ যেতে হবে। যেমন আপনি লিবিয়া থেকে যে কোন দেশ যেতে পারবেন। তাই প্রথমে আপনাকে লিবিয়া যেতে হবে তারপর সেখান থেকে আমেরিকা যেতে হবে। অথবা আপনাকে স্টুডেন্ট ভিসাতে বা ভিজিট ভিসা আমেরিকা যেতে হবে। স্টুডেন্ট ভিসা বা ভিজিট ভিসায় আমেরিকা যেতে খরচ হয় সব মিলিয়ে ৫ লক্ষ টাকার মতো।

আর এই জন্য আপনাকে অবশ্যই যোগ্যতা সম্পন্ন হতে হবে। যদি আপনি যোগ্যতা সম্পন্ন না হন, তাহলে আপনি স্টুডেন্ট ভিসায় আবেদন করতে পারবেন না এবং আমেরিকা যেতেও পারবেন না। তাই আমেরিকা যাওয়ার জন্য আপনাকে অবশ্যই যোগ্যতা সম্পন্ন হতে হবে। আপনি যদি আমেরিকা বেড়ানোর উদ্দেশ্যে যেতে চান সে ক্ষেত্রে তারা আপনার পরীক্ষা নিয়ে নিবে। পরীক্ষায় পাশ করার মাধ্যমে আপনি আমেরিকা যেতে পারবেন।

জার্মানি যেতে কত টাকা লাগে

জার্মানি যাওয়ার সবচেয়ে সহজ উপায় হচ্ছে মধ্যপ্রাচ্যের কোন দেশ থেকে যাওয়া। তাই আপনাকে প্রথমে মধ্যপ্রাচ্যের কোন একটি দেশে যেতে হবে। তারপর সেখান থেকে জার্মানি যেতে হবে। এখানে আপনার খরচ পড়বে ৭ লক্ষ থেকে ৮ লক্ষ টাকার মতো। বাংলাদেশ থেকে জার্মানি যাওয়া যায় না। বাংলাদেশ জার্মানির কোন এম্বাসি নেই।

জার্মানি যাওয়ার জন্য আপনাকে অবশ্যই যোগ্যতা সম্পন্ন হতে হবে। কারণ জার্মানি শুধুমাত্র স্টুডেন্ট ভিসা ও ভিজিট ভিসায় যেতে পারবেন। আর ভিজির ভিসায় যেতে হলে আপনাকে অবশ্যই পরীক্ষা দিতে হবে এবং পরীক্ষায় পাস করতে হবে। পরীক্ষায় পাস করার মাধ্যমে আপনি জার্মানি যেতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ বিদেশে কোন কাজের চাহিদা বেশি

উপসংহারঃ ইউরোপের কোন দেশে যেতে কত টাকা লাগে

আজকে আর্টিকেলের আলোচ্য বিষয় ছিল ইউরোপের কোন দেশে যেতে কত টাকা লাগে এ ব্যাপারে। ইতিমধ্যে আপনারা বুঝতে পেরে গেছেন, ইউরোপের কোন দেশে যেতে কত টাকা লাগে এই সম্পর্কে। ইউরোপে আপনি যেতে চাইলে আইনসম্মত ভাবে যাওয়াটাই সবচেয়ে ভালো হবে। পৃথিবীর অনেক দেশ থেকে দেখা যায় তারা অবৈধভাবে ট্রলারযোগে বা নৌকায় উঠে ইউরোপে যাওয়ার চেষ্টা করে। 

যার ফলে পানিতে ডুবে আহত ও নিহত হয়ে থাকে। এ সকল খুব দুঃখজনক ঘটনা। আপনারা যদি কেউ ইউরোপের দেশে যেতে চান তাহলে অবশ্যই চেষ্টা করবেন বৈধভাবে যাওয়ার। কারণ অবৈধভাবে যাওয়ার চেষ্টা করলে বিভিন্ন রকম সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন এবং তার সাথে মৃ- ত্যুরও ঝুঁকি থাকতে পারে। তাই এভাবে ঝুঁকি না নিয়ে বৈধভাবে যাওয়াটাই উত্তম।

আশা করি তাহলে আমাদের আজকের আর্টিকেলটি ইউরোপের কোন দেশে যেতে কত টাকা লাগে এ সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জানতে পেরেছেন। এরকম গুরুত্বপূর্ণ টিপস গুলো পেতে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করতে পারেন। আর্টিকেলটি আপনার ভালো লেগে থাকলে অবশ্যই বেশি বেশি করে শেয়ার করবেন। আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

পোষ্ট ক্যাটাগরি: