কানাডায় কোন কাজের চাহিদা বেশি

25427 Sakhawat
By -
0

কানাডায় কোন কাজের চাহিদা বেশি - কানাডায় কোন কাজের চাহিদা বেশি এ সম্পর্কে জানতে চাচ্ছেন? তাহলে আজকের আর্টিকেলটি আপনার জন্য। কারণ আজকের এই আর্টিকেলে আমরা আলোচনা করব কানাডায় কোন কাজের চাহিদা বেশি এই সম্পর্কে। তাহলে আর দেরি না করে কানাডায় কোন কাজের চাহিদা বেশি এ সম্পর্কে জেনে নিন।

কানাডায় কোন কাজের চাহিদা বেশি

কানাডায় কোন কাজের চাহিদা বেশি এর বিস্তারিত সম্পর্কে আপনাদের জন্য ধাপে ধাপে আলোচনা করা হয়েছে। যার মাধ্যমে আপনারা খুব সহজেই কানাডায় কোন কাজের চাহিদা বেশি এ সম্পর্কে জানতে পারবেন। তাই আর বিলম্ব না করে কানাডায় কোন কাজের চাহিদা বেশি এ সম্পর্কে আলোচনা করা যাক।

(toc) #title=(সুচিপত্র)

ভূমিকা

বর্তমানে কানাডায় কাজে যাওয়ার জন্য বিভিন্ন রকম সুবিধা দেওয়া হচ্ছে। আমাদের দেশে অনেকেই কানাডায় কাজে যেতে চাই, তবে কানাডায় কোন কাজের চাহিদা বেশি এ সম্পর্কে জানে না। কানাডা যাওয়ার আগে অবশ্যই জানা উচিত সেখানে কি ধরনের কাজের চাহিদা রয়েছে। যদি কাজের চাহিদা না থাকে তাহলে কাজের তেমন মান পাওয়া যায় না। আর যেসব কাজের চাহিদা বেশি সেই কাজগুলোর বেতনও বেশি হয়ে থাকে।

কানাডায় বিভিন্ন রকম কাজের ক্যাটাগরির রয়েছে। কিন্তু আপনাকে জানতে হবে কোন কাজের চাহিদা বেশি এবং কোন কাজে আপনার দক্ষতা রয়েছে। দক্ষতা ছাড়া কাজে গেলে বিভিন্ন ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন। তাই প্রথমত আপনাকে জানতে হবে আপনার কোন কাজে দক্ষতা রয়েছে এবং কোন কাজের চাহিদা কানাডায় বেশি। আর্টিকেলটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ার মাধ্যমে জানতে পারবেন কানাডায় কোন কাজের চাহিদা বেশি এর বিস্তারিত সম্পর্কে।

আরো পড়ুনঃ বিদেশে কোন কাজের চাহিদা বেশি

যে ১০ পদে আবেদন করলে দ্রুত যাওয়া যাবে কানাডায়

আগের তুলনায় অনেক সহজ করা হয়েছে কানাডায় স্থায়ীভাবে বসবাসের প্রক্রিয়া। ২০২০ সাল পর্যন্ত তিন বছরে ১০ লাখ দক্ষ শ্রমিক নেবে দেশটি। এতে সেখানে স্থায়ীভাবে বসবাস, কাজ করার অনুমতি ও নাগরিকত্ব পাবেন তারা। কানাডায় বিভিন্ন ধরনের কাজ রয়েছে। অনেক কাজ আছে যেগুলো আবেদন করলে কানাডা যেতে অনেক সময় লেগে যায়। যার ফলে বিভিন্ন ধরনের ভোগান্তির মধ্যে পড়তে হয়। তবে এমন কিছু কাজ আছে, যেগুলো কাজে আবেদন করলে খুব দ্রুত কানাডায় যাওয়া যায়। আর এই জন্য আপনাদের এই কাজগুলো সম্পর্কে জানা অত্যন্ত জরুরী।

যে ১০ পদে আবেদন করলে দ্রুত কানাডা যাওয়া যায় তা নিম্নে দেওয়া হলোঃ

১। সেলস রিপ্রেজেন্টেটিভ

২। অ্যাকাউন্টেন্ট

৩। ইঞ্জিনিয়ারিং প্রজেক্ট ম্যানেজার

৪। বিজনেস এনালিস্ট

৫। কাস্টমার সার্ভিস রিপ্রেজেন্টেটিভ

৬। আইটি প্রজেক্ট ম্যানেজার

৭। সিনিয়র অ্যাকাউন্ট ম্যানেজার

৮। সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার

৯। ম্যানুফ্যাকচারিং এ দক্ষ

১০। হিউমান রিসোর্স ম্যানেজার

কানাডায় কোন কাজের চাহিদা বেশি

বর্তমানে বড় সংখ্যার কর্মী কাজের ভিসায় বিদেশে পাড়ি জমাচ্ছে। আর সেটা যদি হয় কানাডার মত দেশ, তাহলে তো কোন কথাই নেই। তবে এর মধ্যে অনেকেই আছে যারা সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারছে না, যে কানাডায় কোন কাজের চাহিদা বেশি এই সম্পর্কে। কানাডায় কাজের ক্যাটাগরি রয়েছে ভিন্ন ভিন্ন। আর কানাডায় কাজের উপর নির্ভর করে কর্মীর বেতন। তাই কানাডায় কোন কাজের চাহিদা বেশি, সে সম্পর্কে আপনাকে প্রথমত জানতে হবে।

কানাডায় যেসব কাজের চাহিদা বেশি সেগুলো হলোঃ

১। খাদ্য পরিষেবা

২। নির্মাণ

৩। স্বাস্থ্যসেবা

৪। বাসস্থান

৫। পরিবহন

৬। গুদামজাতকরণ

৭। শিক্ষা খাতাদের বিভিন্ন পরিষেবা

৮। ওয়েল্ডিং এর কাজ

৯। হোটেল বয়

১০। আইটি ম্যানেজার

১১। ওয়েব ডিজাইন।

সাধারণত এসব কাজগুলোর চাহিদা কানাডায় অনেক বেশি। তাই এই কাজগুলোর বেতনও তুলনামূলক বেশি দিয়ে থাকে। তাই কানাডা যাওয়ার জন্য যদি আপনি বুঝতে না পারেন কোন কাজের জন্য যাবেন, তাহলে উপরের কাজগুলোর জন্য যেতে পারেন।

কানাডায় লেবারের বেতন কত

ইতোমধ্যে আপনারা বুঝতে পেরেছেন কানাডায় কোন কাজের চাহিদা বেশি এ সম্পর্কে। তবে এইবার আপনারা জানবেন কানাডায় লেবারের বেতন সম্পর্কে। কানাডা লেবার ভিসা মূলত ৩০ থেকে ৫০ হাজার টাকা, তবে কানাডায় লেবার ভিসার মধ্যেও নানা রকম প্রকারভেদ রয়েছে যেগুলোর বেতন আলাদা কাঠামোর হয়ে থাকে। তাই আপনি কোন ধরনের ভিসার জন্য সেখানে যাচ্ছেন সেটার উপর নির্ভর করবে আপনার বেতন। তবে সাধারণত ৩০ থেকে ৫০ হাজার টাকার মধ্যে কানাডায় লেবারের বেতন হয়ে থাকে।

অন্যান্য দেশের তুলনায় কানাডা লেবার ভিসা মূলত একটু কম। কেননা কানাডায় সবচাইতে বেশি সংখ্যক ক্যাটাগরিতে কাজ করা যায়। দেশটি উত্তর আমেরিকার সবচেয়ে বড় দেশ এবং দেশটি উন্নত দেশ। তাই এখানে সাধারণত লেবারের জন্য মানুষ অতিরিক্ত টাকা খরচ করে না। তবে যারা লেবার বিষয়ে কানাডায় যান তাদেরকে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত বেতন দেওয়া হয়।

লেবারদের জন্য সবচেয়ে বড় একটি সুবিধা হল ওভারটাইম কাজ করতে পারে। কানাডায় ওভারটাইম এর বেতন একটু বেশি। তাই যারা লেবারের কাজে আছে এবং ওভারটাইম কাজ করে তাদের বেতন তুলনামূলক বেশি হয়ে থাকে। কিন্তু কানাডায় লেবারের মূল বেতন ৩০ থেকে ৫০ হাজারের মধ্যে হয়ে থাকে।

আরো পড়ুনঃ কুয়েত কোন কাজের চাহিদা বেশি

কানাডায় জব অফার পেতে কি কি ডকুমেন্ট লাগে

কানাডায় জব ভিসার জন্য শুধু প্রয়োজন সঠিক ডকুমেন্ট। অর্থাৎ আপনার সকল তথ্য কানাডার গভর্মেন্টের নির্দেশনা অনুযায়ী হতে হবে। সঠিক পদ্ধতি অবলম্বনের মাধ্যমে হয়ে যাবে আপনার সাকসেসফুল কাজের ভিসা তথা মাইগ্রেশন। তবে এজন্য অবশ্যই আপনাকে কিছু কিছু ডকুমেন্ট লাগবে।

১। কানাডায় জব অফার পাওয়ার ডকুমেন্টগুলো হলো-

২। অনলাইন অ্যাপ্লিকেশন ফর্ম পূরণ।

৩। পাসপোর্ট এর ইনফরমেশন পেজের স্ক্যান কপি।

৪। ফটোগ্রাফ (চার কপি ব্যাকগ্রাউন্ড সাদা size 35"- 45") অথবা সফট কপি।

৫। সার্টিফিকেট-সকল শিক্ষা সনদের স্ক্যান কপি।

৬। অভিজ্ঞতার সনদপত্র।

কানাডা যাওয়ার সহজ উপায়

আয়তনের তুলনায় দেশটিতে জনসংখ্যা কম এবং রাজনৈতিক বন্ধুত্বপূর্ণ সংস্কৃতির কারণে সেখানে বসবাসকারীরা নিরাপদ ও সুখী জীবন যাপন করেন। এজন্য পৃথিবীর বহু দেশ থেকে মানুষ কানাডা যাওয়ার চেষ্টা করে। দেশটিতে বর্তমান ৩ কোটি ৭৪ লাখের মতো মানুষ বসবাস করে।

যাদের মাথাপিছু ইনকাম প্রায় ৫০ হাজার ডলার। বহু মানুষ কানাডায় অভিবাসী হওয়ার স্বপ্ন দেখে। স্বপ্ন পূরণে অনেক সময় অবৈধ উপায় অবলম্বন করে নানা হয়রানি ও ভোগান্তির শিকার হন। তবে অবৈধ পথে না গিয়ে বৈধভাবে কানাডা যাওয়ার উপায় রয়েছে।

আপনার যদি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থাকে এবং আপনি কানাডায় ব্যবসা শুরু করতে চান, তাহলে কানাডা যাওয়া আপনার জন্য সহজ। তবে নিজে কানাডায় ব্যবসা করতে না চাইলে আপনার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কানাডায় কোন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের চুক্তি থাকলে আপনি কানাডা যেতে পারবেন। এই প্রক্রিয়ার ভিসাকে নাফটা ভিসা বলা হয়। আপনার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান না থাকলেও আপনি চাকরির জন্য কানাডা যেতে পারেন।

এজন্য কানাডার কোন প্রতিষ্ঠানকে আপনার চাকরির অফার লেটার এবং প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সরবরাহ করতে হবে। কানাডায় স্থানীয় হওয়ার সবচেয়ে সহজ ও নিশ্চিত উপায় হচ্ছে কোন কানাডার নাগরিককে বিয়ে করা।

তবে এক্ষেত্রে যদি কোন ভুয়া ও অসততার আশ্রয় নেয়া হয় তাহলে তাকে কঠিন শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে। আরো বিভিন্ন রকম উপায় রয়েছে যেগুলোর মাধ্যমে আপনারা খুব সহজেই কানাডা যেতে পারবেন। তাই অবৈধ পথ অবলম্বন না করে বৈধভাবে কানাডা যেতে পারবেন খুব সহজে।

আরো পড়ুনঃ রোমানিয়া কোন কাজের চাহিদা বেশি

উপসংহারঃ কানাডায় কোন কাজের চাহিদা বেশি

আমাদের আজকের আর্টিকেলের আলোচ্য বিষয় ছিল কানাডায় কোন কাজের চাহিদা বেশি এই সম্পর্কে। বর্তমানে কানাডায় বসবাস করা এবং কাজ করা দুটোতে রয়েছে বিভিন্ন রকম সুবিধা। আর তাই বিভিন্ন দেশের নাগরিকরা কাজের জন্য যেতে চায় কানাডা। উত্তর আমেরিকার সবচেয়ে বড় দেশ হচ্ছে কানাডা এবং তার সাথে অনেক উন্নত দেশ।

আর এ উন্নত দেশে উন্নত কাজের জন্য যেতে চায় হাজার হাজার শ্রমিক। সঠিক উপায় অবলম্বন করার মাধ্যমে আপনারা খুব সহজেই কানাডা যেতে পারবেন। কানাডা সরকার আগের থেকে এখন কানাডা যাওয়া আরো সহজ করে দিয়েছে। তাই কাজের জন্য বৈধভাবে কানাডা যেতে পারবেন খুব সহজে।

আশা করি তাহলে আমাদের আজকের আর্টিকেলটি কানাডায় কোন কাজের চাহিদা বেশি এ সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জানতে পেরেছেন।

প্রতিনিয়ত এরকম সুন্দর সুন্দর টিপস পেতে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করতে পারেন। আর্টিকেলটি ভালো লেগে থাকলে অবশ্যই আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করবেন এবং অন্যদের পড়ার সুযোগ করে দেবেন। আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

ব্লগ ক্যাটাগরি:

এখানে আপনার মতামত জানান

0মন্তব্যসমূহ

আপনার মন্তব্য লিখুন (0)

#buttons=(ঠিক আছে, ধন্যবাদ) #days=(20)

টেকনিক্যাল কেয়ার বিডি তে আপনাকে স্বাগতম. ❤️
Ok, Go it!